মাসিহুজ্জামান খান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মাসিহুজ্জামান খান
২য় চ্যান্সেলর, নাদওয়াতুল উলামা
কাজের মেয়াদ
২০ জুলাই ২০০২ – ২১ এপ্রিল ২০০৫
পূর্বসূরীমুহাম্মদ আলী মুঙ্গেরী
উত্তরসূরীখলিলুর রহমান সাহারানপুরি

মাসিহুজ্জামান খান (১৮৪০ - ১৭ ডিসেম্বর ১৯১০) ছিলেন একজন ভারতীয় মুসলিম পণ্ডিত। তিনি দারুল উলুম নাদওয়াতুল উলামার দ্বিতীয় চ্যান্সেলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি মীর লাইক আলি খান এবং মাহবুব আলি খানের শিক্ষক ছিলেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

মাসুজ্জামান খান শাহজাহানপুরে ১৮৪০ (১২৫৬ হিঃ) সালে জন্মগ্রহণ করেন। [১] তিনি প্রাথমিক শিক্ষা আহমদ আলী শাহাবাদীর কাছ থেকে লাভ করেন এবং তারপরে হায়দরাবাদে চলে যান তার নিজের ভাই মুয়াম্মাদ জামান খানের সাথে পড়াশোনা করার জন্য। [১]

পড়াশোনা শেষ হওয়ার পর তিনি তুরাব আলী খানের দুই ছেলে মীর সা'দাত আলী খান ও মীর লায়েক আলী খানের শিক্ষক নিযুক্ত হন। ১২৯৩ হিজরির মুহররম মাসে তিনি হায়দ্রাবাদের ষষ্ঠ নিজাম মাহবুব আলী খানের শিক্ষক নিযুক্ত হন। তিন বছর পর তিনি নিজামের সকল শিক্ষাগত বিষয়ের ব্যবস্থাপক নিযুক্ত হন।[২] ১৩০০ হিজরিতে মীর তুরাব আলী খানের মৃত্যুর পরে একটি নতুন কাউন্সিল গঠন করা হয় এবং খুরশীদ জাহ ও নরেন্দ্র প্রশাদকে এর সদস্য নিযুক্ত করা হয়। তারা মাসিহুজ্জামানের উপর অসন্তুষ্ট হয়েছিলেন এবং তার পদোবনতি করেছিলেন এবং তাকে ৪ মহরম ১৩০১ হিজরিতে পেনশন দেওয়ার পরোয়ানা পাঠিয়েছিলেন। [৩] চার মাস পরে তিনি শাহজাহানপুরে ফিরে আসেন। [৩]

মাসিহুজ্জামান খান ১৮৯৫ সালে লখনউতে নাদওয়াতুল উলামার দ্বিতীয় সাধারণ সভায় যোগ দিয়েছিলেন এবং ব্যবস্থাপনা সদস্য নিযুক্ত হয়েছিলেন। [৪] ১৯০৩ সালের ১৯ জুলাই মুহাম্মদ আলী মুঙ্গেরি পদত্যাগের পর তিনি তিন বছরের জন্য নাদওয়াতুল উলামার অন্তর্বর্তীকালীন ব্যবস্থাপক নিযুক্ত হন। [৫] [৬] নাদওয়াতুল উলামার জার্নাল আল-নাদওয়াহ শাহজাহানপুর থেকে শুরু হয়েছিল, যখন তিনি ম্যানেজার ছিলেন। [৭] ১৯০৫ সালের ২১ এপ্রিল তিনি নাদওয়াতুল উলামা থেকে পদত্যাগ করেন। [৮] ১৯১০ সালের ১৭ ডিসেম্বর তিনি মারা যান। [৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 19। 
  2. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 20। 
  3. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 21–22। 
  4. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 27। 
  5. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 31। 
  6. Sayyid Muḥammad al-Hasani (মে ২০১৬)। Sīrat Hadhrat Mawlāna Muḥammad Ali Mungeri: Bāni Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়) (4 সংস্করণ)। Majlis Sahāfat-o-Nashriyāt, Nadwatul Ulama। পৃষ্ঠা 238। 
  7. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 35। 
  8. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 39। 
  9. Shams Tabrez Khan। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। পৃষ্ঠা 25। 

 

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • Shams Tabrez Khan (২০১৫)। "Mawlāna Masīhuzzamān Khān ka daur-e-nizāmat"। Tārīkh Nadwatul Ulama (উর্দু ভাষায়)। Majlis Sahāfat-o-Nashriyāt। পৃষ্ঠা 19–39।