২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ
স্পেনের মাদ্রিদের ওয়ান্দা মেত্রপলিতানোয় এই আসরের ফাইনাল অনুস্থিত হবে
টুর্নামেন্টের বিবরণ
তারিখসমূহবাছাইপর্ব:
২৬ জুন – ২৯ আগস্ট ২০১৮
চূড়ান্ত পর্ব:
১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ – ১ জুন ২০১৯
দলসমূহচূড়ান্ত পর্ব: ৩২
মোট: ৭৯ (৫৪টি এসোসিয়েশন থেকে)
প্রতিযোগিতার পরিসংখ্যান
ম্যাচ খেলেছে৮০
গোল সংখ্যা২৩৩ (ম্যাচ প্রতি ২.৯১টি)
উপস্থিতি২৯,৬৭,৬৩৮ (ম্যাচ প্রতি ৩৭,০৯৫ জন)
শীর্ষ গোলদাতাপোল্যান্ড রবার্ত লেভানদোস্কি
আর্জেন্টিনা লিওনেল মেসি
(প্রত্যেকে ৬ গোল করে)
সর্বশেষ হালনাগাদ: ৭ নভেম্বর ২০১৮

২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ হলো উয়েফা কর্তৃক আয়োজিত ইউরোপীয় দলগুলোর ফুটবল প্রতিযোগিতার ৬৪তম আসর এবং ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নস ক্লাব হতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগে নাম পরিবর্তন করার পর ২৭তম আসর।

২০১৯ সালের ১লা জুন তারিখে, স্পেনের মাদ্রিদের ওয়ান্দা মেত্রপলিতানোয় এই আসরের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।[১] এই আসরের বিজয়ী দল উয়েফার প্রতিনিধি হিসেবে ২০১৯ ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের জন্য উন্নীত হবে এবং ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের বিজয়ী দলের বিরুদ্ধে ২০১৯ উয়েফা সুপার কাপে লড়বে। একই সাথে ২০১৯–২০ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের জন্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে উত্তীর্ণ হবে, যদি এই দল লীগের খেলার মাদ্ধমে সরাসরি উত্তীর্ণ হয় তবে তাদের জন্য সংরক্ষিত আসনটি ২০১৮–১৯ অস্ট্রিয়ান বুন্দেসলিগা বিজয়ী দলকে দিয়ে দেওয়া হবে।[২]

রিয়াল মাদ্রিদ হচ্ছে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের ইতিহাসে রেকর্ড টানা ৩ বারের এবং বর্তমান চ্যাম্পিয়ন।[৩]

বিন্যাস পরিবর্তন[সম্পাদনা]

২০১৬ সালে ৯ই ডিসেম্বর তারিখে, উয়েফা ২০১৮–২০২১ পর্যন্ত উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের জন্য নতুন বিন্যাস ঘোষণা করে, যেটি ২০১৬ সালের ২৬শে আগস্ট তারিখে ঘোষণা করা হয়।[৪][৫] নতুন নিয়ম অনুসারে, পূর্ববর্তী মৌসুমের উয়েফা ইউরোপা লীগ বিজয়ী দল স্বয়ংক্রিয়ভাবে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের গ্রুপ পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হবে (পূর্বে উয়েফা ইউরোপা লীগ বিজয়ী দল প্লে-অফ রাউন্ডের জন্য উত্তীর্ণ হতে পারত, কিন্তু সেই দলটি গ্রুপ পর্বের জন্য তখনই উত্তীর্ণ হতে পারত যখন উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ বিজয়ী দলের স্থানটি শূন্য হয়ে যেত; যদিও উক্ত নিয়মের অধীনে হওয়া তিন মৌসুমেই উয়েফা ইউরোপা লীগ বিজয়ী দল গ্রুপ পর্বে উত্তীর্ণ হয়েছিল।)। উয়েফা দেশ গুণাঙ্ক অনুযায়ী শীর্ষ ৪ জাতীয় এসোসিয়েশনের লিগের শীর্ষ ৪ দল স্বয়ংক্রিয়ভাবে গ্রুপ পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।[৪] বাছাইপর্বের মাধ্যমে মাত্র ছয়টি দল গ্রুপ পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হবে (যেখানে পূর্বে দশটি দল উত্তীর্ণ হত)।[৬]

এসোসিয়েশন দল বণ্টন[সম্পাদনা]

উয়েফার ৫৫টি সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ৫৪টি রাষ্ট্রের সর্বমোট ৭৯টি দল ২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগে অংশগ্রহণ করবে (শুধু লিশটেনস্টাইন এর ব্যতিক্রম, কারণ তারা কোনো ঘরোয়া লীগ আয়োজন করে না)।[৪] উয়েফা দেশ গুণাঙ্ক নিয়ম অনুযায়ী উয়েফার এসোসিয়েশন র‍্যাঙ্কিং করা হয়, যার মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতায় প্রত্যেক এসোসিয়েশন হতে কতটি দল অংশগ্রহণ করবে তা নির্ধারণ করা হয়েছে:[৬][৭]

  • এসোসিয়েশন ১–৪ হতে ৪টি করে দল খেলার যোগ্যতা লাভ করবে।
  • এসোসিয়েশন ৫–৬হতে ৩টি করে দল খেলার যোগ্যতা লাভ করবে।
  • এসোসিয়েশন ৭–১৫ হতে ২টি করে দল খেলার যোগ্যতা লাভ করবে।
  • এসোসিয়েশন ১৬–৫৫ (ব্যতিক্রম লিশটেনস্টাইন) হতে ১টি করে দল খেলার যোগ্যতা লাভ করবে।
  • ২০১৭–১৮ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ এবং ২০১৭–১৮ উয়েফা ইউরোপা লীগের বিজয়ীদের এই আসরে খেলার একটি অতিরিক্ত প্রবেশাধিকার রয়েছে, যার মাধ্যমে তারা যদি তাদের ঘরোয়া লীগের মাধ্যমে ২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগে খেলার যোগ্যতা অর্জন না করেও এই আসরে খেলতে পারবে। কারণ একটি এসোসিয়েশন হতে সর্বোচ্চ ৫টি দল চ্যাম্পিয়নস লীগে খেলতে পারে, যদি চ্যাম্পিয়নস লীগের বিজয়ী এবং ইউরোপা লীগের বিজয়ী উভয়ই উয়েফার শীর্ষ ৩ সদস্য রাষ্ট্রের যেকোনো একটির অন্তর্ভুক্ত হয় এবং তাদের নিজস্ব ঘরোয়া লীগে তারা শীর্ষ ৪-এর বাহিরে থেকে লীগ শেষ করে তবে উক্ত লীগে ৪র্থ স্থান অর্জনকারী দলটি ইউরোপা লীগে প্রবেশ করবে।

এসোসিয়েশন র‍্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের জন্য, ২০১৭ সালে উয়েফা দেশ গুণাঙ্ক অনুযায়ী প্রত্যেক সদস্য রাষ্ট্র হতে কতটি দল খেলবে তা বরাদ্দ করা হয়েছে, যেটি ২০১২–১৩ হতে ২০১৬–১৭ পর্যন্ত ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় তাদের কর্মক্ষমতার অপর ভিত্তি করে নির্ধারিত।[৮]

এই দেশ গুণাঙ্কের দল বরাদ্দ ছাড়াও, চ্যাম্পিয়নস লীগে এসোসিয়েশন হতে অতিরিক্ত দলও খেলতে পারে, নিম্নে উল্লিখিত:

  • (ইউসিএল) – ২০১৭–১৮ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ বিজয়ী দলের জন্য অতিরিক্ত স্থান।
  • (ইউইএল) – ২০১৭–১৮ উয়েফা ইউরোপা লীগ বিজয়ী দলের জন্য অতিরিক্ত স্থান।
২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের জন্য এসোসিয়েশন র‍্যাঙ্কিং
ক্রম এসোসিয়েশন গুণাঙ্ক দল
স্পেন স্পেন ১০৪.৯৯৮
জার্মানি জার্মানি ৭৯.৪৯৮
ইংল্যান্ড ইংল্যান্ড ৭৫.৯৬২
ইতালি ইতালি ৭৩.৩৩২
ফ্রান্স ফ্রান্স ৫৬.৬৬৫
রাশিয়া রাশিয়া ৫০.৫৩২
পর্তুগাল পর্তুগাল ৪৯.৩৩২
ইউক্রেন ইউক্রেন ৪২.৬৩৩
বেলজিয়াম বেলজিয়াম ৪২.৪০০
১০ তুরস্ক তুরস্ক ৩৯.২০০
১১ চেক প্রজাতন্ত্র চেক প্রজাতন্ত্র ৩৩.১৭৫
১২ সুইজারল্যান্ড সুইজারল্যান্ড ৩২.০৭৫
১৩ নেদারল্যান্ডস নেদারল্যান্ডস ৩১.০৬৩
১৪ গ্রিস গ্রিস ২৭.৯০০
১৫ অস্ট্রিয়া অস্ট্রিয়া ২৫.৩৫০
১৬ ক্রোয়েশিয়া ক্রোয়েশিয়া ২৫.২৫০
১৭ রোমানিয়া রোমানিয়া ২৪.৩৫০
১৮ ডেনমার্ক ডেনমার্ক ২৪.০০০
১৯ বেলারুশ বেলারুশ ১৯.৮৭৫
ক্রম এসোসিয়েশন গুণাঙ্ক দল
২০ পোল্যান্ড পোল্যান্ড ১৯.৭৫০
২১ সুইডেন সুইডেন ১৯.৭২৫
২২ ইসরায়েল ইসরায়েল ১৯.৩৭৫
২৩ স্কটল্যান্ড স্কটল্যান্ড ১৮.৯২৫
২৪ সাইপ্রাস সাইপ্রাস ১৮.৫৫০
২৫ নরওয়ে নরওয়ে ১৮.৩২৫
২৬ আজারবাইজান আজারবাইজান ১৭.৭৫০
২৭ বুলগেরিয়া বুলগেরিয়া ১৫.৮৭৫
২৮ সার্বিয়া সার্বিয়া ১৫.৩৭৫
২৯ কাজাখস্তান কাজাখস্তান ১৫.২৫০
৩০ স্লোভেনিয়া স্লোভেনিয়া ১৩.১২৫
৩১ স্লোভাকিয়া স্লোভাকিয়া ১১.৭৫০
৩২ লিশটেনস্টাইন লিশটেনস্টাইন ১১.০০০
৩৩ হাঙ্গেরি হাঙ্গেরি ৯.৫০০
৩৪ মলদোভা মোল্দোভা ৯.৫০০
৩৫ আইসল্যান্ড আইসল্যান্ড ৮.৩৭৫
৩৬ ফিনল্যান্ড ফিনল্যান্ড ৭.৬৫০
৩৭ আলবেনিয়া আলবেনিয়া ৬.৬২৫
ক্রম এসোসিয়েশন গুণাঙ্ক দল
৩৮ প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ড আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্র ৬.৫৭৫
৩৯ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ৬.৫০০
৪০ জর্জিয়া (রাষ্ট্র) জর্জিয়া ৬.৩৭৫
৪১ লাতভিয়া লাটভিয়া ৬.১২৫
৪২ ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র ম্যাসেডোনিয়া ৫.৬২৫
৪৩ এস্তোনিয়া এস্তোনিয়া ৫.২৫০
৪৪ মন্টিনিগ্রো মন্টিনিগ্রো ৫.২৫০
৪৫ আর্মেনিয়া আর্মেনিয়া ৫.১২৫
৪৬ লুক্সেমবুর্গ লুক্সেমবুর্গ ৪.৮৭৫
৪৭ উত্তর আয়ারল্যান্ড উত্তর আয়ারল্যান্ড ৪.৫০০
৪৮ লিথুয়ানিয়া লিথুনিয়া ৪.১২৫
৪৯ মাল্টা মালটা ৪.০০০
৫০ ওয়েল্‌স্‌ ওয়েলস ৩.৮৭৫
৫১ ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ ফারো দ্বীপপুঞ্জ ৩.৫০০
৫২ জিব্রাল্টার জিব্রালটার ২.৫০০
৫৩ অ্যান্ডোরা অ্যান্ডোরা ১.১৬৫
৫৪ সান মারিনো সান মারিনো ০.৩৩৩
৫৫ কসোভো কসোভো ০.০০০

বিন্যাস[সম্পাদনা]

সাধারণ প্রবেশ তালিকায়, চ্যাম্পিয়নস লীগ শিরোপাধারী দল গ্রুপ পর্বে প্রবেশ করবে।[৯][৬] যাহোক, যেহেতু রিয়াল মাদ্রিদ ইতোমধ্যেই গ্রুপ পর্বে খেলার জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছে (২০১৭–১৮ লা লিগায় ৩য় স্থান অর্জনকারী হিসেবে), তাই নিম্নে উল্লেখিত কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে:[১০]

  • এসোসিয়েশন ১১-এর (চেক প্রজাতন্ত্র) বিজয়ী দল প্লে-অফ রাউন্ডে খেলার পরিবর্তে সরাসরি গ্রুপ পর্বে প্রবেশ করেছে।
  • এসোসিয়েশন ১৩-এর (নেদারল্যান্ডস) বিজয়ী দল তৃতীয় বাছাইপর্বে খেলার পরিবর্তে সরাসরি প্লে-অফ রাউন্ডে প্রবেশ করেছে।
  • এসোসিয়েশন ১৫-এর (অস্ট্রিয়া) বিজয়ী দল দ্বিতীয় বাছাইপর্বে খেলার পরিবর্তে তৃতীয় বাছাইপর্বে প্রবেশ করেছে।
  • এসোসিয়েশন ১৮ এবং ১৯-এর (ডেনমার্ক এবং বেলারুশ) বিজয়ী দল প্রথম বাছাইপর্বে খেলার পরিবর্তে দ্বিতীয় বাছাইপর্বে প্রবেশ করেছে।

এছাড়াও, ইউরোপা লীগ শিরোপাধারী দল গ্রুপ পর্বে প্রবেশ করবে।[৯] যাহোক, যেহেতু [[আতলেতিকো মাদ্রিদ] ইতোমধ্যেই গ্রুপ পর্বে খেলার জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছে (২০১৭–১৮ লা লিগা]]য় ২য় স্থান অর্জনকারী হিসেবে), তাই নিম্নে উল্লেখিত কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে:[১০]

  • এসোসিয়েশন ৫-এর (ফ্রান্স) ৩য় স্থান অর্জনকারী দল তৃতীয় বাছাইপর্বে খেলার পরিবর্তে সরাসরি গ্রুপ পর্বে প্রবেশ করেছে।
  • এসোসিয়েশন ১০ এবং ১১-এর (তুরস্ক এবং চেক প্রজাতন্ত্র) রানার-আপ দল দ্বিতীয় বাছাইপর্বে খেলার পরিবর্তে তৃতীয় বাছাইপর্বে প্রবেশ করেছে।
২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের প্রবেশাধিকার তালিকা
পর্বসমূহ যেসকল দল এই পর্বে প্রবেশ করে যেসকল দল পূর্ববর্তী পর্ব হতে প্রবেশ করে
প্রাথমিক পর্ব
(৪টি দল)
  • এসোসিয়েশন ৫২–৫৫ থেকে ৪টি চ্যাম্পিয়ন
প্রথম বাছাইপর্ব
(৩২টি দল)
  • এসোসিয়েশন ২০–৫১ থেকে ৩১টি চ্যাম্পিয়ন (ব্যতিক্রম লিশটেনস্টাইন)
  • প্রাথমিক পর্ব থেকে ১টি বিজয়ী
দ্বিতীয় বাছাইপর্ব চ্যাম্পিয়নস পথ
(২০টি দল)
  • এসোসিয়েশন ১৬–১৯ থেকে ৪টি চ্যাম্পিয়ন
  • প্রথম বাছাইপর্ব থেকে ১৬টি বিজয়ী
লীগ পথ
(৪টি দল)
  • এসোসিয়েশন ১২–১৫ থেকে ৪টি রানার-আপ
তৃতীয় বাছাইপর্ব চ্যাম্পিয়নস পথ
(১২টি দল)
  • এসোসিয়েশন ১৪–১৫ থেকে ২টি চ্যাম্পিয়ন
  • দ্বিতীয় বাছাইপর্ব (চ্যাম্পিয়নস পথ) থেকে ১০টি বিজয়ী
লীগ পথ
(৮টি দল)
  • এসোসিয়েশন ৭–১১ থেকে ৫টি রানার-আপ
  • এসোসিয়েশন ৬ থেকে ১টি ৩য় স্থান অধিকারী
  • দ্বিতীয় বাছাইপর্ব (লীগ পথ) থেকে ২টি বিজয়ী
প্লে-অফ পর্ব চ্যাম্পিয়নস পথ
(৮টি দল)
  • এসোসিয়েশন ১২–১৩ থেকে ২টি বিজয়ী
  • তৃতীয় বাছাইপর্ব (চ্যাম্পিয়নস পথ) থেকে ৬টি বিজয়ী
লীগ পথ
(৪টি দল)
  • তৃতীয় বাছাইপর্ব (লীগ পথ) থেকে ৪টি বিজয়ী
গ্রুপ পর্ব
(৩২টি দল)
  • এসোসিয়েশন ১–১১ থেকে ১১টি বিজয়ী
  • এসোসিয়েশন ১–৬ থেকে ৬টি রানার্স-আপ
  • এসোসিয়েশন ১–৫ থেকে ৫টি তৃতীয় স্থান অধিকারী
  • এসোসিয়েশন ১–৪ থেকে ৪টি চতুর্থ স্থান অধিকারী
  • প্লে-অফ পর্ব থেকে ৪টি বিজয়ী (চ্যাম্পিয়নস পথ)
  • প্লে-অফ পর্ব থেকে ২টি বিজয়ী (লীগ পথ)
নকআউট পর্ব
(১৬টি দল)
  • গ্রুপ পর্ব থেকে ৮টি গ্রুপ বিজয়ী
  • গ্রুপ পর্ব থেকে ৮টি গ্রুপ রানার্স-আপ

দলসমূহ[সম্পাদনা]

গত মৌসুমে লীগে দলের অবস্থানকে প্রথম বন্ধনীর মধ্যে দেখানো হয়েছে (চ্যা: চ্যাম্পিয়নস লীগে শিরোপাধারী দল; ইউ: ইউরোপা লীগে শিরোপাধারী দল)।[১১]

২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগে উত্তীর্ণ দল (পর্ব অনুসারে) গ্রুপ পর্ব
স্পেন রিয়াল মাদ্রিদচ্যা (৩য়) জার্মানি বরুসিয়া ডর্টমুন্ড (৪র্থ) ইতালি রোমা (৩য়) পর্তুগাল পোর্তো (১ম)
স্পেন আতলেতিকো মাদ্রিদইউ(২য়) ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার সিটি (১ম) ইতালি ইন্টার মিলান (৪র্থ) ইউক্রেন শাখতার দোনেৎস্ক (১ম)
স্পেন বার্সেলোনা (১ম) ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (২য়) ফ্রান্স পারি সাঁ-জেরমাঁ (১ম) বেলজিয়াম ক্লাব ব্রুজ (১ম)
স্পেন ভ্যালেন্সিয়া (৪র্থ) ইংল্যান্ড টটেনহ্যাম হটস্পার (৩য়) ফ্রান্স মোনাকো (২য়)[নোট ফ্রান্স] তুরস্ক গালাতাসারায় (১ম)
জার্মানি বায়ার্ন মিউনিখ (১ম) ইংল্যান্ড লিভারপুল (৪র্থ) ফ্রান্স লিঁও (৩য়) চেক প্রজাতন্ত্র ভিক্টোরিয়া প্লজেন (১ম)
জার্মানি শালকে ০৪ (২য়) ইতালি ইয়ুভেন্তুস (১ম) রাশিয়া লকোমাটিফ মস্কো (১ম)
জার্মানি ১৮৯৯ হোফেনহেইম (৩য়) ইতালি নাপোলি (২য়) রাশিয়া সিএসকেএ মস্কো (২য়)
প্লে-অফ পর্ব
চ্যাম্পিয়নস পথ লীগ পথ
সুইজারল্যান্ড ইয়াং বয়েস (১ম) নেদারল্যান্ডস পিএসভি আইন্দোভেন (১ম)
তৃতীয় বাছাইপর্ব
চ্যাম্পিয়নস পথ লীগ পথ
গ্রিস এইকে এথেন্স (১ম) অস্ট্রিয়া রেড বুল সালজবুর্গ (১ম) রাশিয়া স্পার্তাক মস্কো (৩য়) বেলজিয়াম স্ট্যান্ডার্ড লিজ (২য়)
পর্তুগাল বেনফিকা (২য়) তুরস্ক ফেনারবাহচে (২য়)
ইউক্রেন দিনামো কিভ (২য়) চেক প্রজাতন্ত্র স্লাভিয়া প্রাগ (২য়)
দ্বিতীয় বাছাইপর্ব
চ্যাম্পিয়নস পথ লীগ পথ
ক্রোয়েশিয়া দিনামো জাগরেব (১ম) ডেনমার্ক মিদতজিল্যান্ড (১ম) সুইজারল্যান্ড বাজেল (২য়) গ্রিস পাওক (২য়)
রোমানিয়া সিএফআর ক্লুজ (১ম) বেলারুশ বেট বারিসাফ (১ম) নেদারল্যান্ডস আয়াক্স (২য়) অস্ট্রিয়া স্টার্ম গ্রাজ (২য়)
প্রথম বাছাইপর্ব
পোল্যান্ড লেগিয়া ওয়ারশ (১ম) সার্বিয়া রেড স্টার বেলগ্রেড (১ম) আলবেনিয়া কুকেসি (২য়)[নোট আলবেনিয়া] আর্মেনিয়া আলাশকার্ট (১ম)
সুইডেন মালমো এফএফ (১ম) কাজাখস্তান আস্তানা (১ম) প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ড কর্ক সিটি (১ম) লুক্সেমবুর্গ এফ৯১ দিদলিয়াজ (১ম)
ইসরায়েল হাপোয়েল বিয়ার শেভা (১ম) স্লোভেনিয়া অলিম্পিয়া লিউব্লিয়ানা (১ম) বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা জ্রিন্সকি মোস্তার (১ম) উত্তর আয়ারল্যান্ড ক্রুসাডার্স (১ম)
স্কটল্যান্ড সেল্টিক (১ম) স্লোভাকিয়া স্পার্তাক ত্রোনাভা (১ম) জর্জিয়া (রাষ্ট্র) তোরপেদো কুতাইসি (১ম) লিথুয়ানিয়া সুদুভা (১ম)
সাইপ্রাস আপোয়েল (১ম) হাঙ্গেরি এমওএল ভিদি (১ম) লাতভিয়া স্পার্তাকস জুরমালা (১ম) মাল্টা ভালেতা (১ম)
নরওয়ে রুসনবর্গ (1st) মলদোভা শেরিফ তিরাস্পোল (১ম) ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র শকেন্দিয়া (১ম) ওয়েল্‌স্‌ দ্য নিউ সেইন্টস (১ম)
আজারবাইজান গারাবায় (১ম) আইসল্যান্ড ভালুর (১ম) এস্তোনিয়া ফ্লোরা তাল্লিন (১ম) ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ ভাইকিঙ্গুর গোতা (১ম)
বুলগেরিয়া লুডোগরেটস রাজগ্রাড (১ম) ফিনল্যান্ড এইচজেকে (১ম) মন্টিনিগ্রো সুতজেস্কা নিকশিচ (১ম)
প্রাথমিক পর্ব
জিব্রাল্টার লিঙ্কন রেড ইম্পস (১ম) অ্যান্ডোরা ফুটবল ক্লাব সান্তা কুলোমা (১ম) সান মারিনো লা ফিওরিতা (১ম) কসোভো দ্রিতা (১ম)
নোট
  1. ^ আলবেনিয়া: ২০১৮ সালের মার্চ মাসে, ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে উয়েফা কর্তৃক স্কেন্দারবেউ ১০ বছরের জন্য উয়েফার সকল প্রতিযোগিতা হতে বহিষ্কৃত হয়।[১২] যেহেতু স্কেন্দারবেউ ২০১৭–১৮ আলবেনীয় সুপারলিগা বিজয়ী হিসেবে শেষ করেছিল, তাই স্কেন্দারবেউয়ের পরিবর্তে উক্ত লীগের রানার-আপ দল কুকেসি ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের পরিবর্তে চ্যাম্পিয়নস লীগে প্রবেশ করেছে।
  2. ^ ফ্রান্স: এএস মোনাকো হলো মোনাকোর একটি ক্লাব (যারা উয়েফার সদস্য নয়), কিন্তু মোনাকো ফ্রান্সের একটি ক্লাব হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লীগে খেলে থাকে (তাদের দ্বারা অর্জিত যেকোনো গুণাঙ্ক ফ্রান্সের সর্বমোট গুনাঙ্কের সাথে যোগ হয়)।

পর্ব এবং ড্রয়ের তারিখ[সম্পাদনা]

এই আসরের সকল পর্বের সময়সূচী নিম্নে উল্লেখ করা হলো (সকল ড্র উয়েফার প্রধান সদরদপ্তর সুইজারল্যান্ডের নায়নে অনুষ্ঠিত হয়েছে, যদি না অন্যথায় হওয়ার জন্য বিবৃতি প্রদান করা হয়)।[১৩]

২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের সময়সূচী
ধাপ পর্ব ড্রয়ের তারিখ প্রথম লেগ দ্বিতীয় লেগ
বাছাইপর্ব প্রাথমিক পর্ব ১২ জুন ২০১৮ ২৬ জুন ২০১৮ (সেমি-ফাইনাল পর্ব) ২৯ জুন ২০১৮ (ফাইনাল পর্ব)
প্রথম বাছাইপর্ব ১৯ জুন ২০১৮ ১০–১১ জুলাই ২০১৮ ১৭–১৮ জুলাই ২০১৮
দ্বিতীয় বাছাইপর্ব ২৪–২৫ জুলাই ২০১৮ ৩১ জুলাই – ১ আগস্ট ২০১৮
তৃতীয় বাছাইপর্ব ২৩ জুলাই ২০১৮ ৭–৮ আগস্ট ২০১৮ ১৪ আগস্ট ২০১৮
প্লে-অফ প্লে-অফ পর্ব ৬ আগস্ট ২০১৮ ২১–২২ আগস্ট ২০১৮ ২৮–২৯ আগস্ট ২০১৮
গ্রুপ পর্ব ম্যাচদিন ১ ৩০ আগস্ট ২০১৮
(মোনাকো)
১৮–১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
ম্যাচদিন ২ ২–৩ অক্টোবর ২০১৮
ম্যাচদিন ৩ ২৩–২৪ অক্টোবর ২০১৮
ম্যাচদিন ৪ ৬–৭ নভেম্বর ২০১৮
ম্যাচদিন ৫ ২৭–২৮ নভেম্বর ২০১৮
ম্যাচদিন ৬ ১১–১২ ডিসেম্বর ২০১৮
নকআউট পর্ব ১৬ দলের পর্ব ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ ১২–১৩ এবং & ১৯–২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ৫–৬ এবং ১২–১৩ মার্চ ২০১৯
কোয়ার্টার-ফাইনাল ১৫ মার্চ ২০১৯ ৯–১০ এপ্রিল ২০১৯ ১৬–১৭ এপ্রিল ২০১৯
সেমি-ফাইনাল ১৯ এপ্রিল ২০১৯ ৩০ এপ্রিল – ১ মে ২০১৯ ৭–৮ মে ২০১৯
ফাইনাল স্পেনের মাদ্রিদের ওয়ান্দা মেত্রপলিতানোয় ১ জুন ২০১৯

এই মৌসুম থেকে, গ্রুপ পর্বের সকল খেলা এক ভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠিত হবে; সকল খেলা ১৮:৫৫ সিইটি এবং ২১:০০ সিইটি সময়ে অনুষ্ঠিত হবে। নকআউট পর্বের সকল খেলা ২১:০০ সিইটি সময়ে অনুষ্ঠিত হবে।[৯]

প্রাথমিক পর্ব[সম্পাদনা]

প্রাথমিক পর্বে, দলগুলোকে ২০১৮ উয়েফা ক্লাব গুণাঙ্কের ওপর ভিত্তি করে বাছাই এবং অ-বাছাই নামে দুইটি ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে,[১৪] এবং পরবর্তীতে দুই লেগের হোম এবং অ্যাওয়ে সমতায় ভাগ করা হয়েছে। ২০১৮ সালে ১২শে জুন, উয়েফার প্রধান সদরদপ্তর সুইজারল্যান্ডের নায়নে প্রাথমিক পর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১৫] এই বাছাইপর্বের সেমিফাইনাল পর্বের খেলা ২৬শে জুন এবং ফাইনাল পর্বের খেলা ২৯শে জুন অনুষ্ঠিত হয়েছে। উভয় খেলা-ই জিব্রালটারের ভিক্টোরিয়া স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১৬] সেমিফাইনাল এবং ফাইনাল পর্বে হেরে যাওয়া দলগুলো ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের দ্বিতীয় বাছাইপর্বে প্রবেশ করেছে।

দল ১  স্কোর  দল ২
সেমি-ফাইনাল পর্ব
ফুটবল ক্লাব সান্তা কুলোমা অ্যান্ডোরা ০–২ (অ.স.প.) কসোভো দ্রিতা
লা ফিওরিতা সান মারিনো ০–২ জিব্রাল্টার লিঙ্কন রেড ইম্পস
দল ১  স্কোর  দল ২
ফাইনাল পর্ব
লিঙ্কন রেড ইম্পস জিব্রাল্টার ১–৪ (অ.স.প.) কসোভো দ্রিতা

২০১৮ সালের ২৬শে জুন তারিখে, দ্রিতা প্রথম কসোভো দল হিসেবে উয়েফা প্রতিযোগিতায় এক ম্যাচে জয়লাভ করতে সক্ষম হয়।

বাছাইপর্ব[সম্পাদনা]

বাছাইপর্বে এবং প্লে-অফ পর্বে, দলগুলোকে ২০১৮ উয়েফা ক্লাব গুণাঙ্কের ওপর ভিত্তি করে বাছাই এবং অ-বাছাই নামে দুইটি ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে,[১৪] এবং তারপরে দুই লেগের হোম এবং অ্যাওয়ে সমতায় ভাগ করা হয়েছে। একই এসোসিয়েশনের দলগুলোকে কখনো একে অপরের বিপক্ষে ড্র করা হয় না।

প্রথম বাছাইপর্ব[সম্পাদনা]

২০১৮ সালে ১৯শে জুন, উয়েফার প্রধান সদরদপ্তর সুইজারল্যান্ডের নায়নে প্রথম বাছাইপর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১৭] এই বাছাইপর্বের প্রথম লেগের খেলা ২০১৮ সালের ১০ এবং ১১ই জুলাই এবং দ্বিতীয় লেগের খেলা ২০১৮ সালের ১৭ এবং ১৮ই জুলাই অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই বাছাইপর্বের হেরে যাওয়া দল ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের দ্বিতীয় পর্বে প্রবেশ করেছে, ব্যক্তিক্রম শুধু কর্ক সিটি / লেগিয়া ওয়ারশ যারা এলোমেলোভাবে ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের তৃতীয় পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে।

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
তোরপেদো কুতাইসি জর্জিয়া (রাষ্ট্র) ২–৪ মলদোভা শেরিফ তিরাস্পোল ২–১ ০–৩
স্কেন্দারবেউ ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র ৫–৪ ওয়েল্‌স্‌ দ্য নিউ সেইন্টস ৫–০ ০–৪
সুদুভা লিথুয়ানিয়া ৩–২ সাইপ্রাস আপোয়েল ৩–১ ০–১
অলিম্পিয়া লিউব্লিয়ানা স্লোভেনিয়া ০–১ আজারবাইজান গারাবায় ০–১ ০–০
এফ৯১ দিদলিয়াজ লুক্সেমবুর্গ ২–৩ হাঙ্গেরি এমওএল ভিদি ১–১ ১–২
দ্রিতা কসোভো ০–৫ সুইডেন মালমো এফএফ ০–৩ ০–২
ভাইকিঙ্গুর গোতা ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ ২–৫[ক] ফিনল্যান্ড এইচজেকে ১–২ ১–৩
লুডোগরেটস রাজগ্রাড বুলগেরিয়া ৯–০ উত্তর আয়ারল্যান্ড ক্রুসাডার্স ৭–০ ২–০
কর্ক সিটি প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ড ০–৪ পোল্যান্ড লেগিয়া ওয়ারশ ০–১ ০–৩
ভালুর আইসল্যান্ড ২–৩ নরওয়ে রুসনবর্গ ১–০ ১–৩
কুকেসি আলবেনিয়া ১–১ (অ্যা) মাল্টা ভালেতা ০–০ ১–১
ফ্লোরা তাল্লিন এস্তোনিয়া ২–৭ ইসরায়েল হাপোয়েল বিয়ার শেভা ১–৪ ১–৩
স্পার্তাকস জুরমালা লাতভিয়া ০–২ সার্বিয়া রেড স্টার বেলগ্রেড ০–০ ০–২
আলাশকার্ট আর্মেনিয়া ০–৬ স্কটল্যান্ড সেল্টিক ০–৩ ০–৩]]
স্পার্তাক ত্রোনাভা স্লোভাকিয়া ২–১ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা জ্রিন্সকি মোস্তার ১–০ ১–১
আস্তানা কাজাখস্তান ৩–০ মন্টিনিগ্রো সুতজেস্কা নিকশিচ ১–০ ২–০
নোট
  1. ^ মূল ড্রয়ের পর লেগের ক্রম বিপরীত করা হয়েছে।

দ্বিতীয় বাছাইপর্ব[সম্পাদনা]

দ্বিতীয় বাছাইপর্ব দুটি আলাদা বিভাগে বিভক্ত: চ্যাম্পিয়নস পথ (লীগ চ্যাম্পিয়নদের জন্য) এবং লীগ পথ (নন-লীগ চ্যাম্পিয়নদের জন্য)। ২০১৮ সালে ১৯শে জুন তারিখে, উয়েফার প্রধান সদরদপ্তর সুইজারল্যান্ডের নায়নে দ্বিতীয় বাছাইপর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১৭] এই বাছাইপর্বের প্রথম লেগের খেলা ২০১৮ সালের ২৪ এবং ২৫শে জুলাই এবং দ্বিতীয় লেগের খেলা ২০১৮ সালের ৩১শে জুলাই এবং ১লা আগস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই বাছাইপর্বের চ্যাম্পিয়নস পথ এবং লীগ পথে হেরে যাওয়া দল ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের তৃতীয় পর্বে প্রবেশ করেছে।

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
চ্যাম্পিয়নস পথ
আস্তানা কাজাখস্তান ২–১ ডেনমার্ক মিদতজিল্যান্ড ২–১ ০–০
লুডোগরেটস রাজগ্রাড বুলগেরিয়া ০–১ হাঙ্গেরি এমওএল ভিদি ০–০ ০–১
কুকেসি আলবেনিয়া ০–৩ আজারবাইজান গারাবায় ০–০ ০–৩
সিএফআর ক্লুজ রোমানিয়া ১–২ সুইডেন মালমো এফএফ ০–১ ১–১
দিনামো জাগরেব ক্রোয়েশিয়া ৭–২ ইসরায়েল হাপোয়েল বিয়ার শেভা ৫–০ ২–২
রেড স্টার বেলগ্রেড সার্বিয়া ৫–০ লিথুয়ানিয়া সুদুভা ৩–০ ২–০
বেট বারিসাফ বেলারুশ ২–১ ফিনল্যান্ড এইচজেকে ০–০ ২–১
শকেন্দিয়া ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র ১–০ মলদোভা শেরিফ তিরাস্পোল ১–০ ০–০
লেগিয়া ওয়ারশ পোল্যান্ড ১–২ স্লোভাকিয়া স্পার্তাক ত্রোনাভা ০–২ ১–০
সেল্টিক স্কটল্যান্ড ৩–১ নরওয়ে রুসনবর্গ ৩–১ ০–০
দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
লীগ পথ
পাওক গ্রিস ৫–১ সুইজারল্যান্ড বাজেল ২–১ ৩–০
আয়াক্স নেদারল্যান্ডস ৫–১ অস্ট্রিয়া স্টার্ম গ্রাজ ২–০ ৩–১

তৃতীয় বাছাইপর্ব[সম্পাদনা]

তৃতীয় বাছাইপর্ব দুটি আলাদা বিভাগে বিভক্ত: চ্যাম্পিয়নস পথ (লীগ চ্যাম্পিয়নদের জন্য) এবং লীগ পথ (নন-লীগ চ্যাম্পিয়নদের জন্য)। ২০১৮ সালে ২৩শে জুন তারিখে, উয়েফার প্রধান সদরদপ্তর সুইজারল্যান্ডের নায়নে তৃতীয় বাছাইপর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১৮] এই বাছাইপর্বের প্রথম লেগের খেলা ২০১৮ সালের ৭ এবং ৮ই আগস্ট এবং দ্বিতীয় লেগের খেলা ২০১৮ সালের ১৪ই আগস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই বাছাইপর্বের চ্যাম্পিয়নস পথে হেরে যাওয়া দল ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের প্লে-অফ পর্বে প্রবেশ করেছে; অন্যদিকে লীগ পথে হেরে যাওয়া দল ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের গ্রুপ পর্বে প্রবেশ করেছে।

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
চ্যাম্পিয়নস পথ
সেল্টিক স্কটল্যান্ড ২–৩ গ্রিস এইকে এথেন্স ১–১ ১–২
রেড বুল সালজবুর্গ অস্ট্রিয়া ৪–০ ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র শকেন্দিয়া ৩–০ ১–০
রেড স্টার বেলগ্রেড সার্বিয়া ৩–২ স্লোভাকিয়া স্পার্তাক ত্রোনাভা ১–১ ২–১ (অ.স.প.)
গারাবায় আজারবাইজান ১–২ বেলারুশ বেট বারিসাফ ০–১ ১–১
আস্তানা কাজাখস্তান ০–৩ ক্রোয়েশিয়া দিনামো জাগরেব ০–২ ০–১
মালমো এফএফ সুইডেন ১–১ (অ্যা) হাঙ্গেরি এমওএল ভিদি ১–১ ০–০
দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
লীগ পথ
স্ট্যান্ডার্ড লিজ বেলজিয়াম ২–৫ নেদারল্যান্ডস আয়াক্স ২–২ ০–৩
বেনফিকা পর্তুগাল ২–১ তুরস্ক ফেনারবাহচে ১–০ ১–১
স্লাভিয়া প্রাগ চেক প্রজাতন্ত্র ১–৩ ইউক্রেন দিনামো কিভ ১–১ ০–২
পাওক গ্রিস ৩–২ রাশিয়া স্পার্তাক মস্কো ৩–২ ০–০

প্লে-অফ পর্ব[সম্পাদনা]

প্লে-অফ পর্ব দুটি আলাদা বিভাগে বিভক্ত: চ্যাম্পিয়নস পথ (লীগ চ্যাম্পিয়নদের জন্য) এবং লীগ পথ (নন-লীগ চ্যাম্পিয়নদের জন্য)। ২০১৮ সালে ৬ই আগস্ট তারিখে, উয়েফার প্রধান সদরদপ্তর সুইজারল্যান্ডের নায়নে প্লে-অফ পর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১৯] এই বাছাইপর্বের প্রথম লেগের খেলা ২০১৮ সালের ২১ এবং ২২শে আগস্ট এবং দ্বিতীয় লেগের খেলা ২০১৮ সালের ২৮ এবং ২৯শে আগস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই পর্বের চ্যাম্পিয়নস পথ এবং লীগ পথে হেরে যাওয়া দল ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের গ্রুপ পর্বে প্রবেশ করেছে।

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
চ্যাম্পিয়নস পথ
রেড স্টার বেলগ্রেড সার্বিয়া ২–২ (অ্যা) অস্ট্রিয়া রেড বুল সালজবুর্গ ০–০ ২–২
বেট বারিসাফ বেলারুশ ২–৬ নেদারল্যান্ডস পিএসভি আইন্দোভেন ২–৩ ০–৩
ইয়াং বয়েস সুইজারল্যান্ড ৩–২ ক্রোয়েশিয়া দিনামো জাগরেব ১–১ ২–১
এমওএল ভিদি হাঙ্গেরি ২–৩ গ্রিস এইকে এথেন্স ১–২ ১–১
দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
লীগ পথ
বেনফিকা পর্তুগাল ৫–২ গ্রিস পাওক ১–১ ৪–১
আয়াক্স নেদারল্যান্ডস ৩–১ ইউক্রেন দিনামো কিভ ৩–১ ০–০

গ্রুপ পর্ব[সম্পাদনা]

২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ ইউরোপ-এ অবস্থিত
ম্যানচেস্টার
ম্যানচেস্টার
মস্কো
মস্কো
মাদ্রিদ
মাদ্রিদ
২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের গ্রুপ পর্বে খেলা দলগুলোর অবস্থান।
Brown pog.svg বাদামী: গ্রুপ এ; Red pog.svg রেড: গ্রুপ বি; Orange pog.svg কমলা: গ্রুপ সি; Yellow pog.svg হলুদ: গ্রুপ ডি;
Green pog.svg সবুজ: গ্রুপ ই; Blue pog.svg নীল: গ্রুপ এফ; Purple pog.svg বেগুনী: গ্রুপ জি; Pink pog.svg গোলাপী: গ্রুপ এইচ।

২০১৮ সালে ৩০শে আগস্ট, উয়েফার প্রধান সদরদপ্তর মোনাকোর গ্রিলমালদি ফোরামে গ্রুপ পর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[২০] সর্বমোট ৩২টি দলকে ৮টি গ্রুপে বিভক্ত করা হয়েছে, যেখানে প্রতিটি গ্রুপে ৪টি করে দল রয়েছে। এই ড্রয়ের অন্যতম প্রধান নিয়ম হচ্ছে যে, একই এসোসিয়েশনের দলগুলোকে পরস্পরের বিপক্ষে ড্র করা যাবে না। ড্রয়ের জন্য, দলগুলোকে ৪টি পাত্রে নিম্নলিখিত নীতির উপর ভিত্তি করে ভাগ করা হয়েছে (এই মৌসুমের শুরু উপস্থাপিত):[৭]

  • পাত্র ১-এ চ্যাম্পিয়নস লীগ এবং ইউরোপা লীগ শিরোপাধারী দল এবং ২০১৭ উয়েফা দেশ গুণাঙ্কের উপর ভিত্তি করে শীর্ষ ৬টি এসোসিয়েশনের চ্যাম্পিয়নদের রাখা হয়েছে। যদি এক চ্যাম্পিয়ন অথবা উভয় চ্যাম্পিয়ন দল শীর্ষ ৬ এসোসিয়েশনের মধ্যে বিদ্যমান থাকে তবে পরবর্তী শীর্ষ ক্রমের এসোসিয়েশনের চ্যাম্পিয়ন দল পাত্র ১-এ স্থান পাবে।

প্রত্যেক গ্রুপে, দলগুলো প্রত্যেক দলের সাথে রাউন্ড-রবিন নিয়মে নিজস্ব মাঠে এবং অ্যাওয়ে মাঠে ম্যাচ খেলবে। প্রত্যেক গ্রুপের বিজয়ী দল এবং রানার-আপ দল ১৬ দলের পর্বের জন্য উন্নীত হবে, যখন প্রত্যেক গ্রুপের তৃতীয় স্থান অধিকারী দলগুলো ২০১৮–১৯ উয়েফা ইউরোপা লীগের ৩২ দলের পর্বে প্রবেশ করেছে। এই পর্বের ম্যাচদিনগুলো হলো: ১৮–১৯ সেপ্টেম্বর, ২–৩ অক্টোবর, ২৩–২৪ অক্টোবর, ৬–৭ নভেম্বর, ২৭–২৮ নভেম্বর এবং ১১–১২ ডিসেম্বর ২০১৮।

যেসকল ক্লাবগুলো গ্রুপ পর্বে খেলার জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছে তাদের যুব দলগুলোও ২০১৮–১৯ উয়েফা যুব লীগে একই দিনে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে, যেখানে দলগুলো উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ পথ (শীর্ষ ৩২ এসোসিয়েশনের ঘরোয়া চ্যাম্পিয়ন দল প্লে-অফের পূর্ব পর্যন্ত আলাদা ঘরোয়া চ্যাম্পিয়নস পথে অংশগ্রহণ করেছে।

সর্বমোট ১৫টি জাতীয় এসোসিয়েশন এইবারের আসরের গ্রুপ পর্বে প্রতিনিধিত্ব করছে। ১৮৯৯ হোফেনহেইম, রেড স্টার বেলগ্রেড (১৯৯১ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন) এবং ইয়াং বয়েস এইবারের আসরের গ্রুপ পর্বে খেলার মাধ্যমে চ্যাম্পিয়নস লীগে অভিষেক করেছে (যদিও রেড স্টার বেলগ্রেড ইউরোপিয়ান কাপের গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণ করেছে।

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন আতলেতিকো ডর্টমুন্ড ব্রুজ মোনাকো
স্পেন আতলেতিকো মাদ্রিদ (A) +৩ ১২ নকআউট পর্বের জন্য অগ্রসর ২–০ ৩–১ ২–০
জার্মানি বরুসিয়া ডর্টমুন্ড (A) +৬ ১০ ৪–০ ০–০ ৩–০
বেলজিয়াম ক্লাব ব্রুজ (Q) +১ ইউরোপা লীগে স্থানান্তর ১১ ডিসেম্বর ০–১ ১–১
ফ্রান্স মোনাকো (E) ১২ −১০ ১–২ ১১ ডিসেম্বর ০–৪
২৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখের ম্যাচ খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: উয়েফা
(A) পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত; (E) বাদ; (Q) টুর্নামেন্টের নির্দেশিত পর্যায়ে যাওয়ার উপযুক্ত।

গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন বার্সেলোনা টটেনহ্যাম ইন্টার পিএসভি
স্পেন বার্সেলোনা (A) ১৩ +৯ ১৩ নকআউট পর্বের জন্য অগ্রসর ১১ ডিসেম্বর ২–০ ৪–০
ইংল্যান্ড টটেনহ্যাম হটস্পার (X) −১ ২–৪ ১–০ ২–১
ইতালি ইন্টার মিলান (X) −১ ইউরোপা লীগে স্থানান্তর ১–১ ২–১ ১১ ডিসেম্বর
নেদারল্যান্ডস পিএসভি আইন্দোভেন (E) ১২ −৭ ১–২ ২–২ ১–২
২৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখের ম্যাচ খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: উয়েফা
(A) পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত; (E) বাদ; (X) অন্তত ইউরোপা লীগ নিশ্চিত।

গ্রুপ সি[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন নাপোলি পারি লিভারপুল বেলগ্রেড
ইতালি নাপোলি (X) +৩ নকআউট পর্বের জন্য অগ্রসর ১–১ ১–০ ৩–১
ফ্রান্স পারি সাঁ-জেরমাঁ (X) ১৩ +৫ ২–২ ২–১ ৬–১
ইংল্যান্ড লিভারপুল +১ ইউরোপা লীগে স্থানান্তর ১১ ডিসেম্বর ৩–২ ৪–০
সার্বিয়া রেড স্টার বেলগ্রেড (Y) ১৩ −৯ ০–০ ১১ ডিসেম্বর ২–০
২৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখের ম্যাচ খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: উয়েফা
(X) অন্তত ইউরোপা লীগ নিশ্চিত; (Y) ১৬ দলের পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়নি, কিন্তু এখনো ইউরোপা লীগের ৩২ দলের পর্বে খেলার অর্জন করতে পারে।

গ্রুপ ডি[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন পোর্তো শালকে গালাতাসারায় লকোমাটিফ
পর্তুগাল পোর্তো (A) ১২ +৮ ১৩ নকআউট পর্বের জন্য অগ্রসর ৩–১ ১–০ ৪–১
জার্মানি শালকে ০৪ (A) +১ ১–১ ২–০ ১১ ডিসেম্বর
তুরস্ক গালাতাসারায় (Y) −২ ইউরোপা লীগে স্থানান্তর ১১ ডিসেম্বর ০–০ ৩–০
রাশিয়া লকোমাটিফ মস্কো (Y) ১১ −৭ ১–৩ ০–১ ২–০
২৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখের ম্যাচ খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: উয়েফা
(A) পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত; (Y) ১৬ দলের পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়নি, কিন্তু এখনো ইউরোপা লীগের ৩২ দলের পর্বে খেলার অর্জন করতে পারে।

গ্রুপ ই[সম্পাদনা]

গ্রুপ এফ[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন সিটি লিঁও শাখতার হোফেনহেইম
ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার সিটি (A) ১৪ +৯ ১০ নকআউট পর্বের জন্য অগ্রসর ১–২ ৬–০ ১২ ডিসেম্বর
ফ্রান্স লিঁও (X) ১১ ১০ +১ ২–২ ২–২ ২–২
ইউক্রেন শাখতার দোনেৎস্ক ১৫ −৮ ইউরোপা লীগে স্থানান্তর ০–৩ ১২ ডিসেম্বর ২–২
জার্মানি ১৮৯৯ হোফেনহেইম (Y) ১০ ১২ −২ ১–২ ৩–৩ ২–৩
২৭ নভেম্বর ২০১৮ তারিখের ম্যাচ খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: উয়েফা
(A) পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত; (X) অন্তত ইউরোপা লীগ নিশ্চিত; (Y) ১৬ দলের পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়নি, কিন্তু এখনো ইউরোপা লীগের ৩২ দলের পর্বে খেলার অর্জন করতে পারে।

গ্রুপ জি[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন রিয়াল রোমা প্লজেন সিএসকেএ
স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ (A) ১২ +১০ ১২ নকআউট পর্বের জন্য অগ্রসর ৩–০ ২–১ ১২ ডিসেম্বর
ইতালি রোমা (A) ১০ +৪ ০–২ ৫–০ ৩–০
চেক প্রজাতন্ত্র ভিক্টোরিয়া প্লজেন (Y) ১৫ −১০ [ক] ইউরোপা লীগে স্থানান্তর ০–৫ ১২ ডিসেম্বর ২–২
রাশিয়া সিএসকেএ মস্কো (Y) −৪ [ক] ১–০ ১–২ ১–২
২৭ নভেম্বর ২০১৮ তারিখের ম্যাচ খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: উয়েফা
(A) পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত; (Y) ১৬ দলের পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়নি, কিন্তু এখনো ইউরোপা লীগের ৩২ দলের পর্বে খেলার অর্জন করতে পারে।
টীকা:
  1. হেড-টু-হেড পয়েন্ট: ভিক্টোরিয়া প্লজেন ৪, সিএসকেএ মস্কো ১।

গ্রুপ এইচ[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন ইয়ুভেন্তুস ইউনাইটেড ভ্যালেন্সিয়া বয়েস
ইতালি ইয়ুভেন্তুস (A) +৬ ১২ নকআউট পর্বের জন্য অগ্রসর ১–২ ১–০ ৩–০
ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (A) +৪ ১০ ০–১ ০–০ ১–০
স্পেন ভ্যালেন্সিয়া (Q) −১ ইউরোপা লীগে স্থানান্তর ০–২ ১২ ডিসেম্বর ৩–১
সুইজারল্যান্ড ইয়াং বয়েস (E) ১১ −৯ ১২ ডিসেম্বর ০–৩ ১–১
২৭ নভেম্বর ২০১৮ তারিখের ম্যাচ খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: UEFA
(A) পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত; (E) বাদ; (Q) টুর্নামেন্টের নির্দেশিত পর্যায়ে যাওয়ার উপযুক্ত।

নকআউট পর্ব[সম্পাদনা]

নকআউট পর্বে, প্রত্যেক দল বিপরীত দলের সাথে দুই লেগের হোম-এন্ড-অ্যাওয়ে খেলায় অংশগ্রহণ করবে (শুধুমাত্র ফাইনাল ব্যতীত)। এই পর্বের নিয়মাবলী নিম্নরুপ:

  • ১৬ দলের পর্বের ড্রয়ের ক্ষেত্রে, ৮ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হবে সবীজ, এবং ৮ গ্রুপের রানার-আপ হবে অবীজ। সবীজ দলগুলো অবীজ দলের বিরুদ্ধে ড্র হবে, যেখানে সবীজ দলগুলো প্রথমে হোম ম্যাচ খেলবে। একই গ্রুপের দল কিংবা একই এসোসিয়েশনের দলগুলো একে অপরের বিরুদ্ধে ড্র হবে না।
  • কোয়ার্টার-ফাইনাল এবং সেমি-ফাইনালের ড্রয়ের ক্ষেত্রে, কোনো সবীজ দল থাকবে না এবং একই গ্রুপের দল কিংবা একই এসোসিয়েশনের দলগুলো একে অপরের বিরুদ্ধে ড্র হতে পারবে।

১৬ দলের পর্ব[সম্পাদনা]

২০১৮ সালের ১৭ই ডিসেম্বর তারিখে, এই আসরের ১৬ দলের পর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হবে।[২১] ২০১৯ সালের ১২, ১৩, ১৯ এবং ২০শে ফেরুয়ারি তারিখে ১৬ দলের পর্বের প্রথম লেগ ও ৫, ৬, ১২ এবং ১৩ই মার্চ তারিখে দ্বিতীয় লেগের খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

কোয়ার্টার-ফাইনাল[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের ১৫ই মার্চ তারিখে, এই আসরের কোয়ার্টার-ফাইনালের ড্র অনুষ্ঠিত হবে।[২২] ২০১৯ সালের ৯ এবং ১০ই এপ্রিল তারিখে কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগ ও ১৬ এবং ১৭ই এপ্রিল তারিখে দ্বিতীয় লেগের খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

সেমি-ফাইনাল[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের ১৯শে এপ্রিল তারিখে, এই আসরের সেমি-ফাইনালের ড্র অনুষ্ঠিত হবে।[২৩] ২০১৯ সালের ৩০শে এপ্রিল এবং ১লা মে তারিখে সেমি-ফাইনালের প্রথম লেগ ও ৭ এবং ৮ই মে তারিখে দ্বিতীয় লেগের খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

ফাইনাল[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের ১লা জুন তারিখে, স্পেনের মাদ্রিদের ওয়ান্দা মেত্রপলিতানোয় এই আসরের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। সেমি-ফাইনালের ড্রয়ের পর একটি আলাদা ড্রয়ের মাধ্যমে "হোম" দল (প্রশাসনিক উদ্দেশ্যের জন্য) নির্ধারণ করা হবে।[২৩]

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

বাছাইপর্ব এবং প্লে-অফ রাউন্ডের পরিসংখ্যান এখানে স্থান পায়নি।

নোট: গাঢ় দ্বারা চিহ্নিত খেলোয়াড়গণ এখনো এই প্রতিযোগিতায় সক্রিয়।

সর্বোচ্চ গোলদাতা[সম্পাদনা]

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ [২৪] পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
ক্রম খেলোয়াড় দল গোল মিনিট খেলেছে
আর্জেন্টিনা লিওনেল মেসি স্পেন বার্সেলোনা ৯০
বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা মিরালেম পিয়ানিচ ইতালি ইয়ুভেন্তুস ৬৬
চেক প্রজাতন্ত্র মাইকেল ক্রমেঞ্চিক চেক প্রজাতন্ত্র ভিক্তোরিয়া প্লাজেন ৭৪
ফ্রান্স পল পগবা ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৭৫
আর্জেন্টিনা নিকোলাস তাগলিয়াফিকো নেদারল্যান্ডস আয়াক্স ৯০
৩৪ জন খেলোয়াড় প্রযোজ্য নয়

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Madrid's Estadio Metropolitano to host 2019 Champions League final"UEFA.com। Union of European Football Associations। ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০১৭ 
  2. "Real Madrid and Spain top UEFA rankings again"। UEFA.com। ২৯ মে ২০১৮। 
  3. "2017–18 UEFA Champions League Final"UEFA। UEFA। ৪ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  4. "Evolution of UEFA club competitions for 2018–21 cycle"UEFA.com। Union of European Football Associations। ২৬ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০১৭ 
  5. "Lyon to host 2018 UEFA Europa League final"UEFA.com। Union of European Football Associations। ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০১৭ 
  6. "Access list for the 2018/19 UEFA club competitions" (PDF)UEFA.com। Union of European Football Associations। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  7. "2018/19 UEFA Champions League regulations" (PDF)UEFA.com। Union of European Football Associations। ১০ মে ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০১৮ 
  8. "Country coefficients 2016/17"UEFA.com। Union of European Football Associations। ৬ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  9. "Champions League and Europa League changes next season"UEFA.com। Union of European Football Associations। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  10. "Access list for the 2018/19 UEFA club competitions (modified)"UEFA.com। Union of European Football Associations। ৪ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৮ 
  11. "2018/19 UEFA Champions League participants"UEFA.com। Union of European Football Associations। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৮ 
  12. "Albania's Skenderbeu handed 10-year ban over match-fixing in worst ever UEFA punishment"। Tirana Times। ২৯ মার্চ ২০১৮। 
  13. "2018/19 Champions League match and draw calendar"UEFA.com। Union of European Football Associations। ৯ জানুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০১৮ 
  14. "Club coefficients"UEFA.com। Union of European Football Associations। ১০ আগস্ট ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১০ আগস্ট ২০১৮ 
  15. "UEFA Champions League preliminary round draw"। UEFA.com। 
  16. "1st ever Champions League Preliminary Round competition to be held in Gibraltar"। Gibraltar Football Association। ২৬ এপ্রিল ২০১৮। 
  17. "UEFA Champions League first and second qualifying round draws"। UEFA.com। 
  18. "UEFA Champions League third qualifying round draw"। UEFA.com। 
  19. "UEFA Champions League play-off draw"। UEFA.com। 
  20. "UEFA Champions League group stage draw"। UEFA.com। 
  21. "UEFA Champions League round of 16 draw"। UEFA.com। 
  22. "UEFA Champions League quarter-final draw"। UEFA.com। 
  23. "UEFA Champions League semi-final draw"। UEFA.com। 
  24. "Statistics — Tournament phase — Players — Goals"UEFA.com। Union of European Football Associations। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:২০১৮–১৯ সালে ইউরোপীয় ক্লাব প্রতিযোগিতা