ক্রেইগ ম্যাকমিলান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ক্রেইগ ম্যাকমিলান
Craig McMillan Photo2.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামক্রেইগ ডগলাস ম্যাকমিলান
জন্ম (1976-09-13) ১৩ সেপ্টেম্বর ১৯৭৬ (বয়স ৪২)
ক্রাইস্টচার্চ, ক্যান্টারবারি, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্কজেএম ম্যাকমিলান (কাকাতো ভাই)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২০৪)
৭ নভেম্বর ১৯৯৭ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১৮ মার্চ ২০০৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১০২)
২০ মে ১৯৯৭ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ ওডিআই২৪ এপ্রিল ২০০৭ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই শার্ট নং১০
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৫৫ ১৯৭ ১৩৮ ৩২৩
রানের সংখ্যা ৩,১১৬ ৪,৭০৭ ৭,৮১৭ ৮,৩৯১
ব্যাটিং গড় ৩৮.৪৬ ২৮.১৮ ৩৯.২৮ ৩০.৯৬
১০০/৫০ ৬/১৯ ৩/২৮ ১৬/৪২ ১২/৪২
সর্বোচ্চ রান ১৪২ ১১৭ ১৬৮* ১২৫
বল করেছে ২,৫০২ ১,৮৭৯ ৬,৫৭২ ৩,৫৯৭
উইকেট ২৮ ৪৯ ৮৮ ১০৩
বোলিং গড় ৪৪.৮৯ ৩৫.০৪ ৩৫.৯৮ ৩০.০৯
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a n/a
সেরা বোলিং ৩/৪৮ ৩/২০ ৬/৭১ ৫/৩৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২২/– ৪৪/– ৫৮/– ৮৮/–
উৎস: CricketArchive, ২৯ অক্টোবর ২০১৪

ক্রেইগ ডগলাস ম্যাকমিলান (জন্ম: ১৩ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৬) ক্যান্টারবারির ক্রাইস্টচার্চে জন্মগ্রহণকারী নিউজিল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের পক্ষে টেস্ট, একদিনের আন্তর্জাতিকটুয়েন্টি২০ পর্যায়ে খেলেছেন। ডানহাতি ব্যাটসম্যান ও কার্যকরী ডানহাতি মিডিয়াম পেস বোলিংয়ের অধিকারী ক্রেগ ম্যাকমিলান প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ক্যান্টারবারির পক্ষে খেলেছেন। এছাড়াও, কাউন্টি ক্রিকেটে হ্যাম্পশায়ার ও গ্লুচেস্টারশায়ারের পক্ষেও প্রতিনিধিত্ব করেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৭ সালে ২২ বছর বয়সে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। ১৯৯৮-৯৯ মৌসুমে ব্যাসিন রিজার্ভে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় টেস্টে ক্রিস কেয়ার্নসের সাথে ৬ষ্ঠ উইকেটে ১৩৭ রান করেন। এরফলে তার দল ভারতের বিপক্ষ জয়ী হয়। এরপূর্বে আর. প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে তিনি তার সর্বোচ্চ ১৪২ রান করেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ২০০০-০১ মৌসুমে হ্যামিল্টনে ইউনুস খানের এক ওভারে ২৬ রান করে তৎকালীন বিশ্বরেকর্ড গড়েন।[১]

একদিনের আন্তর্জাতিকে তিনটি সেঞ্চুরির দুইটিই করেন পাকিস্তানের বিপক্ষে। তন্মধ্যে ৭৫ বলে সংগৃহীত ১০৪ রান যৌথভাবে দ্রুততম ছিল।[২] পরবর্তীকালে জ্যাকব ওরাম জানুয়ারি, ২০০৭ সালে ভেঙ্গে ফেললেও ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০০৭ তারিখে হ্যামিল্টনে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৬৭ বলে সেঞ্চুরি করে নিজের দখলে রাখেন। ৬ষ্ঠ উইকেটে ব্রেন্ডন ম্যাককুলামকে সাথে নিয়ে যৌথভাবে বিশ্বরেকর্ডের ভাগীদার হন।[৩] দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতায় তিনি নিউজিল্যান্ডের শীর্ষ রান সংগ্রহকারী ছিলেন। প্রতিযোগিতায় তিনি ১৬৩ রান করেন ৪০.৭৫ গড়ে।

অবসর[সম্পাদনা]

১৭ অক্টোবর, ২০০৭ তারিখে টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ শেষে তিনি তার অবসরের কথা ঘোষণা করেন।[৪] এর কারণ হিসেবে ব্যক্তিগত ও শারীরিক সমস্যার কথা তুলে ধরেন। এরপর তিনি ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লীগে যোগ দেন ও কলকাতা টাইগার্স দলের অধিনায়কত্ব করেন।

অবসর পরবর্তীকালে প্রচারমাধ্যমের সাথে যুক্ত হন। বর্তমানে তিনি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ ও নিউজিল্যান্ডে স্টার ক্রিকেটে সিরিজের ধারাভাষ্যকার হিসেবে রয়েছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Cricinfo – Records – Test matches – Most runs off one over"। ১৪ জুলাই ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৪ 
  2. "Cricinfo – Records – One-Day Internationals – Fastest hundreds"। ২৪ জুন ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৪ 
  3. "Cricinfo – Records – One-Day Internationals – Highest partnerships by wicket"। ৯ মার্চ ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৪ 
  4. Cricinfo – McMillan announces his retirement

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
রবিন পিটারসন
নেলসন ক্রিকেট ক্লাবে পেশাদার
২০০৭-২০০৮
উত্তরসূরী
রবিন পিটারসন