মান্না

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মান্না
মান্না (নায়ক).jpg
মান্না
জন্ম
সৈয়দ মোহাম্মদ আসলাম তালুকদার মান্না

(১৯৬৪-০৪-১৪)১৪ এপ্রিল ১৯৬৪[১][২]
মৃত্যু১৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৮(2008-02-17) (বয়স ৪৩)
মৃত্যুর কারণহার্ট অ্যাটাক
সমাধিএলেঙ্গা, টাঙ্গাইল জেলা
জাতীয়তাবাংলাদেশি
অন্যান্য নামমান্না ভাই[৩], ঢালিউড যুবরাজ[৪], মেগাস্টার[৫], মহানায়ক[৬]
নাগরিকত্ববাংলাদেশ
যেখানের শিক্ষার্থীঢাকা কলেজ
পেশাচলচ্চিত্র অভিনেতাপ্রযোজক
কার্যকাল১৯৮৪–২০০৮
প্রতিষ্ঠানকৃতাঞ্জলী চলচ্চিত্র
উল্লেখযোগ্য কর্ম
আম্মাজান, আব্বাজান, বীর সৈনিক, লুটতরাজ, দাঙ্গা, ধর
ধরনঅ্যাকশন, রোমান্স, নাটকীয়
উচ্চতা৬ ফুট ৩ ইঞ্চি[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
দাম্পত্য সঙ্গীশেলী মান্না[৭][৮]
সন্তানসিয়াম ইলতিমাস মান্না[৯]
পুরস্কারজাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার(১ বার)
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার(৩ বার)
বাচসাস পুরস্কার(৫ বার)

সৈয়দ মোহাম্মদ আসলাম তালুকদার (মঞ্চ নাম মান্না নামেই অধিক পরিচিত; জন্ম: ১৪ এপ্রিল ১৯৬৪ - মৃত্যু: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৮) ছিলেন একজন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেতাপ্রযোজক[১০] ম্যানলি হিরো খ্যাত সুপারস্টার মান্না চব্বিশ বছরের কর্মজীবনে তিন শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তাকে ঢালিউড সোনালী প্রজন্মের সর্বশেষ মহানায়ক[১১], মেগাস্টার[১২] বলা হয়। ঢালিউড সিনেমায় দীর্ঘ সময় জনপ্রিয়তার শীর্ষ অবস্থান ধরে রাখা নায়ক রাজ-রাজ্জাকের পর ঢালিউড যুবরাজ মান্নার অবস্থান।[১৩] তার অভিনীত আম্মাজান চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ব্যবসাসফল ও জনপ্রিয় চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে অন্যতম। তিনি বীর সৈনিক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং আম্মাজান চলচ্চিত্রের জন্য মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার অর্জন করেন।

তিনি আটবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং তিনবার এই পুরস্কার অর্জন করেন। এছাড়া তিনি বেশ কয়েকবার বাচসাস পুরস্কার লাভ করেন। তার অভিনীত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হল ত্রাস, দাঙ্গা, কাসেম মালার প্রেম, লুটতরাজ, তেজী, আম্মাজান, শান্ত কেন মাস্তান, কষ্ট, 'বর্তমান, আব্বাজান, স্বামী স্ত্রীর যুদ্ধ, বীর সৈনিক, সিটি টেরর, মিনিস্টার, দুই বধু এক স্বামী, পিতা মাতার আমানত, অবুঝ শিশু, সাজঘর, উত্তরের খেপ, মায়ের মর্যাদাকাবুলিওয়ালা ইত্যাদি।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পে অসামান্য অবদানের জন্য বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন এর অভ্যান্তরের ডিজিটাল প্রযুক্তিতে ভিডিও সম্পাদনা, কালার গ্রেডিং এবং ডাবিং স্টুডিওকে তার নামে মান্না ডিজিটাল কমপ্লেক্স নামকরণ করা হয়েছে[১৪]

প্রারম্ভিক ও ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৬৪ সালের ১৪ এপ্রিল টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গায় জন্মগ্রহণ করেন মান্না[১৫]। তার আসল নাম[১৬] এস এম আসলাম তালুকদার। পিতা নুরুল ইসলাম তালুকদার ও মাতা হাসিনা ইসলাম[১৭]। মান্না উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাস করে ঢাকা কলেজে স্নাতকে ভর্তি হন। ১৯৮৪ সালে তিনি এফডিসির নতুন মুখের সন্ধান কার্যক্রমের মাধ্যমে বাংলা চলচ্চিত্রে আসেন[১৮]। তার অভিনীত প্রথম চলচিত্র তওবা। এরপর একের পর এক ব্যবসা সফল চলচিত্রে অভিনয় করে, নিজেকে অন্যতম সেরা নায়ক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন[১৯]। সমগ্র চলচ্চিত্র জীবনে তিনি প্রায় তিন শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তার সিনেমায় বঞ্চিত নিপীড়িত মানুষের কথা উঠে এসেছে।[১৬]

ব্যক্তিগত জীবনে মান্না তার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের সহ-অভিনেত্রী শেলী কাদের কে ভালোবেসে বিবাহ্ বন্ধনে আবদ্ধ হন[২০][২১][২২]। মান্না-শেলী মান্না দম্পতির সিয়াম ইলতিমাস মান্না নামে এক পুত্র সন্তান রয়েছে[২৩][২৪]

কর্মপরিধি[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক কর্মজীবন (১৯৮৪-১৯৯০)[সম্পাদনা]

১৯৮৪ সালে এফডিসির ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ কার্যক্রমের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে তিনি আগমন করেন[২৫][২৬]। তাঁর প্রথম অভিনীত ছবির নাম তওবা কিন্তু প্রথম মুক্তি পায় কাজী হায়াৎ পরিচালিত পাগলি (১৯৮৫) নামের সিনেমা[২৭][২৮]। এরপর নিপা মোনালিসা’র বিপরীতে শিমুল পারুল[২৯](১৯৮৫),রেহানা জলি’র বিপরীতে নিষ্পাপ(১৯৮৬), কবিতা’র বিপরীতে বাপ বেটা ৪২০(১৯৮৮), চম্পা’র বিপরীতে ভাই (১৯৮৮), আমার জান (১৯৮৮), সুনেত্রা‘র বিপরীতে বাদশা ভাই (১৯৮৯), কোবরা(১৯৮৯), চম্পা’র বিপরীতে গরীবের বন্ধু(১৯৯০), আম্মা (১৯৯০), রানী’র বিপরীতে অবুঝ সন্তান (১৯৯০), ছোট বউ (১৯৯০), পালকী (১৯৯০), দুখী মা (১৯৯০) নামে চলচ্চিত্রগুলে মুক্তিপায়।

আশির দশকে মান্না যখন ছবিতে আসেন তখন চলছিল আলমগীর, রাজ্জাক, জসীম, ফারুক, জাফর ইকবাল, ইলিয়াস কাঞ্চনদের স্বর্ণযুগ। সেখানে মান্না তওবা, পাগলী, ছেলে কার, নিস্পাপ, পালকি, দুঃখিনী মা, বাদশা ভাই এর মতো ব্যবসা সফল ছবি উপহার দেন[৩০]। কিন্তু এসবগুলো ছবিতে মান্না ছিলেন ছবির দ্বিতীয় নায়ক। তাই ব্যবসার কৃতিত্ব কখনও আলমগীর, কখনও রাজ্জাক, কখনও ফারুক অর্থাৎ সিনেমার প্রধান নায়কের উপর যেতো। এভাবে মান্না ১৯৮৪ সাল থেকে ১৯৯০ সাল এই ৬টি বছর ছবির দ্বিতীয় নায়ক হিসেবে নায়ক আলমগীর, সোহেল রানা, জসিম, ইলিয়াস কাঞ্চন এর সাথে বেশ কয়েকটি সিনেমায় পাশ্ব চরিত্রে অভিনয় করেন। এভাবে দ্বিতীয় নায়ক হিসেবে তিনি সফলতার সাথে ধীরে ধীরে এগুতে থাকেন[৩১]

প্রতিষ্ঠা লাভ (১৯৯১-১৯৯৬)[সম্পাদনা]

১৯৯১ সালে প্রথমবারের মতো মোস্তফা আনোয়ার পরিচালিত কাসেম মালার প্রেম[৩২] ছবিতে প্রথম একক নায়ক হিসেবে চিত্র নায়িকা চম্পার বিপরীতে সুযোগ পেয়েছিলেন। এর আগে সব ছবিতে মান্না ছিলেন দ্বিতীয় নায়ক। কাসেম মালার প্রেম[৩৩] ছবিটি সুপার ডুপার হিট হওয়ার কারনে মান্না-চম্পা[৩৪] জুটি গড়ে ওঠে এবং মান্না একের পর এক একক ছবিতে কাজ করার সুযোগ লাভ করেন[৩৫]

এরপর কাজী হায়াৎ পরিচালিত দাঙ্গা (১৯৯২)ও ত্রাস (১৯৯২) ছবির সাফল্যের কারনে তাঁর একক নায়ক হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাওয়া সহজ হয়ে যায়[৩৬][৩৭]। এরপর মোস্তফা আনোয়ার পরিচালিত অন্ধ প্রেম, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত প্রেম দিওয়ানা, ডিস্কো ড্যান্সার, কাজী হায়াৎ পরিচালিত দেশদ্রোহী, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত বাবার আদেশ, অশোক ঘোষ পরিচালিত শাদী মোবারক বুলবুল আহমেদ পরিচালিত গরম হাওয়া, সাইফুল আজম কাশেম পরিচালিত সাক্ষাৎ,কামাল আহমেদ পরিচালিত অবুঝ সন্তান, দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত গরীবের বন্ধু ছবিগুলো দিয়ে মান্নার অবস্থান পুরোপুরি শক্তভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়[৩৮]

এরপর কাজী হায়াৎ এর চাঁদাবাজ (১৯৯৩),সিপাহী, দেশপ্রেমিক, দেশদ্রোহী, ধর, তেজী, সমাজ কে বদলে দাও[৩৯][৪০], নুর হোসেন বলাই পরিচালিত ওরা তিনজন, শেষ খেলা[৪১], নাদিম মাহমুদ পরিচালিত আন্দোলন, রুটি, রাজপথের রাজা, এম এ মালেক পরিচালিত দুর্নীতিবাজ, এফ আই মানিক পরিচালিত বিশাল আক্রমন মোস্তাফিজুর রহমান বাবু পরিচালিত চিরঋণী[৪২] এ জে রানা পরিচালিত মানুষ, বেলাল আহমেদ পরিচালিত সাক্ষী প্রমাণ, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ডিস্কো ড্যান্সার, বশিরা[৪৩] এর মতো সুপারহিট ছবি দিয়ে মান্না নিজেকে প্রতিষ্ঠার পাশাপাশী প্রমাণ করতে থাকেন আর দিন দিন পরিচালক, প্রযোজকদের আস্থার প্রতিক হয়ে ওঠেন[৪৪][৪৫]

সাফল্য ও জনপ্রিয়তা (১৯৯৭-২০০৮)[সম্পাদনা]

১৯৯৭ সালে মান্না লুটতরাজ সিনেমার মাধ্যমে প্রথম সিনেমা প্রযোজনায় নামেন[৪৬]। তার প্রযোজিত প্রথম ছবির পরিচালনা দ্বায়িত্ব দেন কাজী হায়াৎকে যার পরিনাম লুটতরাজ এর মতো একটি সুপার ডুপারহিট ছবি। শুরু হয় মান্নার আসল যুগ। এরপর মুক্তি পেতে থাকে এনায়েত করিম পরিচালিত ক্ষুধার জ্বালা[৪৭], নাদিম মাহমুদ পরিচালিত এতিমরাজা কাজী হায়াৎ পরিচালিত তেজী, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত শান্ত কেন মাস্তান[৪৮], ইস্পাহানি আরিফ জাহান পরিচালিত মোস্তফা ভাই[৪৯], দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত রাজা বাংলাদেশী এর মতো বছরের সেরা ব্লকব্লাসটার ছবির মাধ্যামে শুরু হয় মান্না অধ্যায়ের[৫০][৫১]

১৯৯৯ সালে মুক্তি পায় কাজী হায়াৎ পরিচালিত ডিবজলের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান অমি বনি কথাচিত্রের ব্যানারে 'আম্মাজান, আম্মাজান চলচ্চিত্রটি বাংলা সিনেমা ইতিহাসে সেরা ব্যাবসা সফলতার একটি মাইফলক হয়ে আছে। এবং এই সিনেমার মাধ্যমে মান্না প্রথমবারের মতে বাচসাস[৫২] এবং মেরিল-প্রথম আলো শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার অর্জন করেন[৫৩]

এরপর মান্না অভিনয় করেন রায়হান মুজিব ও আজিজ আহমেদ বাবুল এর 'খবর আছে', মালেক আফসারী পরিচালিত এবং মান্নার দ্বিতীয় প্রযোজিত ছবি লাল বাদশা[৫৪] এর মতো সুপারহিট ছবিতে।

২০০০ এর দিকে যখন বাংলা চলচ্চিত্রের একটু একটু করে আঁধার নামতে থাকে তখন একমাত্র নায়ক মান্নার ছবিগুলো ছিল প্রযোজক ও পরিচালকদের আশার আলো এবং ব্যবসায় টিকে থাকার সাহস[৫৫]। মুক্তি পেতে থাকে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ও মান্নার তৃতীয় প্রযোজনা আব্বাজান[৫৬], এই ছবির মাধ্যমে ২য় বার বাচসাস পুরষ্কার পেয়েছিলেন। মালেক আফসারী পরিচালিত মরণ কামড়[৫৭], ছটকু আহমেদ পরিচালিত শেষ যুদ্ধ[৫৮], মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত গুন্ডা নাম্বার ওয়ান, কুখ্যাত খুনি, কাজী হায়াৎ পরিচালিত বর্তমান, এফ আই মানিক পরিচালিত সুলতান, বদিউল আলম খোকন পরিচালিত দানব, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত আঘাত পাল্টা আঘাত, মাস্তানের উপর মাস্তান, জীবন এক সংঘর্ষ, এফ আই মানিক পরিচালিত মান্না প্রযোজিত স্বামী স্ত্রীর যুদ্ধ, কাজী হায়াৎ পরিচালিত সমাজকে বদলে দাও এর মতো ব্লোকবাস্টার সব সিনেমা।

এরপর দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত মুক্তিযুদ্ধ কাহিনী ভিক্তিক সিনেমা 'বীর সৈনিক[৫৯], এই সিনেমায় মাধ্যমে তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত হয়[৬০][৬১]। এরপর জিল্লুর রহমান পরিচালিত ঈমানদার মাস্তান'[৬২], ইস্পাহানি আরিফ জাহান পরিচালিত নায়ক, কাজী হায়াৎ পরিচালিত মিনিস্টার, কষ্ট[৬৩], মালেক আফসারী পরিচালিত বোমা হামলা[৬৪], শহীদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত ভেজা বিড়াল[৬৫], এফ আই মানিক পরিচালিত ও মান্না প্রযোজিত দুই বধু এক স্বামী[৬৬][৬৭], মোস্তাফিজুর রহমান বাবু পরিচালিত অশান্ত আগুন, ইস্পাহানি আরিফ জাহান পরিচালিত ভিলেন[৬৮], মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত আরমান, টপ সম্রাট[৬৯], শাহাদত হোসেন লিটন পরিচালিত কঠিন পুরুষ[৭০], বদিউল আলম খোকন পরিচালিত রুস্তম[৭১], এফ আই মানিক পরিচালিত ভাইয়া এই সিনেমায় মান্নার বিপরীতে অভিনয় করেন ওপার বাংলার অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জী। এরপর বদিউল আলম খোকন পরিচালিত ধ্বংস, বাবার কসম, বাস্তব, শাহিন সুমন পরিচালিত নেতা, মনোয়ার খোকন পরিচালিত সত্যের বিজয়, শরিফ উদ্দিন খান দিপু পরিচালিত ‘বাঁচাও দেশ’, আহমেদ নাসির পরিচালিত ‘মনের সাথে যুদ্ধ’ এর মতো অসংখ্য সুপারহিট ছবি।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সবচেয়ে খারাপ সময়ে এতো বেশী সুপারহিট ব্যবসাসফল ছবি আর কোন নায়কের নেই। ১৯৯৭ থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত (২০০৮ এর ফেব্রুয়ারি) মান্না একাই বাংলা চলচ্চিত্রকে টেনে নিয়ে গেছেন[৭২]। এমন বছরও গিয়েছে যেখানে সেরা ১০ টি ব্যবসা সফল ছবির নাম খুজলে সব মান্নার ছবি পাওয়া গিয়েছিল[৭৩]

নবীন- প্রবীণ সব পরিচালকের কাছে মান্না ছিল সবচেয়ে আস্থাভাজন নায়ক। যাকে নিয়ে ছবি বানালে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকতো না। কাজী হায়াৎ, মনতাজুর রহমান আকবর, এফ আই মানিক, মালেক আফসারী, ইস্পাহানি আরিফ জাহান এর মতো সিনিয়র পরিচালকরা যেমন মান্নাকে নিয়ে একাধিক সুপারহিট ছবি দিয়ে নিজের ক্যারিয়ারকে শক্ত করেছেন তেমনি এই দশকের বদিউল আলম খোকন, শাহিন সুমন, শাহাদত হোসেন লিটন, শরিফুদ্দিন খান দিপুর মতো ব্যস্ত পরিচালকরা মান্নাকে দিয়ে সফল হয়ে নিজেদের সফলতার মুখ দেখেছেন। মান্না একমাত্র নায়ক যিনি ১০০ এর বেশী পরিচালকের ছবিতে অভিনয় করেছিলেন[৭৪]

মান্নার পরিচালকদের মাঝে উল্লেখযোগ্য হলেন– দেলোয়ার জাহান ঝনটু, মোস্তফা আনোয়ার, কামাল আহমেদ, সাইফুল আজম কাশেম, জহিরুল হক, কাজী হায়াত, মমতাজুর রহমান আকবর, শফি বিক্রম্পুরি, আবুল খায়ের বুলবুল, মমতাজ আলী, নাদিম মাহমুদ, এনায়েত করিম, ইস্পাহানি আরিফ জাহান, ইফতেখার জাহান, আজিজুর রহমান বুলি, জিল্লুর রহমান, মোহাম্মদ হোসেন, বাদশা ভাই, এফ আই মানিক, বদিউল আলম খোকন, শাহাদত হোসেন লিটন, নুর হোসেন বলাই, বেলাল আহমেদ , মোস্তাফিজুর রহমান বাবু , মালেক আফসারী ও শহিদুল ইসলাম খোকন।

মান্না তার শক্তিশালী কণ্ঠ, সাবলীল অভিনয়, বিপ্লবী সব চরিত্র দিয়ে তিনি হয়ে উঠেছিলেন গণমানুষের নায়ক[৭৫]।ফোক, সামাজিক, অ্যাকশন, রোমান্টিক ও ফ্যামিলী ড্রামা সকল ধরনের অভিনয়ে হয়ে ওঠেন ঢালিউড ইতিহাসে অপ্রতিদন্ধী অলরাউন্ডার অভিনেতা[৭৬]। তার অভিনয়, কথার ধরন সব কিছু মিলেই একটা আলাদা স্বতন্ত্র স্টাইল তিনি দাঁড় করিয়েছিলেন[৭৭], তাকে মাথায় রেখে স্ক্রিপ্ট রাইটার গল্প লিখতেন পরিচালক সিনেমা পরিচালনা করতেন[৭৮]

মান্না প্রায় ১০০ এর অধিক পরিচালক এবং ৬১ জন নায়িকার বিপরীতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করেছেন যা ঢালিউড চলচ্চিত্রের ইতিহাসে একটি বিরল রেকর্ড[৭৯]। এতো বেশী পরিচালকের ছবিতে বাংলার আর কোন নায়ক অভিনয় করেনি এটি তার একটি রেকর্ড[৮০]

সেই ৮০র দশকে সুনেত্রা, নিপা মোনালিসা থেকে শুরু করে চম্পা, দিতি, রোজিনা, নতুন, অরুনা বিশ্বাস, কবিতা এর মতো সিনিয়র নায়িকাদের সাথে অভিনয় করে যেমন সফল হয়েছিলেন তেমনি মৌসুমি, শাবনুর, পূর্ণিমা, মুনমুন, সাথী,স্বাগতা, শিল্পী, লিমা সহ এই দশকের নায়িকাদের সাথে সফল হয়েছিলেন যার বিপরীতে নায়িকার সংখ্যা ৬১ জন বেশী[৮১]

একাধিকবার বাচসাস পুরস্কার[৮২], মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার[৮৩] সহ ২০০৩ সালে ‘বীর সৈনিক’ চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার[৮৪] অর্জন করেন মান্না।

মান্না আমাদের বাণিজ্যিক ছবির ইতিহাসে একটি স্মরণীয় নাম হয়ে থাকবে[৮৫]। তাঁর অভিনয়, কথার ধরন সব কিছু মিলেই নিজস্ব একটা আলাদা স্বতন্ত্র স্টাইল দাঁড় করিয়েছিলেন[৮৬]। মান্না তার কাজের মাধ্যমে দর্শকদের মনে স্থান করে নিয়েছেন। মান্না বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে নতুন একটি ধারা সৃষ্টি করে ছিলেন। তার অসংখ্য ব্যবসা সফল চলচ্চিত্র আমাদের ইন্ডাস্ট্রিকে তরতর করে এগিয়ে দিচ্ছিলো। কিন্তু মান্নার চলে যাওয়ার সঙ্গে চলচ্চিত্রের একটি ধারারও সমাপ্তি ঘটে[৮৭]। সমসাময়িক রাজনৈতিক পটভূমির সাহসী প্রতিবাদী গল্পের এমন কিছু ছবি মান্না আমাদের দিয়েছিলেন মান্না ছাড়া হয়তো আমরা সেইসব ছবি পেতাম না।একটা সময় ছিল যখন ছবিতে শুধু মান্না আছে তাঁর কারনেই দর্শক হলে ছুটে গিয়েছিল, তাঁর কারনেই ছবিগুলো ব্যবসা সফল হয়েছিল। তার অভিনিত ছবিগুলো আমাদের চলচ্চিত্রকে করেছে সমৃদ্ধ[৮৮]

অন্যান্য কর্ম[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র প্রযোজনা[সম্পাদনা]

শুধু অভিনয় নয় প্রযোজক হিসেবেও সফল ছিলেন মান্না[৮৯], দেশের চলচ্চিত্র যখন অশ্লীলতা নিয়ে সংকটে পড়েছিল, তখন সুস্থ ধারার চলচ্চিত্র নির্মাণের অঙ্গীকার নিয়ে মান্না গঠন করেন কৃতাঞ্জলী চলচ্চিত্র নামে একটি প্রযোজনা সংস্থা। তার প্রযোজনায় তৈরি হয় লুটতারাজ, স্বমী স্ত্রীর যুদ্ধ, দুই বধু এক স্বামী, আমি জেল থেকে বলছি, পিতা মাতার আমানত সহ আটটি ব্যাবসা সফল সিনেমা[৯০][৯১]। তাঁর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের প্রতিটি সিনেমাই ব্যবসা সফল[৯২]

পাইরেসি বন্ধে অবদান[সম্পাদনা]

ডিজিটাল পদ্ধতিতে হলগুলোতে সিনেমা প্রদর্শনের পূর্বে যখন ৩৫mm রিলের মাধ্যমে হল কর্তপক্ষের অধিনে সিনেমা প্রদর্শিত হতো তখন, কিছু অসাধু ব্যাক্তি রিল থেকে অবৈধভাবে সিনেমা কপি করে অসৎ ব্যবসার উদ্দেশ্যে গোপন বাজারজাত করতো, যার দরুন অনেক সময় সিনেমার মুল সত্বাধিকারী বা প্রযোজক ব্যাবসায়িক ঝুঁকি বা লোকসানে পড়তো। এর থেকে উত্তরনের জন্য মান্না ছিলেন সিদ্ধহস্ত। এ জাতিয় পাইরেসি বন্ধে মান্না সকলের একত্রিত করে বিভিন্ন উদ্দযোগ এর পাশাপাশি নিজে পুলিশের সাথে গিয়ে পাইরেসি অপরাধী ধরার অসংখ্য নজির রয়েছে[৯৩]। এভাবে সিনেমার পাইরেসি রোধে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন[৯৪]

অশ্লীলতা বন্ধে অবদান[সম্পাদনা]

"মান্না ছিল চলচ্চিত্রের একটি শক্তিশালী হাতিয়ার। বর্তমানে চলচ্চিত্রে যে দুর্দশা নেমে এসেছে, মান্না থাকলে হয়তো আমাদের এমনটি দেখতে হতো না। কারণ মান্না চলচ্চিত্রকে ভালোবাসত। চলচ্চিত্রই ছিল তার ধ্যানজ্ঞান, ঘর-সংসার। চলচ্চিত্রে একটা সময় যখন অশ্লীল ছবির রমরমা ব্যবসা ছিল, কোনো একটি মহল চলচ্চিত্র শিল্পকে ধ্বংস করার পাঁয়তারা করছিল; ঠিক সে সময় আওয়াজ তুলেছিল মান্না। চলচ্চিত্র শিল্পকে বাঁচাতে রাত-দিন এক করে দিয়েছিল এই মানুষটি। অশ্লীল ছবির বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন করতে গিয়ে, অস্ত্রের মুখেও দাঁড়িয়েছিল মান্না। তারপরও তাকে দমানো যায়নি। কারণ চলচ্চিত্রের জন্য এ মানুষটি জীবন দিতেও প্রস্তুত ছিল। চলচ্চিত্রে অশ্লীলতা বন্ধে তার ভূমিকা অপরিসীম”।

—মান্না সম্পর্কে কাজী হায়াৎ[৯৫]

বাংলা সিনেমায় যখন অশ্লীলতা জেঁকে বসেছিলো তখন মান্না সিনেমা থেকে অশ্লীলতা দূরীকরণে উঠে পড়ে লেগেছিলেন। এফডিসি’র মধ্যেই শুটিং হতো অশ্লীল ছবির। অনেক প্রযোজক অধিক নিরাপত্তার জন্য দিনাজপুরের স্বপ্নপুরীতে গিয়ে শুটিং করতেন। সেখানে এক ছবির শুটিং করতে গিয়ে অশ্লীলতার ভয়াবহতা দেখে পালিয়ে এসেছিলেন হুমায়ুন ফরীদিদিলদারের মতো অভিনেতা। মৌসুমী, ফেরদৌস, রিয়াজ, পূর্ণিমারা সহ সিনেমা থেকে আড়ালে চলে যান। কিন্তু অশ্লীল ছবির বিরুদ্ধে একাই যুদ্ধ চালিয়ে যান মান্না[৯৬][৯৭]। অশ্লীলতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে তৎকালীন তথ্য সচিব তাসাদ্দেক বেগের সামনেই তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছিল অশ্লীল ছবির ধারক-বাহক ও পৃষ্ঠপোষকরা। কিন্তু মান্না দমে যাননি। প্রতিবাদ চালিয়ে যান[৯৮]। পরিচালক, প্রযোজক সহ বিভিন্ন সংস্থার সাথে মিছিল মিটিং এর পরে তথ্য মন্ত্রণালয়, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এবং অন্যান্য চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট প্রসাশনের সহয়তায় সিনেমা থেকে অশ্লীলতা দুর করে পুনরায় সুস্থ-ধারার সিনেমা নির্মাণ ও পরিবেশন স্থাপনের জন্য জীবন বাজী রেখে রিতিমত যুদ্ধ করে জয়ী হয়[৯৯]।চলচ্চিত্র থেকে যে গুণি অভিনয় শিল্পীরা সরে গিয়েছিলেন মান্না তাদের পুনরায় চলচ্চিত্রে ফিরিয়ে এনিছিলেন[১০০]

দাতব্য[সম্পাদনা]

আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা পাওয়ার পরও মান্না সবার সঙ্গে মন খুলে আড্ডা দিত। কাজ সেরে অন্যদের খোঁজ-খবর নিতে এফডিসির বিভিন্ন ফ্লোরে যেত। মান্না এফডিসির গেট পেরোনোর পরপরই সবার খোঁজ-খবর নেওয়া শুরু করত। কর্মস্থলে পৌঁছানোর আগ পর্যন্ত প্রতিটি মানুষের সঙ্গেই তার আলোচনা হতো। আরও একটা বিষয়, মান্না ছবির শুটিং শেষ করার পরও, পরিচালক কিংবা প্রযোজকদের সঙ্গে ছবির বিষয়ে কথা বলত। কোথাও কোনো সমস্যা আছে কি-না তার খোঁজ-খবর নিত। ছবি মুক্তির পর প্রযোজক যাতে লাভ করেন সেদিকেও সে সজাগ থাকত। সিনেমা হলে কোনো সমস্যা হলে সেটা টাকা দিয়ে হোক বা অন্য কোনোভাবে হোক তার সমাধান করার চেষ্টা করত[১০১]। অস্বচ্ছল দুস্থ শিল্পীদের পাশে মান্না ছিলেন ছায়ার মতো[১০২] তাদের বিপদে সাহায্যে এগিয়ে আসতেন[১০৩], নিয়মিত খোঁজ-খবর নিতেন নতুন পুরোতন শিল্পীদের আর্থীক সহ নানাবিধভাবে সাহয্যের হাত বাড়িয়ে দিতেন[১০৪]। এছাড়া প্রয়াত শিল্পিদের পরিবার বর্গের খোজঁ-খবর রাখতেন মান্না[১০৫]

সাংগঠনিক নেত্রীত্ব[সম্পাদনা]

মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির একজন সফল ও দক্ষ সাধারণ সম্পাদক ছিলেন[১০৬][১০৭]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

মান্না ২০০৮ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি আকস্মিক আক্রান্ত হয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ইউনাইটেড হাসপাতালে ৪৩ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন[১০৮]। তাঁর মৃতদেহ এফডিসি থেকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য শহীদ মিনারে নেওয়ার কথা থাকলেও ভক্ত, অনুসারী ও উৎসুক নারী-পুরুষ জনতার ভীরের কারনে নেওয়া সম্ভব হয়নি, তাঁকে একনজর দেখার জন্য জনতার ঢল নেমেছিল পথে। লাশ পারিবারিক গোরস্থানে নেওয়ার জন্য পুলিশকে বাধ্য হয়ে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুঁরতে [১০৯], এবং নির্দয় হয়ে বেদনার্ত ভক্তদের লাঠিপেটা করতে হয়েছে[১১০], যার ফলসরুপ অসংখ্য ভক্ত অনুরাগী আহত হয়[১১১] অবশেষে টাঙ্গাইল জেলায় অবস্থিত তার নিজ গ্রাম এলেঙ্গায় তাকে তার পারিবারিক গোরস্থানে সমাহিত করা হয়[১১২]

তার মৃত্যু সংবাদ দেশ ও দেশের বাহিরে বিবিসি, রয়টার্স, ডন, হিন্দুস্তান টাইমস, জি নিউজ সহ আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে ফলাও করে প্রচার করে[ক]

চিকিৎসকদের অবহেলায় মান্নার মৃত্যু হয়েছে অভিযোগ করে মান্নার পরিবারের পক্ষ থেকে ২০০৮ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর ইউনাইটেড হাসপাতালের ছয় চিকিৎসকের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ এনে মামলা করেন মান্নার শ্যালক রেজা কাদের। পরে এই মামলার বিচারবিভাগীয় তদন্ত হয়। বিচারবিভাগীয় তদন্তে প্রাথমিকভাবে ডাক্তারদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম ২০০৯ সালের ২৮ জ্নাুয়ারি ছয় ডাক্তারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। পরদিনই তাঁরা হাইকোর্টে জামিনের জন্য গেলে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ তাদের আট সপ্তাহের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের আদেশ দেন। ওই বছরের ১৬ মার্চ চিকিৎসকরা আত্মসর্মপণ করলে ৫০ হাজার টাকা বন্ডে স্বাক্ষর করে জামিন লাভ করেন। এরপর ২০০৯ সালের ১৮ অক্টোবর ছয় ডাক্তারের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন বিশেষ দায়রা জজ। এরপর আসামীপক্ষের আইনজীবীরা অভিযোগ গঠনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে একটি রিট করেন[খ]। মামলাটির শুনানী চলমান।

গণমাধ্যমে[সম্পাদনা]

সুপারস্টার মান্না ম্যানলি হিরো[১২২] খেতাব প্রাপ্ত, গণমাধ্যমে সুপারস্টার মান্না কে ঢালিউড যুবরাজ[১২৩], মহানায়ক[১২৪]মেগাস্টার[১২৫] হিসেবে অভিহিত করা হয়[গ]

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের দুজন শিক্ষক এবং বেশ কিছু শিক্ষার্থী দীর্ঘদিন বাংলা চলচ্চিত্র নিয়ে গবেষণা করে। তাঁদের সে গবেষণার লিখিত রূপ ‘বাংলাদেশের চলচ্চিত্রশিল্প: সংকটে জনসংস্কৃতি’ নামক গ্রন্থে উল্লেখ করেন, ওই সময়ে (মান্নার জীবদ্দশায়) জনপ্রিয়তার বিচারে আর কোনো নায়ক বা নায়িকা মান্নার মতো এত সমর্থন পাননি। বইটিতে গবেষকেরা মান্নাকে বর্তমান দশকের ‘আইকন অভিনেতা’ হিসেবে শনাক্ত করেছেন। এছাড়া বইটির অন্যতম লেখক অধ্যাপক গীতি আরা নাসরীন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রশিল্প: সংকটে জনসংস্কৃতি প্রসঙ্গে প্রথম আলোতে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘গবেষণার কাজে যখন আমরা ঢাকা ও আশপাশের সিনেমা হলসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের প্রেক্ষাগৃহে গিয়েছি, তখন দেখেছি, মান্না হচ্ছেন একমাত্র অভিনেতা, যাঁকে পর্দায় দেখা গেলে তুমুল করতালি পড়ে। প্রেক্ষাগৃহের দর্শকদের নিয়ে আমরা জরিপ করেছি, তাঁদের শতকরা ৪৫ জন বলেছেন, তাঁদের প্রিয় নায়ক হলেন মান্না[১১০]

বিবিধ[সম্পাদনা]

জনপ্রিয়তার একেবারে তুঙ্গে থাকাবস্থায় আকস্মিক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান ঢাকাই চলচ্চিত্রের নন্দিত অভিনেতা মান্না। তার প্রয়াণে বেশ ধাক্কা খায় দেশের চলচ্চিত্র শিল্প। ঢালিউডের অনেক বোদ্ধার মতে, ক্ষতির সেই ছাপ এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি এদেশের চলচ্চিত্র সেই সুরেই জনপ্রিয় নির্মাতা ও অভিনেতা কাজী হায়াৎ বলছিলেন, মান্না থাকলে হয়তো এমন দিন দেখতে হতো না। ইন্ডাস্ট্রিতে সে আরও ভালো ও সুপারহিট চলচ্চিত্র উপহার দিতে পারতো[১৩১]।বাংলাদেশ চলচ্চিত্রে মান্না এজনই। আর কোন মান্না জন্মগ্রহণ করবে না[১৩২][১৩৩]। তিনি আরও বলেন, মান্নাকে শুধু একজন ব্যক্তি বললে ভুল হবে, যে ছিল চলচ্চিত্রের একটি শক্তিশালী হাতিয়ার[১৩৪]

২০১৭ সালে যৌথপ্রযোজনার অনিয়ম বিতর্ককে উদ্দেশ্য করে পরিচালক মালেক আফসারী আক্ষেপ করে বলেন আজ মান্না বেঁচে থাকলে তোমরা এটা করতে পারতে না[১৩৫]

মান্নার স্মৃতিচারণ করেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী, নায়ক অমিত হাসান ও খল অভিনেতা মিশা সওদাগর। বলেন, 'মান্না চলে যাওয়ায় এ দেশের চলচ্চিত্র শিল্পের যে ক্ষতি হয়েছে, তা অপূরণীয়। তার শূন্যতা কখনোই পূরণ হওয়ার নয়। চলচ্চিত্র শিল্পকে তিনি অনেক দিয়েছেন, বেঁচে থাকলে আরও দিতেন[১৩৬]

জনপ্রিয় সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

মান্নার স্মরণে তার এক অন্ধ ভক্তের কাহিনী নিয়ে নির্মিত হয়েছে মালেক আফসারী পরিচালিত জায়েদ খানপরিমনি অভিনীত অন্তর জ্বালা নামের একটি চলচ্চিত্র[১৩৭][১৩৮][১৩৯][১৪০]

এছাড়া মান্না স্মৃতি স্মরণে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন নিয়তিম মান্না উৎসব আয়োজন করে আসছে[১৪১], রিয়াজ, ফেরদৌস , ওমর সানী, অমিত হাসান, জায়েদ খান, মৌসুমী, পপি, পূর্ণিমা, নিপুণ, পরিমণি সহ বাংলা সিনেমার শীর্ঘ তারকা অভীনেতা-অভীনেত্রী সহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট[১৪২] সকলের সমন্বয় অংশগ্রহনের মাধ্যমে সাংস্কৃতী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে।[১৪৩] [১৪৪]

এছাড়া তার জন্মও মৃত্যু দিবসে বাংলাদেশের স্যাটেলাইট চ্যানেলগুলো স্মৃতিচারণমূলক বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে[১৪৫]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. মান্নার মৃত্যু সংবাদ আন্তর্জাতিক সংবাদ সমূহের উল্লেখযোগ্য সূত্রসমূহ।[১১৩][১১৪][১১৫][১১৬][১১৭]
  2. মান্নার মৃত্যু অবহেলার অভিযোগ মামলার সংবাদ সমূহের উল্লেখযোগ্য সূত্রসমূহ।[১১৮][১১৯][১২০][১২১]
  3. মান্নাকে সম্বোধিত উপাধি সমূহের উল্লেখযোগ্য সূত্রসমূহ।[১২৬][১২৭][১২৮][১২৯][১৩০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "নায়ক মান্নার জন্মদিন নিয়ে বিভ্রান্ত ভক্তরা!"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  2. "পহেলা বৈশাখেই মান্নার জন্মদিন : শেলী মান্না"আমাদের সময়.কম - AmaderShomoy.com। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  3. "মান্না ভাই"সমকাল 
  4. "ঢালিউড যুবরাজ"। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০২০ 
  5. "মেগাস্টার মান্না" 
  6. "আজ মহানায়ক মান্নার সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী"www.bd24live.com 
  7. "চলচ্চিত্রে মান্নার স্ত্রী"। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  8. "মান্নার স্ত্রীকে নিয়ে রিয়াজ-ফেরদৌসের খুনসুটি!"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  9. "ছেলেকে নিয়ে খবরে বিরক্ত নায়ক মান্নার স্ত্রী শেলী"। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  10. "মান্না"। ৬ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  11. প্রতিবেদক, নিজস্ব। "আজ চলচ্চিত্রের মহানায়ক মান্নার ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী"DailyInqilabOnline 
  12. "ঢাকাই সিনেমার মেগাস্টার মান্নার জন্মদিন আজ"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০২০ 
  13. "ঢালিউড সিনেমায় দীর্ঘ সময় শীর্ষ জনপ্রিয় নায়ক রাজ রাজ্জাকের পর সুপাস্টার মান্না"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০২০ 
  14. "ফিরে এলো নায়ক মান্না"NTV Online। ২০১৫-০৪-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  15. "নায়ক মান্নার জন্মদিন আজ"আরটিভি। ১৪ এপ্রিল ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  16. "Charges in Bangladesh actor death"বিবিসি। ১৯ অক্টোবর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৫ 
  17. "মান্নার পাশেই মা হাসিনা ইসলামের শেষ ঠিকানা"NTV Online। ২০১৯-০২-০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  18. "জন্মস্থানে নীরবে চলে গেল নায়ক মান্নার মৃত্যুবার্ষিকী, ভক্তদের ক্ষোভ"বাংলাদেশ প্রতিদিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  19. "মান্না জনপ্রিয় যেসব মাপকাঠিতে"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  20. বিশ্বাস, দিবাকর (২০১৮-০২-১৮)। "সাধারণ মানুষের অসাধারণ নায়ক"অলি গলি। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  21. "মান্নার স্ত্রী, পুত্রের উপস্থিতিতে 'জ্যাম' ছবির মহরত"চ্যানেল আই অনলাইন। ২০১৮-০৭-২৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  22. "চলচ্চিত্রে নামছেন নায়ক মান্নার স্ত্রী"NTV Online। ২০১৮-০৭-১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  23. "সিনেমায় আসছেন মান্না পুত্র সিয়াম"Somoynews.TV। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  24. "মায়ের ইচ্ছাতেই সিনেমায় আসছেন মান্নাপুত্র সিয়াম"চ্যানেল আই অনলাইন। ২০১৭-১১-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  25. "'নতুন মুখের সন্ধানে' কার্যক্রমের বর্ণাঢ্য উদ্বোধনে তিন মন্ত্রী"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  26. "আবার শুরু হচ্ছে চলচ্চিত্রে নতুন মুখের সন্ধানে কার্যক্রম"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  27. "আসলাম যেভাবে মান্না হলেন"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  28. "মান্নাকে খুব বেশি মনে পড়ে"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  29. "Simul Parul (1998) - IMDb"। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  30. "টাঙ্গাইলের আসলাম থেকে মান্না"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  31. "আসলাম যেভাবে মান্না হলেন"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  32. "Kashem Malar Prem"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  33. "Account Suspended"www.anupamrm.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  34. "আমার চেনা মান্না ছিল সহজ সরল : চম্পা"Dhakatimes News। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  35. "এরপর মান্নার একক ছবিতে কাজ করার সুযোগ লাভ"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  36. ডেস্ক, বিনোদন। "মান্নার অবর্তমানে এক হাত পড়ে গেছে: কাজী হায়াৎ"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  37. "'অনিশ্চয়তায়' মান্নার 'দাঙ্গা'র সিক্যুয়েল নির্মাণ"Dhakatimes News। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  38. "ছবিগুলো মান্নার অবস্থান শক্তভাবে প্রতিষ্ঠিত করে"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  39. "প্রিয় মান্না স্মরণে"www.bhorerkagoj.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  40. "মান্না থাকলে এমন দিন দেখতে হতো না: কাজী হায়াৎ"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  41. "নুর হোসেন বলাই এর সিনেমা"News Tangail। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  42. "এক সময়ের সফল জুটি তারা"Daily Nayadiganta। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  43. "এক অন্যরকম অধ্যায়ের নাম মান্না"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  44. "মান্না নিজেকে প্রমাণ করতে থাকেন"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  45. "তুমি রবে নীরবে"Risingbd.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  46. "মান্নাবিহীন এক যুগ"Dhakatimes News। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  47. "চলে গেলেন নির্মাতা এনায়েত করিম"Risingbd.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  48. "সিনেমা ছেড়ে মঞ্চ নাটকে মনতাজুর রহমান আকবর - চ্যানেল আই অনলাইন"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  49. "ইস্পাহানী আরিফ জাহানের নতুন ছবি"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  50. "দেশিয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে মান্না এক অধ্যায়ের নাম"দৈনিক জনকন্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  51. "দেশিয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে নায়ক মান্না এক অধ্যায়ের নাম"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  52. "মান্না বিহনে এক যুগ"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  53. "ফিরে দেখা"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  54. "লাল বাদশা (Lal Badshah)"বাংলা মুভি ডেটাবেজ। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  55. "তুমি রবে নীরবে"Risingbd.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  56. "'নায়ক মান্নার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে নতুন ছবি আসছে'"আমাদের সময়.কম - AmaderShomoy.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  57. "মালেক আফসারী পরিচালিত মরণ কামড়"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  58. "৭১ বছরে চলচ্চিত্র নির্মাতা ছটকু আহমেদ"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  59. "দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত 'বীর সৈনিক' ২০০৩ সালের মুক্তিপ্রাপ্ত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ছবি"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  60. "National film awards for 2002 and 2003 declared"archive.thedailystar.net। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  61. "'মান্না সেদিন জড়িয়ে ধরে কেঁদেছিলেন'"Risingbd.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  62. "চলে গেলেন চলচ্চিত্র-নির্মাতা জিল্লুর রহমান"www.prothom-alo.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  63. "কাজী হায়াৎ সিনেমা কষ্ট"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  64. "সিনেমা ছেড়ে ব্যবসায় নামছেন মালেক আফসারী"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  65. "http://www.mzamin.com/article.php?mzamin=8482"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০  |title= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  66. "জন্মদিনে শাবনূরের সেরা ১০ (দেখুন ছবিতে)"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  67. "বৈশাখী টেলিভিশনে ৭ দিনব্যাপী ঈদের আয়োজন"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  68. "ইস্পাহানী আরিফ জাহানের নতুন ছবি"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  69. "'মান্নার মৃত্যুর পর সিনেমার বাজার খারাপ হয়েছে'"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  70. "পরিচালনায় অর্ধশতক | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  71. "৪১তম সিনেমায় জুটি বাঁধলেন ওমর সানী-মৌসুমী"www.bhorerkagoj.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  72. "সালমান শাহ্, মান্না থেকে শাকিব খান – এরপর কে ???"আনন্দ ভূবন ম্যাগাজিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  73. বাংলাদেশ, আজকের (১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯)। "মহা নায়ক মান্নার ১১ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ | Ajker Bangladesh"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  74. "জেনে নিন নায়ক মান্না সম্পর্কে অজানা ১৩ তথ্য"ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  75. "ঢাকাই সিনেমার তুমুল জনপ্রিয় নায়ক মান্না"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 
  76. "ঢাকাই সিনেমার যুবরাজ মান্নার জন্মদিন আজ"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 
  77. "মৃত্যুদিনে নায়ক মান্না সম্পর্কে ১৩ তথ্য"BD Times365 (bn=Bangla ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 
  78. "ঢাকাই সিনেমার যুবরাজ মান্নার জন্মদিন আজ"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 
  79. "৬১ জন নায়িকার নায়ক হয়েছেন তিনি মান্না"Binodon69.com। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 
  80. "মান্নার রেকর্ডসমূহ"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  81. "নেই তবু আজও স্মরণীয় - Jugantor"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  82. "মান্নার ঝুলিতে পুরস্কার সমূহ"বৈশাখী টেলিভিশন। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮। 
  83. "ফিরে দেখা"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  84. "মান্না উৎসব 'মানুষের অন্তরে বেঁধেছিলে ঘর'"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  85. "টাঙ্গাইলের আসলাম থেকে মান্না"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  86. "নিজস্ব একটা স্টাইল দাঁড় করিয়েছিলেন মান্না"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  87. "মান্না থাকলে এমন দিন দেখতে হতো না: কাজী হায়াৎ"bdlive24.com। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  88. "মান্না জনপ্রিয় যেসব মাপকাঠিতে"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  89. "শুধু অভিনয় নয় প্রযোজক হিসেবেও সফল ছিলেন মান্না"Channel 24 (bn=Bangla ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ মে ২০২০ 
  90. "মান্নার কৃতাঞ্জলী চলচ্চিত্র"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০২০ 
  91. "কৃতাঞ্জলী চলচ্চিত্র"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০২০ 
  92. "কিং ব দ ন্তী : সুপার স্টার মান্না"দৈনিক আমার দেশ। ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৫ 
  93. "মান্না পাইরেসির বিরুদ্ধে জীবন বাজি রেখেছিল"News। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 
  94. "সিনেমার পাইরেসি রোধে সামনে থেকে দিয়েছিলেন নেতৃত্ব"Channel 24 (bn=Bangla ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ মে ২০২০ 
  95. "মান্না থাকলে এমনটা হতো না-কাজী হায়াৎ"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  96. "অশ্লীল ছবির বিরুদ্ধে একাই যুদ্ধ চালিয়ে যান মান্না"www.deshebideshe.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  97. "Manna Bhai [the deceased superstar Manna] alone fought against these problems-Shakib Khan"New Age | The Most Popular Outspoken English Daily in Bangladesh। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  98. "অশ্লীলতার আগ্রাসন সৃষ্টি এবং বন্ধে মান্না'র ভূমিকা | Deshebideshe"www.deshebideshe.com। সংগ্রহের তারিখ ২ মে ২০২০ 
  99. "অশ্লীলতার বিরুদ্ধে রিতিমত যুদ্ধ করে জয়ী হয়েছিলেন মান্না"risingbd News। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২০ 
  100. "মান্না গুণী শিল্পীদের চলচ্চিত্রে ফিরিয়ে এনেছিলেন"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  101. "প্রিয় মান্না"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  102. "চরম দুর্দিনে চলচ্চিত্রের এক্সট্রা শিল্পীরা"প্রিয়.কম। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  103. "চরম দুর্দিনে চলচ্চিত্রের এক্সট্রা শিল্পীরা"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  104. "এফডিসিতে কষ্টে আছেন পার্শ্বচরিত্রের শিল্পীরা"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  105. "মান্না বেঁচে থাকাকালীন খোঁজ খবর নিতেন"চ্যানেল আই। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০২০ 
  106. "মান্না ছিলেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক"Dhakatimes News। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০২০ 
  107. "মান্না মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০২০ 
  108. "Film actor Manna passes away"The Daily Star। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০২০ 
  109. "Thirty hurt mourning Bangladesh film hero"Reuters। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০২০ 
  110. "মান্না জনপ্রিয় যেসব মাপকাঠিতে"প্রথম আলো 
  111. "Many injured as Manna fans clash with cops"The Daily Star। ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০২০ 
  112. "মান্না চলে যাওয়ার ১ যুগ"চ্যানেল আই অনলাইন। ২০২০-০২-১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১০ 
  113. "Charges in Bangladesh actor death"। ১৯ অক্টোবর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  114. "Thirty hurt mourning Bangladesh film hero"Reuters। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  115. "Bangladesh film star Manna dies"DAWN.COM। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  116. "Leading Bangladeshi film actor dead"Hindustan Times। ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  117. "Six medics charged over the death of Bangla top star"Zee News। ১৮ অক্টোবর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  118. "অবহেলায় নায়ক মান্নার মৃত্যু: মামলায় সময়ক্ষেপণ"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  119. "মান্নার মৃত্যু মামলায় জামিন পেলেন ৬ চিকিৎসক"bangla.bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  120. "ভুল চিকিৎসায় প্রাণনাশ!"www.bhorerkagoj.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  121. "PressReader.com - Your favorite newspapers and magazines."www.pressreader.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  122. "'ম্যানলি হিরো'র সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ"www.bhorerkagoj.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  123. "ঢাকাই সিনেমার যুবরাজ মান্নার জন্মদিন আজ"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  124. "আজ চলচ্চিত্রের মহানায়ক মান্নার ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  125. "ঢাকাই সিনেমার মেগাস্টার মান্নার জন্মদিন আজ"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  126. "'ম্যানলি হিরো'র সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ"www.bhorerkagoj.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  127. "আজ চলচ্চিত্রের মহানায়ক মান্নার ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  128. "ঢাকাই সিনেমার মেগাস্টার মান্নার জন্মদিন আজ"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  129. "ঢালিউড যুবরাজ"। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  130. "আজ মহানায়ক মান্নার সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী"www.bd24live.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 
  131. "মান্না থাকলে এমন দিন দেখতে হতো না: কাজী হায়াৎ"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  132. "মান্না বেঁচে থাকলে চলচ্চিত্রের এ অবস্থা হয়তো দেখতে হতো না"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  133. "মান্না থাকলে এমন দিন দেখতে হতো না: কাজী হায়াৎ"bdlive24.com 
  134. "মান্না ছিল চলচ্চিত্রের একটি শক্তিশালী হাতিয়ার"। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  135. "মান্না বেঁচে থাকলে তোমরা এমন আকাম করতে পারতে না : মালেক আফসারী | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  136. "মান্নার স্মৃতিচারণ করেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী, নায়ক অমিত হাসান ও খল অভিনেতা মিশা সওদাগর"। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  137. "আগরতলা চলচ্চিত্র উৎসবে জায়েদ-পরীর 'অন্তর জ্বালা'"somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  138. "মান্নার স্মরণে তার এক ভক্তের কাহিনী নিয়ে নির্মিত অন্তর জ্বালা"। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  139. "আগরতলায় জায়েদ-পরী"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  140. "শতাধিক হলে জায়েদ-পরীর 'অন্তর জ্বালা'"Bangladesh Journal Online। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  141. "মার্চে মান্না উৎসব"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  142. "মান্না উৎসব ২০১৬: ড্রিমস অব মান্না | banglatribune.com"Bangla Tribune। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  143. "মান্নাকে স্মরণ করলেন তারকারা"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২০ 
  144. "শিশু একাডেমিতে মান্না উৎসব"প্রথম আলো 
  145. "Manna Film Festival on RTV underway | The Asian Age Online, Bangladesh"The Asian Age। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]