জঁ-মারি লেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Jean-Marie Lehn
Jean-Marie Lehn par Claude Truong-Ngoc octobre 2018.jpg
২০১৮ সালে জঁ-মারি লেন
জন্ম (1939-09-30) ৩০ সেপ্টেম্বর ১৯৩৯ (বয়স ৮১)
Rosheim, France
জাতীয়তাFrance
কর্মক্ষেত্রSupramolecular chemistry
প্রতিষ্ঠান
প্রাক্তন ছাত্রUniversity of Strasbourg
সন্দর্ভসমূহRésonance magnétique nucléaire de triterpènes (1963)
পিএইচডি উপদেষ্টাGuy Ourisson
পিএইচডি ছাত্ররাJean-Pierre Sauvage
পরিচিতির কারণCryptands
উল্লেখযোগ্য
পুরস্কার

জঁ-মারি লেন (জন্ম ৩০ সেপ্টেম্বর ১৯৩৯)[২] হলেন একজন ফরাসি রসায়নবিদ। ক্রিপ্ট‍্যান্ড সংশ্লেষণের জন্য তিনি ১৯৮৭ সালে ডোনাল্ড ক্র্যাম এবং চার্লস পেডারসেন এর সাথে রসায়নে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। লেন সুপারমলিকিউলার রসায়নক্ষেত্রে একজন প্রাথমিক উদ্ভাবক ছিলেন। জানুয়ারী ২০০৬ সালের হিসাবানুযায়ী, তার দল রসায়ন সাহিত্যে ৭৯০টি প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে। [৩]

প্রথম জীবন[সম্পাদনা]

লেন ফ্রান্সের রশেইম, আলসেস, পিয়েরে এবং মারি লেন-এ জন্মগ্রহণ করেন। তিনি আলসাতিয়ান জার্মান বংশোদ্ভূত। তার পিতা কর্মহীন ছিলেন, কিন্তু সঙ্গীতের প্রতি আগ্রহের কারণে তিনি পরে শহরের সংগঠক হয়ে ওঠেন। লেন সঙ্গীত অধ্যয়ন করেন এবং বলেন যে এটি বিজ্ঞানচর্চার পর এটিই তার প্রধান আগ্রহ হয়ে ওঠে। ১৯৫০ থেকে ১৯৫৭ সাল পর্যন্ত তিনি উচ্চ বিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করেন। প্রথমে তিনি ল্যাটিন, গ্রিক, জার্মান, এবং ইংরেজি ভাষা চর্চা করেন। পরবর্তীতে তিনি দর্শনশাস্ত্র এবং বিজ্ঞান, বিশেষ করে রসায়ন এর প্রতি বেশ আগ্রহী হয়ে ওঠেন। ১৯৫৭ সালের জুলাই মাসে তিনি দর্শনশাস্ত্রে ব্যাকক্যালারিয়েট অর্জন করেন, এবং একই বছরের সেপ্টেম্বর মাসে প্রাকৃতিক বিজ্ঞানে ব্যাকক্যালারিয়েট লাভ করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি ওরিসনের গবেষণাগারে যোগ দেন এবং পিএইচডি এর জন্য কাজ করেন। সেখানে তিনি ল্যাবের প্রধান এনএমআর স্পেকট্রোমিটার এর দায়িত্বে ছিলেন, এবং তার প্রথম বৈজ্ঞানিক গবেষণাপত্র প্রকাশ করেন, যা স্টেরয়েড ডেরিভেটিভে প্রোটন এনএমআর সিগন্যালের পরিবর্তে একটি সংযোজন বিধি নির্দেশ করে।

পরবর্তীতে তিনি তার পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন, এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের রবার্ট বার্নস উডওয়ার্ডের গবেষণাগারে এক বছর কাজ করতে যান এবং তার সাথে ভিটামিন বি১২ সংশ্লেষণের উপর কাজ করেন।

১৯৬৬ সালে তিনি স্ট্রাসবুর্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগে মায়েত্রে ডি কনফেরেন্স (সহকারী অধ্যাপক) হিসেবে নিযুক্ত হন। তিনি তার গবেষণায় অণুর শারীরিক বৈশিষ্ট্য নিয়ে কাজ করেন

১৯৬৮ সালে, তিনি খাঁচার ন্যায় অণুসংশ্লেষণ পদ্ধতি আবিষ্কার করেন।

১৯৮০ সালে তিনি মর্যাদাপূর্ণ কোলেজ দে ফ্রান্সে শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত হন এবং ১৯৮৭ সালে ডোনাল্ড ক্র্যাম ও চার্লস পেডারসেনের সাথে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

তিনি বর্তমানে রিলায়েন্স ইনোভেশন কাউন্সিলের সদস্য, যা ভারতের রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড দ্বারা গঠিত। [৪]

উত্তরাধিকার[সম্পাদনা]

১৯৮৭ সালে পিয়েরে বুলেজ লেনের রসায়নে নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তি উপলক্ষে লেনকে একটি অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত পিয়ানো পিস উৎসর্গ করেন। [৫]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

লেন ১৯৬৫ সালে সিলভি লেডার সঙ্গে বিয়ে করেন। তাদের দুই পুত্র ছিল। পুত্রদের নাম যথাক্রমে ডেভিড এবং ম্যাথিয়াস। [৬][৭]

ধর্মগত বিশ্বাসের দিক থেকে লেন একজন নাস্তিক ছিলেন। [৮]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

পুরস্কার[সম্পাদনা]

Knight of the Légion d'Honneur (১৯৮৩)

Humboldt Prize (১৯৮৩)

Elected a Foreign Member of the Royal Netherlands Academy of Arts and Sciences (১৯৮৩)

Nobel Prize in chemistry (১৯৮৭) Officer of the Légion d'Honneur (১৯৮৮)

Knight of the Ordre des Palmes Académiques (১৯৮৯)

Pour le Mérite (১৯৯০)

Officer of the Ordre National du Mérite (১৯৯৩)

Elected a Foreign Member of the Royal Society (ForMemRS) (১৯৯৩)

Commander of the Légion d'Honneur (১৯৯৬)

The Davy Medal of the Royal Society (১৯৯৭)

Austrian Cross of Honour for Science and Art, 1st class (২০০১)

Grand Officer of the Order of Cultural Merit of Romania (২০০৪)

ISA Medal for Science (২০০৬) Knight Commander's Cross of the Order of Merit of the Federal Republic of Germany (২০০৯)

Grand Officer of the French Légion d'Honneur (২০১৪)

সম্মাননা ডিগ্রি[সম্পাদনা]

লেন বেশ কয়েকটি সম্মাননা ডিগ্রি অর্জন করেছেন। সেগুলো হলো:

Hebrew University of Jerusalem, ১৯৮৪

Autonomous University of Madrid, ১৯৮৫

Georg-August University of Göttingen, ১৯৮৭

Université Libre de Bruxelles, ১৯৮৭

University of Crete (Iraklion University), ১৯৮৯

Università degli Studi di Bologna, ১৯৮৯

Charles University of Prague, ১৯৯০

University of Sheffield, ১৯৯১

University of Twente, ১৯৯১

University of Athens, ১৯৯২

National Technical University of Athens (Polytechnical University of Athens), ১৯৯২

Illinois Wesleyan University, ১৯৯৫

Université de Montréal, ১৯৯৬

University of Bielefeld, ১৯৯৮

Masaryk University, Brno, ২০০৬ Honorary Professor, Beijing University, ২০০৫

Kyushu University, ২০০৫

Moscow State University, ২০০৬ Aristotle University of Thessaloniki, ২০০৬

Kazan Federal University, ২০০৬ Novosibirsk State University, ২০০৬ Honorary Professor, Zhejiang University, Hangzhou, ২০০৭

Honorary Professor, Shaanxi Normal University, Xi’an, ২০০৭

Special Honorary Professorship, Osaka Prefecture University, Sakai, ২০০৮

University of Patras, ২০০৮

Babeș-Bolyai University, Cluj-Napoca, ২০০৮

University of Basilicata, Potenza, ২০০৮

Taras Shevchenko National University of Kyiv, ২০০৯ Technion – Israel Institute of Technology, 2009


তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Professor Jean-Marie Lehn ForMemRS"। London: Royal Society। ১ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "Jean-Marie Lehn – Curriculum Vitae"NobelPrize.org। Stockholm: Nobel Media AB। ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৮ 
  3. "Jean-Marie Lehn – Curriculum Vitae"NobelPrize.org। Stockholm: Nobel Media AB। ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৮ 
  4. "Reliance Innovation Council India – Raghunath Mashelkar – Mukesh Ambani – Jean-Marie Lehn – Robert Grubbs – George Whitesides – Gary Hamel – William Haseltine"www.ril.com। ১ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জুলাই ২০১৫ 
  5. "Boulez: Fragment d'une ébauche"Universal Edition (জার্মান ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০২০ 
  6. "Jean-Marie Lehn – Biographical"NobelPrize.org। Stockholm: Nobel Media AB। ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৮ 
  7. Lehn, Jean-Marie (২৪ ডিসেম্বর ২০০০)। "Interview" (PDF)Advanced Materials12 (24): 1897। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০১৯ 
  8. Masood, Ehsan (২২ জুলাই ২০০৬)। "Islam's reformers"। Prospect। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৩It is a scene I won't forget in a hurry: Jean-Marie Lehn, French winner of the Nobel prize in chemistry, defending his atheism at a packed public conference at the new Alexandria Library in Egypt.