ট্রেন্ট বোল্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ট্রেন্ট বোল্ট
Trent Boult.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামট্রেন্ট আলেকজান্ডার বোল্ট
জন্ম (1989-07-22) ২২ জুলাই ১৯৮৯ (বয়স ২৯)
রোতোরুয়া, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি ব্যাট
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি মিডিয়াম ফাস্ট
ভূমিকাবোলার
সম্পর্কজেজে বোল্ট (ভাই)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৫৩)
৯ ডিসেম্বর ২০১১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট৩ জানুয়ারি ২০১৫ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৭৪)
১১ জুলাই ২০১২ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ ওডিআই২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
টি২০আই অভিষেক৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টি২০আই৬ জুলাই ২০১৪ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৮-বর্তমাননর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই টি২০আই এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩০ ২০ ৬০
রানের সংখ্যা ৩২২ ৫২ ১২ ৬৬২
ব্যাটিং গড় ১৬.৯৪ ১৩.০০ ৪.০০ ১৪.০৮
১০০/৫০ ০/১ ০/০ ০/০ ০/১
সর্বোচ্চ রান ৫২* ২১* ৫২*
বল করেছে ৬,২৯৮ ১,০১৮ ১৫৬ ১১,৩০৪
উইকেট ১১০ ২৮ ১০ ২০৬
বোলিং গড় ২৭.৩৯ ২৭.৬০ ১৯.৫০ ২৫.৯০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৬/৪০ ৫/২৭ ৩/২০ ৬/৪০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১১/– ১/– ২/– ২৫/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ৬ জানুয়ারি ২০১৭

ট্রেন্ট আলেকজান্ডার বোল্ট (ইংরেজি: Trent Alexander Boult; জন্ম: ২২ জুলাই, ১৯৮৯) নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন। রোতোরুয়া এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বোল্ট বামহাতি মিডিয়াম ফাস্ট ও ডানহাতি ব্যাটসম্যান[১] মূলতঃ নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের বোলিংয়ের সূচনা করতে নামেন তিনি। ২০০৭ সালের শীতকালীন প্রশিক্ষণ সফরে নিউজিল্যান্ড ‘এ’ দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন।[২] ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০০৭ তারিখে ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে ২৮ রানের বিনিময়ে ২ উইকেট লাভসহ অপরাজিত সাত রান করেন।[৩] তারপর তিনি ফেব্রুয়ারি, ২০০৮ সালে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০০৮ আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

২০০৮ সালে মালয়েশিয়া-য় অনুষ্ঠিত আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলেন । টিম সাউদি তার সহখেলোয়াড় ছিলেন। সেসময় ওয়েন পার্নেল, রবীন্দ্র জাদেজা, স্টিভেন ফিন, স্টিভ স্মিথ, জোশ হজলউডরুবেল হোসেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী খেলোয়াড় ছিলেন।

প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯ বছর বয়সে ২০০৮ সালে নিউজিল্যান্ড 'এ ' দলের হয়ে ভারতীয় 'এ ' দলের বিরুদ্ধে চেন্নাই -তে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক করেন।

লিস্ট এ ক্রিকেট - ২০০৮ স্টেট শীল্ড[সম্পাদনা]

২০০৮ সালে নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্ট এর হয়ে লিস্ট 'এ' ক্রিকেটে অভিষেক করেন।

ঘরোয়া টি২০ ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০৯ সালে নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্ট এর হয়ে ঘরোয়া টি২০ ক্রিকেটে অভিষেক করেন।

টেস্ট অভিষেক[সম্পাদনা]

২০১১ সালে হোবার্ট-এ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক করেন। হোবার্টে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় ক্রিকেট টেস্টে অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় তার দল ৭ রানে বিজয়লাভ করে যা ১৯৮৫ সালের পরে অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম এবং ১৯৯৩ সালের পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম। খেলায় তিনি চার উইকেট লাভ করেন। পাশাপাশি দ্বিতীয় ইনিংসে দশম উইকেট জুটিতে ক্রিস মার্টিনের সাথে মূল্যবান ২১ রান সংগ্রহ করেন।

একদিবসীয় অভিষেক[সম্পাদনা]

২০১২ সালে বাসেতের-এ ওয়েস্ট ইন্ডিজ-এর বিরুদ্ধে একদিবসীয় ক্রিকেটে অভিষেক করেন।

আন্তর্জাতিক টি২০ অভিষেক[সম্পাদনা]

২০১৩ সালে অকল্যান্ড-এ ইংল্যান্ড-এর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক টি২০ ক্রিকেটে অভিষেক করেন।

২০১৫ ক্রিকেট বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

বিশ্বকাপে টুর্নামেন্টের যুগ্ম সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী হন।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট কর্তৃপক্ষ ৮ জানুয়ারি, ২০১৫ তারিখে ২০১৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য বোল্ট-সহ ১৫-সদস্যের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে। ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪ তারিখে নিউজিল্যান্ড দল গ্রুপ-পর্বে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চতুর্থ খেলায় অংশগ্রহণ করে। বোল্টের নিজস্ব সেরা ও (৫/২৭) অসামান্য বোলিং নৈপুণ্যে অস্ট্রেলিয়া দল মাত্র ১৫১ রানে গুটিয়ে যায়।[৪] খেলায় তিনি ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]