বিজু ফুকন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিজু ফুকন
জন্ম
বিজয় ফুকন

১৯৪৭ সাল
পেশাঅভিনেতা, চলচ্চিত্র পরিচালক
যে জন্য পরিচিতঅসমীয়া চলচ্চিত্র জগতের তারকা অভিনেতা
উল্লেখযোগ্য কর্ম
বোয়ারী
দাম্পত্য সঙ্গীরাজশ্রী ফুকন
সন্তানসংঘমিত্রা ফুকন, অংশুমন ফুকন
আত্মীয়রেবা ফুকন

বিজু ফুকন (ইংরেজি: Biju Phukan; অসমীয়া: বিজু ফুকন) অসমের চলচ্চিত্র জগতের খ্যাতনামা অভিনেতা। তিনি চলচ্চিত্র পরিচালক রূপেও বিখ্যাত। তিনি বিখ্যাত অসমীয়া চলচ্চিত্র 'ডঃ বেজবুয়া' য় ছোট চরিত্রে অভিনয় করেন। তারপর তিনি 'বরুয়ার সংসার' নামক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন ও পরবর্তী সময়ে অসমীয়া চলচ্চিত্র জগতের জনপ্রিয় অভিনেতা রূপে আত্মপ্রকাশ করেন। তিনি অভিনয় করা 'আজলী নবৌ', 'বোয়ারী' ইত্যাদি সর্বকালের সফল চলচ্চিত্র হিসেবে পরিগণিত হয়েছে।

জন্ম ও পরিবার[সম্পাদনা]

১৯৪৭ সালে অসমের ডিব্রুগড় জেলায় বিজু ফুকনের জন্ম হয়।[১] তাঁর জন্মগত নাম বিজয় ফুকন। চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করার সময় তিনি তাঁর পরিচয় গৃহের ডাকনাম বিজু নামে দেন।[১] তাঁর পিতার নাম অতুল চন্দ্র ফুকন।[২] তিনি সামরিক বিষয়ে দক্ষ ছিলেন।[১]

সাংস্কৃতিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯৭০ সনে তিনি ব্রজেন বরুয়া পরিচালিত ডঃ বেজবরুয়া নামক চলচ্চিত্রের একটি গানের দৃশ্যে অভিনয় করেন। উক্ত বছরে নিপন বরুয়া পরিচালিত 'বরুয়ার সংসার' নামক চলচ্চিত্রে মুখ্য অভিনেতা রূপে অভিনয় করেন।[১][৩] তারপর তিনি বিভিন্ন অসমীয়া চলচ্চিত্রে অভিনয় করে নিজেকে তারকা অভিনেতা রূপে প্রকাশ করেন। ৭০-৮০র দশকে তিনি ৪০টির অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। জাহ্নু বরুয়াভবেন্দ্রনাথ শইকীয়ার চলচ্চিত্র ছাড়াও তিনি অসমের ভ্রাম্যমাণ থিয়েটারে অভিনয় করেছেন।[৩] অসমীয়া ভাষার চলচ্চিত্র ছাড়াও তিনি বাংলা ভাষার 'হোটেল শ্নো ফক্স' ও 'গজমুক্তা' চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।[৩]। দূরদর্শনের বিভিন্ন ধারাবাহিক ও টেলী-ফিল্মে তিনি অভিনয় করেছেন। ৮০র দশকে তিনি চলচ্চিত্র পরিচালনায় মনোনিবেশ করেন। তাঁর পরিচালিত 'ভাই-ভাই' চলচ্চিত্র ব্যবসায়িক সফল চলচ্চিত্র রূপে পরিগণিত হয়। কিন্তু তাঁর পরিচালিত শিশু চলচ্চিত্র 'অতিক্রম' অদ্যপি মুক্তিপ্রাপ্ত হয় নাই।[১]। ভবেন্দ্রনাথ শইকীয়া রচিত একটি গল্পের আধারে তিনি গুয়াহাটি দূরদর্শন কেন্দ্রে দেউতা নামক ধারাবাহিক পরিচালনা করেছিলেন।[১] তিনি ঘাটক নামক ভিডিও চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেছিলেন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৯ সনে তিনি অসম লোকসভার নির্বাচনে অসম গণ পরিষদের প্রার্থী রূপে ডিব্রুগড় লোকসভা সমষ্টি থেকে প্রতিদ্বন্দিতা করেছিলেন। কিন্তু নির্বাচনে তিনি পরাজিত হন।[৪]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

বর্তমান গুয়াহাটির আর.জি.বরুয়া রোডে বিজু ফুকন বসবাস করেন। তাঁর পত্নী রাজশ্রী ফুকন একজন সফল চলচ্চিত্র প্রযোজিকা ও পুত্রী সংঘমিত্রা ফুকন(রিশা) একজন ফেশন ডিজাইনার ও মডেল।[৫] সংঘমিত্রা ফুকন ২০১১ সনে রিবক কম্পানীর ব্র্যাণ্ড এম্বেসেডর ছিলেন।[৫] তিনি বর্তমান ইউনাইটেড কালারস্‌ অফ বেনিটন কম্পানীর ব্র্যাণ্ড এম্বেসেডর।[৬][৭]

অভিনীত চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

অসমীয়া[সম্পাদনা]

বাংলা চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

  • হোটেল শ্নো ফক্স
  • অপরাজিত
  • দস্যু রত্নাকর
  • গজমুক্তা

অভিনীত নাটক[সম্পাদনা]

  • কেপ্টেইন গগৈ
  • ফল্গু
  • হিয়া ধুয়াই নিলে

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Fifty Five Not Out: Biju Phukan | Assam Portal"। Assam.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-২৪ 
  2. "Biju Phukan"। Rupaliparda.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-২৪ 
  3. "History of Assamese Cinema"। Rupaliparda.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-২৪ 
  4. "Dibrugarh constituency, Assam, indian elections, indian elections 1999, forthcoming indian elections, elections in india"। Indian-elections.com। ২০১১-০১-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-২৪ 
  5. TI Trade। "Assam Tribune online"। Assamtribune.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-২৪ 
  6. "This way runway"। Thiswayrunway.tumblr.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-২৪ 
  7. "Stories from London... let's meet Sanghamitra! | United Blogs of Benetton"। Blog.benetton.com। ২০১২-০৭-২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-২৪