দিল্লী-লাহোর ষড়যন্ত্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লর্ড হার্ডিঞ্জকে হত্যা চেষ্টার একটি অঙ্কিত চিত্র

দিল্লী ষড়যন্ত্র মামলা যা দিল্লী-লাহোর ষড়যন্ত্র হিসেবে ও পরিচিত, যা ১৯১২ সালে ব্রিটিশ ভারতের রাজধানী কলকাতা থেকে নয়া দিল্লীতে স্থানান্তর করার অনুষ্ঠানে ভারতের ভাইসরয় লর্ড হার্ডিঞ্জকে হত্যা করার ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল।

লর্ড হার্ডিঞ্জের উপর আক্রমণ ও বিচারে ফাঁসি[সম্পাদনা]

বড়লাট লর্ড হার্ডিঞ্জের উপর আক্রমনের নেতা ছিলেন রাসবিহারী বসুবসন্ত বিশ্বাস বোমা নিক্ষেপ করে সুকৌশলে পলায়ন করতে পেরেছিলেন।[১] এই মামলায় বিচারে ভাই বালমুকুন্দ ছাড়াও অপর তিনজন আমীরচাঁদ, অবোধবিহারী ও বসন্ত বিশ্বাসের ফাঁসির আদেশ কার্যকর করা হয় ১৯১৫ সালের ১১ মে আমবালা জেলের ভেতর।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী, জেলে ত্রিশ বছর, পাক-ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রাম, ধ্রুপদ সাহিত্যাঙ্গন, ঢাকা, ঢাকা বইমেলা ২০০৪, পৃষ্ঠা ১৭৯।
  2. শৈলেশ দে, মৃত্যুর চেয়ে বড়, বিশ্ববাণী প্রকাশনী, কলিকাতা, প্রথম (বি) সংস্করণ, অগ্রহায়ণ ১৩৯২, পৃষ্ঠা ৯৪।