বেনিয়ামিন লিস্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বেনিয়ামিন লিস্ট
Empfang für Benjamin List im Rathaus Köln-7597-crop.jpg
জন্ম (1968-01-11) ১১ জানুয়ারি ১৯৬৮ (বয়স ৫৪)
শিক্ষাফ্রি ইউনিভার্সিটি অব বার্লিন (ডিপ্লম)
গ্যেটে বিশ্ববিদ্যালয় ফ্রাঙ্কফুর্ট (পিএইচডি)
পুরস্কারগট‌ফ্রিড ভিলহেল্ম লাইবনিৎস পুরস্কার (২০১৬)
রসায়নে নোবেল পুরস্কার (২০২১)
বৈজ্ঞানিক কর্মজীবন
প্রতিষ্ঠানসমূহকোলন বিশ্ববিদ্যালয়
ম্যাক্স প্ল্যাঙ্ক ইনস্টিটিউট ফর কোল রিসার্চ
হক্কাইদো বিশ্ববিদ্যালয়
সন্দর্ভসমূহভিটামিন বি-১২ এর সেমিকোরিন সংশ্লেষণ (১৯৯৭)
ডক্টরাল উপদেষ্টাজোহান মুলজার

বেনিয়ামিন লিস্ট (জার্মান: Benjamin List) (জন্ম ১১ই জানুয়ারি ১৯৬৮) একজন জার্মান রসায়নবিদ এবং ২০২১ সালে রসায়নে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী।[১] তিনি ২০২১ সালের ৬ই অক্টোবর ডেভিড ম্যাকমিলানের সাথে রসায়নের নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

শিক্ষা ও প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

ফ্রাঙ্কফুর্ট আম মাইন নগরীতে জন্মগ্রহণকারী[২] লিস্ট ফ্রি ইউনিভার্সিটি অব বার্লিনের থেকে রসায়নে স্নাতক উপাধি (ডিপ্লম, ১৯৯৩) এবং ১৯৯৭ সালে গ্যোটে বিশ্ববিদ্যালয় ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে পিএইচডি উপাধি অর্জন করেন।[৩] তিনি কোলন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং কয়লা গবেষণার জন্য মাক্স প্লাংক ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও অধ্যাপক।[৪] তিনি জাপানের হোক্কাইদো বিশ্ববিদ্যালয়ের রাসায়নিক বিক্রিয়া নকশাকরণ ও আবিষ্কার ইনস্টিটিউটের (ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল রিঅ্যাকশন ডিজাইন অ্যান্ড ডিসকভারি) প্রধান গবেষক।[৫]

কর্মজীবন এবং গবেষণা[সম্পাদনা]

২০২১ নোবেল পুরস্কার[সম্পাদনা]

বেনিয়ামিন লিস্ট ও ডেভিড ম্যাকমিলান ২০২১ সালে যৌথভাবে রসায়নে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। জৈব-অনুঘটন নামক একটি সুক্ষ্ম আণবিক নির্মাণ উপকরণ উদ্ভাবনের জন্য তাঁদেরকে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। তাঁদের এই উপকরণটি ঔষধনির্মাণ গবেষণাতে বিশাল ভূমিকা রেখেছে এবং রসায়নশাস্ত্রকে পরিবেশবান্ধব করেছে। শিল্প ও গবেষণার বহুসংখ্যক খাত রয়েছে, যেগুলিতে রসায়নবিদদেরকে এমন সব অণু নির্মাণ করতে সক্ষম হতে হয়, যে অণুগুলি স্থিতিস্থাপক কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী উপাদান গঠন করতে, তড়িৎকোষ বা ব্যাটারিতে শক্তি সঞ্চয় করতে ও বিভিন্ন রোগের অবনতি প্রতিরোধ করতে ব্যবহৃত হয়। এই ধরনের কাছে অনুঘটক নামক কিছু পদার্থের প্রয়োজন হয়, যেগুলির উপস্থিতিতে কোনও রাসায়নিক বিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ বা ত্বরান্বিত করা যায়, কিন্তু বিক্রিয়ার দ্বারা সেগুলির কোনও পরিবর্তন হয় না। যেমন মোটরগাড়িতে ব্যবহৃত কিছু অনুঘটক গাড়ি থেকে নির্গত ধোঁয়াতে অবস্থিত বিষাক্ত পদার্থগুলিকে নির্দোষ পদার্থে রূপান্তরিত করতে সাহায্য করে। মানবদেহেও হাজার হাজার অনুঘটক জাতীয় পদার্থ আছে (যেগুলিকে উৎসেচক বলে), যেগুলি জীবনধারণে জন্য প্রয়োজনীয় অণুগুলি উৎপাদনে সাহায্য করে। বহুদিন ধরে গবেষকেরা মনে করতেন যে মূলত দুই ধরনের অনুঘটক আছে, ধাতু ও উৎসেচক। বেনিয়ামিন লিস্ট ও ডেভিড ম্যাকমিলান স্বতন্ত্রভাবে তৃতীয় এক প্রকারের অনুঘটক প্রস্তুত করেন, যাদেরকে অপ্রতিসম জৈব-অনুঘটক নাম দেওয়া হয়েছে। এগুলি অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্রতর কতগুলি জৈব অণুর সমন্বয়ে নির্মাণ করা হয়। জৈব অনুঘটকগুলিতে মূলত কার্বনের পরমাণুসমূহ নিয়ে গঠিত একটি স্থিতিশীল পরিকাঠামো থাকে, যেটিতে অধিকতর সক্রিয় রাসায়নিক দল যুক্ত হতে পারে। ঐসব দলে প্রায়শই অক্সিজেন, নাইট্রোজেন, গন্ধক (সালফার) ও ফসফরাসের মতো অতিসাধারণ মৌলিক পদার্থ থাকে। এর ফলে এই ধরনের জৈব অনুঘটকগুলি একই সাথে পরিবেশবান্ধব ও অর্থসাশ্রয়ী। জৈব অনুঘটকগুলির অপ্রতিসম অনুঘটন চালনা করার সামর্থ্যের কারণে এগুলির ব্যবহার বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে। যখন কোনও অণু নির্মাণ করা হয়, তখন প্রায়শই এমন সব পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় যেখানে কাছাকাছি দেখতে কিন্তু প্রকৃতপক্ষে দুইটি ভিন্ন ধরনের অণুর সৃষ্টি হয়, যেগুলি একে অপরের প্রতিবিম্বের মতো (যেমন মানুষের ডান ও বাম হাতের মতো)। রসায়নবিদদের প্রায়শই এই জোড়ের যেকোনও একটি অণুর দরকার পড়ে, বিশেষ করে ঔষধ দ্রব্য প্রস্তুতির সময়। ২০০০ খ্রিস্টাব্দের পর থেকে জৈব-অনুঘটনের প্রয়োগ অবিশ্বাস্য গতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে। বেনিয়ামিন লিস্ট ও ডেভিড ম্যাকমিলান এই নতুন ক্ষেত্রটির দুই নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিত্ব। তারা দেখিয়েছেন কীভাবে জৈব অনুঘটক ব্যবহার করে বহু বিভিন্ন প্রকারের রাসায়নিক বিক্রিয়া চালনা করা সম্ভব। এইসব বিক্রিয়া ব্যবহার করে বর্তমানে গবেষকেরা আরও কার্যকরভাবে নতুন ঔষধ থেকে শুরু করে সৌরকোষে আলোক ধারণকারী অণু, ইত্যাদি বিভিন্ন অণু নির্মাণ করতে সক্ষম হয়েছেন।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সৌরকোষের অগ্রগতি নিয়ে কাজ, রসায়নে নোবেল পেলেন লিস্ট ও ম্যাকমিলান"। bangla.hindustantimes.com। হিন্দুস্থান টাইমস-বাংলা। ৬ অক্টোবর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৬ অক্টোবর ২০২১ 
  2. "List, Benjamin"Max-Planck-Gesellschaft। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৬ অক্টোবর ২০২১ 
  3. Benjamin List, H. C. Brown lecture
  4. "Vita Prof. List"kofo.mpg.de। ১০ মে ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৬ অক্টোবর ২০২১ 
  5. "LIST, Benjamin"ICReDD: Institute for Chemical Reaction Design and Discovery, Hokkaido University (WPI-ICReDD)। ২৩ ডিসেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৬ অক্টোবর ২০২১ 
  6. "Press release: The Nobel Prize in Chemistry 2021"Nobelprize.org। সংগ্রহের তারিখ ১ নভেম্বর ২০২১