হাবিবুর রহমান লুধিয়ানভি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মাওলানা হাবীবুর রহমান লুধিয়ানভী
জন্মহাবীবুর রহমান
(১৮৯২-০৭-০৩)৩ জুলাই ১৮৯২
লুধিয়ানা, পাঞ্জাব, ভারত
মৃত্যু২ সেপ্টেম্বর ১৯৫৬(1956-09-02) (বয়স ৬৪)
পেশারাজনৈতিক ও ধর্মীয় নেতা
জাতীয়তা ব্রিটিশ ভারত
 ভারত

হাবীবুর রহমান লুধিয়ানভী (ইংরেজি: Habib-ur-Rehman Ludhianvi, ৩ জুলাই ১৮৯২ - ২ সেপ্টেম্বর ১৯৫৬) ছিলেন মজলিস-ই-আহরার-ই ইসলামের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। তিনি আরাইন (উপজাতি)-এর অন্তর্ভুক্ত এবং ১৮৫৮ সালে ভারতীয় বিদ্রোহের সময় ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে মুুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদির লুধিয়ানভীর বংশধর ছিলেন।[১][২][৩]

জীবনী[সম্পাদনা]

হাবীবুর রহমান লুধিয়ানভীর পিতামহ শাহ্ আবদুল কাদির লুধিয়ানভী ১৮৫৭ সালের ভারতীয় বিদ্রোহের সময় ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির বিরুদ্ধে সশস্ত্র বিদ্রোহের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এবং পাঞ্জাব থেকে বৃটিশ বিরোধী বিদ্রোহকারীদের মধ্যে একজন ছিলেন। তিনি একটি বৃহৎ সেনা বাহিনী সংগ্রহ করেছিলেন, যা ব্রিটিশদের কেবল লুধিয়ানা নয়, পানিপথ থেকেও উতখাৎ করে দিয়েছিল। এই সেনাবাহিনীর মধ্যে মুসলিম, হিন্দু এবং শিখও ছিল। এরপরে তিনি মুঘল সম্রাট বাহাদুর শাহ্ জাফরকে সমর্থন করার জন্য দিল্লি চলে যান। তিনি ১৮৫৭ সালে দিল্লির চাঁদনী চক শহরে হাজার হাজার লোকের সাথে লড়াই করে নিজের জীবন দিয়েছিলেন।[৪] হাবীবুর রহমান লুধিয়ানভী ১৮৯২ সালের ১৮ জুলাই ব্রিটিশ ভারতের লুধিয়ানায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন।[৫] তিনি আবদুল আজিজের কন্যা বিবি শাফাতুন্নিসাকে বিয়ে করেছিলেন।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

লুধিয়ানভী ছিলেন একজন জ্বালাময়ী বক্তা এবং জাতীয়তাবাদী আন্দোলন মজলিস-ই-আহরার-ই ইসলামের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা, যেটি ভারতে ব্রিটিশ শাসনের অবসান দাবি করেছিল। ১৯৪৭ সালের ১৪ আগস্ট ভারত বিভাজন ও পাকিস্তানের স্বাধীনতার পরেও সেখানে থাকা হাজার হাজার মুসলমানকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য তিনি ভারতের পূর্ব পাঞ্জাবে ফিরে যান। তিনি যুক্তি দিয়েছিলেন যে, পূর্ব পাঞ্জাবের অবশিষ্ট মুসলমানদের উচিত নয় দেশ পরিত্যাগ করা। লুধিয়ানা ভারতের পাঞ্জাবের একটি বড় শিল্প শহর হিসাবে বিবেচিত হয়। উত্তরপ্রদেশ এবং বিহার প্রদেশ থেকে প্রচুর পরিশ্রমী মুসলমানরাও সেখানে কাজ করতে আসে।[৪]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. An Arain freedom fighter (Habib-ur-Rehman Ludhianvi) The News International (newspaper), Published 15 December 2007, Retrieved 6 November 2018
  2. Ishtiaq Ahmed (১৫ ডিসেম্বর ২০০৭)। "Profile of Habib-ur-Rehman Ludhianvi"Academy of the Punjab in North America website। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১৮ 
  3. Profile of Habib-ur-Rehman Ludhianvi Heritage Times (newspaper), Published 17 November 2017, Retrieved 6 November 2018
  4. "An Arain freedom fighter"www.thenews.com.pk (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৫ 
  5. Ahamed, Syed Naseer। "Maulana Habib-ur-Rehman Ludhianvi :- A Great Freedom Fighter who fought against the British Empire."HeritageTimes (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২৫