ফ্রানসিস উইলিয়াম অ্যাস্টন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফ্রানসিস উইলিয়াম অ্যাস্টন
3x2
জন্ম(১৮৭৭-০৯-০১)১ সেপ্টেম্বর ১৮৭৭
মৃত্যু২০ নভেম্বর ১৯৪৫(1945-11-20) (বয়স ৬৮)
জাতীয়তাযুক্তরাজ্য
মাতৃশিক্ষায়তনবার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়
কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়য়
পরিচিতির কারণMass spectrograph
Whole Number Rule
পুরস্কাররসায়নে নোবেল পুরস্কার (১৯২২)
বৈজ্ঞানিক কর্মজীবন
কর্মক্ষেত্ররসায়ন, পদার্থবিজ্ঞান
প্রতিষ্ঠানসমূহকেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়য়
শিক্ষায়তনিক উপদেষ্টাজে জে টমসন

ফ্রানসিস উইলিয়াম অ্যাস্টন, FRS (১ সেপ্টেম্বর ১৮৭৭-২০ নভেম্বর ১৯৪৫) একজন ইংরেজ রসায়নবিজ্ঞানী ও পদার্থবিজ্ঞানী। তিনি ১৯২২ সালে রসায়নে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। তিনি রয়েল সোসাইটি, ট্রিনিটি কলেজ ও কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফেলো ছিলেন।

জীবনের প্রথমার্ধ[সম্পাদনা]

বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার আগে মেসন কলেজ; এই ভবনটি ১৯৬৪ সালে ধ্বংস হয়েছিল।

ফ্রান্সিস অ্যাস্টন ১৮৭৭ সালের ১লা সেপ্টেম্বর বার্মিংহামের হারবার্নে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি উইলিয়াম অ্যাস্টন এবং ফ্যানি শার্লট হলিসের তৃতীয় সন্তান এবং দ্বিতীয় পুত্র ছিলেন। তিনি হারবোর্ন ভিকারেজ স্কুল এবং পরবর্তীতে ওরচেস্টারশায়ারের মালভার্ন কলেজে শিক্ষিত হন যেখানে তিনি একজন বোর্ডার ছিলেন। ১৮৯৩ সালে ফ্রান্সিস উইলিয়াম অ্যাস্টন তার বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা শুরু করেন মেসন কলেজে (যা তখন লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের বহিরাগত কলেজ) যেখানে তাকে জন হেনরি পোয়ান্টিং দ্বারা পদার্থবিজ্ঞান এবং ফ্রাঙ্কল্যান্ড এবং টিলডেন দ্বারা রসায়ন শেখানো হয়েছিল। ১৮৯৬ সাল থেকে তিনি তার বাবার বাড়িতে একটি ব্যক্তিগত পরীক্ষাগারে জৈব রসায়নের উপর অতিরিক্ত গবেষণা পরিচালনা করেন। ১৮৯৮ সালে তিনি ফরাস্টার স্কলারশিপের অর্থায়নে ফ্রাঙ্কল্যান্ডের ছাত্র হিসেবে শুরু করেন; তার কাজ টারটারিক এসিড যৌগের অপটিক্যাল বৈশিষ্ট্য সম্পর্কিত। তিনি বার্মিংহামের ব্রিউইং স্কুলে গাঁজন রসায়নে কাজ শুরু করেন এবং ১৯০০ সালে ডব্লিউ বাটলার অ্যান্ড কোং ব্রুয়ারিতে নিযুক্ত হন। ১৯০৩ সালে এই কর্মসংস্থানের সমাপ্তি ঘটে যখন তিনি সহকারী হিসেবে পোয়ান্টিংয়ের অধীনে বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে আসেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

গবেষণা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]