এস. পি. বালসুব্রহ্মণ্যম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(এস পি বলসুব্রাহ্মণ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এস. পি. বালসুব্রহ্মণ্যম
S. P. Balasubrahmanyam at the 'Gurkha' Audio Launch.jpg
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম নামশ্রীপতি পণ্ডিতআরাধ্য বালসুব্রহ্মণ্যম
জন্ম(১৯৪৬-০৬-০৪)৪ জুন ১৯৪৬[১]
নেল্লোর, মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত (বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ, ভারত)[২][৩][৪]
মৃত্যু২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০(2020-09-25) (বয়স ৭৪)
চেন্নাই, তামিলনাড়ু, ভারত
ধরননেপথ্য সঙ্গীত[১]
পেশা
  • গায়ক
  • অভিনেতা
  • সঙ্গীত পরিচালক
  • চলচ্চিত্র প্রযোজক
কার্যকাল১৯৬৫-বর্তমান

শ্রীপতি পণ্ডিতআরাধ্য বালসুব্রহ্মণ্যম (তেলুগু: ఎస్. పి. బాలసుబ్రహ్మణ్యం; ৪ জুন ১৯৪৬ - ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র সঙ্গীতজ্ঞ, নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী, সঙ্গীত পরিচালক, অভিনেতা, ডাবিং শিল্পী ও চলচ্চিত্র প্রযোজক ছিলেন। তিনি এস. পি. বালু, এস. পি. বি. বা এককভাবে বালু নামেও পরিচিত ছিলেন। তিনি মূলত তেলুগু, তামিল, কন্নড়, হিন্দিমালয়ালম ভাষার চলচ্চিত্রে কাজ করতেন। জাতি হিসেবে বলসুব্রাহ্মণ একজন তেলুগু যদিও তামিল ভাষাও অনর্গল বলতে পারেন এবং তার চলচ্চিত্র জগতের যাত্রা শুরু হয় ষাটের দশকে তামিল চলচ্চিত্রের মাধ্যমেই। তিনি ১৬টি ভারতীয় ভাষায় ৪০,০০০-এর অধিক গানে কণ্ঠ দিয়েছেন।

চারটি ভিন্ন ভাষার চলচ্চিত্রের গানে অবদানের জন্য তিনি ছয়টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন; তেলুগু চলচ্চিত্রে কাজের জন্য ২৫টি অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের চলচ্চিত্র পুরস্কার নন্দী পুরস্কার পেয়েছেন, এবং কর্ণাটক ও তামিলনাড়ু রাজ্যের একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন। রাষ্ট্রীয় সম্মাননা ছাড়াও তিনি শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী বিভাগে একটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার এবং ছয়টি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ অর্জন করেছেন। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ভারত সরকার তাকে ২০০১ সালে পদ্মশ্রী ও ২০১১ সালে পদ্মভূষণ পদকে ভূষিত করে। ২০১২ সালে তিনি ভারতীয় চলচ্চিত্রে তার অবদানের জন্য এনটিআর জাতীয় পুরস্কার অর্জন করেন। ২০১৬ সালে তাকে একটি রৌপ্য ময়ূর পদক-সহ বর্ষসেরা ভারতীয় চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বের সম্মাননা প্রদান করা হয়। তিনি কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে ২০২০ সালের ২৫শে সেপ্টেম্বর এমজিএম হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

এস. পি. বালসুব্রহ্মমণ্যম তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির (বর্তমান তিরুবল্লুর জেলা, তামিলনাড়ু) উত্তর আর্কোট জেলার কনেটাম্পেট গ্রামে এক তেলুগু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এবং নেল্লোরে বেড়ে ওঠেন।[৫][৬] তার পিতা এস. পি. সাম্বামূর্তি হরিকথা শিল্পী ছিলেন এবং তিনি নাটকে অভিনয়ও করতেন।[৭] তার মাতা শকুন্তলাম্মা ২০১৯ সালের ৪ঠা ফেব্রুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন।[৮] তার দুই ভাই ও পাঁচ বোন রয়েছে। সঙ্গীতশিল্পী এস. পি. শৈলজা তার বোন।[৯][১০][১১] তার পুত্র এস. পি. চরণ দক্ষিণ ভারতীয় গায়ক, অভিনেতা ও প্রযোজক।[১২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৮০-এর দশক[সম্পাদনা]

বালসুব্রহ্মণ্যম ১৯৮০ সালে শঙ্করভরনম চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক খ্যাতি অর্জন করেন। চলচ্চিত্রটি তেলুগু চলচ্চিত্র শিল্পের অন্যতম সেরা চলচ্চিত্র বলে বিবেচিত। কে. বিশ্বনাথ পরিচালিত চলচ্চিত্রটির সুরারোপ করেন কে. ভি. মহাদেবন এবং তিনি তেলুগু চলচ্চিত্রে অতিমাত্রায় কর্ণাটকী সঙ্গীতের ব্যবহার করেন। শাস্ত্রীয় সঙ্গীতে প্রশিক্ষিত না হলে বালসুব্রহ্মণ্যম এই চলচ্চিত্রের গান রেকর্ডের ক্ষেত্রে নান্দনিকতার পরিচয় দেন।[১৩] এই চলচ্চিত্রে "ওমকারা নাধানু" গানের জন্য তিনি তার প্রথম শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।[১৪] হিন্দি চলচ্চিত্রে তার প্রথম কাজ ছিল এক দুজে কে লিয়ে (১৯৮১)। এই চলচ্চিত্রের "তেরে মেরে বিচ মেঁ" গানে কণ্ঠ দিয়ে তিনি তার দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।[১৫]

১৯৯০-এর দশক[সম্পাদনা]

বালসুব্রহ্মণ্যম এ আর রহমানের সুরারোপিত প্রথম চলচ্চিত্র রোজা-র তিনটি গানে কণ্ঠ দেন। তন্মধ্যে কে. এস. চিত্রার সাথে তার "ইয়ে হাসিন ওয়াদিয়া" দ্বৈত গানটি জনপ্রিয়তা অর্জন করে। পরবর্তী কালে তিনি রহমানের সাথে দীর্ঘকাল কাজ করেন। এ আর রহমানের সুরে তার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য গান হল পুধিয়া মুগাম (১৯৯৩)-এর "জুলি মাধম"। এই গানে মধ্য দিয়ে গায়িকা অনুপমা কৃষ্ণস্বামীর নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী হিসেবে অভিষেক ঘটে। এছাড়া তিনি কিঝাক্কু চেমাইল (১৯৯৩) চলচ্চিত্রের লোকধর্মী "মন্নুতু মান্তাইলে" গান, সঙ্গীতধর্মী প্রণয়মূলক ডুয়েট (১৯৯৪) চলচ্চিত্রের প্রায় সবক'টি গানে কণ্ঠ দেন।

১৯৯৪ সালে হাম আপকে হ্যাঁয় কৌন..! চলচ্চিত্রটি হিন্দি চলচ্চিত্রের সর্বকালের সর্বোচ্চ আয়কারী চলচ্চিত্র।[১৬] এই চলচ্চিত্রে লতা মঙ্গেশকরের সাথে বালসুব্রহ্মণ্যমের দ্বৈত গান "দিদি তেরা দেবর দিওয়ানা" জনপ্রিয়তা অর্জন করে। এটি বালসুব্রহ্মণ্যমকে এককভাবে ভারতের অন্যতম সেরা নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে।[১৭] এছাড়া ১৯৯০-এর দশক জুড়ে তিনি সালমান খানের নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেন, ঠিক যেমনটি ১৯৭০-এর দশকে রাজেশ খান্নার নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী হিসেবে কিশোর কুমার খ্যাতি অর্জন করেছিলেন।[১৮]

রহমানের সুরে মিন্সার কনবু (১৯৯৭) চলচ্চিত্রের "তাঙ্গা তামারাই" গানে কণ্ঠ দিয়ে তিনি তার ষষ্ঠ ও সর্বশেষ শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।[১৯]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

২০২০ সালের ৫ই আগস্ট বালসুব্রহ্মণ্যমের কোভিড-১৯ পজিটিভ ফলাফল আসে এবং তাকে চেন্নাইয়ের এমজিএম হেলথকেয়ারে ভর্তি করা হয়। তার স্বাস্থ্য ধীরে ধীরে অবনতির দিকে যেতে থাকলে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে স্থানান্তর করা হয়। তার ভেন্টিলেটর ও কৃত্রিম উপায়ে বাড়তি অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থার (একমো) দরকার হয়।[২০][২১] তার পূত্র চরণ ভক্তদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার পরিস্থিতি সম্পর্কে অবগত করেন। তামিল চলচ্চিত্র শিল্পের সদস্যরা ২০শে আগস্ট জুমে গণ প্রাথর্না করে এবং ভক্তরা হাসপাতালের বাইরে মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রার্থনা করে।[২২] ২০২০ সালের ৭ই সেপ্টেম্বর বালসুব্রহ্মণ্যমের করোনাভাইরাসের নেগেটিভ ফলাফল আসে, তবুও তাকে ভেন্টিলেটরে রাখা হয়। তার পুত্র জানান এসপিবি তখনো নড়াচড়া করতে পারছেন এবং তার আইপ্যাডে টেনিস ও ক্রিকেটে খেলা দেখছেনন।[২৩] এক মাসের অধিক সময় হাসপাতালে থাকার পর তিনি ২০২০ সালের ২৫শে সেপ্টেম্বর মৃত্যুবরণ করেন।[২৪][২৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Wish singersinguer SPB on his birthday today"দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া। ৪ জুন ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১ জানুয়ারি ২০১৪ 
  2. "IndiaGlitz – Happy birthday to Balu – Hollywood Movie News"ইন্ডিয়াগ্লিট্‌জ (ইংরেজি ভাষায়)। 
  3. "The Maestro Comes to Town"দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস (ইংরেজি ভাষায়)। 
  4. "Dr.S.P.Balu's News"এসপি বালু (ইংরেজি ভাষায়)। 
  5. "Veteran singer SP Balasubrahmanyam donates his ancestral home to Shri Kanchi Kamakoti Math"দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  6. "SP Balasubrahmanyam honoured with centenary award"ডেকান হেরাল্ড (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-১১-২০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  7. কৃষ্ণমাচারি, সুগন্তি (২৬ আগস্ট ২০১০)। "Arts / Music : Motivating, musically"দ্য হিন্দু। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  8. "SP Balasubrahmanyam loses his mother"দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  9. "Kerala / Thiruvananthapuram News : S.P.Balasubramaniam shares memories with music buffs"দ্য হিন্দু। ৫ ডিসেম্বর ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  10. "Tamil Cinema news – Tamil Movies "সিনেমা সেথিগল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  11. "Rumours Rife on SPB Health" (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  12. "SP Charan on SPB's health: He's eager to leave the hospital as early as possible"দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৯-২২। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  13. ডালমিয়া, বসুধা; সাধনা, রেশমি (৫ এপ্রিল ২০১২)। The Cambridge companion to modern Indian culture। কেমব্রিজ: কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় প্রে। পৃষ্ঠা ২৪৮। আইএসবিএন 978-0-521-73618-3 
  14. "Awards@spbala.com"। ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  15. "29th National Film Awards" (PDF)। চলচ্চিত্র উৎসব অধিদপ্তর। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  16. "The Biggest Blockbusters Ever in Hindi Cinema"বক্স অফিস ইন্ডিয়া। ২১ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  17. "The Beat"দ্য বিট। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়: বং প্রডাকশন্স। ১১: ৭১। ১৯৯২। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  18. "B'day Jukebox: SP Balasubrahmanyam Was Salman Khan's 90s Voice"দ্য কুইন্ট। ৪ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  19. "44th National Film Awards" (PDF)। চলচ্চিত্র উৎসব অধিদপ্তর। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  20. দাস, অয়ন (২৯ আগস্ট ২০২০)। "এস পি বালসুব্রহ্মণ্যমের শারীরিক অবস্থার ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে, জানালেন পুত্র"হিন্দুস্তান টাইমস। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  21. মুখার্জী, প্রিয়াঙ্কা (২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০)। "অতিসঙ্কটজনক এস পি বালসুব্রহ্মণ্যম, রয়েছেন লাইফ সাপোর্টে : হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ"হিন্দুস্তান টাইমস। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  22. "Tamil Nadu comes together, prays for singer SP Balasubrahmanyam's recovery"দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  23. কে, জননী (২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০)। "SP Balasubrahmanyam health update: Singer tests coronavirus negative, still on ventilator"ইন্ডিয়া টুডে। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  24. জেরোল্ড, অভিষেক। "SP Balasubramahmanyam dies at age 74"ইন্ডিয়া টুডে। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  25. "প্রয়াত এস পি বালসুব্রহ্মণ্যম, সঙ্গীতজগতে শোকের ছায়া"আনন্দবাজার পত্রিকা। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]