দিনেশ কার্তিক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
দিনেশ কার্তিক
DineshKarthik.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম কৃষ্ণ কুমার দিনেশ কার্তিক
জন্ম (১৯৮৫-০৬-০১) ১ জুন ১৯৮৫ (বয়স ৩৩)
চেন্নাই, তামিলনাড়ু, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরন ডানহাতি
বোলিংয়ের ধরন ডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকা উইকেট-রক্ষক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৫০)
৩ নভেম্বর ২০০৪ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট ১৭ জানুয়ারি ২০১০ বনাম বাংলাদেশ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৫৬)
৫ সেপ্টেম্বর ২০০৪ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই ৫ জুলাই ২০১৩ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০২/০৩ - বর্তমান তামিলনাড়ু
২০০৮ - ২০১০, ২০১৪ দিল্লি ডেয়ারডেভিলস
২০১১ কিংস ইলাভেন পাঞ্জাব
২০১২ - ২০১৩ মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স
২০১৫ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর
২০১৬ - ২০১৭ গুজরাট লায়ন্স
২০১৮ - বর্তমান কলকাতা নাইট রাইডার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২৩ ৫৪ ১০৮ ১৪৩
রানের সংখ্যা ১,০০০ ১,০৭৩ ৬,২২৭ ৩,৯৭২
ব্যাটিং গড় ২৭.৭৭ ২৮.২৩ ৪০.৬৯ ৩৬.৭৭
১০০/৫০ ১/৭ ০/৬ ১৮/২৮ ৬/২১
সর্বোচ্চ রান ১২৯ ৭৯ ২১৩ ১৫৪*
বল করেছে ১১৪
উইকেট
বোলিং গড়
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ০/৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫১/৫ ৩২/৫ ২৫৪/২২ ১২৩/২৫
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ১২ জুন ২০১৩

কৃষ্ণ কুমার দিনেশ কার্তিক (তামিল: தினேஷ் கார்த்திக்; জন্ম: ১ জুন, ১৯৮৫) তামিলনাড়ু প্রদেশের চেন্নাইয়ে জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় ক্রিকেটারভারত জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম ব্যাটসম্যান কার্তিক উইকেট-রক্ষকেরও দায়িত্ব পালন করে থাকেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়েও পারদর্শী তিনি। দলের নিয়মিত সদস্য হিসেবে টেস্ট ম্যাচ, একদিনের আন্তর্জাতিকটুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

আগস্ট, ২০০৪ সালে ভারতের একদিনের দলের সদস্যরূপে মনোনীত হন দিনেশ কার্তিক। নির্বাচকমণ্ডলীর সদস্যগণ রাহুল দ্রাবিড়কে বিকল্প উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব থেকে দূরে সরিয়ে রাখলে এবং অন্যতম উইকেট-রক্ষক পার্থিব প্যাটেলের দূর্বল ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনই এর প্রধান কারণ। লর্ড’স ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত খেলায় তিনি কেবলমাত্র এক রান সংগ্রহ করতে পেরেছিলেন। ইংল্যান্ডের তৎকালীন অধিনায়ক মাইকেল ভনকে অনিল কুম্বলের বোলিংয়ে ক্যাচ ধরতে না পারলেও পরবর্তীকালে লেগ সাইডে ভনকে স্টাম্পিং করেছিলেন ও আরও একটি ক্যাচ ধরেছিলেন।[১][২]

২০০৪ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি প্রতিযোগিতার একটি খেলায় কেনিয়া ক্রিকেট দলের বিপক্ষে তিনটি ক্যাচ ধরেছিলেন। তারপরও রাহুল দ্রাবিড়কে ইংল্যান্ড সফরের অধিকাংশ সময়ই উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে হয়েছিল। ইনিংসে মাত্র চার উইকেটের পতন ঘটায় তাকে ব্যাটিং করতে হয়নি। একদিনের দলে মহেন্দ্র সিং ধোনি’র আগমন ঘটলে তিনি স্থানচ্যূত হন ও এপ্রিল, ২০০৬ সাল পর্যন্ত কোন ওডিআই খেলতে পারেননি।[৩][৪]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত কার্তিক ২০০৭ সালে নিকিতা কার্তিকের সাথে বিবাহ-বন্ধনে আবদ্ধ হন। কিন্তু সতীর্থ খেলোয়াড়ের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার গুঞ্জনের ফলে তাদের মধ্যকার বৈবাহিক সম্পর্ক বিবাহ-বিচ্ছেদে রূপান্তরিত হয়। পরবর্তীতে নভেম্বর, ২০১৩ সালে তিনি ভারতীয় স্কোয়াশ খেলোয়াড় দীপিকা পল্লীকলকে বিয়ে করেন।[৫]

ক্রিকেটের বাইরে এক খিলাড়ী এক হাসিনা নামের নাচের অনুষ্ঠানে নিগার খানের সাথে জুটি বেঁধে অংশ নিচ্ছেন কার্তিক।[৬]

রেকর্ড[সম্পাদনা]

সবচেয়ে কম বল খেলে ম্যাচসেরা হয়েছেন দিনেশ কার্তিক । আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে (বোলিং না করে) এর আগে সর্বনিম্ন ৮ বল খেলে ম্যাচসেরা হয়েছিলেন ব্র্যাড হজ। ২০১৪ সালে ডারবানে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৮ বলে ২১ রান করেছিলেন অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান। কার্তিক ৮ বলে করেছেন ২৯। তিনটি ছক্কা মেরেছেন, দুটি চার। ২৬ রান এই ৫ বলেই! এর মধ্যে একটা ডট বলও খেলেছেন! [৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Premachandran, Dileep (২০০৪-০৯-০৫)। "More than a consolation win"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-১২-০৪ 
  2. "NatWest Challenge - 3rd Match England v India"Cricinfo। ২০০৪-০৯-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-১২-০৪ 
  3. "Statsguru - KD Karthik - ODIs - Innings by innings list"Cricinfo। ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-১১ 
  4. "ICC Champions Trophy, 2004, 3rd Match India v Kenya"Cricinfo। ২০০৬-০৯-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-১২-০৪ 
  5. "Dipika Pallikal gets engaged to Cricketer Dinesh Karthik"Biharprabha News। সংগ্রহের তারিখ ২৭ নভেম্বর ২০১৩ 
  6. [১][অকার্যকর সংযোগ]
  7. "৮ বলেই কার্তিকের বিশ্ব রেকর্ড!" 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]