চেন্নাই সুপার কিংস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
চেন্নাই সুপার কিংস
சென்னை சூப்பர் கிங்க்ஸ்
চেন্নাই সুপার কিংস
কর্মীবৃন্দ
অধিনায়কভারত মহেন্দ্র সিং ধোনি[১]
কোচনিউজিল্যান্ড স্টিফেন ফ্লেমিং
মালিকএন. শ্রীনিবাসন[২]
দলের তথ্য
শহরচেন্নাই, তামিলনাড়ু, ভারত
রংCSK
প্রতিষ্ঠা২০০৮
স্বাগতিক মাঠএম. এ. চিদম্বরম স্টেডিয়াম, চেন্নাই
ধারণক্ষমতা৫০,০০০
ইতিহাস
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ জয় (২০১০, ২০১১, ২০১৮, ২০২১, ২০২৩)
চ্যাম্পিয়নস লিগ টোয়েন্টি২০ জয় (২০১০, ২০১৪)
দাপ্তরিক ওয়েবসাইটchennaisuperkings.com

টি২০আই কিট

২০২৩-এ চেন্নাই সুপার কিংস

চেন্নাই সুপার কিংস (তামিল: சென்னை சூப்பர் கிங்க்ஸ்) (CSK নামেও পরিচিত) হল একটি ক্রিকেট দল যা প্রধানত খেলে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলে এবং এই দলটি প্রধানত চেন্নাই, তামিলনাড়ুর দল। এই দলটি প্রথম তৈরি হয়েছিল ২০০৮ সালে, যে দলের অধিনায়ক হল মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং কোচ হল স্টিফেন ফ্লেমিং, যিনি একজন প্রাক্তন নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড়। এই দলের ঘরের মাঠ হল এম. এ. চিদম্বরম স্টেডিয়াম যা চেন্নাইয়ের চিপকে অবস্থিত।

চেন্নাই সুপার কিংস ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের সবচেয়ে সফল দল যারা তিনবার আই পি এল খেতাব জিতেছে এবং প্রত্যেক বছর এই দলটি প্লে-অফে পৌঁছায়।[৩] ২০১৫ সালের আই পি এল ৮ এ তাদের কাছে তাদের জয়ের ধারা বজায় রাখবার সুযোগ ছিল কিন্তু ২০১৫ সালের আই পি এলে তারা রানার্স হয়। তারাই হল প্রথম কোন ভারতীয় দল যারা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ টোয়েন্টি-২০ জিতেছিল। এই দলের হয়ে সর্বাধিক রান করেছেন তিন জন খেলোয়াড় এবং তারা হলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি, সুরেশ রায়না এবং মাইকেল হাসি, এবং সর্বাধিক উইকেট নিয়েছেন আলবি মরকেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ডোয়েন ব্র্যাভো[৪][৫] ২০১২ সালে চেন্নাই সুপার কিংসের ব্র্যান্ড মূল্য ছিল মার্কিন ডলার ৭৫.১৩ মিলিয়ন, যা তাদেরকে আই পি এলের সবচেয়ে মুল্যবান দল করে তোলে।[৬]

দলের ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০০৮[সম্পাদনা]

২০০৮ এর নিলামে ধোনিকে কেনে চেন্নাই। এবং সেটাই দলের সাফল্যের এখনো অব্দি বৃহৎ চাবিকাঠি। রাজস্থানের সাথে ২টি গ্রুপ ও ফাইনাল ম্যাচ হারলেও রায়না - ধোনির ব্যাটিংয়ে ও ২৭ বর্ষীয় আলবি মরকেল - মানপ্রীত গনির বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে রানার্স আপ হয়।

২০০৯[সম্পাদনা]

ব্যাঙ্গালোরের সাথে ২টি গ্রুপ হারলেও ৩৮ বর্ষীয় ম্যাথু হেইডেন - রায়নার ব্যাটিংয়ে ও ৩৭ বর্ষীয় মুত্তিয়া মুরালিধরন - জাকাতি - বালাজি - আলবি মরকেল-এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালিস্ট হয়।

২০১০[সম্পাদনা]

ডেকানের সাথে ২টি গ্রুপ হারলেও রায়না - মুরলি বিজয়-এর ব্যাটিংয়ে ও ৩৮ বর্ষীয় মুত্তিয়া মুরালিধরন - জাকাতি - অশ্বিন -এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়।

২০১১[সম্পাদনা]

৩৬ বর্ষীয় মাইকেল হাসি - রায়না-র ব্যাটিংয়ে ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন - ডগ বলিঙ্গার-এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়।

২০১২[সম্পাদনা]

কলকাতা , মুম্বাই ও পাঞ্জাবের সাথে ২টি গ্রুপ হারলেও রায়না - ফাফ দু প্লেসিস-র ব্যাটিংয়ে ও ডোয়েন ব্র্যাভো - রবিচন্দ্রন অশ্বিন - বেন হিলফেনহস-এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে রানার্সআপ হয়।

২০১৩[সম্পাদনা]

মুম্বাইয়ের সাথে ২টি গ্রুপ ও ফাইনাল ম্যাচ হারলেও ৩৮ বর্ষীয় মাইকেল হাসি - রায়না-র ব্যাটিংয়ে ও ডোয়েন ব্র্যাভো - মোহিত শর্মা-এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে রানার্সআপ হয়।

২০১৪[সম্পাদনা]

মুম্বাইয়ের সাথে ২টি গ্রুপ ও কোয়ালিফায়ার ম্যাচ হারলেও ডোয়াইন স্মিথ - রায়না-র ব্যাটিংয়ে ও মোহিত শর্মা - রবীন্দ্র জাদেজা-এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে ৩য় হয়।

২০১৫[সম্পাদনা]

মুম্বাইয়ের সাথে ১টি গ্রুপ , কোয়ালিফায়ার ও ফাইনাল ম্যাচ হারলেও ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম - ডোয়াইন স্মিথ-র ব্যাটিংয়ে ও ডোয়েন ব্র্যাভো - ৩৬ বর্ষীয় আশীষ নেহরা-এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে রানার্সআপ হয়।

২০১৮[সম্পাদনা]

আম্বতি রায়ডু - ৩৬ বর্ষীয় শেন ওয়াটসন-র ব্যাটিংয়ে ও শার্দুল ঠাকুর - ডোয়েন ব্র্যাভো-এর বোলিংয়ে টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন্স হয়।

২০১৯[সম্পাদনা]

মারাত্মক খেলায় মাত্র ১ রানের জন্য পরাজিত হয় মহেন্দ্র সিং ধোনির দল চেন্নাই সুপার কিংস । গোটা টুর্নামেন্ট এ ভালো খেলেই ফাইনাল এ উঠে এ দল। ফাইনাল এ মুম্বই ইন্ডিয়ান্স জয়ী হয়।

২০২০[সম্পাদনা]

আইপিএল এর ইতিহাস এ প্রথম বার চেন্নাই কোয়ালিফাই করতে পারে নি। এবং ৩ ম্যাচ বাকি থাকতেই টুর্নামেন্ট থেকে বাতিল হয়ে যায়। মহেন্দ্র সিং ধোনির অফ ফর্ম এবং আইপিএল এর ম্যাচ গুলো করোনাভাইরাস এর কারনে সংযুক্ত আরব আমিরাত এ হওয়া এর মূল কারন হিসাবে মনে করেন ক্রিকেটীয় বিশেষজ্ঞরা।

২০২১[সম্পাদনা]

৪র্থ বার চ্যাম্পিয়ন হয়।

ধোনি-জাদেজা-ব্রাভো[সম্পাদনা]

বছর ধোনি (রান) জাদেজা (রান/উইকেট) ব্রাভো (রান/উইকেট) দলের সাফল্য
২০০৮ ৪১৪ রাজস্থান দলে ছিলেন মুম্বাই দলে ছিলেন রানার্সআপ
২০০৯ ৩৩২ রাজস্থান দলে ছিলেন মুম্বাই দলে ছিলেন
২০১০ ২৮৭ নিষিদ্ধ ছিলেন মুম্বাই দলে ছিলেন বিজয়ী
২০১১ ৩৯২ কোচি দলে ছিলেন - বিজয়ী
২০১২ ৩৫৮ ১৯১ ৩৭১ রানার্সআপ
২০১৩ ৪৬১ ২০১ ১২১ রানার্সআপ
২০১৪ ৩৭১ ১৪৬
২০১৫ ৩৭২ ১৩২ ১৯৫ রানার্সআপ
২০১৬ পুনে দলে ছিলেন গুজরাট দলে ছিলেন গুজরাট দলে ছিলেন
২০১৭ পুনে দলে ছিলেন গুজরাট দলে ছিলেন গুজরাট দলে ছিলেন
২০১৮ ৪৫৫ ৮৯ ১৪১ বিজয়ী
২০১৯ ৪১৬ ১০৬ ৮০ রানার্সআপ (১ রানে হার)

বর্তমান স্কোয়াড[সম্পাদনা]

খেলোয়াড় ২০২৩[সম্পাদনা]

ব্যাট্সমেন[সম্পাদনা]

উইকেট রক্ষক[সম্পাদনা]

অলরাউন্ডার[সম্পাদনা]

বোলার[সম্পাদনা]

সম্ভাব্য প্রথম একাদশ[সম্পাদনা]

ক্রম নাম ভূমিকা অনুপস্থিতিতে
রুতুরাজ গায়কোয়াড় ওপেনিং বাটসম্যান
অজিঙ্কা রাহানে ওপেনিং বাটসম্যান ডেভন কনওয়ে ↗ / রচিন রবীন্দ্র
শিবম দুবে বাটসম্যান
ড্যারিল মিচেল অলরাউন্ডার
ম‌ঈন আলী অলরাউন্ডার আংশিক সুলভ / মিচেল স্যান্টনার ↗ / রচিন রবীন্দ্র
রবীন্দ্র জাদেজা অলরাউন্ডার
মহেন্দ্র সিং ধোনি উইকেটকিপার বাটসম্যান
দীপক চাহার পেসার মুকেশ চৌধুরী
তুষার দেশপাণ্ডে পেসার মুকেশ চৌধুরী
১০ মহেশ তীক্ষণ স্পিনার আংশিক সুলভ / মিচেল স্যান্টনার ↗ / রচিন রবীন্দ্র
১১ মাথিশা পাথিরানা পেসার আংশিক সুলভ / মুস্তাফিজুর রহমান

২০২১[সম্পাদনা]

পয়েন্ট তালিকা[সম্পাদনা]

অব দল খেলা হা ফহ পয়েন্ট এনআরআর যোগ্যতা অর্জন
দিল্লি ক্যাপিটালস (৩য়) ১৪ ১০ ২০ +০.৪৮১ বাছাই ১-এ অগ্রসর।
চেন্নাই সুপার কিংস (চ্যা) ১৪ ১৮ +০.৪৫৫
রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (৪র্থ) ১৪ ১৮ −০.১৪০ এলিমিনেটর-পর্বে অগ্রসর।
কলকাতা নাইট রাইডার্স (রা) ১৪ ১৪ +০.৫৮৭
মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ১৪ ১৪ +০.১১৬ বাতিল
পাঞ্জাব কিংস ১৪ ১২ −০.০০১
রাজস্থান রয়্যালস ১৪ ১০ −০.৯৯৩
সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ১৪ ১১ −০.৫৪৫


২০২২[সম্পাদনা]

পয়েন্ট তালিকা[সম্পাদনা]

অব গ্রুপ দল খেলা হা ফহ পয়েন্ট এনআরআর যোগ্যতা অর্জন
বি গুজরাত টাইটান্স (চ্যা) ১৪ ১০ ২০ +০.৩১৬ বাছাই ১-এ অগ্রসর।
রাজস্থান রয়্যালস (রা) ১৪ ১৮ +০.২৯৮
লখনউ সুপার জায়ান্টস (৪র্থ) ১৪ ১৮ +০.২৫১ এলিমিনেটর-পর্বে অগ্রসর।
বি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (৩য়) ১৪ ১৬ −০.২৫৩
দিল্লি ক্যাপিটালস ১৪ ১৪ +০.২০৪
বি পাঞ্জাব কিংস ১৪ ১৪ +০.১২৬
কলকাতা নাইট রাইডার্স ১৪ ১২ +০.১৪৬
বি সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ১৪ ১২ −০.৩৭৯
বি চেন্নাই সুপার কিংস ১৪ ১০ −০.২০৩
১০ মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ১৪ ১০ −০.৫০৬
উৎস: IPLT20.com

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. আনন্দ, ওয়েব ডেস্ক, এবিপি (২০২২-০৩-২৪)। "চেন্নাই সুপার কিংসের অধিনায়ক হচ্ছেন রবীন্দ্র জাদেজা"bengali.abplive.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৪-২৬ 
  2. "India cements transfers CSK to new subsidiary with effect from jan 1"CNN-IBN। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। 
  3. তৃতীয়বারের মতো আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হলো চেন্নাই। [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ] Retrieved on 28 may 2018
  4. "Indian Premier League - Chennai Super Kings / Records / Most runs"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৩ 
  5. "Indian Premier League - Chennai Super Kings / Records / Most wickets"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৩ 
  6. "Chennai Super Kings Biography, Chennai Super Kings Bio, Chennai Super Kings Photos, Videos, Wallpapers, News"। In.com। ৮ অক্টোবর ২০১২। ২৪ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]