চঞ্চল চৌধুরী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চঞ্চল চৌধুরী
Chanchal Chowdhury (2).jpg
২০১৮ তে চঞ্চল চৌধুরী
জন্ম (1974-06-01) ১ জুন ১৯৭৪ (বয়স ৪৫)
বাসস্থানঢাকা, বাংলাদেশ
জাতীয়তা বাংলাদেশ
জাতিসত্তাবাঙালি
শিক্ষাচারুকলা
যেখানের শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাঅভিনেতা, মডেল, প্রভাষক
কার্যকাল১৯৯৬-বর্তমান
উল্লেখযোগ্য কর্ম
মনপুরা
আয়নাবাজি
দেবী
পুরস্কারজাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (২ বার)

চঞ্চল চৌধুরী (জন্ম : ১ জুন, ১৯৭৪) একজন বাংলাদেশি অভিনেতা, মডেল, শিক্ষক ও গায়ক। তিনি টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র দুই মাধ্যমেই অভিনয় করে থাকেন। অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার,[১][২] এবং সেরা অভিনেতা বিভাগে একটি দর্শক জরিপ পুরস্কার[৩] ও দুটি সমালোচক পুরস্কার বিজয়সহ[৪] মোট বারোটি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৫][৬][৭]

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থী চঞ্চল চৌধুরী বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্র বাজানো, অভিনয়, গান, ছবি আঁকা এসব কিছুতেই সমান পারদর্শী। তিনি কোডা, সোডা ও ইউডা কলেজের চারুকলার প্রভাষকও।[৮] চঞ্চলের অভিনয় জীবন শুরু হয় চারুকলার ছাত্র থাকাকালীন আরণ্যক নাট্যদলের সাথে যুক্ত হয়ে। পরবর্তীতে অসংখ্য নাটক ও টিভি সিরিজে অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করেন চঞ্চল। তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র রূপকথার গল্প (২০০৬)। এছাড়া তিনি মনপুরা (২০০৯), টেলিভিশন (২০১৩), আয়নাবাজি (২০১৬), ও দেবী (২০১৮)-তে তার অভিনয়নৈপুণ্য প্রদর্শন করে দর্শক ও সমালোচকদের প্রশংসা লাভ করেছেন।

শুরুর কথা ও শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

চঞ্চল চৌধুরী বাংলাদেশের পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার নজিরগঞ্জ ইউনিয়নের কামারহাট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম রাধা গোবিন্দ চৌধুরী এবং মায়ের নাম নমিতা চৌধুরী। তিনি গ্ৰামের স্কুল কামারহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা এবং উদয়পুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক এবং রাজবাড়ি সরকারি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিকে পড়াশোনা করেন। উচ্চমাধ্যমিক শেষ করার পর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলায় ভর্তি হন। ছোটবেলা থেকেই তার গানবাজনা, আবৃত্তি আর নাটকের প্রতি নেশা ছিল। পরে তার মঞ্চ নাটকের প্রতি একটা আগ্রহ সৃষ্টি হয়।

অভিনয় জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৬-২০০০: মঞ্চাভিনয়[সম্পাদনা]

১৯৯৬ সালে মামুনুর রশীদের আরণ্যক নাট্যদলের সাথে কাজ করার মধ্য দিয়েই অভিনয় জীবনের শুরু হয়। তার অভিনীত প্রথম নাটক আরণ্যক নাট্যদলের কালো দৈত্য'। পরবর্তীতে এই নাট্যদলের সাথে সংক্রান্তি, রাঢ়াঙ, শত্রুগণ সহ আরও অনেক নাটকে কাজ করেন।[৯]

২০০০-২০০৫: টিভি নাটকে অভিনয়[সম্পাদনা]

ফরিদুর রহমানের "গ্রাস" নাটকের মাধ্যমে টিভি নাটকে তার পর্দাপন। মিডিয়াতে অল্প সময়ের মধ্যে দক্ষ অভিনেতা হিসেবে সুনাম অর্জন করেছেন। মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর তাল পাতার সেপাই নাটক দিয়ে দর্শকের কাছে পরিচিত হয়ে ওঠেন এই মঞ্চ অভিনেতা। তারপর থেকেই তিনি মঞ্চের পাশাপাশি বিরামহীন কাজ করে যাচ্ছেন টিভি নাটকে।[১০]

২০০৬-২০১০: চলচ্চিত্রে অভিষেক ও প্রশংসাপ্রাপ্তি[সম্পাদনা]

চঞ্চলের বড়পর্দায় অভিষেক হয় ২০০৬ সালে তৌকির আহমেদ পরিচালিত রূপকথার গল্প দিয়ে। তিনি ২০০৯ সালে গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত মনপুরা ছবিতে সোনাই চরিত্রে অভিনয় করেন। এই ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি ৩৪তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ফেরদৌসের সাথে যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়া ১১তম মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার-এ সেরা অভিনেতা হিসেবে দর্শক জরিপ পুরস্কার লাভ করেন।[৩] পরের বছর গৌতম ঘোষ পরিচালিত বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার মনের মানুষ ছবিতে অভিনয় করেন। ছবিটি সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় রচিত উপন্যাস মনের মানুষ অবলম্বনে লালন শাহের জীবনী নিয়ে নির্মিত।

২০১১-বর্তমান[সম্পাদনা]

২০১১ সালে চঞ্চল চৌধুরী

২০১২ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধভিত্তিক পিতা চলচ্চিত্রে ইমন সাহার সঙ্গীতায়োজনে শাওনের সাথে "তোর ভিতরে আমি থাকি" গানে কণ্ঠ দেন।[১১] ২০১৩ সালে বাংলাদেশ ও জার্মানির যৌথ প্রযোজনায় মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত টেলিভিশন ছবিতে অভিনয় করেন। একই বছর ঈদুল আযহায় প্রচারিত হয় তার অভিনীত টিভি নাটক ঈদের নাটক। রুম্মান রশীদ খান রচিত ও রিপন মিয়ার পরিচালিত নাটকটিতে তাকে একজন নাট্য পরিচালক হিসেবে দেখা যায়, যিনি রওনক হাসান অভিনীত চরিত্রের অনুরোধে ঈদের জন্য একটি নাটক পরিচালনা করেন।[১২] ২০১৫ সালে তিনি বৃন্দাবন দাস রচিত এবং সালাউদ্দিন লাভলু পরিচালিত ছয় পর্বের মিনি ধারাবাহিক ওয়াইফ মানে স্ত্রী-এ অভিনয় করেন। নাটকটি ঈদুল আযহা উপলক্ষ্যে বাংলাভিশনে প্রচারিত হয়।[১৩]

২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে বাংলাভিশনে প্রচারিত টিভি ধারাবাহিক সব পাখি ঘরে ফিরে-এ তিনি শাহনাজ খুশীর বিপরীতে অভিনয় করেন।[১৪] এই বছর ঈদুল ফিতরে ছয়টি ছয় পর্বের মিনি ধারাবাহিকে অভিনয় করেন, সেগুলো হল বৃন্দাবন দাসের রচনা ও সালাহউদ্দিন লাভলুর পরিচালনায় ইতি মির্জাফরলাভ মানে ভালোবাসা, মাহফুজ আহমেদের পরিচালনায় ইজম আনলিমিটেড, অনিমেষ আইচের পরিচালনায় অশ্বডিম্ব, মাসুদ সেজানের পরিচালনায় ওয়াও ফ্যান্টাসি ও চন্দন চৌধুরীর পরিচালনায় চাল্লু মামার চাল্লু ভাগ্নে[১৫] এছাড়া তিনি ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে খণ্ড নাটক সবজান্তা ভালোবাসা-এ অভিনয় করেন।[১৬] মানি ইজ প্রবলেম[১৭] একই বছর ঈদুল আযহায় চ্যানেল আইয়ের একজন জাদুকর নাটকে অভিনয় করেন। এতে তিনি চার বছর পর সারিকা সাবরিনের বিপরীতে কাজ করেন।[১৮] এছাড়া এই ঈদে তাকে আরটিভির ছয় পর্বের ধারাবাহিক মানি ইজ প্রবলেম-এ নুসরাত ইমরোজ তিশার বিপরীতে দেখা যায়।[১৭]

২০১৬ সালের অক্টোবরে চঞ্চলকে অমিতাভ রেজা চৌধুরী পরিচালিত আয়নাবাজি ছবিতে দেখা যায়। এই ছবিতে তিনি নাম চরিত্র আয়নাসহ ছয়টি চরিত্রে অভিনয় করেন।[১৯] চলচ্চিত্রটির জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে তার দ্বিতীয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন, এছাড়া সমালোচকদের জরিপে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার লাভ করেন। ২০১৮ সালে হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস দেবী অবলম্বনে নির্মিত একই নামের চলচ্চিত্রে মিসির আলি চরিত্রে অভিনয় করেন।[২০] সরকারি অনুদান ও জয়া আহসান প্রযোজিত চলচ্চিত্রটি অক্টোবর মাসে মুক্তি পাবে। এই বছর সেপ্টেম্বর মাসে তিনি ও অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা দুই বছরের জন্য মুঠোফোন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান রবি আজিয়াটা লিমিটেডের শুভেচ্ছাদূত হন এবং আটটি বিজ্ঞাপন চিত্রে কাজের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন।[২১]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

নির্বাচিত চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

উপস্থাপক[সম্পাদনা]

টেলিভিশন অনুষ্ঠান[সম্পাদনা]

বছর অনুষ্ঠান উপস্থাপক চ্যানেল টীকা
২০১৬ ঈদ আড্ডা গান রুমানা মালিক মুনমুন আরটিভি ঈদুল ফিতরে প্রচারিত[২৩]
লেট নাইট কফি মারিয়া নূর ও তৌসিফ আরটিভি [২৪]

মঞ্চনাটক[সম্পাদনা]

বছর শিরোনাম ভূমিকা টীকা
কালো দৈত্য আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন
১৯৯৮ সংক্রান্তি লালে আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন
১৯৯৯ প্রকৃতজনের কথা আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন
২০০০ ওরা কদম আলী আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন
২০০৩ ময়ুর সিংহাসন আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন
চে-এর সাইকেল বাংলা থিয়েটার প্রোডাকশন
২০০৪ জয়জয়ন্তী আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন
রাঢ়াঙ আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন
শত্রুগণ আরণ্যক নাট্যদল প্রোডাকশন

পুরস্কার ও মনোনয়ন[সম্পাদনা]

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

বছর বিভাগ নাটক ফলাফল
২০১০ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা মনপুরা বিজয়ী যৌথভাবে ফেরদৌসের সাথে
২০১৬ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা আয়নাবাজি বিজয়ী

মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার

বছর বিভাগ চলচ্চিত্র/নাটক ফলাফল
দর্শক জরিপ পুরস্কার
২০১০ সেরা অভিনেতা (চলচ্চিত্র) মনপুরা বিজয়ী
সেরা অভিনেতা (নাটক) পাত্রী চাই মনোনীত
২০১২ সেরা অভিনেতা (নাটক) অলসপুর মনোনীত
২০১৩ অলসপুর মনোনীত
২০১৪ ইডিয়ট মনোনীত
২০১৫ লাল খাম বনাম নীল খাম মনোনীত
২০১৭ সেরা অভিনেতা (চলচ্চিত্র) আয়নাবাজি মনোনীত
২০১৯ দেবী মনোনীত
সমালোচক পুরস্কার
২০১০ সেরা অভিনেতা (চলচ্চিত্র) মনপুরা মনোনীত
২০১৫ সেরা অভিনেতা (নাটক) লাল খাম বনাম নীল খাম মনোনীত
২০১৭ সেরা অভিনেতা (চলচ্চিত্র) আয়নাবাজি বিজয়ী
২০১৯ দেবী বিজয়ী

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফেরদৌস ও চঞ্চল চৌধুরী শ্রেষ্ঠ অভিনেতা, পপি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী"দৈনিক জনকণ্ঠ। ২২ জুলাই ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. "শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র 'অজ্ঞাতনামা', শ্রেষ্ঠ অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী"দৈনিক ইত্তেফাক। ৫ এপ্রিল ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৩ এপ্রিল ২০১৮ 
  3. জাহাঙ্গীর আলম (এপ্রিল ১১, ২০১০)। "Meril Prothom Alo Awards"দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  4. "সমালোচকদের রায়ে সেরা চলচ্চিত্র অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী"দৈনিক প্রথম আলো। ২১ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  5. "চঞ্চল চৌধুরী - বিষয়"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  6. "ভক্তদের আড্ডার আমন্ত্রণ জানালেন চঞ্চল চৌধুরী"jagonews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  7. "চঞ্চল চৌধুরী"jagonews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  8. "চঞ্চল চৌধুরী"প্রিয়.কম। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০১৫ 
  9. দিপংকর দিপক (এপ্রিল ১১, ২০১০)। "চঞ্চলের চঞ্চলতা"যায়যায়দিন। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  10. শেখ সামিরাহ (নভেম্বর ২৮, ২০১২)। "বহুমাত্রিক চঞ্চল"যায়যায়দিন। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  11. "প্রাণচঞ্চল চঞ্চল"যায়যায়দিন। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  12. "ঈদের নাটকের পরিচালক চঞ্চল চৌধুরী!"দৈনিক প্রথম আলো। সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  13. "'ওয়াইফ মানে স্ত্রী' নাটকে চঞ্চল চৌধুরী"জাগো নিউজ। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  14. "ধারাবাহিকে প্রিয়মুখ চঞ্চল চৌধুরী ও খুশী"দৈনিক যুগান্তর। ২৩ নভেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  15. "ঈদে ছয়টি ছয় পর্বের ধারাবাহিকে চঞ্চল চৌধুরী"দৈনিক মানবজমিন। ২২ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  16. "'সবজান্তা' চঞ্চল চৌধুরী"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ২১ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  17. "ঈদ ধারাবাহিকে চঞ্চল-তিশা"বাংলাদেশ প্রতিদিন। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  18. "চার বছর পর একসাথে অভিনয় করলেন চঞ্চল চৌধুরী ও সারিকা"দৈনিক ইনকিলাব। ২২ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  19. আমিনুল ই শান্ত (১৬ অক্টোবর ২০১৪)। "ছয় চরিত্রে চঞ্চল চৌধুরী"রাইজিংবিডি। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  20. "হ‌ুমায়ূনের 'দেবী' চলচ্চিত্রে চঞ্চল-জয়া"বাংলা ট্রিবিউন। ১৫ মার্চ ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৩ এপ্রিল ২০১৮ 
  21. "রবির শুভেচ্ছাদূত চঞ্চল ও তিশা"দৈনিক প্রথম আলো। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  22. "Constellation of stars"ঢাকা মিরর। এপ্রিল ২৯, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  23. "চঞ্চল চৌধুরী ও শাওন গাইলেন একসাথে"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ২৮ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  24. "লেট নাইট কফিতে চঞ্চল চৌধুরী"দৈনিক জনকণ্ঠ। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]