সুইসা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

সুইসা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পুরুলিয়া জেলার বাঘমুন্ডি থানার অন্তর্গত একটি প্রত্নস্থল। ১৯৫৭ খ্রিষ্টাব্দে রাজ্য সরকারের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এই স্থানের প্রত্নসামগ্রীগুলিকে সরক্ষণ করে একটি সগ্রহশালা নির্মাণ করে।[১]:১৯১

মূর্তি[সম্পাদনা]

সুইসার সগ্রহশালায় যে সমস্ত মূর্তি সরক্ষিত রয়েছে, তাঁদের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দেওয়া হল[১]:১৯১, ১৯২

মূর্তি বৈশিষ্ট্য
মল্লিনাথ কায়োৎসর্গ মুদ্রায় দন্ডায়মান মস্তকবিহীন মূর্তি, লাঞ্ছনচিহ্ন কলস স্পষ্ট। দুইপাশে দুইজন চামরধারীর মূর্তি ও হস্তীপৃষ্ঠে ঝম্পসিংহের মূর্তি বর্তমান।
শীতলনাথ মস্তকবিহীন মূর্তি, লাঞ্ছনচিহ্ন শ্রীবৎস স্পষ্ট। দুইপাশে খোদিত চব্বিশ জন তীর্থঙ্করের মূর্তি। নীচের দিকে খোদিত দুইটি সিংহমূর্তি। নীচে উপাসনারত দুই নারীমূর্তি।
পার্শ্বনাথ কায়োৎসর্গ মুদ্রায় পদ্মের ওপর দন্ডায়মান সপ্তমুখী ফণার ছত্রযুক্ত মূর্তি। মূর্তির দুপাশে খোদিত চব্বিশ জন তীর্থঙ্করের মূর্তি। এছাড়াও তীরধমুক হাতে রক্ষী ও ঝম্পসিংহের মূর্তি বর্তমান।
আদিনাথ সাড়ে চারফুট উচ্চতা বিশিষ্ট পদ্মের ওপর কায়োৎসর্গ মুদ্রায় দন্ডায়মান মূর্তি। মূর্তির দুপাশে খোদিত চব্বিশ জন তীর্থঙ্করের মূর্তি। লাঞ্ছনচিহ্ন বৃষ ছাড়াও হস্তী, সিংহ ও ঝম্পসিংহের প্রতিকৃতি স্পষ্ট।
আদিনাথ দুই ফুট উচ্চতার ভগ্নমূর্তি। মূর্তির দুপাশে দুইজন চামরধারীর মূর্তি।
মহাবীর দুই উচ্চতার ও ভগ্নমূর্তি। দুইধারে উপাসনারত নারী ও চামরধারীর মূর্তি। তিনটি সিংহ মূর্তি।
চতুর্ভূজ মূর্তি চার হাতের তিন হাত শঙ্খ, চক্র, গদা ধারণরত ও অপর হাত অভয় প্রদানরত, নীচে ডান পাশে নারীমূর্তি ও বাম পাশে বীনাবাদনরত একটি নারীমূর্তি। ওপরে দুই পাশে গন্ধর্ব গন্ধর্বী, নীচে কল্পবৃক্ষ, দুই পরী, মঙ্গল কলস, পদ্ম, ঝম্পসিংহ, হস্তীপৃষ্ঠে মনুষ্য মূর্তি বর্তমান।
অম্বিকা সাড়ে তিন ফুট উচ্চতার ভগ্ন মূর্তি, দুইপাশে দুই বাদ্যরত মূর্তি, ওপরে ধ্যানরত পাঁচজন দেব-দেবীর মূর্তি, নীচে সিংহ ও উপাসনারত দুই নারী মূর্তি।
অম্বিকা দেড় ফুট উচ্চতার মস্তকবিহীন দেবীমূর্তি।

চৈত্য[সম্পাদনা]

সুইসার সগ্রহশালায় একটি চৈত্য সংরক্ষিত রয়েছে। চৈত্যগুলির উচ্চতা তিন ফুট। প্রতিটি চৈত্যের চারদিকে চারজন তীর্থঙ্করের মূর্তি খোদিত। চৈত্যের নীচের অংশ প্রোথিত থাকায় লাঞ্ছনচিহ্ন দেখা যায় না, ফলে তীর্থঙ্করদের শনাক্ত করা যায় নি।[১]:১৯১

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সুভাষ রায়, পুরুলিয়া জেলার পুরাকীর্তি, পুরুলিয়ার কয়েকটি প্রত্নস্থল, অনৃজু প্রকাশনী, চেলিয়ামা, পুরুলিয়া, ৭২৩১৪৬, প্রথম প্রকাশ, আশ্বিন ১৪১৯