সাইনা নেহওয়াল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সাইনা নেহওয়াল
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1990-03-17) ১৭ মার্চ ১৯৯০ (বয়স ২৯)[১]
Dhindar, হিসার, হরিয়ানা
বাসস্থানহায়দরাবাদ, অন্ধ্রপ্রদেশ
উচ্চতা১.৬৫ মি (৫ ফু ৫ ইঞ্চি)
ওজন৬০ কেজি (১৩০ lb)
দেশ ভারত
HandednessRight
মহিলা একক
সর্বোচ্চ স্থানাধিকারী[২] (২রা ডিসেম্বর, ২০১০)
বর্তমান স্থান[৩] (৭ই এপ্রিল, ২০১৩)
উপাধি2009 Indonesia Super Series, 2010 Singapore Super Series, 2010 Indonesia Super Series, 2010 Hong Kong Super Series, Chinese Taipei Open, 2010 India Open Grand Prix Gold, Swiss Open 2011, Swiss Open 2012, 2012 Indonesia Super Series Premier, ২০১২ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক্‌স 2012 Denmark Open Super Series Premiere
বিডব্লউএফ প্রোফাইল

সাইনা নেহওয়াল (হিন্দি: साइना नेहवाल) (জন্ম: ১৭ মার্চ, ১৯৯০) রাজীব গান্ধী খেলরত্নধারী ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। ৭ই এপ্রিলের সর্বশেষ র‍্যাংকিং অনুযায়ী বিশ্ব ব্যাডমিন্টন সংস্থার সর্বশেষ র‌্যাংকিংয়ে তিনি বিশ্বের ২ নং খেলোয়াড় হিসেবে আসীন রয়েছেন।[৩] ভারতের ১ম খেলোয়াড় হিসেবে তিনি অলিম্পিক পদক জয় করেন। ৪ আগস্ট, ২০১২ তারিখে তিনি লন্ডনে অনুষ্ঠিত অলিম্পিকে ব্রোঞ্জপদক জয় করেন। প্রথম ভারতীয় হিসেবে তিনি বিশ্ব জুনিয়র ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশীপ বিজয়ী। এছাড়াও, সুপার সিরিজ টুর্নামেন্ট এবং ২০০৯ সালে জাকার্তায় অনুষ্ঠিত ইন্দোনেশিয়া সুপার সিরিজ বা ইন্দোনেশিয়া ওপেনে শীর্ষস্থানীয় চীনা ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় ওয়াং লিন-কে পরাভূত করে সকলের মনোযোগ আকৃষ্ট করেন।

গীত শেঠী এবং প্রকাশ পাদুকোনের পরিচালনায় অলিম্পিকে স্বর্ণ অন্বেষণ থেকে সাইনা সহযোগিতা পাচ্ছেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের হিসার শহরের একটি জাঠ পরিবারে সাইনা নেহওয়ালের জন্ম।[৪] তার বাবা-মা যথাক্রমে ড. হরভির সিং নেহওয়াল এবং উষা নেহওয়াল। তারা উভয়েই হরিয়ানার ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। বিদ্যালয় জীবনের প্রথম কয়েক বছর হিসারের ক্যাম্পাস স্কুল সিসিএস এইচএইউ-তে কাটান। ড. হরভির সিং নেহওয়াল চৌধুরী চরণ সিং হরিয়ানা এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটিতে চাকুরী করেছিলেন এবং তখন থেকেই তাদের আবাস বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গড়ে ওঠে।[৫] পরবর্তীতে বিজ্ঞানী হিসেবে ড. হরভির সিং হায়দরাবাদের তৈলবীজ গবেষণা পরিদপ্তরে স্থানান্তরিত হলে সাইনাও সেখানেই শৈশবের বছরগুলো অতিক্রমণ করেন। বিশ্ব ব্যাডমিন্টন অঙ্গনে তার এ পদচারণায় ড. হরভির সিং এবং মা উষা নেহওয়াল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ও প্রভাবান্বিত করেন।[১]

সাইনা ভারতের ব্যাডমিন্টনের ইতিহাসে শীর্ষস্থানীয় মহিলা খেলোয়াড় ছিলেন।[৬] ২০১২ সালে সাংবাদিক ও সাবেক এনডিটিভি সম্পাদক টি. এস. সুধীর সাইনা নেহওয়ালের উপর একটি জীবনীগ্রন্থ রচনা করেন।[৭]

২০১২ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক্‌স[সম্পাদনা]

পর্ব প্রতিপক্ষ ফলাফল গেম পয়েন্ট
গ্রুপ  সাবরিনা জেকুয়েট (SUI) জয় ২-০ ২১-৯, ২১-৪
গ্রুপ  লিয়েন তান (BEL) জয় ২-০ ২১-৪, ২১-১৪
প্রাক-কোয়ার্টার ফাইনাল  ইয়াও জাই (NED) জয় ২-০ ২১-১৪, ২১-১৬
কোয়ার্টার ফাইনাল  তিনে বউন (DEN) জয় ২-০ ২১-১৫, ২২-২০
সেমি-ফাইনাল  ওয়াং ইহান (CHN) পরাজয় ০-২ ১৩-২১, ১৩-২১
৩য় স্থান নির্ধারণী  ওয়াং জিন (CHN) জয় ০-১ ১৮-২১, ০-১ অবসর

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Saina Nehwal | India Medal Hopes | Badminton | Delhi Commonwealth Games | Profile | Career - Oneindia News"। News.oneindia.in। ২০১০-০৯-২৪। ২০১২-০১-০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৬-২৯ 
  2. – Best World Ranking
  3. [১]
  4. We womens Today। "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৪ মে ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১২ 
  5. "Think higher education! Saina Nehwal: "Don't leave studies""। Careers360। ৩ মার্চ ২০১০। ৫ জুন ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জুলাই ২০১২ 
  6. Saina Nehwal Latest Photos
  7. Saina's story

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পুরস্কার
পূর্বসূরী
Mary Kom, Vijender Singh & Sushil Kumar
Rajiv Gandhi Khel Ratna
2010
উত্তরসূরী
Gagan Narang