জয়ন্ত তালুকদার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
জয়ন্ত তালুকদার
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম ২ মার্চ, ১৯৮৬
গুয়াহাটি
নিয়োগকারী টাটা ষ্টীল
ক্রীড়া
দেশ ভারত
ক্রীড়া আর্চেরী
কোচ লিম্বা রাম
সাফল্য ও খেতাব
সর্বোচ্চ বিশ্ব স্থান
12 জুন 2012তে হালনাগাদ

জয়ন্ত তালুকদার (অসমীয়া: জয়ন্ত তালুকদাৰ) একজন ভারতীয় তীরন্দাজ ইংরেজিতে আর্চারী। ২০১২ সনের লন্ডন অলিম্পিকে তিনি ছিলেন একমাত্র নির্বাচিত ভারতীয় পুরুষ তীরন্দাজ । [১]

জন্ম[সম্পাদনা]

১৯৮৬ সনের ২মার্চ তারিখে অসমের গুয়াহাটি মহানগরে জয়ন্ত তালুকদারের জন্ম হয়। তাঁর পিতার নাম রঞ্জন তালুকদার।[২] তিনি মাতা-পিতার কনিষ্ঠতম সন্তান। [৩]

খেলোয়াড় জীবন[সম্পাদনা]

আর্চেরী জগতে প্রবেশ[সম্পাদনা]

গুয়াহাটিতে অনুষ্ঠিত এক প্রতিভা সন্ধানী পরীক্ষায় জয়ন্ত তালুকদার নিজের প্রতিভা ও যোগ্যতার প্রমান দেওয়ার পর তিনি প্রশিক্ষণ শিবিরে আমন্ত্রন পান। এর পূর্বে তিনি ক্রিয়াবিধের সঙ্গে পরিচিত ছিলেননা। এই সুবিধা লাভ করে ২০০০সনে ১৪ বৎসরের জয়ন্ত তালুকদার জামসেদপুরের টাটা আর্সেরী একাডেমীতে যোগদান করেন। সেখানে ভারতের বিভিন্ন স্থান থেকে যোগদান করা ৫০জন প্রশিক্ষার্থীর মধ্যে তিনি শীর্ষস্থান অর্জন করেন। তার কিছুদিন পর তিনি রাষ্ট্রীয় জুনিয়র আর্চেরী দলে স্থান লাভ করেন।

রাষ্ট্রীয় আর্চেরী[সম্পাদনা]

২০০৫ সনে পঞ্চবিংশতিতম সিনয়র রাষ্ট্রীয় চেম্পিয়নশিপে ১৮ বৎসরের জয়ন্ত তালুকদার সকল শীর্ষস্থানীয় খেলোয়াড়দের পরাস্ত করে। ও সিনিয়র রাষ্ট্রীয় খিতাপ অর্জন এবং রাষ্ট্রীয় রেংকিঙ-এ শীর্ষস্থান লাভ করে।

আন্তঃরাষ্ট্রীয় আর্চেরী[সম্পাদনা]

আন্তঃরাষ্ট্রীয় আর্চেরীতে তিনি প্রথম আত্মপ্রকাশ করেন ২০০৩ সনের য়েংগনে অনুষ্ঠিত এশিয়ান চেম্পিয়ানশিপে। ২০০৪ সনে জুনিয়র বিশ্ব আর্চেরী চেম্পিয়ানশ্বিপে ভারতীয় দল রুপক পদক লাভ করে। তিনি ভারতীয় দলের মধ্যে সার্বাধিক স্কোর অর্জন করে ও বিশ্ব আর্চেরী চেম্পিয়ানশ্বিপে এই প্রথমবার ভারতীয় দল পদক লাভ করে। তাঁর ক্রীড়াজীবনের উচ্চতম সাফল্য হচ্ছে ২০০৬ ও ২০০৯ সনে ক্রয়েসিয়ার পরেক শহরে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে লাভ করা স্বর্ণপদক। এই প্রতিযোগীতায় স্বর্ণপদক লাভ করা তিনিই প্রথম ভারতীয় তীরন্দাজ বা ধনুর্বিদ।

সন্মান[সম্পাদনা]

জয়ন্ত তালুকদারের সফলতাকে স্বীকৃতি দিয়ে ভারত সরকার ২০০৭ সনের ২৯ আগষ্ট তারিখে তাঁকে অর্জুন পুরষ্কার প্রদান করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]