সুবোধ চৌধুরী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সুবোধ চৌধুরী
জন্ম১৯১৪
মৃত্যু২৬ আগস্ট, ১৯৭০
আন্দোলনব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলন

সুবোধ চৌধুরী (১৯১৪ - ২৬ আগস্ট, ১৯৭০) ছিলেন ভারতীয় উপমহাদেশের ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন ব্যক্তিত্ব ও অগ্নিযুগের বিপ্লবী।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

তার জন্ম ১৯১৪ সালে বর্ধমান জেলার কাটোয়া থানার অগ্রদ্বীপে। কাটোয়া কাশিরাম দাস বিদ্যায়তনের আবাসিক ছাত্র হিসাবে সেভেনথ ক্লাসে ভর্তি হন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চণ্ডীদাস মজুমদারের প্রভাবে তার মধ্যে স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষা সঞ্চারিত হয়। ১৯২৫ সালের পর সুবোধ চৌধুরী চলে যান চট্টগ্রামে মামা নগেন্দ্রনাথ সর্বাধিকারীর কাছে এবং ভর্তি হন চট্টগ্রাম শহরতলী হাইস্কুলে। সেখানে ম্যাট্রিকুলেশন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন এবং চট্টগ্রাম কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে আই.এসসি-তে ভর্তি হন।

চট্টগ্রাম বিদ্রোহে[সম্পাদনা]

চট্টগ্রাম কলেজ পড়ার সময় বিপ্লবী মাস্টারদা সূর্যসেনগণেশ ঘোষের সঙ্গে পরিচয় হয়। মাস্টারদার অনুপ্রেরনায় ‘ইন্ডিয়ান রিপাবলিকান আর্মি’র অন্যতম সদস্য হয়ে চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার আক্রমণে জড়িয়ে পড়েন। এবং পুলিসের হাতে ধরা পড়ে তার যাবজ্জীবন দ্বীপান্তরদণ্ড হয়।[১]

জেল জীবন[সম্পাদনা]

ষোল বছর তিনি জেলজীবন যাপন করেছিলেন। আন্দামানে সেলুলার জেলে ছিলেন। জেলে এবং মূল ভূখণ্ডে আন্দোলনের ফলে গণেশ ঘোষ, অনন্ত সিংহ প্রমুখের সঙ্গে সুবোধ চৌধুরীকেও ১৯৩৮ সালে আলিপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে ফিরিয়ে আনা হয়। শেষে ঢাকা সেন্ট্রাল জেল থেকে মুক্তি পান ১৯৪৬ সালের ৩১শে আগস্ট।।

সংসদীয় রাজনীতি[সম্পাদনা]

জেল থেকে মুক্তি পেয়েই বর্ধমান জেলা কমিটির সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭০ পর্যন্ত এই দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৪৯ থেকে আমৃত্যু তিনি পার্টির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সদস্য ছিলেন। ১৯৫২ সালের প্রথম সাধারণ নির্বাচনে তিনি আত্মগোপন অবস্থায় কাটোয়া কেন্দ্র থেকে বিধানসভায় নির্বাচিত হন। ১৯৫৭ সালে নির্বাচনে পরাজিত হলেও ১৯৬২ ও ১৯৬৭-এর নির্বাচনে পুনরায় বিধায়ক হন। ১৯৭০ সালে কুখ্যাত 'সাইবাড়ির হত্যাকান্ড মামলা'য় তাকে অন্যতম প্রধান আসামি হিসাবে জড়ান হয়, ফলে তাকে আত্মগোপন করে থাকতে হয়। আত্মগোপন করা অবস্থায় বিহারের পাটনার নিকট পার্বলপুরে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী (ঢাকা বইমেলা ২০০৪)। জেলে ত্রিশ বছর, পাক-ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রাম। ঢাকা: ধ্রুপদ সাহিত্যাঙ্গন। পৃষ্ঠা ১৭৮।  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  2. সুবোধ সেনগুপব ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, নভেম্বর ২০১৩, পৃষ্ঠা ৮০৫, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬