মিচেল স্যান্টনার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মিচেল স্যান্টনার
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামমিচেল জোসেফ স্যান্টনার
জন্ম (1992-02-05) ৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯২ (বয়স ২৭)
হ্যামিল্টন, ওয়াইকাতো, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১১-বর্তমাননর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ২০ ১৮
রানের সংখ্যা ৮৩১ ৫০৫ ৭৬
ব্যাটিং গড় ২৭.৭০ ২৮.০৫ ২৫.৩৩
১০০/৫০ ২/৫ ০/৩ ০/০
সর্বোচ্চ রান ১১৮ ৮৬ ১৯
বল করেছে ২,৫৫১ ৮৩৮ ১৮০
উইকেট ২৫ ২০
বোলিং গড় ৫৫.৬০ ৩১.১০ ৪৫.৭৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৩/৫১ ৩/৭০ ১/২৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২২/- ১১/- ২/-
উৎস: Cricinfo, ৫ এপ্রিল ২০১৫

মিচেল জোসেফ স্যান্টনার (জন্ম: ৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯২) ওয়াইকাতোর হ্যামিল্টনে জন্মগ্রহণকারী উদীয়মান নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটারনিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টস ক্রিকেট দলে প্রতিনিধিত্ব করছেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলেন। মিচেল স্যান্টনার বামহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ধীরগতিতে বামহাতে অর্থোডক্স বোলিংয়ে পারদর্শী।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

এপ্রিল, ২০১৫ সালে নিউজিল্যান্ডের একদিনের আন্তর্জাতিকটুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক দলের সদস্যরূপে ইংল্যান্ড সফরে খেলার জন্য মনোনীত হন।[১] দলের অন্যতম সদস্য অ্যাডাম মিলেন আঘাত পাওয়ায় তার পরিবর্তে মিচেল স্যান্টনার স্থলাভিষিক্ত হন।[২]

৯ জুলাই, ২০১৫ তারিখে জিম্বাবুয়ে সফরে দলের সদস্য হিসেবে তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৩] কিন্তু বৃদ্ধাঙ্গুলের আঘাতপ্রাপ্তির কারণে আগস্ট, ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ে সফর থেকে বাদ দেয়া হয় ও তার পরিবর্তে জর্জ ওয়ার্কারকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলার জন্য নিউজিল্যান্ড দলের সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Guptill, Henry in NZ Test squad for England"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০১৫ 
  2. "Adam Milne ruled out of one-day series"ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৫ 
  3. "McCullum, Southee rested for Africa tour"ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৯ জুলাই ২০১৫ 
  4. "Santner out of Africa tour with fractured thumb"ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]