গৌরগোবিন্দ রায়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
গৌরগোবিন্দ রায়
জন্ম ১৮৪১
মৃত্যু ১৯১২
জাতিসত্তা বাঙালি
যে জন্য পরিচিত গ্রন্থকার, পত্রিকা সম্পাদক

গৌরগোবিন্দ রায় (জন্ম: ১৮৪১ - মৃত্যু: ১৯১২) একজন গ্রন্থকার, ব্রাহ্মধর্মের উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব এবং পত্রিকা সম্পাদক ।

গৌরগোবিন্দ রায় বর্তমান বাংলাদেশের পাবনার ঘোড়াচরার নিবাসী ছিলেন । তাঁর পিতার নাম গৌরমোহন । তাঁর খুল্লতাত তাঁকে পোষ্যপুত্র নিয়েছিলেন । তিনি রংপুর হাইস্কুলে এন্ট্রান্স পর্যন্ত পড়েন । তারপর সংস্কৃত এবং ফারসী এবং এক মুসলমান সাধুর কাছে দরশ শিক্ষা করেন ।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

গৌরগোবিন্দ রায় ১৮৬৩ থেকে ১৮৬৬ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত পুলিশ বিভাগের সাব-ইন্সপেক্টর ছিলেন । ১৮৬৬ খ্রিস্টাব্দে চাকরি ছেড়ে তিনি কেশবচন্দ্রের অনুগামী হন ও প্রচারকের ভূমিকা গ্রহণ করেন । ১৮৭৯ খ্রিস্টাব্দে কেশবচন্দ্র তাঁকে ধর্মশাস্ত্রের আলোচনা ও ব্যাখ্যার জন্য নিযুক্ত করেন । এবং ১৮৭৬ খ্রিস্টাব্দে উপাধ্যায় উপাধি ও জ্ঞানশিক্ষার্থী ব্রত দেন । তিনি আমরন এই কাজে নিযুক্ত ছিলেন । ব্রাহ্মধর্মের আদর্শবাণী সুবিশালমিদং বিশ্বং পবিত্রং ব্রাহ্মমন্দিরম ইত্যাদি শ্লোকটি তাঁরই রচনা ।

ধর্মতত্ত্ব পত্রিকার সম্পাদনা এবং ভিক্টোরিয়া বালিকা বিদ্যালয় পরিচালনায় সহযোগিতা করা তাঁর জীবনের অন্যতম উল্লেখযোগ্য কাজ । শ্রুত প্রকাশ নামে সংস্কৃত পত্রিকা এবং কেশবচন্দ্রের নবসংহিতা, যোগ, জীবনবেদব্রহ্মগীতোপনিষদের সংস্কৃত অনুবাদ প্রকাশ করেন । তিনি জীবনের শেষ দুই বছর সন্ন্যাস অবলম্বন করেছিলেন ।

তাঁর রচিত উল্লেখযোগ্য সংস্কৃত ও বাংলা গ্রন্থ :

  • শ্রীমদ্‌ভগবদ্গীতাসমন্বয়ভাষ্য
  • শ্রীমদ্‌ভগদ্গীতা প্রপূর্ত্তি
  • বেদান্তসমন্বয়ভাষ্যং
  • শ্রীকৃষ্ণের জীবন ও ধর্ম
  • আচার্য কেশবচন্দ্র প্রভৃতি

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান - প্রথম খণ্ড - সংশোধিত চতুর্থ সংস্করন - সাহিত্য সংসদ