প্রভাতরঞ্জন সরকার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
প্রভাতরঞ্জন সরকার
PRSarkar GentlemanPhoto 3.jpg
প্রভাতরঞ্জন সরকার
জন্ম(১৯২২-০৫-১১)১১ মে ১৯২২
মৃত্যু২১ অক্টোবর ১৯৯০(1990-10-21) (বয়স ৬৮)
জাতীয়তাভারতীয়
জাতিসত্তাবাঙালি
যেখানের শিক্ষার্থীবিদ্যাসাগর কলেজ
কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাদার্শনিক, গ্রন্থকার, সামাজিক বিপ্লবী, লেখক, কবি, রচয়িতা, বুদ্ধিজীবী, ভাষাবিদ এবং আধ্যাত্মিক শিক্ষক
যে জন্য পরিচিতপ্রতিষ্ঠাতা: আনন্দ মার্গ, প্রগতিশীল ব্যবহারিক তত্ত্ব, আমরা বাঙালী

প্রভাতরঞ্জন সরকার[১] (১১ মে ১৯২২;– ২১ অক্টোবর ১৯৯০), এছাড়া তিনি তাঁর আধ্যাত্মিক নাম শ্রী শ্রী আনন্দমূর্ত্তি এবং বাবা নামে তাঁর অনুসারীগণের কাছে পরিচিত; একজন ভারতীয় দার্শনিক, যোগী, গ্রন্থকার, সামাজিক বিপ্লবী, কবি, সঙ্গীতকার এবং ভাষাবিদ ছিলেন। ১৯৫৫ খ্রিস্টাব্দে, সরকার আনন্দমার্গ নামে একটি আধ্যাত্মিক তথা সামাজিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠা করেন; যেখানে ধ্যান এবং যোগব্যায়াম সম্পর্কিত নির্দেশনা প্রদান করা হয়। ভারতের সপ্তম রাষ্ট্রপতি জ্ঞানী জৈল সিং, সরকার সম্পর্কে বলেন যে: "প্রভাতরঞ্জন সরকার ভারতের সর্বশ্রেষ্ঠ আধুনিক দার্শনিক ছিলেন।"[২]

সরকারের আধ্যাত্মিক অনুশীলনের পদ্ধতিকে বৈদিক এবং তান্ত্রিক দর্শনশাস্ত্রের একটি বাস্তব সমন্বয় হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে।[৩] তিনি বস্তুবাদ ও পুঁজিবাদের নিন্দা করেছেন, এবং মহাবিশ্বকে গুরুভৌতিক অনুরুক্তির ফল হিসেবে বর্ণনা করেছেন;– সমগ্র মহাবিশ্ব মহাজাগতিক-মস্তিস্কের মধ্যে বিদ্যমাম, যার থেকে চেতনার প্রথম প্রকাশ এই ঘটে যে, সকলে নিজেই নিজের প্রকৃতির দাসত্বের আওতায়।

সরকার একজন ফলপ্রসূ গ্রন্থকার ছিলেন এবং মানবিক কল্যাণ যেমন সামাজিক চক্র নিয়ম, প্রগতিশীল ব্যবহারিক তত্ত্ব, Theory of Microvitum, এবং নব্যমানবতাবাদ দর্শনের মত মানব কল্যাণ বৃদ্ধির লক্ষ্যে তত্ত্ব সহ ব্যাপক কর্ম রচনা করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. প্রভাতরঞ্জন সরকার কর্তৃক রচিত "বাংলা ও বাঙালী" গ্রন্থে উল্লেখিত বানান: শ্রীপ্রভাতরঞ্জন সরকার; সেই অনুরূপ ব্যবহার করা হলো
  2. এনায়েতুল্লাহ, সোহেল। (২০০২) Understanding Sarkar: The Indian Episteme, Macrohistory and Transformative Knowledge. Leiden: Brill, আইএসবিএন ৯০০৪১২১৯৩৫, authors book page.
  3. Ishwaran 1999, পৃ. 9।

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]