সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো.jpeg
প্রাক্তন নাম
সরকারি ভেটেরিনারি কলেজ
ধরনসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত২ নভেম্বর ২০০৬
আচার্যরাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ
উপাচার্যঅধ্যাপক ড. মোঃ মতিয়ার রহমান হাওলাদার
ঠিকানা
আলুরতল সড়ক
,
টিলাগড়
, ,
শিক্ষাঙ্গনশহুরে
সংক্ষিপ্ত নামসিকৃবি
অধিভুক্তিবিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন
ওয়েবসাইটsau.ac.bd

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (সংক্ষিপ্তরূপ: সিকৃবি) সিলেট শহরের টিলাগড়ে অবস্থিত বাংলাদেশের একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। এটি ২ নভেম্বর, ২০০৬ সালে সিলেটে প্রতিষ্ঠিত হয়।[১] যা পূর্বে সিলেট সরকারি ভেটেরিনারি কলেজ নামে পরিচিত ছিল।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক।

বাংলাদেশের উত্তর-পূর্ব কোণে অবস্থিত পূণ্যভূমি হাওর, সমতল ভূমি ও টিলাবেষ্টিত দু'টি পাতা একটি কুড়ির সিলেট বিভাগে কৃষি শিক্ষা প্রসারের জন্য ০২ নভেম্বর, ২০০৬ সালে বিলুপ্ত সিলেট সরকারি ভেটেরনারি কলেজকে একটি অনুষদে রূপান্তর করে প্রতিষ্ঠিত হয় সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। শুরুতে তিনটি অনুষদ নিয়ে যাত্রা শুরু করলেও পর্যায়ক্রমে পাল্লা দিয়ে ছয়টি অনুষদ চালু হয়। এসকল অনুষদের মাধ্যমে কৃষি বিজ্ঞানের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অগ্রসরমান বিশ্বের সাথে সঙ্গতি রক্ষা ও সমতা অর্জন এবং জাতীয় পর্যায়ে উচ্চতর শিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ সৃষ্টি, আধুনিক জ্ঞানচর্চা ও কৃষি বিজ্ঞানের সাথে সম্পর্কযুক্ত আনুষঙ্গিক অন্যান্য বিষয়ে শিক্ষা দান, গবেষণা কার্য পরিচালনা করা হয়।

অবস্থান[সম্পাদনা]

সিলেট বিভাগীয় শহর থেকে প্রায় ০৭ কিমি উত্তর-পূর্বে পাহাড় বেষ্টিত ৫০ একর এলাকা নিয়ে গড়ে উঠেছে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাস। এখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদীয় ভবন, প্রশাসনিক ভবন ও আবাসিক ভবন ছাড়াও নির্মানাধীন রয়েছে আরও উন্নয়ন প্রকল্প। তামাবিল বাইপাস রাস্তার উত্তর পাশে বিকেএসপি, সিলেট এর পূর্ব পাশে ১২.২৯ একর ভূমি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ক্যাম্পাস ও গবেষণা মাঠ গড়ে তোলা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

এই কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ৬ টি অনুষদ, ৪৭ টি বিভাগ, মাঠগবেষণা কেন্দ্রসহ উন্নত ল্যাবরেটরি। এছাড়া রয়েছে একটি ভেটেরনারি টিচিং হাসপাতাল।

অনুষদ এবং বিভাগসমূহ[সম্পাদনা]

অনুষদসমূহ[সম্পাদনা]

  1. পশুচিকিৎসা, প্রাণী ও জৈবচিকিৎসা বিজ্ঞান (ভেটেরিনারি, এনিম্যাল ও বায়োমেডিক্যাল সায়েন্সেস) অনুষদ
  2. কৃষি অনুষদ
  3. মাৎস্য বিজ্ঞান অনুষদ
  4. কৃষি অর্থনীতি ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ
  5. কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ
  6. জৈবপ্রযুক্তি ও জিন প্রকৌশল অনুষদ
  7. পোস্টগ্রাজুয়েট স্টাডিজ

পশুচিকিৎসা, প্রাণী ও জৈবচিকিৎসা বিজ্ঞান (ভেটেরিনারি, এনিম্যাল ও বায়োমেডিক্যাল সায়েন্সেস) অনুষদ[সম্পাদনা]

পশুচিকিৎসা, প্রাণী ও জৈবচিকিৎসা বিজ্ঞান অনুষদ এবং বৈশাখী চত্বর, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

পশুরোগ ও ও পশু বিজ্ঞান অনুষদ ১৪ (চৌদ্দটি) বিভাগ নিয়ে গঠিত। সেগুলো হল -

  • শারীর বিদ্যা (এনাটমি) ও কলাস্থান বিদ্যা (হিস্টোলজি) বিভাগ
  • শরীর বিজ্ঞান (ফিজিওলজি) বিভাগ
  • ঔষধবিদ্যা (ফার্মাকোলজি) বিভাগ
  • অনুজীব বিদ্যা (মাইক্রোবায়োলজি) ও রোগ-প্রতিরোধ বিদ্যা (ইমিউনোলজি) বিভাগ
  • মহামারী-সংক্রান্ত বিদ্যা ও জনস্বাস্থ্য বিভাগ
  • পশু পুষ্টি বিভাগ
  • প্রাণিসম্পদ উৎপাদন ও ব্যবস্থাপনা বিভাগ
  • দুগ্ধ বিজ্ঞান বিভাগ
  • হাঁস-মুরগি, গৃহপালিত পাখি বিজ্ঞান (পোলট্রি সায়েন্স) বিভাগ
  • জীনতত্ত্ব ও পশু প্রজনন বিভাগ
  • পরজীবী বিদ্যা (প্যারাসাইটোলজি) বিভাগ
  • রোগতত্ত্ব (প্যাথলজি) বিভাগ
  • চিকিৎসা বিদ্যা (মেডিসিন) বিভাগ
  • অস্ত্রপচার ও প্রাণীপ্রজন্মবিদ্যা (সার্জারি ও থেরিওজেনোলজি বিভাগ

কৃষি অনুষদ[সম্পাদনা]

কৃষি অনুষদ এগারোটি বিভাগ নিয়ে গঠিত। সেগুলো হল -

  • কৃষিতত্ত্ব ও হাওর কৃষি বিভাগ
  • মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগ
  • ফসল উদ্ভিদ বিজ্ঞান ও চা উৎপাদন প্রযুক্তি বিভাগ
  • কৌলিতত্ত্ব ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগ
  • উদ্যানতত্ত্ব বিভাগ
  • উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব ও বীজ বিজ্ঞান বিভাগ
  • কীটতত্ত্ব বিভাগ
  • কৃষি সম্প্রসারণ শিক্ষা বিভাগ
  • কৃষি বনায়ন ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগ
  • কৃষি রসায়ন বিভাগ
  • মৌলিক বিজ্ঞান ও ভাষা বিভাগ

মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ[সম্পাদনা]

মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদীয় ভবন, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ ছয়টি বিভাগ নিয়ে গঠিত। সেগুলো হল -

  • মৎস্য চাষ বিভাগ
  • জলজ সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগ
  • উপকূলীয় ও সামুদ্রিক মাৎস্যবিজ্ঞান বিভাগ
  • মৎস্য স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ
  • মৎস্য জীববিদ্যা ও কৌলিতত্ত্ব বিভাগ
  • মৎস্য প্রযুক্তি ও মান নিয়ন্ত্রণ বিভাগ

কৃষি অর্থনীতি ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ[সম্পাদনা]

কৃষি অর্থনীতি ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ পাঁচটি বিভাগ নিয়ে গঠিত। সেগুলো হল -

  • কৃষি অর্থনীতি ও পলিসি বিভাগ
  • কৃষি ও গ্রামীণ উন্নয়ন বিভাগ
  • কৃষি পরিসংখ্যান বিভাগ
  • কৃষি বিপণন ও ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা বিভাগ
  • কৃষি অর্থসংস্থান ও ব্যাংকিং বিভাগ

কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ[সম্পাদনা]

কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের নির্মিতব্য ভবন।

কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ পাঁচটি বিভাগ নিয়ে গঠিত। সেগুলো হল -

  • কৃষি শক্তি ও যন্ত্র বিভাগ
  • সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা বিভাগ
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ
  • কৃষিবিষয়ক নির্মাণ ও পরিবেশ প্রকৌশল বিভাগ
  • খাদ্য প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিভাগ

জৈবপ্রযুক্তি ও জীনতত্ত্ব প্রকৌশল অনুষদ[সম্পাদনা]

জৈবপ্রযুক্তি ও জীনতত্ত্ব প্রকৌশল অনুষদ ৬ (ছয়টি) বিভাগ নিয়ে গঠিত। সেগুলো হল -

  • আণবিক জীববিজ্ঞান এবং জীনতত্ত্ব প্রকৌশল বিভাগ
  • উদ্ভিদ এবং পরিবেশগত জৈব প্রযুক্তি বিভাগ
  • প্রাণী ও মাছ জৈবপ্রযুক্তি
  • ঔষধবিদ্যা (ফার্মাসিউটিকাল) এবং শিল্প জৈবপ্রযুক্তি বিভাগ
  • জীবাণু জৈবপ্রযুক্তি বিভাগ
  • জৈব রসায়ন ও রসায়ন বিভাগ

গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

সাবেক সিলেট সরকারি ভেটেরনারি কলেজ গ্রন্থাগারটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম গ্রন্থাগার রূপে প্রতিষ্ঠা লাভ করে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন গ্রন্থাগার ভবনের কাজ সমাপ্ত হওয়ার পর প্রসাশনিক ভবনের পার্শস্থ ভবনটি আধুনিক গ্রন্থাগার হিসেবে চলমান আছে।

উপাচার্যবৃন্দ[সম্পাদনা]

নিম্নোক্ত ব্যক্তিবর্গ সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন:[২][৩]

ক্রমিক নং উপাচার্য মেয়াদ
প্রফেসর ড. মোঃ ইকবাল হোসাইন ০৩.০১.২০০৭–০৮.০৩.২০০৯
প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুল আউয়াল ০৯.০৩.২০০৯–০৮.০৯.২০১০
প্রফেসর ড. মোঃ শহীদ উল্লাহ্‌ তালুকদার ০৯.০৯.২০১০–২৭.০৯.২০১৪
প্রফেসর ড. এম. গোলাম শাহী আলম ২৮.০৯.২০১৪-২৭.০৯.২০১৮
প্রফেসর ড. মোঃ মতিয়ার রহমান হাওলাদার ২৮.০৯.২০১৮–বর্তমান পর্যন্ত

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার[সম্পাদনা]

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

ভাষা শহীদ ও স্বাধীনতার বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার নিদর্শন স্বরুপ এই বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নির্মাণ করা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। এই শহীদ মিনারটি বাংলাদেশের সবচেয়ে দৃষ্টিনন্দন শহীদ মিনারের মধ্যে একটি। যার নামকরণ করা হয়েছে "সূর্যালোকে বর্ণমালা"।

আবাসিক হলসমূহ[সম্পাদনা]

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল
শাহ এ এম এস কিবরিয়া হল, তৎকালিন ভেটেরিনারি কলেজ প্রতিষ্ঠাকালীন ছাত্র হল।

ছাত্র হল[সম্পাদনা]

  1. জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল
  2. হুমায়ূন রশীদ চৌধুরী হল
  3. শাহ এ. এম. এস. কিবরিয়া হল
  4. আব্দুস সামাদ আজাদ হল
  5. হযরত শাহপরাণ হল

ছাত্রী হল[সম্পাদনা]

সুহাসিনী দাস হল, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।
  1. সুহাসিনী দাস হল
  2. বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হল

ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি)[সম্পাদনা]

শিক্ষক-ছাত্র কেন্দ্র (টিএসসি), সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে নবঘোষিত একটি শিক্ষক ছাত্র কেন্দ্র (টিএসসি) ভবন। এতে রয়েছে শিক্ষক ছাত্রদের জন্য একটি ক্যাফেটেরিয়া এবং ডিজিটাল ব্যাংকিং সুবিধাসহ একটি ব্যাংক।

ভৌত স্থাপনাসমূহ[সম্পাদনা]

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে-

প্রশাসনিক ভবন - ১ টি

অনুষদীয় ভবন - ডিভিএম ২, কৃষি ১, মাৎস্যবিজ্ঞান ১, কৃষি প্রকৌশল ১, কৃষি অর্থনীতি ১, বায়োটেকনোলজি ১ (অস্থায়ি)

কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি- ১ টি (ডিজিটাল লাইব্রেরি)

ভেটেরিনারি হাসপাতাল- ১ টি

ছাত্র হল - ৫ টি ( শাহ এ এম এস কিবরিয়া হল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী হল, আব্দুস সামাদ আযাদ হল, শাহ পরাণ হল

ছাত্রী হল - ২ টি (সুহাসীনি দাস হল, শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল)

শিক্ষক ছাত্রকেন্দ্র (টিএসসি)- ১ টি

কেন্দ্রীয় মসজিদ- ১ টি

কেন্দ্রীয় মন্দির- ১ টি

ব্যাংক- ১ টি (রূপালি ব্যাংক লিমিটেড, সিকৃবি শাখা)

টিচার্স ক্লাব - ১টি

কর্মচারী ভবন- ৫ টি

আবাসিক শিক্ষক ভবন- ৩ টি

কর্মকর্তা ডরমিটরি- ১ টি

অডিটরিয়াম- ১ টি

ছাত্র পরিবহন বাস- ৫ টি (নতুন দুইটি ২০২০ সালে যুক্ত হয়েছে)

কেন্দ্রীয় গ্যারেজ- ১ টি

এছাড়াও প্রসাশনিক ভবনে স্বাস্থ পরীক্ষার জন্য হেলথ সেন্টার রয়েছে।

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে বর্ণমালার দেয়াল।

সংগঠন[সম্পাদনা]

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে সক্রিয় রাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ

রাজনৈতিক সংগঠন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা কমিটি-

৩১ জুলাই, ২০২২ সালে ঘোষিত কমিটির বর্তমান সভাপতি মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ৭ম ব্যাচের শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান (আশিক) এবং সাধারণ সম্পাদক কৃষি অনুষদের ৯ম ব্যাচের শিক্ষার্থী মোঃ এমাদুল হোসেন। এর আগ ২০১২ সালের ৫ ডিসেম্বর ঘোষিত কমিটির সভাপতি ছিলেন ভেটেরিনারি এনিমেল ও বায়োমেডিকেল সায়েন্সেস অনুষদের সাবেক শিক্ষার্থী শামিম মোল্লা এবং সাধারণ সম্পাদক ছিলেন একই অনুষদের সাবেক শিক্ষার্থী ঋত্বিক দেব অপু।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব সক্রিয় সাংস্কৃতিক ও সামাজিক বেশ কিছু সংগঠন রয়েছে-

১। কৃষ্ণচুড়া সাংস্কৃতিক সংঘ

২। বিনোদন সংঘ

৩। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (সিকৃবিসাস)

৪। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটি (SAUDS)

৫। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আর্ট ক্লাব (SAUAC)

৬। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ (SAUFS)

৭। লুব্ধক (থিয়েটার)

৮। মৃত্তিকা (কৃষি ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংগঠন)

৯। প্রাধিকার

১১। পাঠশালা একুশ (সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা বিষয়ক সংগঠন)

১২। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ফটোগ্রাফিক সোসাইটি (SAUPS)

১৩। শৈবাল (মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদীয় সংগঠন)

১৫। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যারিয়ার ক্লাব

১৬। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ট্যুরিস্ট ক্লাব

১৭। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় পলেমিক ক্লাব (বিতর্ক সংগঠন)

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরের সামাজিক,সাংস্কৃতিক ও শিক্ষামূলক সংগঠনের শাখা-

০১। বাঁধন

০২। বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড সিলেট আঞ্চলিক কমিটি (২০১৮-বর্তমান)

০৩। IAAS Bangladesh, SAU

০৪। HULT Prize

০৫। Eco Network

০৬। প্রথম আলো বন্ধুসভা (বর্তমানে সক্রিয় নেই)

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "তেরো বছরের স্বপ্ন নিয়ে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়"campuslive24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-০৯ 
  2. "FORMER VICE-CHANCELLOR LIST"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০১৭ 
  3. "ABOUT VICE-CHANCELLOR"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]