বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়
Barishal-university-logo.jpg
লাতিন: University of Barisal
স্থাপিত ২০১১
ধরন সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়
আচার্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ
উপাচার্য প্রফেসর ডঃ এস এম ইমামুল হক
ছাত্র ৩৭০০
অবস্থান বরিশাল, বাংলাদেশ
ক্যাম্পাস কর্নকাঠি ক্যাম্পাস ৮৫ একর, সিটি ক্যাম্পাস ৫ একর
সংক্ষিপ্ত নাম ববি
অন্তর্ভুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন
ওয়েবসাইট www.barisaluniv.edu.bd

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশে অবস্থিত বরিশাল বিভাগের অন্যতম সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়, এবং দেশ এর ৩৩ তম সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়।[১] বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ২৫ জানুয়ারী ২০১২ তাদের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে।

পরিচ্ছেদসমূহ

অবস্থান[সম্পাদনা]

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় মুল ক্যাম্পাস বরিশাল বিভাগের কীর্তনখোলা নদীর পূর্ব তীরে কর্ণকাঠিতে অবস্থিত । বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এর সিটি ক্যাম্পাস বরিশাল শহরে অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৬০ সালে প্রথম , বাংলাদেশ স্বাধীনতার আগে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের চাহিদা তৈরি হয়। ১৯৭৩ সালে একটি শহর সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার সময় তত্কালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষনা করেন, বরিশালে একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন যা আকাঙ্ক্ষিত ছিল তার। রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ২৩, ১৯৭৮ সালে বরিশাল সার্কিট হাউস মধ্যে একটি সমাবেশে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আকাঙ্ক্ষা প্রকাশ করেন। তিন দশক পরে বরিশাল মানুষের শক্তিশালী চাহিদা থেকে নভেম্বর ২৯, ২০০৮ ECNEC (Executive Committee of National Economic Council) এই প্রস্তাব পাশ করে, তারপর তত্ত্বাবধায়ক সরকার দ্বারা। ২২ নভেম্বর, ২০১১, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনের নির্মাণ শুরু করেন। বরিশাল জিলা স্কুল অস্থায়ী ক্যাম্পাসে ২৫ জানুয়ারী, ২০১২ সালে বেলা পৌনে ১১টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাগত কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। মুল ক্যাম্পাস ২০১৩ সালে কীর্তনখোলা নদীর পূর্ব তীরে সদর উপজেলার কর্ণকাঠিতে নির্ধারিত হয়। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষা কার্যক্রম দুইটি ক্যাম্পাসে পরিচালিত হচ্ছে। কীর্তনখোলা নদীর তীরে কর্ণকাঠি এলাকায় রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টির পূর্ণাঙ্গ ক্যাম্পাস যেখানে অধিকাংশ বিভাগের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এছাড়াও বরিশাল শহরের অভ্যন্তরে সিটি ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়টির কয়েকটি বিভাগের কার্যক্রম চলছে।

অনুষদ ও বিভাগ সমূহ[সম্পাদনা]

২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের জন্য ক্লাস শুরু ২৫ জানুয়ারী, ২০১২ , ছয়টি বিষয়ের ভর্তি প্রদান করা হয়ঃ

  1. ম্যানেজমেন্ট
  2. মার্কেটিং
  3. ইংরেজি
  4. অর্থনীতি
  5. সমাজবিজ্ঞান
  6. গণিত

বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ৬টি অনুষদের অধীনে ২২ টি বিভাগ রয়েছে।


জীববিজ্ঞান ও কৃষি অনুষদ[সম্পাদনা]

সয়েল এন্ড ও এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ মোঃ জামাল উদ্দিন
  • বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ১ এর দ্বিতীয় এবং প্রশাসনিক ভবন ১ এর চতুর্থ তলায় রয়েছে সয়েল এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগ। ২০১২-১৩ শিক্ষা বর্ষ থেকে সয়েল এন্ড এনভারনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। সয়েল এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগ বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। শুরু থেকেই উক্ত বিভাগ বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞান বিষয়ক সেমিনার আয়োজন করে চলেছে। এসব সেমিনার থেকে বিভাগ টির শিক্ষার্থীগণ বিভিন্ন জ্ঞান অর্জন করছে। বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর । ড. হারুনুর রশিদ এবং বর্তমান ভাইস চ্যান্সেলর ড. এমামুল হক নিজেদের শিক্ষা, শিক্ষকতা এবং গবেষণা জীবন সয়েল এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স হওয়ায় তারা বিভাগটির উন্নয়নে সরাসরি কাজ করে গেছেন এবং যাচ্ছেন। বিভাগটি নিয়মিত সেমিনার আয়োজন করছে। এছাড়াও ওয়ার্ল্ড সয়েল উইকে সেমিনার এবং বিজ্ঞান মেলার আয়োজন করেছে। বিশ্ব পরিবেশ দিবসে তারা বিভিন্ন কাজ করে সুনাম অর্জন করেছে। এছাড়াও বিভাগ টি থেকে নিয়মিত ফিল্ড ওয়ার্ক করা হয়।
  • সংগঠনঃ - স্পার্কল সায়েন্স ক্লাব নামে বিভাগটির ছাত্রছাত্রীরা একটি বিজ্ঞান সংগঠন চালিয়ে আসছে।
  • ফ্যাসিলিটিঃ - বিভাগটির রয়েছে সয়েল বায়োকেমিস্ট্রি ল্যাব ১, সয়েল বায়োকেমিস্ট্রি ল্যাব ২, জি আই এস ল্যাব, সয়েল মাইক্রোবায়োলজি ল্যাব, কম্পিউটার ল্যাব।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ- বি.এস.সি (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ- ৮০ টি


জিওলজি এন্ড মাইনিং[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ ডঃ ধীমান কুমার রায়
  • বিশ্ববিদ্যালয়ের সিটি ক্যাম্পাসে জিওলজি এন্ড মাইনিং বিভাগ অবস্থিত। ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষ থেকে জিওলজি এন্ড মাইনিং বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এস.সি (অনার্স)
  • আসন সংক্যাঃ ৭০ টি


বোটানি এন্ড ক্রপ সায়েন্স বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ ইশিতা হায়দার
  • বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ১ এর তৃতীয় তলায় বোটানি এন্ড ক্রপ সায়েন্স বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। ২০১২-১৩ শিক্ষাব্ররষ থেকে বোটানি এন্ড ক্রপ সায়েন্স বিভাগ যাত্রা শুরু করে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ- বি.এস.সি (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৮০ টি


জুওলজি ও ফিশারিজ বিভাগ[সম্পাদনা]

  • ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ থেকে এ বিভাগ যাত্রা শুরু করে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ- বি.এস.সি (অনার্স)


মনোবিজ্ঞান বিভাগ[সম্পাদনা]

  • ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ থেকে এ বিভাগ যাত্রা শুরু করে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এস.সি (অনার্স)


বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদ[সম্পাদনা]

গণিত বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ মোঃ শফিউল আলম
  • বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাকালীন বিভাগ গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো গণিত বিভাগ। বিজ্ঞান অনুষদের মাঝে সবচেয়ে পুরাতন বিভাগ। ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষ থেকে এ বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্ণকাঠি ক্যাম্পাসে গণিত বিভাগ তাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালায়।
  • প্রদত্ত ডিগ্রী - বি.এস.সি (অনার্স)
  • আসন সংখ্যা - ৮০ টি


কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ রাহাত হোসেন ফয়সাল
  • ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। একাডেমিক ভবন ১ এর পঞ্চম তলায় কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ অবস্থিত। কম্পিউটার সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের রয়েছে অত্যাধুনিক প্রোগ্রামিগ ল্যাব, ইলেক্ট্রনিক্স ল্যাব সহ আরো অনেক ফ্যাসিলিটি। হাইস্কুল প্রোগ্রামিং ২০১৫ এর বরিশাল জোনের প্রতিযোগিতা কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হয়।
  • প্রদত্ত ডিগ্রী- বি.এস.সি (অনার্স)
  • আসন সংখ্যা - ৫০ টি


রসায়ন বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ হালিমা বেগম
  • বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ১ এর নীচ তলায় রয়েছে রসায়ন বিভাগ। ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে রসায়ন বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রী - বি.এস.সি (অনার্স)
  • আসন সংখ্যা - ৮০ টি


পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ সমীরণ রায়
  • বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের অধীনে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিটি ক্যাম্পাসে অবস্থিত। ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষ থেকে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রী - বি.এস.সি (অনার্স)
  • আসন সংখ্যা - ৭০ টি


কলা এবং মানবিক অনুষদ[সম্পাদনা]

বাংলা বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ শারমিন আক্তার
  • বাংলা বিভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিটি ক্যাম্পাসে অবস্থিত। ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে বাংলা বিভাগ যাত্রা শুরু করে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এ (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭০টি


ইংরেজি বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ ডঃ মোঃ মহসিন উদ্দিন
  • ইংরেজি বিভাগ ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে যাত্রা শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠা কালীন বিভাগ হলো ইংরেজি বিভাগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিটি ক্যাম্পাসে ইংরেজি বিভাগ তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এ (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭০ টি


ইসলামের ইতিহাস বিভাগ[সম্পাদনা]

  • ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ থেকে এ বিভাগ যাত্রা শুরু করে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এ (অনার্স)


সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ[সম্পাদনা]

অর্থনীতি বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ জ্যোতির্ময় বিশ্বাস
  • বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা লগ্নে অর্থনীতি বিভাগ যাত্রা শুরু করে। ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষ থেকে বিভাগটি তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্ণকাঠি ক্যাম্পাসের একাডেমিক ভবন ১ এর নীচ তলায় অর্থনীতি বিভাগ তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এস.এস (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭০ টি।


লোক প্রশাসন বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ তাস্নুভা হাবিব জিসান
  • ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে লোক প্রশাসন বিভাগ যাত্রা শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্ণ কাঠি ক্যাম্পাসের একাডেমিক ভবন ১ এর চতুর্থ তলায় লোক প্রশাসন বিভাগ তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এস.এস (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭০ টি।


রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ সুস্মিতা রায়
  • ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ যাত্রা শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্ণকাঠি ক্যাম্পাসের একাডেমিক ভবন ১ এর চতুর্থ তলায় রাষ্ট্রবিজ্ঞান ক্যাম্পাস অবস্থিত।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ- বি.এস.এস (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭০টি


সমাজবিজ্ঞান বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ দিলাফরোজ খানম
  • বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা কালীন বিভাগের মধ্যে অন্যতম হলো সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ। ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ যাত্রা শুরু করে। কর্ণকাঠি ক্যাম্পাসের প্রশাসনিক ভবন ২ এর চতুর্থ তলায় সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এস.এস (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭০ টি।


গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ[সম্পাদনা]

  • ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ থেকে এ বিভাগ যাত্রা শুরু করে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.এস.এস (অনার্স)


ব্যবসা শিক্ষা অনুষদ[সম্পাদনা]

ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ আব্দুল্লাহ আল মাসুদ
  • ম্যানেজমেন্ট বিভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাঙ্কালীন বিভাগ। ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে বিভাগটি যাত্রা শুরু করে। প্রশাসনিক ভবন ২ এর পঞ্চম তলায় ম্যানেজমেন্ট বিভাগ অবস্থিত।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.বি.এ ( অনার্স )
  • আসন সংখ্যাঃ ৭৫ টি।


মার্কেটিং বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ মোঃ ওয়াহিদুর রহমান
  • ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে মার্কেটিং বিভাগ যাত্রা শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠাকালীন বিভাগ হলো মার্কেটিং বিভাগ। প্রশাসনিক ভবন ২ এর পঞ্চম তলায় মার্কেটিং বিভাগ অবস্থিত।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.বি.এ (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭৫ টি


ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যানঃ মোঃ ইব্রাহীম মোল্লা
  • ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগ যাত্রা শুরু করে। একাডেমিক ভবন ১ এর দ্বিতীয় তলায় ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগ তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.বি.এ (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭৫ টি


একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যান সুজন চন্দ্র পাল
  • ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগ যাত্রা শুরু করে। প্রশাসনিক ভবন ২ এর পঞ্চম তলায় বিভাগ টি তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ বি.বি.এ (অনার্স)

আসন সংখ্যাঃ ৭৫ টি


আইন অনুষদ[সম্পাদনা]

আইন বিভাগ[সম্পাদনা]

  • চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান
  • একাডেমিক ভবন ১ এর চতুর্থ তলায় আইন বিভাগ অবস্থিত। ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষে আইন বিভাগ যাত্রা শুরু করে।
  • প্রদত্ত ডিগ্রীঃ এল.এল.বি (অনার্স)
  • আসন সংখ্যাঃ ৭০ টি।


ক্যাম্পাস[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়ের রয়েছে দুইটি ভিন্ন ক্যাম্পাস। ক্যাম্পাস দুটি সিটি ক্যাম্পাস এবং মেইন ক্যাম্পাস বা কর্ঙ্কাঠি ক্যাম্পাস নামে পরিচিত।

সিটি ক্যাম্পাস[সম্পাদনা]

৫একর আয়তনের ক্যাম্পাস টি শহরের অভ্যন্তরে অবস্থিত। এখানে কলা ও মানবিকী অনুষদের অধীনে বাংলা, ইন্রেজি বিভাগ এবং বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে পদার্থবিজ্ঞান ও জিওলজি এন্ড মাইনিং বিভাগের কার্যক্রম চলে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিটি ক্যাম্পাসে সোনালি ব্যাংক অবস্থিত। এখানে একটি লাইব্রেরি, একটি হলরুম, একটি ক্যাফেটেরিয়াও রয়েছে।

কর্ণকাঠি ক্যাম্পাস[সম্পাদনা]

শহরের পাশে কীর্তনখোলা নদীর তীরে রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় টির স্থায়ী ক্যাম্পাস। বর্তমানে ক্যাম্পাসটির আয়তন ৮৫ একর। ভবিষ্যতে এ আয়ত্ন আরো বর্ধিত হবে। এখানে অধিকাংশ বিভাগের কার্যক্রম চলে। স্থায়ী ক্যাম্পাস টি দপদপিয়া ব্রীজ নামের দুটি দীর্ঘ ধনুকের মত বাঁকা ব্রীজের অভ্যন্তরে অবস্থিত। দুটি ব্রীজেরই প্রান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে মিশেছে যা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ি ক্যাম্পাস কে দিয়েছে ভিন্ন মাত্রা। এই ক্যাম্পাসটিতে দুইটি ছাত্র হল, একটি ছাত্রী হল, একটি ক্যাফেটেরিয়া ভবন, একটি লাইব্রেরি ভবন, দুইটি ডরমিটরি, দুইটি একাডেমিক ভবন এবং দুইটি প্রশাসনিক ভবন রয়েছে। এছাড়াও ভিসির বাসভবন সহ রয়েছে কয়েকটি লেক।


আবাসিক হল[সম্পাদনা]

ছাত্র হল[সম্পাদনা]

  • ১.বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল।
  • ২.শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক হল।

ছাত্রী হল[সম্পাদনা]

  • ১.শেখ হাসিনা হল।


পরিবহন[সম্পাদনা]

  • বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের যাতায়াতের জন্য রয়েছে ২টি মাইক্রোবাস এবং একটি এয়ার কন্ডিশন্ড বাস।
  • শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য রয়েছে ২টি দোতলা বাস সহ রয়েছে মোট ৮টি বাস।

সংগঠন[সম্পাদনা]

রাজনৈতিক[সম্পাদনা]

  • বাংলাদেশ ছাত্রলীগ
  • বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল

স্বেচ্ছাসেবক[সম্পাদনা]

  • ৭১ এর চেতনা
  • স্পন্দন
  • বাধন
  • হিউম্যান শেড

বিজ্ঞান[সম্পাদনা]

  • স্পার্কল সায়েন্স ক্লাব

সাংস্কৃতিক[সম্পাদনা]

  • বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় মুভি ক্লাব

ছবি গ্যালারি[সম্পাদনা]

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু ছবি

তথ্য সুত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]