সৈয়দ মেহবুব রিজভী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

সৈয়দ মেহবুব রিজভী
ব্যক্তিগত
জন্ম১৯১১
মৃত্যু১৯৭৯(1979-00-00) (বয়স ৬৭–৬৮)
ধর্মইসলাম
অঞ্চলভারত
আখ্যাসুন্নি
ব্যবহারশাস্ত্রহানাফি
আন্দোলনদেওবন্দি
প্রধান আগ্রহইতিহাস, উর্দু সাহিত্য
উল্লেখযোগ্য কাজতারিখে দারুল উলুম দেওবন্দ
যেখানের শিক্ষার্থীদারুল উলুম দেওবন্দ

সৈয়দ মেহবুব রিজভী (১৯১১ — ১৯৭৯) ছিলেন একজন ভারতীয় দেওবন্দি ইসলামি পণ্ডিত, ইতিহাসবিদ ও লেখক। তিনি তারিখে দারুল উলুম দেওবন্দ (দারুল উলুম দেওবন্দের ইতিহাস) রচনার জন্য বিখ্যাত, যা উর্দুতে ২খন্ডে প্রকাশিত হয়েছিল।[১][২]

জীবনী[সম্পাদনা]

রিজভী ১৯১১ সালে দেওবন্দের একটি রিজভী সৈয়দ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। [৩] তিনি মাদ্রাসা মানওয়াউল উলুম গুলাঠি এবং দারুল উলুম দেওবন্দে অধ্যয়ন করেন।

তিনি ১৯৩৩ সাল থেকে তার মৃত্যু অবধি দারুল উলুম দেওবন্দের বিভিন্ন শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগে দায়িত্ব পালন করেন। [৩] মাদ্রাসার রেকর্ড রুমের অফিস ইনচার্জও ছিলেন তিনি। [৪]

রিজভী সাপ্তাহিক আল-জামিয়াত, মাসিক আল-বুরহান, মাসিক মৌলভি এবং দিল্লির মাসিক দীন ও দুনিয়া, মাসিক মাআরিফ, আজমগড়, মাসিক হাদি, দেওবন্দ, মাসিক শামসুল মাশায়েখ, ভোপাল, মাসিক শামসুল ইসলাম, অমৃতসর এবং দ্বি-মাসিক এশিয়া, লাহোর সহ বিভিন্ন পত্রিকা সম্পাদনা করেছেন। তিনি দারুল উলুম দেওবন্দের মাসিক পত্রিকা দারুল উলূম দেওবন্দেও লিখেছিলেন। [৫]

রিজভী ১৯৭৯ সালে মারা যান। [৩]

বই[সম্পাদনা]

তার রচিত বই সমূহের মধ্যে রয়েছে :[৬]

  • মক্তুবাতে নববী [৭]
  • তারিখে দারুল উলূম দেওবন্দ (দারুল উলূম দেওবন্দের ইতিহাস) [৮][৯][১০]
  • আবে জমজম
  • মাকতেব-ই-হিজাজ
  • তাজকিরাহ সাদাত-ই-রিজওয়িয়াহ
  • তারিখে দেওবন্দ [১১]

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • কাসেমি, নায়েব হাসান। "সৈয়দ মেহবুব রিজভী"। দারুল উলূম দেওবন্দ কা সাহাফতি মনজর্ণমা (উর্দু ভাষায়) (২০১৩ সংস্করণ)। ইদারা তাহকীকে ইসলামি। পৃষ্ঠা ১৬৭–১৭০। 

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Guide to Indian Periodical Literature, Volume 21। ১৯৮৫। পৃষ্ঠা 690। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০২০ 
  2. Muhammad Sajid Qasmi (২০০৫)। Madrasa Education Framework (2005 সংস্করণ)। Markazul Ma'arif Education and Research Centre (MMERC)। পৃষ্ঠা 21। আইএসবিএন 9788178271149। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০২০ 
  3. Nayab Hasan Qasmi। Darul Uloom Deoband ka Sahāfati Manzarnāma (Urdu ভাষায়) (2013 সংস্করণ)। পৃষ্ঠা 167। 
  4. Asiatic Society of Pakistan (১৯৫৯)। "Sayyid Mahbub Rizwi"। Asiatic Society of Pakistan: 81। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০২০ 
  5. Nayab Hasan Qasmi। Darul Uloom Deoband ka Sahāfati Manzarnāma (Urdu ভাষায়) (2013 সংস্করণ)। পৃষ্ঠা 168। 
  6. Nayab Hasan Qasmi। Darul Uloom Deoband Ka Sahafati ManzarNama। Idara Tehqeeq-e-Islami, Deoband। পৃষ্ঠা 169। 
  7. Syed Mehboob Rizwi। "Maktoobat-e-Nabvi"Rekhta.org (Urdu ভাষায়)। Taj Publishers, Delhi। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৯ 
  8. Ali, Abdul; Ahsan, Sayyid (২০০৫)। Contribution of Sir Syed Ahmad Khan to Islamic Studies। পৃষ্ঠা 169। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০২০ 
  9. American Journal of Islam and Society। American Journal of Islam and Society। জুন ২০২০। পৃষ্ঠা 58। 
  10. Hasan, Mushirul (১৩ মার্চ ২০১৯)। Legacy Of A Divided Nation: India's Muslims From Independence To Ayodhya। পৃষ্ঠা 106। আইএসবিএন 9780429721212। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০২০ 
  11. "Syed Mehboob Rizvi's book, Tarikh-e-Deoband"। Centre for the Study of the Civilizations of Central Asia। ১৯৭৮: 74। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০২০