সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

যে সব বিশ্ববিদ্যালয় দেশের সরকার দ্বারা প্রধানত আর্থিক সুবিধা পেয়ে থাকে তাদেরকে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এবং সচরাচর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বলা হয়। অপর দিকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণত সরকার থেকে আর্থিক সুবিধা পায় না। পৃথিবীর কোনো দেশে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সরকারী আবার কোনো দেশে বেসরকারী হিসেবে দেখা যায়। প্রায় সব দেশেই সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রমের দিক থেকে উন্নতমানের হয়ে থাকে।

এশিয়া[উৎস সম্পাদনা]

ব্রুনেই[উৎস সম্পাদনা]

বাংলাদেশ[উৎস সম্পাদনা]

২৩রা জানুয়ারি, ২০২১ পর্যন্ত, বাংলাদেশে ৫৭টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আছে। [১] বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন বাংলাদেশে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিয়ন্ত্রণ করে। বিভাগ অনুসারে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা:

চীন[উৎস সম্পাদনা]

হংকং[উৎস সম্পাদনা]

ইন্দোনেশিয়া[উৎস সম্পাদনা]

ভারত[উৎস সম্পাদনা]

ভারতে, অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয় এবং প্রায় সব গবেষণা প্রতিষ্ঠানই সর্বজনীন। কিছু বেসরকারী স্নাতকোত্তর কলেজ ও বেশিরভাগই ইঞ্জিনিয়ারিং স্কুলের, অধিকাংশই পাবলিক বা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলির সাথে সম্পর্কিত। এইসব বেসরকারি বিদ্যালয়গুলির কিছু অংশ আংশিকভাবে জাতীয় বা রাজ্য সরকারের সহায়তায় পরিচালিত হয়। ভারত একটি "মুক্ত" পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হল ইন্দিরা গান্ধী ন্যাশনাল ওপেন ইউনিভার্সিটি (ইগনু), যা বেশিরভাগই দূরবর্তী শিক্ষা প্রদান করে এবং তালিকাভুক্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা অনুসারে এখন বিশ্বের ৪ মিলিয়নের বেশি শিক্ষার্থীর সাথে বিশ্বের বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয়।

ইরান[উৎস সম্পাদনা]

ইসরায়েল[উৎস সম্পাদনা]

জাপান[উৎস সম্পাদনা]

আরও দেখুন[উৎস সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[উৎস সম্পাদনা]

[১]

  1. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ অক্টোবর ২০১৬