২০২০-২৩ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০২০-২৩ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ
তারিখ৩০ জুলাই ২০২০ – ৩১ মার্চ ২০২৩
ব্যবস্থাপকআন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
ক্রিকেটের ধরনএকদিনের আন্তর্জাতিক
প্রতিযোগিতার ধরনগ্রুপ টুর্নামেন্ট
আয়োজকবিভিন্ন
অংশগ্রহণকারী১৩
খেলার সংখ্যা১৫৬

২০২০-২০২৩ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ (ইংরেজি: The 2020–23 ICC Cricket World Cup Super League) [১][২] একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) এর একটি উদ্বোধনী সংস্করন হবে।[৩] উক্ত লিগ প্রতিযোগিতাটি জুলাই ২০২০ থেকে শুরু হয়ে মার্চ ২০২৩ পর্যন্ত চলবে এবং ২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের কাজ সম্পন্ন করবে।[৪] ৩০ জুলাই ২০২০ থেকে শুরু ইংল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার সিরিজ ছিল লিগের প্রথম ম্যাচ। কোভিড-১৯ মহামারী লিগের শুরুতে প্রভাব বিস্তার করে, বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক ম্যাচ স্থগিত করা হয়।[৫]

টুর্নামেন্টে ১৩টি আন্তর্জাতিক দলকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এর মধ্যে ১২টি হচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের পূর্ণ সদস্য এবং ২০১৫-১৭ আইসিসি বিশ্ব ক্রিকেট লিগ চ্যাম্পিয়নশিপ বিজয়ী নেদারল্যান্ডস এই প্রতিযোগিতার জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছে।[৬] প্রতিটি দল একটি করে ওডিআই সিরিজ খেলবে ১২টি দলের মধ্যে ৮টি দলের সাথে। চারটি সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে নিজ দেশের মাঠে এবং অপর চারটি সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে বিপক্ষ দলের খেলার মাঠে। প্রতিটি সিরিজে থাকবে তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক খেলা।[৭]

প্রতিযোগী দল ও যোগ্যতা অর্জন[সম্পাদনা]

২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জনের লেখচিত্র

২০২৩ বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন[সম্পাদনা]

বিশ্বকাপের জন্য শীর্ষ ৭টি দল ও ২০২৩ বিশ্বকাপের আয়োজক দল ভারত সহ মোট ৮টি দল স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা অর্জন করবে। বাকী পাঁচটি দল, অনির্ধারিত সংখ্যক এসোসিয়েট সদস্য দলের সাথে বাছাইপর্ব খেলবে। সেখান থেকে মাত্র দুটি দল ফাইনাল প্রতিযোগিতার মধ্যদিয়ে বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। [৯]

তালিকা সূচি[সম্পাদনা]

২০ জুন ২০১৮ তারিখে ২০১৮-২৩ আইসিসি ভবিষ্যত ট্যুর পরিকল্পনার অংশ হিসাবে খেলার তালিকা সূচি প্রকাশ করা হয়। [১০][১১]

স্বাগতিক \ সফরকারী
 আফগানিস্তান ৩–০(৩)
(ওয়াকওভার)
৩–০(৩) ৩–০(৩) ফেব্রু'২২
 অস্ট্রেলিয়া ২–১(৩) ৩–০(৩) ৩–০(৩)
(ওয়াকওভার)
২–১(৩)
 বাংলাদেশ ২–১(৩) মার্চ'২৩ ২–১(৩) ৩–০(৩)
 ইংল্যান্ড ১–২(৩) ২–১(৩) ৩–০(৩) ২–০(৩)
 ভারত স্থগিত ২–১(৩) ২–১(৩) ৩–০(৩)
 আয়ারল্যান্ড মে'২৩ ০–৩(৩) ১–১(৩) ১–১(৩)
 নেদারল্যান্ডস ০–৩(৩) ২–১(৩) ০–৩(৩) ০–৩(৩)
 নিউজিল্যান্ড ৩–০(৩) ১–০(৩) ৩–০(৩) মার্চ'২৩
 পাকিস্তান ২–১(৩) ১–২(৩) ৩–০(৩) ২–১(৩)
 দক্ষিণ আফ্রিকা ১–২(৩) জানু'২৩ ০–০(৩) ১–২(৩)
 শ্রীলঙ্কা ১–১(৩) ১–২(৩) ২–১ (৩) ২–১(৩)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১–২(৩) ১–২(৩) ১–২(৩) ৩–০(৩)
 জিম্বাবুয়ে ০–৩(৩) ০–৩(৩) ০–৩(৩) মার্চ'২৩
২২ আগস্ট ২০২২ তারিখের ম্যাচ শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: ক্রিকইনফো
রং: নীল = স্বাগতিক দল বিজয়ী; হলুদ = ড্র; লাল = সফরকারী দল বিজয়ী।
  • ^ = দক্ষিণ আফ্রিকা অস্ট্রেলিয়ার সাথে ওডিআই সিরিজ না খেলার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় অস্ট্রেলিয়া বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৩-০ তে সিরিজ জিতে যায়।[১২][১৩]


যে কোন দলের সাথে যে চারটি দল উক্ত প্রতিযোগিতায় একে অপরের মুখোমুখি হবে না তাদের তালিকা নিম্নরূপ

দল যে সকল দলের সাথে খেলবে না
আফগানিস্তান   ইংল্যান্ড  নিউজিল্যান্ড  দক্ষিণ আফ্রিকা  ওয়েস্ট ইন্ডিজ
অস্ট্রেলিয়া   বাংলাদেশ  আয়ারল্যান্ড  নেদারল্যান্ডস  শ্রীলঙ্কা
বাংলাদেশ   অস্ট্রেলিয়া  ভারত  নেদারল্যান্ডস  পাকিস্তান
ইংল্যান্ড   আফগানিস্তান  নিউজিল্যান্ড  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  জিম্বাবুয়ে
ভারত   বাংলাদেশ  আয়ারল্যান্ড  নেদারল্যান্ডস  পাকিস্তান
আয়ারল্যান্ড   অস্ট্রেলিয়া  ভারত  পাকিস্তান  শ্রীলঙ্কা
নেদারল্যান্ডস   অস্ট্রেলিয়া  বাংলাদেশ  ভারত  শ্রীলঙ্কা
নিউজিল্যান্ড   আফগানিস্তান  ইংল্যান্ড  দক্ষিণ আফ্রিকা  জিম্বাবুয়ে
পাকিস্তান   বাংলাদেশ  ভারত  আয়ারল্যান্ড  শ্রীলঙ্কা
দক্ষিণ আফ্রিকা   আফগানিস্তান  নিউজিল্যান্ড  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  জিম্বাবুয়ে
শ্রীলঙ্কা   অস্ট্রেলিয়া  আয়ারল্যান্ড  নেদারল্যান্ডস  পাকিস্তান
ওয়েস্ট ইন্ডিজ   আফগানিস্তান  ইংল্যান্ড  দক্ষিণ আফ্রিকা  জিম্বাবুয়ে
জিম্বাবুয়ে   ইংল্যান্ড  নিউজিল্যান্ড  দক্ষিণ আফ্রিকা  ওয়েস্ট ইন্ডিজ

লিগের পয়েন্ট টেবিল[সম্পাদনা]

অব দল খেলা হা ফহ বি পয়েন্ট এনআরআর যোগ্যতা অর্জন
 নিউজিল্যান্ড (Q) ২১ ১৪ ১৫০ +০.৬৯৭ ২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য যোগ্যতা অর্জন।[ক]
 ভারত (Q) ২১ ১৩ ১৩৯[খ] +০.৭৮২
 পাকিস্তান (Q) ২১ ১৩ ১৩০ +০.১০৮
 ইংল্যান্ড (Q) ১৮ ১২ ১২৫ +১.২১৯
 অস্ট্রেলিয়া (Q) ১৮ ১২ ১২০ +০.৭৮৫
 বাংলাদেশ (Q) ১৮ ১২ ১২০ +০.৩৮৪
 আফগানিস্তান (Q) ১৫ ১১ ১১৫ +০.৫৭৩
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৪ ১৫ ৮৮[গ] −০.৭৩৮
 শ্রীলঙ্কা ২১ ১২ ৭৭[ঘ] −০.০৯৪ ২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের জন্য যোগ্যতা অর্জন।
১০  আয়ারল্যান্ড ২১ ১৩ ৬৮[ঙ] −০.৩৮২
১১  দক্ষিণ আফ্রিকা ১৬ ৫৯[চ] −০.৪৫৮
১২  জিম্বাবুয়ে (A) ২১ ১৬ ৪৫ −১.১৪১
১৩  নেদারল্যান্ডস (A) ১৯ ১৬ ২৫ −১.১৬৩
১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখের ম্যাচ শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: আইসিসি,[২০] ইএসপিএন ক্রিকইনফো[২১]
(A) পরবর্তী পর্বে অগ্রিম উন্নীত; (Q) প্রতিযোগিতার নির্দেশিত পর্যায়ে যাওয়ার উপযুক্ত।
টীকা:
  1. ভারত স্বাগতিক হিসেবে সরাসরি যোগ্যতা অর্জন করেছে।
  2. ২৭ নভেম্বর ২০২০-এ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ধীরগতির ওভার রেট করার জন্য ভারতের এক পয়েন্ট কাটা হয়েছে।[১৪]
  3. ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২১ আগস্ট ২০২২-এ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ধীরগতির ওভার রেট জন্য দুই পয়েন্ট কাটা হয়েছিল।[১৫]
  4. ১৪ মার্চ ২০২১-এ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ধীরগতির ওভার রেট করার জন্য শ্রীলঙ্কার দুই পয়েন্ট কাটা হয়েছে এবং ২০ জুলাই ২০২১-এ ভারতের বিপক্ষে ধীরগতির ওভার রেট করার জন্য শ্রীলঙ্কার এক পয়েন্ট কাটা হয়েছে।[১৬][১৭]
  5. ৮ জানুয়ারী ২০২২-এ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ধীরগতির ওভার রেট করার জন্য আয়ারল্যান্ডের দুই পয়েন্ট কাটা হয়েছে।[১৮]
  6. ২ এপ্রিল ২০২১-এ পাকিস্তানের বিপক্ষে ধীরগতির ওভার রেট করার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার দুই পয়েন্ট কাটা হয়েছে।[১৯]


ক্রীড়াসূচি[সম্পাদনা]

২০২০[সম্পাদনা]

ইংল্যান্ড ব আয়ারল্যান্ড[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত সেপ্টেম্বর ২০২০ এর জন্য নির্ধারিত ছিল, কিন্তু কোভিড-১৯ এর কারণে একে পুনরায় সূচিত করা হয়।

৩০ জুলাই ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৭২ (৪৪.৪ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৭৪/৪ (২৭.৫ ওভার)
ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী
রোজ বোল, সাউদাম্পটন
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ১০, আয়ারল্যান্ড ০
১ আগস্ট ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
২১২/৯ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২১৬/৬ (৩২.৩ ওভার)
ইংল্যান্ড ৪ উইকেটে জয়ী
রোজ বোল, সাউদাম্পটন
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ১০, আয়ারল্যান্ড ০
৪ আগস্ট ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৩২৮ (৪৯.৫ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
৩২৯/৩ (৪৯.৫ ওভার)
আয়ারল্যান্ড ৭ উইকেটে জয়ী
রোজ বোল, সাউদাম্পটন
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ১০, ইংল্যান্ড ০

ইংল্যান্ড ব অস্ট্রেলিয়া[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত জুলাই ২০২০ এ অনুষ্ঠিত হতে নির্ধারিত ছিল, কিন্তু কোভিড-১৯ এর কারণে পুনরায় সূচী নির্ধারণ করা হয়।

১১ সেপ্টেম্বর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২৯৪/৯ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২৭৫/৯ (৫০ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ১৯ রানে জয়ী
ওল্ড ট্রাফর্ড, ম্যানচেস্টার
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, ইংল্যান্ড ০
১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
২৩১/৯ (৫০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
২০৭ (৪৮.৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ২৪ রানে জয়ী
ওল্ড ট্রাফর্ড, ম্যানচেস্টার
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ১০, অস্ট্রেলিয়া ০
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৩০২/৭ (৫০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
৩০৫/৭ (৪৯.৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৩ উইকেটে জয়ী
ওল্ড ট্রাফর্ড, ম্যানচেস্টার
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, ইংল্যান্ড ০

পাকিস্তান ব জিম্বাবুয়ে[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত নভেম্বর ২০২০ এ অনুষ্ঠিত হতে নির্ধারিত ছিল।[১০]

৩০ অক্টোবর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
২৮১/৮ (৫০ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
২৫৫ (৪৯.৪ ওভার)
১ নভেম্বর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
২০৬ (৪৫.১ ওভার)
 পাকিস্তান
২০৮/৪ (৩৫.২ ওভার)

অস্ট্রেলিয়া ব ভারত[সম্পাদনা]

২৭ নভেম্বর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৬/৩৭৪ (৫০ ওভার)
 ভারত
৮/৩০৮ (৫০ ওভার)
২৯ নভেম্বর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৪/৩৮৯ (৫০ ওভার)
 ভারত
৯/৩৩৮ (৫০ ওভার)
২ ডিসেম্বর ২০২০
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
৫/৩০২ (৫০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
২৮৯ (৪৯.৩ ওভার)
ভারত ১৩ রানে জয়ী
ম্যানুকা ওভাল, ক্যানবেরা
পয়েন্ট: ভারত ১০, অস্ট্রেলিয়া ০

২০২০-২১[সম্পাদনা]

বাংলাদেশ ব ওয়েস্ট ইন্ডিজ[সম্পাদনা]

২০ জানুয়ারি ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১২২ (৩২.২ ওভার)
 বাংলাদেশ
১২৫/৪ (৩৩.৫ ওভার)
২২ জানুয়ারি ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১৪৮ (৪৩.৪ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৪৯/৩ (৩৩.২ ওভার)
২৫ জানুয়ারি ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২৯৭/৬ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৭৭ (৪৪.২ ওভার)

আফগানিস্তান ব আয়ারল্যান্ড[সম্পাদনা]

২১ জানুয়ারি ২০২১
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২৮৭/৯ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
২৭১/৯ (৫০ ওভার)
২৪ জানুয়ারি ২০২১
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
২৫৯/৯ (৫০ ওভার)
 আফগানিস্তান
২৬০/৩ (৪৫.২ ওভার)
২৬ জানুয়ারি ২০২১
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২৬৬/৯ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
২৩০ (৪৭.১ ওভার)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব শ্রীলঙ্কা[সম্পাদনা]

১০ মার্চ ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৩২ (৪৯ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২৩৬/২ (৪৭ ওভার)
১২ মার্চ ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৭৩/৮ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২৭৪/৫ (৪৯.৪ ওভার)
১৪ মার্চ ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৭৪/৬ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২৭৬/৫ (৪৮.৩ ওভার)

নিউজিল্যান্ড ব বাংলাদেশ[সম্পাদনা]

২০ মার্চ ২০২১
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৩১ (৪১.৫ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১৩২/২ (২১.২ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী
ইউনিভার্সিটি ওভাল, ডুনেডিন
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, বাংলাদেশ ০
২৩ মার্চ ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২৭১/৬ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
২৭৫/৫ (৪৮.২ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী
হ্যাগলে ওভাল, ক্রাইস্টচার্চ
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, বাংলাদেশ ০
২৬ মার্চ ২০২১
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
৩১৮/৬ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৫৪ (৪২.৪ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ১৬৪ রানে জয়ী
ব্যাসিন রিজার্ভ, ওয়েলিংটন
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, বাংলাদেশ ০

ভারত ব ইংল্যান্ড[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত ২০২০ এর সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু সেপ্টেম্বর-নভেম্বর ২০২০ সময়ে ২০২০ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ শুরু হওয়ার কারণে সিরিজটিকে পুনঃনির্ধারণ করে ২০২১ এর মার্চে স্থানান্তর করা হয়।[২২]

২৩ মার্চ ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩১৭/৫ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২৫১ (৪২.১ ওভার)
২৬ মার্চ ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩৩৬/৬ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
৩৩৭/৪ (৪৩.৩ ওভার)
২৮ মার্চ ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩২৯ (৪৮.২ ওভার)
 ইংল্যান্ড
৩২২/৯ (৫০ ওভার)

দক্ষিণ আফ্রিকা ব পাকিস্তান[সম্পাদনা]

সিরিজটি মূলতঃ ২০২০ এর অক্টোবরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে পুনঃনির্ধারিত করা হয়।

২ এপ্রিল ২০২১
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৭৩/৬ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
২৭৪/৭ (৫০ ওভার)
পাকিস্তান ৩ উইকেটে জয়ী
সেঞ্চুরিয়ন পার্ক, সেঞ্চুরিয়ন
পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, দক্ষিণ আফ্রিকা ০
৪ এপ্রিল ২০২১
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
৩৪১/৬ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
৩২৪/৯ (৫০ ওভার)
৭ এপ্রিল ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
৩২০/৭ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
২৯২ (৪৯.৩ ওভার)
পাকিস্তান ২৮ রানে জয়ী
সেঞ্চুরিয়ন পার্ক, সেঞ্চুরিয়ন
পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, দক্ষিণ আফ্রিকা ০

২০২১[সম্পাদনা]

বাংলাদেশ ব শ্রীলঙ্কা[সম্পাদনা]

সিরিজটি মূলতঃ ২০২০ এর ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে পিছিয়ে দেয়া হয়।

২৩ মে ২০২১
বাংলাদেশ 
২৫৭/৬ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
২২৪ (৪৮.১ ওভার)
২৫ মে ২০২১
বাংলাদেশ 
২৪৬ (৪৮.১ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৪১/৯ (৪০ ওভার)
২৮ মে ২০২১
বাংলাদেশ 
২৮৬/৬ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৮৯ (৪২.৩ ওভার)

নেদারল্যান্ডস ব আয়ারল্যান্ড[সম্পাদনা]

২ জুন ২০২১
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
১৯৫ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১৯৪/৯ (৫০ ওভার)
৪ জুন ২০২১
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
১৫৭ (৪৯.২ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১৫৮/২ (৪৩ ওভার)
৭ জুন ২০২১
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৬৩ (৪৯.২ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৬৬/৬ (৪৫.৫ ওভার)

ইংল্যান্ড ব শ্রীলঙ্কা[সম্পাদনা]

২৯ জুন ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৮৫ (৪২.৩ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৮৯/৫ (৩৪.৫ ওভার)
১ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৪১/৯ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২৪৪/২ (৪৩ ওভার)
ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ১০, শ্রীলঙ্কা ০
৪ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৬৬ (৪১.১ ওভার)
ফলাফল নেই
ব্রিস্টল কাউন্টি গ্রাউন্ড, ব্রিস্টল
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ৫, শ্রীলঙ্কা ৫

ইংল্যান্ড ব পাকিস্তান[সম্পাদনা]

৮ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
১৪১ (৩৫.২ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৪২/১ (২১.৫ ওভার)
ইংল্যান্ড ৯ উইকেটে জয়ী
সোফিয়া গার্ডেন্স, কার্ডিফ
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ১০, পাকিস্তান ০
১০ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
২৪৭ (৪৫.২ ওভার)
 পাকিস্তান
১৯৫ (৪১ ওভার)
ইংল্যান্ড ৫২ রানে জয়ী
লর্ডস, লন্ডন
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ১০, পাকিস্তান ০
১৩ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
৩৩১/৯ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
৩৩২/৭ (৪৮ ওভার)
ইংল্যান্ড ৩ উইকেটে জয়ী
এজবাস্টন, বার্মিংহাম
পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ১০, পাকিস্তান ০

আয়ারল্যান্ড ব দক্ষিণ আফ্রিকা[সম্পাদনা]

১১ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৯৫/৪ (৪০.২ ওভার)
ফলাফল নেই
দ্য ভিলেজ, মেলাহাইড,ডাবলিন
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ৫, দক্ষিণ আফ্রিকা ৫
১৩ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
২৯০/৫ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
২৪৭ (৪৮.৩ ওভার)
আয়ারল্যান্ড ৪৩ রানে জয়ী
দ্য ভিলেজ, মেলাহাইড,ডাবলিন
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ১০, দক্ষিণ আফ্রিকা ০
১৬ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
৩৪৬/৪ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
২৭৬ (৪৭.১ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৭০ রানে জয়ী
দ্য ভিলেজ, মেলাহাইড,ডাবলিন
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ০, দক্ষিণ আফ্রিকা ১০

শ্রীলঙ্কা ব ভারত[সম্পাদনা]

১৮ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৬২/৯ (৫০ ওভার)
 ভারত
২৬৩/৩ (৩৬.৪ ওভার)
২০ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৭৫/৯ (৫০ ওভার)
 ভারত
২৭৭/৭ (৪৯.১ ওভার)
২৩ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
ভারত 
২২৫ (৪৩.১ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
২২৭/৭ (৩৯ ওভার)

জিম্বাবুয়ে ব বাংলাদেশ[সম্পাদনা]

১৬ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২৭৬/৯ (৫০ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
১২১ (২৮.৫ ওভার)
বাংলাদেশ ১৫৫ রানে জয়ী
হারারে স্পোর্টস ক্লাব, হারারে
পয়েন্ট: বাংলাদেশ ১০, জিম্বাবুয়ে ০
১৮ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
২৪০/৯ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
২৪২/৭ (৪৯.১ ওভার)
বাংলাদেশ ৩ উইকেটে জয়ী
হারারে স্পোর্টস ক্লাব, হারারে
পয়েন্ট: বাংলাদেশ ১০, জিম্বাবুয়ে ০
২০ জুলাই ২০২১
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
২৯৮ (৪৯.৩ ওভার)
 বাংলাদেশ
৩০২/৫ (৪৮ ওভার)
বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী
হারারে স্পোর্টস ক্লাব, হারারে
পয়েন্ট: বাংলাদেশ ১০, জিম্বাবুয়ে ০

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব অস্ট্রেলিয়া[সম্পাদনা]

২০ জুলাই ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২৫২/৯ (৪৯ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১২৩ (২৬.২ ওভার)
২২–২৪ জুলাই ২০২১[২৪]
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৮৭ (৪৭.১ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৯১/৬ (৩৮ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪ উইকেটে জয়ী
কেনসিংটন ওভাল, বার্বাডোস
পয়েন্ট: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০, অস্ট্রেলিয়া ০
২৬ জুলাই ২০২১[২৫]
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১৫২ (৪৫.১ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
১৫৩/৪ (৩০.৩ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৬ উইকেটে জয়ী
কেনসিংটন ওভাল, বার্বাডোস
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ০

আয়ারল্যান্ড ব জিম্বাবুয়ে[সম্পাদনা]

৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
২৬৬/৭ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
২২৮ (৪৮.৪ ওভার)
জিম্বাবুয়ে ৩৮ রানে জয়ী
স্টরমন্ট, বেলফাস্ট
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ০, জিম্বাবুয়ে ১০
১০ সেপ্টেম্বর ২০২১
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
২৮২/৮ (৫০ ওভার)
ফলাফল হয়নি
স্টরমন্ট, বেলফাস্ট
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ৫, জিম্বাবুয়ে ৫
১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
১৩১ (৩৪ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১১৮/৩ (২২.২ ওভার)
আয়ারল্যান্ড ৭ উইকেটে জয়ী (ডিএলএস পদ্ধতি)
স্টরমন্ট, বেলফাস্ট
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ১০, জিম্বাবুয়ে ০

২০২১-২২[সম্পাদনা]

শ্রীলঙ্কা ব দক্ষিণ আফ্রিকা[সম্পাদনা]

এটি কোভিড-১৯ এর কারণে পূর্বে স্থগিত রাখা হলেও সেপ্টেম্বর ২০২১-এ খেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

২ সেপ্টেম্বর ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
৩০০/৯ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
২৮৬/৬ (৫০ ওভার)
৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৮৩/৬ (৪৭ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৯৭ (৩৬.৪ ওভার)
৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২০৩/৯ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১২৫ (৩০ ওভার)

দক্ষিণ আফ্রিকা ব নেদারল্যান্ডস[সম্পাদনা]

২৬ নভেম্বর ২০২১
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৭৭/৮ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১১/০ (২ ওভার)
ফলাফল হয়নি
সেঞ্চুরিয়ন পার্ক, সেঞ্চুরিয়ন
পয়েন্ট: দক্ষিণ আফ্রিকা ৫, নেদারল্যান্ডস ৫

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব আয়ারল্যান্ড[সম্পাদনা]

শেষ দুটি ম্যাচের তারিখ কোভিড-১৯ এর জন্য বদল করা হয়।

৮ জানুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
২৬৯ (৪৮.৫ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
২৪৫ (৪৯.১ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৪ রানে জয়ী
সাবিনা পার্ক, জ্যামাইকা
পয়েন্ট: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০, আয়ারল্যান্ড –২[২৬]
১৩ জানুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
২২৯ (৪৮ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১৬৮/৫ (৩২.৪ ওভার)
আয়ারল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী (ডি/এল পদ্ধতি)
সাবিনা পার্ক, জ্যামাইকা
পয়েন্ট: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ০, আয়ারল্যান্ড ১০
১৬ জানুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
২১২ (৪৪.৪ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
২১৪/৮ (৪৪.৫ ওভার)
আয়ারল্যান্ড ২ উইকেটে জয়ী
সাবিনা পার্ক, জ্যামাইকা
পয়েন্ট: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ০, আয়ারল্যান্ড ১০

শ্রীলঙ্কা ব জিম্বাবুয়ে[সম্পাদনা]

২০২০ সালের অক্টোবর মাসে এটি হবার কথা থাকলেও কোভিড-১৯ এর জন্য ২০২২ সালের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হয়।

১৬ জানুয়ারি ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
২৯৬/৯ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
৩০০/৫ (৪৮.৩ ওভার)
১৮ জানুয়ারি ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
৩০২/৮ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
২৮০/৯ (৫০ ওভার)
২১ জানুয়ারি ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৫৪/৯ (৫০ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
৭০ (২৪.৪ ওভার)

আফগানিস্তান ব নেদারল্যান্ডস[সম্পাদনা]

২১ জানুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২২২/৮ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৮৬ (৪৮ ওভার)
২৩ জানুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২৩৭/৬ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৮৯ (৪৭.৪ ওভার)
২৫ জানুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২৫৪/৫ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৭৯ (৪২.৪ ওভার)

ভারত ব ওয়েস্ট ইন্ডিজ[সম্পাদনা]

৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১৭৬ (৪৩.৫ ওভার)
 ভারত
১৭৮/৪ (২৮ ওভার)
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
২৩৭/৯ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৯৩ (৪৬ ওভার)
১১ ফেব্রুয়ারি ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
২৬৫ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৬৯ (৩৭.১ ওভার)

বাংলাদেশ ব আফগানিস্তান[সম্পাদনা]

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২১৫ (৪৯.১ ওভার)
 বাংলাদেশ
২১৯/৬ (৪৮.৫ ওভার)
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৩০৬/৪ (৫০ ওভার)
 আফগানিস্তান
২১৮ (৪৫.১ ওভার)
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৯২ (৪৬.৫ ওভার)
 আফগানিস্তান
১৯৩/৩ (৪০.১ ওভার)

দক্ষিণ আফ্রিকা ব বাংলাদেশ[সম্পাদনা]

১৮ মার্চ ২০২২
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৩১৪/৭ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
২৭৬ (৪৮.৫ ওভার)
বাংলাদেশ ৩৮ রানে জয়ী
সেঞ্চুরিয়ন পার্ক, সেঞ্চুরিয়ন
পয়েন্ট: দক্ষিণ আফ্রিকা ০, বাংলাদেশ ১০
২০ মার্চ ২০২২
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৯৪/৯ (৫০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৯৫/৩ (৩৭.২ ওভার)
২৩ মার্চ ২০২২
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১৫৪ (৩৭ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৫৬/১ (২৬.৩ ওভার)
বাংলাদেশ ৯ উইকেটে জয়ী
সেঞ্চুরিয়ন পার্ক, সেঞ্চুরিয়ন
পয়েন্ট: দক্ষিণ আফ্রিকা ০, বাংলাদেশ ১০

নিউজিল্যান্ড ব নেদারল্যান্ডস[সম্পাদনা]

২৯ মার্চ ২০২২
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
২০২ (৪৯.৪ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
২০৪/৩ (৩৮.৩ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৭ উইকেটে জয়ী
বে ওভাল, মাউন্ট মঙ্গানুই
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, নেদারল্যান্ডস ০
২ এপ্রিল ২০২২
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
২৬৪/৯ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৪৬ (৩৪.১ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ১১৮ রানে জয়ী
সেডন পার্ক, হ্যামিল্টন
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, নেদারল্যান্ডস ০
৪ এপ্রিল ২০২২
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
৩৩৩/৮ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
২১৮ (৪২.৩ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ১১৫ রানে জয়ী
সেডন পার্ক, হ্যামিল্টন
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, নেদারল্যান্ডস ০

পাকিস্তান ব অস্ট্রেলিয়া[সম্পাদনা]

২৯ মার্চ ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৩১৩/৭ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
২২৫ (৪৫.২ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৮৮ রানে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
পয়েন্ট: পাকিস্তান ০, অস্ট্রেলিয়া ১০
৩১ মার্চ ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৩৪৮/৮ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
৩৪৯/৪ (৪৯ ওভার)
পাকিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, অস্ট্রেলিয়া ০
২ এপ্রিল ২০২২
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২১০ (৪১.৫ ওভার)
 পাকিস্তান
২১৪/১ (৩৭.৫ ওভার)
পাকিস্তান ৯ উইকেটে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, অস্ট্রেলিয়া ০

নেদারল্যান্ডস ব ওয়েস্ট ইন্ডিজ[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি আসলে জুন ২০২০-তে খেলার কথা ছিল কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য স্থগিত হয়।

৩১ মে ২০২২
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
২৪০/৭ (৪৫ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২৪৯/৩ (৪৩.১ ওভার)
২ জুন ২০২২
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
২১৪ (৪৮.৩ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২১৭/৫ (৪৫.৩ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫ উইকেটে জয়ী
ভিআরএ ক্রিকেট গ্রাউন্ড, আমস্টেলভিন
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০
৪ জুন ২০২২
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
৩০৮/৫ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
২৮৮ (৪৯.৫ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২০ রানে জয়ী
ভিআরএ ক্রিকেট গ্রাউন্ড, আমস্টেলভিন
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০

জিম্বাবুয়ে ব আফগানিস্তান[সম্পাদনা]

মূলত এটি ফেব্রুয়ারি ২০২২-এ হবার কথা ছিল। কিন্তু জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট ডিআরএস পদ্ধতি পূর্ণমাত্রায় সচল করতে না পারায় জানুয়ারিতে এটি স্থগিত ঘোষিত হয়।[২৭][২৮] জুন ২০২২-এ পুনরায় সূচি ভুক্ত করা হয়।[২৯]

৪ জুন ২০২২
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২৭৬/৫ (৫০ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
২১৬ (৫০ ওভার)
আফগানিস্তান ৬০ রানে জয়ী
হারারে স্পোর্টস ক্লাব, হারারে
পয়েন্ট: জিম্বাবুয়ে ০, আফগানিস্তান ১০
৬ জুন ২০২২
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
২২৮ (৫০ ওভার)
 আফগানিস্তান
২২৯/২ (৪৪.৩ ওভার)
আফগানিস্তান ৮ উইকেটে জয়ী
হারারে স্পোর্টস ক্লাব, হারারে
পয়েন্ট: জিম্বাবুয়ে ০, আফগানিস্তান ১০
৯ জুন ২০২২
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
১৩৫ (৪৪.৫ ওভার)
 আফগানিস্তান
১৩৭/৬ (৩৭.৪ ওভার)
আফগানিস্তান ৪ উইকেটে জয়ী
হারারে স্পোর্টস ক্লাব, হারারে
পয়েন্ট: জিম্বাবুয়ে ০, আফগানিস্তান ১০

পাকিস্তান ব ওয়েস্ট ইন্ডিজ[সম্পাদনা]

মূলত সিরিজটি ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল,[৩০] কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য স্থগিত করা হয়।[৩১][৩২]

ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
৩০৫/৮ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
৩০৬/৫ (৪৯.২ ওভার)
পাকিস্তান ৫ উইকেটে জয়ী
মুলতান ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মুলতান
পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ০
পাকিস্তান 
২৭৫/৮ (৫০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৫৫ (৩২.২ ওভার)
পাকিস্তান ১২০ রানে জয়ী
মুলতান ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মুলতান
পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ০
পাকিস্তান 
২৬৯/৯ (৪৮ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
২১৬ (৩৭.২ ওভার)

নেদারল্যান্ডস ব ইংল্যান্ড[সম্পাদনা]

১৭ জুন ২০২২
ইংল্যান্ড 
৪৯৮/৪ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
২৬৬ (৪৯.৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ২৩২ রানে জয়ী
ভিআরএ ক্রিকেট গ্রাউন্ড, আমস্টেলভিন
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, ইংল্যান্ড ১০
১৯ জুন ২০২২
নেদারল্যান্ডস 
২৩৫/৭ (৪১ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২৩৯/৪ (৩৬.১ ওভার)
ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী
ভিআরএ ক্রিকেট গ্রাউন্ড, আমস্টেলভিন
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, ইংল্যান্ড ১০
২২ জুন ২০২২
নেদারল্যান্ডস 
২৪৪ (৪৯.২ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২৪৮/২ (৩০.১ ওভার)
ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী
ভিআরএ ক্রিকেট গ্রাউন্ড, আমস্টেলভিন
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, ইংল্যান্ড ১০

আয়ারল্যান্ড ব নিউজিল্যান্ড[সম্পাদনা]

১০ জুলাই ২০২২
আয়ারল্যান্ড 
৩০০/৯ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৩০৫/৯ (৫০ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ১ উইকেটে জয়ী
দ্য ভিলেজ, মেলাহাইড
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ০, নিউজিল্যান্ড ১০
১২ জুলাই ২০২২
আয়ারল্যান্ড 
২১৬ (৪৮ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
২১৯/৭ (৩৮.১ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৩ উইকেটে জয়ী
দ্য ভিলেজ, মেলাহাইড
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ০, নিউজিল্যান্ড ১০
১৫ জুলাই ২০২২
নিউজিল্যান্ড 
৩৬০/৬ (৫০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
৩৫৯/৯ (৫০ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ১ রানে জয়ী
দ্য ভিলেজ, মেলাহাইড
পয়েন্ট: আয়ারল্যান্ড ০, নিউজিল্যান্ড ১০

নেদারল্যান্ডস ব পাকিস্তান[সম্পাদনা]

এটি আসলে জুলাই ২০২০-এ খেলা হবে এমনটা স্থির করা হয়েছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য স্থগিত রাখা হয় ও আগস্ট ২০২২-এ তারিখ স্থির করা হয়।[৩৩]

১৬ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
৩১৪/৬ (৫০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
২৯৮/৮ (৫০ ওভার)
পাকিস্তান ১৬ রানে জয়ী
হেজেলারওয়েগ স্টেডিয়াম, রটার্ডাম
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, পাকিস্তান ১০
১৮ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
১৮৯ (৪৪.১ ওভার)
 পাকিস্তান
১৯২/৩ (৩৩.৪ ওভার)
পাকিস্তান ৭ উইকেটে জয়ী
হেজেলারওয়েগ স্টেডিয়াম, রটার্ডাম
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, পাকিস্তান ১০
২১ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
২০৬ (৪৯.৪ ওভার)
 পাকিস্তান
১৯৭ (৪৯.২ ওভার)
পাকিস্তান ৯ রানে জয়ী
হেজেলারওয়েগ স্টেডিয়াম, রটার্ডাম
পয়েন্ট: নেদারল্যান্ডস ০, পাকিস্তান ১০

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব নিউজিল্যান্ড[সম্পাদনা]

এটি আসলে জুলাই ২০২০-এ খেলা হবে এমনটা স্থির করা হয়েছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য স্থগিত রাখা হয় ও আগস্ট ২০২২-এ তারিখ স্থির করা হয়।[৩৪]

১৭ আগস্ট ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৯০ (৪৫.২ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৯৩/৫ (৩৯ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫ উইকেটে জয়ী
কেনসিংটন ওভাল, ব্রিজটাউন
পয়েন্ট: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০, নিউজিল্যান্ড ০
১৯ আগস্ট ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
২১২ (৪৮.২ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৬১ (৩৫.৩ ওভার)
২১ আগস্ট ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
৩০১/৮ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৩০৭/৫ (৪৭.১ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী
কেনসিংটন ওভাল, ব্রিজটাউন
পয়েন্ট: ওয়েস্ট ইন্ডিজ -২ [৩৫], নিউজিল্যান্ড ১০

জিম্বাবুয়ে ব ভারত[সম্পাদনা]

এটি আসলে আগস্ট ২০২০-এ খেলা হবে এমনটা স্থির করা হয়েছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য স্থগিত রাখা হয় ও আগস্ট ২০২২-এ তারিখ স্থির করা হয়।[৩৬]

১৮ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
১৮৯ (৪০.৩ ওভার)
 ভারত
১৯২/০ (৩০.৫ ওভার)
২০ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
১৬১ (৩৮.১ ওভার)
 ভারত
১৬৭/৫ (২৫.৪ ওভার)
২২ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
ভারত 
২৮৯/৮ (৫০ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
২৭৬ (৪৯.৩ ওভার)

অস্ট্রেলিয়া ব জিম্বাবুয়ে[সম্পাদনা]

সিরিজটি আগস্ট ২০২০-এ অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য স্থগিত রাখা হয়। আগস্ট ২০২২ এ দিন চূড়ান্ত করা হয়।[৩৭]

২৮ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
২০০ (৪৭.৩ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
২০১/৫ (৩৩.৩ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৫ উইকেটে জয়ী
রিভারওয়ে স্টেডিয়াম, টাউন্সভিলে
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, জিম্বাবুয়ে ০
৩১ আগস্ট ২০২২
স্কোরকার্ড
জিম্বাবুয়ে 
৯৬ (২৭.৫ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
১০০ (১৪.৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৮ উইকেটে জয়ী
রিভারওয়ে স্টেডিয়াম, টাউন্সভিলে
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, জিম্বাবুয়ে ০
৩ সেপ্টেম্বর ২০২২
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৪১ (৩১ ওভার)
 জিম্বাবুয়ে
১৪২/৭ (৩৯ ওভার)
জিম্বাবুয়ে ৩ উইকেটে জয়ী
রিভারওয়ে স্টেডিয়াম, টাউন্সভিলে
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ০, জিম্বাবুয়ে ১০

অস্ট্রেলিয়া ব নিউজিল্যান্ড (চ্যাপেল–হ্যাডলি ট্রফি)[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত ২০২১ সালের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও কোভিড-১৯ মহামারির কারণে তা ২০২১-২২ মৌসুম পর্যন্ত স্থগিত করা হয়।[৩৮] তবে, নিউজিল্যান্ড দল দেশে ফিরলে কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম-কানুনের অনিশ্চয়তার কারণে ২০২২ সালের জানুয়ারিতে সফরটি স্থগিত করা হয়।[৩৯] পরে এটি ২০২২ সালের সেপ্টেম্বরে নির্ধারিত ছিল।[৪০]

৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
২৩২/৯ (৫০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
২৩৩/৮ (৪৫ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ২ উইকেটে জয়ী
ক্যাজালিস স্টেডিয়াম, কেয়ার্নস
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, নিউজিল্যান্ড ০
৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৯৫/৯ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৮২ (৩৩ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ১১৩ রানে জয়ী
ক্যাজালিস স্টেডিয়াম, কেয়ার্নস
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, নিউজিল্যান্ড ০
১১ সেপ্টেম্বর ২০২২
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২৬৭/৫ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
২৪২ (৪৯.৫ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ২৫ রানে জয়ী
ক্যাজালিস স্টেডিয়াম, কেয়ার্নস
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, নিউজিল্যান্ড ০

ভারত ব দক্ষিণ আফ্রিকা[সম্পাদনা]

৬ অক্টোবর ২০২২
স্কোরকার্ড
ভারত 
২৪৯/৪ (৪০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
২৪০/৮ (৪০ ওভার)
৯ অক্টোবর ২০২২
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৭৮/৭ (৫০ ওভার)
 ভারত
২৮২/৩ (৪৫.৫ ওভার)
১১ অক্টোবর ২০২২
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
৯৯ (২৭.১ ওভার)
 ভারত
১০৫/৩ (১৯.১ ওভার)
ভারত ৭ উইকেটে জয়ী
অরুন জেটলি স্টেডিয়াম, দিল্লি
পয়েন্ট: ভারত ১০, দক্ষিণ আফ্রিকা ০

নিউজিল্যান্ড ব ভারত[সম্পাদনা]

ভরা ক্যালেন্ডার এবং কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বিধিনিষেধের কারণে ভারতের নিউজিল্যান্ড সফর স্থগিত করা হয়েছিল।[৪১] পরবর্তীতে ২০২২ সালের নভেম্বরে ২০২২ আইসিসি পুরুষদের টি২০ বিশ্বকাপ অনুসরণ করার জন্য সফরটি পুনরায় নির্ধারণ করা হয়েছিল।[৪২] ২৮ জুন, ২০২২ তারিখে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট এই সফরের তারিখ নিশ্চিত করে।[৪৩]

২৫ নভেম্বর ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩০৬/৭ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৩০৯/৩ (৪৭.১ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৭ উইকেটে জয়ী
ইডেন পার্ক, অকল্যান্ড
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, ভারত ০
২৭ নভেম্বর ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
৮৯/১ (১২.৫ ওভার)
পরিত্যক্ত
সেডন পার্ক, হ্যামিল্টন
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ৫, ভারত ৫
৩০ নভেম্বর ২০২২
(দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
২১৯ (৪৭.৩ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১০৪/১ (১৮ ওভার)
পরিত্যক্ত
হ্যাগলে ওভাল, ক্রাইস্টচার্চ
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ৫, ভারত ৫

শ্রীলঙ্কা ব আফগানিস্তান[সম্পাদনা]

আফগানিস্তানের শ্রীলঙ্কা সফর মূলত ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে পুনঃনির্ধারিত হয়েছিল, কিন্তু পরবর্তীতে ঘোষণা করা হয়েছিল যে খেলাগুলি ২০২২ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে।[৪৪]

২৫ নভেম্বর ২০২২
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২৯৪/৮ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
২৩৪ (৩৮ ওভার)
২৭ নভেম্বর ২০২২
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
২২৮ (৪৮.২ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১০/০ (২.৪ ওভার)
৩০ নভেম্বর ২০২২
স্কোরকার্ড
 আফগানিস্তান
৩১৩/৮ (৫০ ওভারে)
শ্রীলঙ্কা 
৩১৪/৬ (৪৯.৪ ওভারে)

পাকিস্তান ব নিউজিল্যান্ড[সম্পাদনা]

১১ জানুয়ারি ২০২৩
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
২৫৫/৯ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
২৫৮/৪ (৪৮.১ ওভার)
পাকিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী
জাতীয় স্টেডিয়াম, করাচি
পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, নিউজিল্যান্ড ০।
১৩ জানুয়ারি ২০২৩
নিউজিল্যান্ড 
২৬১ (৪৯.৫ ওভার)
 পাকিস্তান
১৮২ (৪৩ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৭৯ রানে জয়ী
জাতীয় স্টেডিয়াম, করাচি
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, পাকিস্তান ০।
১৫ জানুয়ারি ২০২৩
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
২৮০/৯ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
২৮১/৮ (৪৮.১ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ২ উইকেটে জয়ী
জাতীয় স্টেডিয়াম, করাচি
পয়েন্ট: নিউজিল্যান্ড ১০, পাকিস্তান ০।

অস্ট্রেলিয়া ব দক্ষিণ আফ্রিকা[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি ২০২১-২২ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া মৌসুমে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে ক্রিকেট ক্যালেন্ডারে বিঘ্নের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া মৌসুম সম্প্রসারণের কারণে এটি স্থগিত করা হয়েছে।[৪৫] পরে এটি ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে নির্ধারিত ছিল।[৪৬] ২০২২ সালের জুলাই মাসে, ঘরোয়া সময়সূচীর কারণে, ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজটি গ্রহণ করে,[১২] যার ফলে অস্ট্রেলিয়াকে পয়েন্ট প্রদান করা হয়।[১৩]

১২ জানুয়ারী ২০২৩
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়াকে জয়ী করা হয়েছে
বেলেরিভ ওভাল, হোবার্ট
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, দক্ষিণ আফ্রিকা ০
১৪ জানুয়ারী ২০২৩
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়াকে জয়ী করা হয়েছে
সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড, সিডনি
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, দক্ষিণ আফ্রিকা ০
১৭ জানুয়ারী ২০২৩
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়াকে জয়ী করা হয়েছে
পার্থ স্টেডিয়াম, পার্থ
পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, দক্ষিণ আফ্রিকা ০

দক্ষিণ আফ্রিকা ব ইংল্যান্ড[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত মার্চ-এপ্রিল ২০২১-এর জন্য নির্ধারিত ছিল কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে ডিসেম্বর ২০২০-এ পুনঃনির্ধারণ করা হয়েছিল। উভয় দলের সদস্য এবং হোটেল কর্মীদের মধ্যে কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবের পরে, ২০২২ সালের ডিসেম্বরে ইংল্যান্ডের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর ব্যাহত হয়েছিল।

২৭ জানুয়ারি ২০২৩
২৯ জানুয়ারি ২০২৩
১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

আফগানিস্তান ব পাকিস্তান[সম্পাদনা]

সিরিজটি মূলত শ্রীলঙ্কায় ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ এর মধ্যে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল,তালেবান আক্রমণাত্মক কিন্তু লজিস্টিক চ্যালেঞ্জের কারণে স্থগিত করা হয়েছিল ।[৪৭] উভয় ক্রিকেট বোর্ড ২০২২ সালের মধ্যে কিছু সময়ের জন্য ম্যাচগুলি পুনঃনির্ধারণ করতে সম্মত হয়েছিল।[৪৮]

নিউজিল্যান্ড ব শ্রীলঙ্কা[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে নির্ধারিত ছিল কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে স্থগিত করা হয়েছিল। ২৮ জুন ২০২২-এ, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট নিশ্চিত করে যে সফরটি ২০২৩ সালের মার্চের জন্য পুনরায় সাজানো হয়েছে।

২৫ মার্চ ২০২৩
২৮ মার্চ ২০২৩
৩১ মার্চ ২০২৩

বাংলাদেশ ব ইংল্যান্ড[সম্পাদনা]

মার্চ ২০২৩
মার্চ ২০২৩
মার্চ ২০২৩

জিম্বাবুয়ে ব নেদারল্যান্ডস[সম্পাদনা]

এই সিরিজটি মূলত সেপ্টেম্বর ২০২০ এর জন্য নির্ধারিত ছিল কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে স্থগিত করা হয়েছিল।

আফগানিস্তান ব অস্ট্রেলিয়া[সম্পাদনা]

২০২১ সেপ্টেম্বর তালেবান আফগানিস্তানের দখল নেওয়ার পর , এই সিরিজটি ২০২৩ সালের মার্চ মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে, ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়া এই সিরিজ থেকে প্রত্যাহার করে নেয়, নারী ও মেয়েদের উপর নিষেধাজ্ঞা উল্লেখ করে , তালেবান কর্তৃক প্রণীত শিক্ষা ও কর্মসংস্থান।[৪৯]

আয়ারল্যান্ড ব বাংলাদেশ[সম্পাদনা]

কোভিড-১৯ এর কারণে স্থগিত করা হয়েছে[সম্পাদনা]

ভারত ব আফগানিস্তান[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "New qualification pathway for ICC Men's Cricket World Cup approved"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২০ অক্টোবর ২০১৮ 
  2. "Associates pathway to 2023 World Cup undergoes major revamp"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০ অক্টোবর ২০১৮ 
  3. "ICC approves Test Championship, ODI league"Cricbuzz (ইংরেজি ভাষায়)। ১৩ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১৭ 
  4. "New ODI league to act as World Cup qualification pathway"। ২০ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  5. "International Cricket Council (ICC)"International Year Book and Statesmen's Who's Who। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০১-৩০ 
  6. "The Netherlands win the ICC World Cricket League Championship"International Cricket Council। ৬ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৬ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  7. "Explainer - the Test and ODI league structures"ESPNcricinfo। ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১৭ 
  8. "Nederland wint World Cricket League!"Koninklijke Nederlandse Cricket Bond। ৬ ডিসেম্বর ২০১৭। ৬ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  9. "New cricket calendar aims to give all formats more context"ESPN Cricinfo। ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০ অক্টোবর ২০১৭ 
  10. "Men's Future Tour Programme 2018-2023 released"International Cricket Council। ২০ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৮ 
  11. "Men's Future Tour Programme 2018-2023" (পিডিএফ)International Cricket Council। ২০ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০১৮ 
  12. "South Africa withdraw from ODI leg of Australia tour"Cricbuzz 
  13. "Big blow for South Africa's World Cup hopes"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুলাই ২০২২ 
  14. "India fined for slow over rate in the first ODI against Australia"www.icc-cricket.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ 
  15. টেমপ্লেট:Cite ওয়েব উদ্ধৃতি
  16. "Sri Lanka fined for slow over-rate in third ODI against West Indies"www.icc-cricket.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ 
  17. "Sri Lanka fined for slow over-rate in second ODI against India"www.icc-cricket.com (ইংরেজি ভাষায়)। ১৭ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ 
  18. "Ireland fined for slow over-rate in first ODI against West Indies"www.icc-cricket.com (ইংরেজি ভাষায়)। ১০ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ 
  19. "South Africa fined for minimum over-rate in first ODI against Pakistan"www.icc-cricket.com (ইংরেজি ভাষায়)। ৩ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ 
  20. "Standings | ICC Cricket World Cup Super League | ICC"www.icc-cricket.com (ইংরেজি ভাষায়)। ১২ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ 
  21. "World Cup Super League 2020-2022/23 Table, Matches, win, loss, points for World Cup Super League"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ২২ আগষ্ট ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ 
  22. "England men's white-ball Tour to India postponed until early 2021"England and Wales Cricket Board। ৭ আগস্ট ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৭ আগস্ট ২০২০ 
  23. "ভারতের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ওডিআইতে শ্রীলঙ্কার স্লো ওভার রেটের জন্য পয়েন্ট কাটা গেল"আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০২১ 
  24. ম্যাচটি ২২ জুলাই খেলা হবার কথা ছিল । সেইদিন টস হলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে একজনের, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ ধরা পরায় খেলা সেদিনের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছিল। ২৪ জুলাই খেলা সম্পন্ন হয়।
  25. ম্যাচটি ২৪ জুলাই হবার কথা ছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ এর জন্য ২৬ জুলাই খেলার দিন ঠিক করা হয়
  26. "Ireland fined for slow over-rate in first ODI against West Indies"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০২২ 
  27. "Afghanistan's tour of Zimbabwe postponed again"CricBuzz। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 
  28. "Zimbabwe vs Afghanistan postponed a second time"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০২২ 
  29. "Zimbabwe announce busy international schedule"Zimbabwe Cricket। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০২২ 
  30. "Further five West Indies tour members test positive for COVID-19"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০২১ 
  31. "Joint statement by PCB and CWI"Cricket West Indies। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০২১ 
  32. "Joint statement by PCB and CWI"Pakistan Cricket Board। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০২১ 
  33. "Pakistan announce busy 12 months for national sides"Pakistan Cricket Board। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০২২ 
  34. "CWI brings the hottest "summer of cricket" with visits by Bangladesh, India and New Zealand"Cricket West Indies। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০২২ 
  35. "West Indies dealt another blow on road to India 2023"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০২২ 
  36. "India to tour Zimbabwe for 3 odi"sportstar। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০২২ 
  37. "SCHEDULE 2022-23 Six nations will tour Australia, plus a T20 World Cup on home soil!"Cricket Australia। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০২২ 
  38. Ferris, Sam (২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০)। "Australia's next tour confirmed with dates set for NZ T20s"। Cricket Australia। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০২০ 
  39. "Black Caps tour of Australia postponed with no guarantee of return home"Stuff। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 
  40. "SCHEDULE 2022-23 Six nations will tour Australia, plus a T20 World Cup on home soil!"Cricket Australia। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০২২ 
  41. "India's ODI tour of New Zealand postponed due to packed calender, Covid"Business Standard India। Press Trust of India। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। 
  42. "India's ODI tour of New Zealand postponed to 2022"Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০২২&#