অযোধ্যা পাহাড়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অযোধ্যা পাহাড়
Ayodha Hills.jpg
সর্বোচ্চ বিন্দু
উচ্চতা৮৫৫ মিটার (২,৮০৫ ফুট)
ভূগোল
অবস্থানবাঘমুন্ডি, পুরুলিয়া জেলা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
মূল পরিসীমাছোটনাগপুর মালভূমি

অযোধ্যা পাহাড় হল ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পুরুলিয়া জেলায় অবস্থিত একটি পাহাড়। এটি দলমা পাহাড়ের একটি অংশ ও পূর্বঘাট পর্বতমালার একটি সম্প্রসারিত অংশ। অযোধ্যা পাহাড়ের উচ্চতম শৃঙ্গটি হল চেমটোবুরুবাঘমুন্ডি এই পাহাড়ের নিকটস্থ একটি শহর।

বর্ণনা[সম্পাদনা]

অযোধ্যা পাহাড় পর্বতারোহণ শিক্ষার্থীদের কাছে একটি জনপ্রিয় গন্তব্যস্থল। দুটি পথে অযোধ্যা পাহাড়ে যাওয়া যায়। একটি ঝালদা হয়ে এবং অন্যটি সিকরাবাদ হয়ে। এখানে একটি ফরেস্ট রেস্ট হাউসও আছে। গোরগাবুরু (৬৫৫ মিটার), মায়ুরি ইত্যাদি অযোধ্যা পাহাড়ের কয়েকটি শৃঙ্গ।[১]

এই অঞ্চলটি ছোটো নাগপুর মালভূমির সবচেয়ে নিচু ধাপ। বাঘমুন্ডি বা অযোধ্যা পাহাড়ের আশেপাশের অঞ্চলটি হল একটি সম্প্রসারিত মালভূমি।[২]

গ্রীষ্মে মহুয়া ফুল

পুরাণ[সম্পাদনা]

হিন্দু কিংবদন্তি অনুসারে, রামসীতা বনবাসের সময় অযোধ্যা পাহাড়ে এসেছিলেন। এখানে এসে সীতা তৃষ্ণার্ত হয়ে পড়লে রাম নিজের তীরের সাহায্যে মাটি খুঁড়ে জল বের করে আনেন। সেই জায়গাটি সীতাকুণ্ড নামে পরিচিত। বৈশাখ মাসের পূর্ণিমা তিথিতে স্থানীয় আদিবাসীরা এখানে বন্য পশু শিকার উৎসবে যোগ দেয়।[১]

উন্নয়ন[সম্পাদনা]

জাপান ব্যাঙ্ক অফ ইন্টারন্যাশানাল কোঅপারেশনের ঋণের সাহায্যে বাঘমুন্ডি থানার অন্তর্গত অযোধ্যা পাহাড়ে ৯০০ মেগাওয়াট (৪X২৫৫ মেগাওয়াট) ক্ষমতার পুরুলিয়া পাম্পড স্টোরেজ প্রোজেক্ট চালু হয়েছে।[৩] স্থানীয় গ্রাম চড়িদা' তে ছৌ নাচের মুখোশ তৈরী হয় যা কুটিরশিল্প হিসেবে বিখ্যাত।

অযোধ্যা পাহাড়ের কাছে তুরগা বাঁধ ও হ্রদ এবং বামনি নদীর একটি জলপ্রপাত(বামনী ফলস) ঘিরে পর্যটন ক্ষেত্র গড়ে উঠেছে।[১]

পুরুলিয়া পাম্পড স্টোরেজ প্রোজেক্ট

যোগাযোগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

অযোধ্যা পাহাড়ের চারপাশে রেলপথ বেষ্টন আছে। এগুলো হলো :

  1. চান্ডিল জংশন - পুরুলিয়া জংশন ডাবল বৈদ্যুতিক লাইন - স্বর্ণরেখা এক্সপ্রেস এই রুটের ট্রেন।
  2. কোটশিলা জংশন - মুরি জংশন ডাবল বৈদ্যুতিক লাইন - বোকারো রাঁচি এক্সপ্রেস এই রুটের ট্রেন।
  3. কোটশিলা জংশন - পুরুলিয়া জংশন - একক বৈদ্যুতিক লাইন (দ্বিত্বকরণ হচ্ছে) - হাতিয়া টাটানগর এক্সপ্রেস এই রুটের ট্রেন।
  4. চান্ডিল জংশন - মুরি জংশন একক বৈদ্যুতিক লাইন - হাতিয়া টাটানগর এক্সপ্রেস এই রুটের ট্রেন।

বাঘমুন্ডি যেতে হলে চান্ডিল - মুরি রুটের ঝিমরী স্টেশনটি সবথেকে কাছে হয় (মাত্র ১৭  কিমি ) ।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

  1. অযোধ্যা হিল টপ - পায়ে হেঁটে যেতে হয়।
  2. মাথা ফরেস্ট রেস্ট হাউস - ঝিমরী থেকে ৯ কিমি।

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "Ajodhya Hills"। asiarooms.com। ২০০৮-০১-১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৪-০৭ 
  2. Houlton, Sir John, Bihar, the Heart of India, 1949, p. 170, Orient Longmans Ltd.
  3. "Purulia Pumped Storage Project"। West Bengal State Electricity Board। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৩-০২ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]