২০২১–২২ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের পাকিস্তান সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০২১–২২ অস্ট্রেলিয়া পুরুষ ক্রিকেট দলের পাকিস্তান সফর
Flag of Pakistan.svg
পাকিস্তান
Flag of Australia.svg
অস্ট্রেলিয়া
তারিখ ৪ মার্চ ২০২২ – ৫ এপ্রিল ২০২২
অধিনায়ক বাবর আজম প্যাট কামিন্স (টেস্ট)
অ্যারন ফিঞ্চ (ওডিআই ও টি২০আই)
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ১–০ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান আব্দুল্লাহ শফিক (৩৯৭) উসমান খাওয়াজা (৪৯৬)
সর্বাধিক উইকেট শাহিন শাহ আফ্রিদি (৯)
নৌমান আলি (৯)
প্যাট কামিন্স (১২)
নাথান লায়ন (১২)
সিরিজ সেরা উসমান খাওয়াজা (অস্ট্রেলিয়া)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে পাকিস্তান ২–১ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান ইমাম-উল-হক (২৯৮) বেন ম্যাকডারমট (১৯৫)
সর্বাধিক উইকেট শাহিন শাহ আফ্রিদি (৬) অ্যাডাম জাম্পা (৬)
সিরিজ সেরা বাবর আজম (পাকিস্তান)
টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ১ ম্যাচের সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ১–০ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান বাবর আজম (৬৬) অ্যারন ফিঞ্চ (৫৫)
সর্বাধিক উইকেট নাথান এলিস (৪) শাহিন শাহ আফ্রিদি (২)
মোহাম্মদ ওয়াসিম (২)
উসমান কাদির (২)

অস্ট্রেলিয়া পুরুষ ক্রিকেট দল ২০২২ সালের মার্চ ও এপ্রিল মাসে তিনটি টেস্ট, তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) ও একটি টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) ম্যাচ খেলার জন্য পাকিস্তান সফর করে।[১][২] টেস্ট সিরিজটি ২০২১–২০২৩ আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ এবং ওডিআই সিরিজটি ২০২০–২০২৩ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগের অংশ হিসেবে খেলা হয়।[৩][৪] ১৯৯৮ সালের পর এটিই ছিল অস্ট্রেলিয়া দলের প্রথম পাকিস্তান সফর।[৫][৬]

টেস্ট সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ১–০ ব্যবধানে জয়ী হয়।[৭] ওডিআই সিরিজে পাকিস্তান ২–১ ব্যবধানে জয়লাভ করে।[৮] একমাত্র টি২০আই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া জয়ী হয়।[৯]

প্রেক্ষাপট[সম্পাদনা]

২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় জটিলতার কারণে নিউজিল্যান্ড তাদের পাকিস্তান সফরটি বাতিল করলে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) জানায় যে তারা পাকিস্তানের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে, এবং তারা আরও জানায় যে আরও তথ্য উন্মোচিত হলে তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবে।[১০] ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) সফরের সূচি নিশ্চিত করে।[১১][১২] ২০২২ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি পিসিবি সফরের সূচিতে কিছু পরিবর্তন আনে।[১৩] সীমিত ওভারের ম্যাচগুলো লাহোর থেকে রাওয়ালপিন্ডিতে নিয়ে আসা হয়, এবং প্রথম দুটি টেস্ট ম্যাচের ভেন্যু একে অপরের সাথে বিনিময় করা হয়।[১৪] ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া সে সময় সফরটিতে অনুমোদন দেয়।[১৫]

প্রাথমিকভাবে অস্ট্রেলিয়া দলের কিছু খেলোয়াড়ের সফরে যাওয়ায় অপারগতা প্রকাশের শঙ্কা থাকলেও[১৬] ২০২২ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজের জন্য পূর্ণশক্তির দল ঘোষণা করে।[১৭] টেস্ট ম্যাচগুলো প্রথমে সে সময় সূচিত থাকা অস্ট্রেলিয়া দলের নিউজিল্যান্ড সফরের সাথে একই সময়ে খেলা হওয়ার কথা ছিল।[১৮][১৯] কিন্তু নিউজিল্যান্ডে কোয়ারেন্টিন সংক্রান্ত জটিলতার কারণে ২০২২ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি নিউজিল্যান্ড সিরিজটি বাতিল করা হয়।[২০] ২০২২ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়া দল পাকিস্তানের ইসলামাবাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়।[২১][২২] ২০২২ সালের ১৮ মার্চ ইসলামাবাদে রাজনৈতিক উত্তেজনার কারণে সিরিজের সীমিত ওভারের ম্যাচগুলোকে রাওয়ালপিন্ডি থেকে লাহোরে নিয়ে যাওয়া হয়।[২৩]

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 পাকিস্তান  অস্ট্রেলিয়া
টেস্ট[২৪] ওডিআই[২৫] টি২০আই[২৬] টেস্ট[২৭] ওডিআই ও টি২০আই[২৮][২৯]

পাকিস্তানের টেস্ট দলে ইয়াসির শাহ, কামরান গোলাম, নাসিম শাহ, মোহাম্মদ আব্বাসসরফরাজ আহমেদকে রিজার্ভ খেলোয়াড় হিসেবে রাখা হয়।[৩০] টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে পায়ের চোটের কারণে মোহাম্মদ নওয়াজ পাকিস্তানের টেস্ট দল থেকে ছিটকে যান।[৩১] মোহাম্মদ হারিসকে পাকিস্তানের রিজার্ভ খেলোয়াড়ের তালিকায় যোগ করা হয়।[৩২] চোট পাওয়ায় ফাহিম আশরাফহাসান আলি টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে অসমর্থ বলে গণ্য হন,[৩৩] যে কারণে ইফতিখার আহমেদ ও মোহাম্মদ ওয়াসিমকে দলে যোগ করা হয়।[৩৪] ২০২২ সালের ১ মার্চ হারিস রউফের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়।[৩৫] এ কারণে রিজার্ভ খেলোয়াড় নাসিম শাহকে পাকিস্তানের প্রথম টেস্টের দলে যোগ করা হয়।[৩৬] মোহাম্মদ নওয়াজ পায়ের চোট থেকে সেরে না ওঠায় পাকিস্তানের ওডিআই ও টি২০আই দলে তাঁর বদলে জাহিদ মাহমুদকে নেয়া হয়।[৩৭][৩৮]

সফর শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দল থেকে মাইকেল নেসার ছিটকে যান ও তাঁর বদলি হিসেবে মার্ক স্টেকেটিকে দলে নেয়া হয়।[৩৯] অস্ট্রেলিয়া দলে ব্রেন্ডান ডগেট ও শন অ্যাবটকে স্ট্যান্ডবাই খেলোয়াড় হিসেবে রাখা হয়।[৪০] হ্যামস্ট্রিং-এ চোট পাওয়ায় কেন রিচার্ডসন অস্ট্রেলিয়ার ওডিআই ও টি২০আই দল থেকে ছিটকে যান।[৪১] তাঁর বদলি হিসেবে বেন ডোয়ারশুইসকে দলে নেয়া হয়।[৪২] কনুইয়ের চোটের কারণে স্টিভেন স্মিথ অস্ট্রেলিয়ার ওডিআই ও টি২০আই দল থেকে ছিটকে গেলে তাঁর পরিবর্তে মিচেল সোয়েপসনকে দলে নেয়া হয়।[৪৩] চোটের কারণে মিচেল মার্শও অস্ট্রেলিয়ার সীমিত ওভারের দল থেকে ছিটকে যান।[৪৪][৪৫] অস্ট্রেলিয়া দলের অ্যাশটন অ্যাগার কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে ওডিআই সিরিজে খেলার জন্য অসমর্থ বলে গণ্য হলে তাঁর বদলি হিসেবে ম্যাট রেনশকে দলে নেয়া হয়।[৪৬]

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

৪–৮ মার্চ ২০২২
স্কোরকার্ড
৪৭৬/৪ঘো (১৬২ ওভার)
আজহার আলি ১৮৫ (৩৬১)
মার্নাস লাবাসকাখনি ১/৫৩ (১২ ওভার)
৪৫৯ (১৪০.১ ওভার)
উসমান খাওয়াজা ৯৭ (১৫৯)
নৌমান আলি ৬/১০৭ (৩৮.১ ওভার)
২৫২/০ (৭৭ ওভার)
আব্দুল্লাহ শফিক ১৩৬* (২৪২)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • দ্বিতীয় ও তৃতীয় দিনে আলোকস্বল্পতার কারণে যথাক্রমে ১৬ ওভার ও ২০ ওভার খেলা সম্ভব হয়নি।
  • চতুর্থ দিনে বৃষ্টির কারণে ৩১ ওভার খেলা সম্ভব হয়নি।
  • ইমাম-উল-হক ও আব্দুল্লাহ শফিক (পাকিস্তান) টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের প্রথম শতরানের ইনিংস খেলেন।[৪৭][৪৮]
  • বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্ট: পাকিস্তান ৪, অস্ট্রেলিয়া ৪।

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১২–১৬ মার্চ ২০২২
স্কোরকার্ড
৫৫৬/৯ঘো (১৮৯ ওভার)
উসমান খাওয়াজা ১৬০ (৩৬৯)
ফাহিম আশরাফ ২/৫৫ (২১ ওভার)
১৪৮ (৫৩ ওভার)
বাবর আজম ৩৬ (৭৯)
মিচেল স্টার্ক ৩/২৯ (১৩ ওভার)
৯৭/২ঘো (২২.৩ ওভার)
উসমান খাওয়াজা ৪৪* (৭০)
শাহিন শাহ আফ্রিদি ১/২১ (৬.৩ ওভার)
৪৪৩/৭ (১৭১.৪ ওভার)
বাবর আজম ১৯৬ (৪২৫)
নাথান লায়ন ৪/১১২ (৫৫ ওভার)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • মিচেল সোয়েপসন (অস্ট্রেলিয়া)-এর টেস্ট অভিষেক হয়।
  • বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্ট: পাকিস্তান ৪, অস্ট্রেলিয়া ৪।

৩য় টেস্ট[সম্পাদনা]

২১–২৫ মার্চ ২০২২
স্কোরকার্ড
৩৯১ (১৩৩.৩ ওভার)
উসমান খাওয়াজা ৯১ (২১৯)
নাসিম শাহ ৪/৫৮ (৩১ ওভার)
২৬৮ (১১৬.৪ ওভার)
আব্দুল্লাহ শফিক ৮১ (২২৮)
প্যাট কামিন্স ৫/৫৬ (২৪ ওভার)
২২৭/৩ঘো (৫৬ ওভার)
উসমান খাওয়াজা ১০৪* (১৭৮)
নাসিম শাহ ১/২৩ (১২ ওভার)
২৩৫ (৯২.১ ওভার)
ইমাম-উল-হক ৭০ (১৯৯)
নাথান লায়ন ৫/৮৩ (৩৭ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ১১৫ রানে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
আম্পায়ার: আলিম দার (পাকিস্তান) ও আহসান রাজা (পাকিস্তান)
ম্যাচসেরা: প্যাট কামিন্স (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১২, পাকিস্তান ০।

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম ওডিআই[সম্পাদনা]

২৯ মার্চ ২০২২
১৫:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৩১৩/৭ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
২২৫ (৪৫.২ ওভার)
ট্র্যাভিস হেড ১০১ (৭২)
হারিস রউফ ২/৪৪ (৮ ওভার)
ইমাম-উল-হক ১০৩ (৯৬)
অ্যাডাম জাম্পা ৪/৩৮ (১০ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৮৮ রানে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
আম্পায়ার: আলিম দার (পাকিস্তান) ও আসিফ ইয়াকুব (পাকিস্তান)
ম্যাচসেরা: ট্র্যাভিস হেড (অস্ট্রেলিয়া)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • জাহিদ মাহমুদ, মোহাম্মদ ওয়াসিম (পাকিস্তান), নাথান এলিস ও মিচেল সোয়েপসন (অস্ট্রেলিয়া)-এর ওডিআই অভিষেক হয়।
  • বিশ্বকাপ সুপার লিগ পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১০, পাকিস্তান ০।

২য় ওডিআই[সম্পাদনা]

৩১ মার্চ ২০২২
১৫:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৩৪৮/৮ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
৩৪৯/৪ (৪৯ ওভার)
বাবর আজম ১১৪ (৮৩)
অ্যাডাম জাম্পা ২/৭১ (১০ ওভার)
পাকিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
আম্পায়ার: আলিম দার (পাকিস্তান) ও আহসান রাজা (পাকিস্তান)
ম্যাচসেরা: বাবর আজম (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বেন ম্যাকডারমট (অস্ট্রেলিয়া) ওডিআই ক্রিকেটে নিজের প্রথম শতরানের ইনিংস খেলেন।[৪৯]
  • বিশ্বকাপ সুপার লিগ পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, অস্ট্রেলিয়া ০।

৩য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২ এপ্রিল ২০২২
১৫:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২১০ (৪১.৫ ওভার)
 পাকিস্তান
২১৪/১ (৩৭.৫ ওভার)
অ্যালেক্স ক্যারি ৫৬ (৬১)
হারিস রউফ ৩/৩৯ (৮.৫ ওভার)
বাবর আজম ১০৫* (১১৫)
নাথান এলিস ১/৩৮ (৬ ওভার)
পাকিস্তান ৯ উইকেটে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
আম্পায়ার: আলিম দার (পাকিস্তান) ও রাশিদ রিয়াজ (পাকিস্তান)
ম্যাচসেরা: বাবর আজম (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বিশ্বকাপ সুপার লিগ পয়েন্ট: পাকিস্তান ১০, অস্ট্রেলিয়া ০।

একমাত্র টি২০আই[সম্পাদনা]

৫ এপ্রিল ২০২২
২০:৩০ (রাত)
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
১৬২/৮ (২০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
১৬৩/৭ (১৯.১ ওভার)
বাবর আজম ৬৬ (৪৬)
নাথান এলিস ৪/২৮ (৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৩ উইকেটে জয়ী
গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর
আম্পায়ার: আলিম দার (পাকিস্তান) ও আহসান রাজা (পাকিস্তান)
ম্যাচসেরা: অ্যারন ফিঞ্চ (অস্ট্রেলিয়া)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "PCB decides to eliminate two-match Test series from 2023"দ্য নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ১৩ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০২১ 
  2. "No reason Australia won't be touring Pakistan in 2022, says Wasim Khan"ডন (ইংরেজি ভাষায়)। ২০ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০২১ 
  3. "Takeaways: Are Pakistan dark horses for the 2023 World Test Championship?"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০২১ 
  4. "Men's Future Tours Programme" (PDF)আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১১ অক্টোবর ২০১৯ 
  5. "Pakistan expecting Australia to end 24-year tour absence"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। ১৮ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০২১ 
  6. "England confirms first Pakistan tour in 16 years, to play T20Is in Oct 2021"বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০২১ 
  7. "Lyon five-for leads Australia to 1-0 series win"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মার্চ ২০২২ 
  8. "Babar 105*, Imam 89* give Pakistan series win"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০২২ 
  9. "Ellis and Finch star as Australia leave Pakistan with win"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০২২ 
  10. "Cricket Australia hints at reconsidering decision of Pakistan tour"দুনিয়া নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  11. "PCB unveils details of Australia's tour of Pakistan"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ নভেম্বর ২০২১ 
  12. "Australia to tour Pakistan for full series in March 2022"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ নভেম্বর ২০২১ 
  13. "Cricket Australia clear men's team tour of Pakistan in March"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  14. "Revised schedule of Australia's tour to Pakistan announced"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  15. "Pakistan tour endorsed by CA Board"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  16. "'One or two' Australia players may opt out of Pakistan tour - ACA chief"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  17. "Agar named as third spinner in Australia's 18-man squad to tour Pakistan"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  18. "No Black Caps matches at Eden Park this summer; season starts with New Year's test"স্টাফ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০২১ 
  19. "New Zealand to host Australia in March T20I series"আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০২১ 
  20. "Australia's T20I tour of New Zealand abandoned"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  21. "'I feel incredibly safe,' Cummins says as Australia touch down in Pakistan"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  22. "Aussies touch down for historic Pakistan tour"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  23. "Pak vs Aus: T20I, ODI matches shifted from Rawalpindi to Lahore, Sheikh Rasheed says"জিও নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০২২ 
  24. "Pakistan squad for Australia Tests announced"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  25. "Pakistan name ODI and T20I squads for Australia series"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০২২ 
  26. "Mohammad Haris, Asif Afridi in Pakistan white-ball squads for Australia series"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০২২ 
  27. "Australia name full-strength squad for Pakistan tour"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  28. "Aussie white-ball depth test as stars miss Pakistan tour"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  29. "Australia's Test quicks and David Warner rested from Pakistan limited-overs matches"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  30. "Pakistan name 16-member squad for home series against Australia"আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  31. "Mohammad Nawaz ruled out of Australia Test series"ক্রিকবাজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  32. "Update on Pakistan Test squad"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  33. "Iftikhar, Mohammad Wasim Jr roped in for Rawalpindi Test"ক্রিকবাজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  34. "Iftikhar and Wasim Jnr to replace Faheem and Hasan"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  35. "Haris Rauf tests positive for Covid-19, likely to be ruled out of first Test against Australia"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২২ 
  36. "Naseem Shah added to the Test squad"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২২ 
  37. "Pak vs Aus: Zahid Mahmood replaces Mohammed Nawaz for white ball matches"জিও নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  38. "Zahid replaces Nawaz for white-ball matches"পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  39. "Neser out of Pakistan tour, uncapped quick called in"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  40. "Mark Steketee replaces injured Michael Neser in Australia Test squad for Pakistan tour"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  41. "Kane Richardson ruled out of Pakistan tour with hamstring injury"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০২২ 
  42. "Dwarshuis called up, Richardson out of Pakistan tour"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০২২ 
  43. "Smith ruled of limited-overs matches against Pakistan due to elbow issue"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০২২ 
  44. "Marsh to miss opening ODI, Green elevated"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০২২ 
  45. "Mitchell Marsh set to miss white-ball leg of Pakistan tour"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০২২ 
  46. "Ashton Agar ruled out of ODI series after testing positive for Covid-19"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মার্চ ২০২২ 
  47. "Imam-ul-Haq seizes second Australia chance"শেপারটন নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০২২ 
  48. "Pakistan opening bats create history"হান্টার ভ্যালি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০২২ 
  49. "Ton-up McDermott propels Australia to 348-8 in second ODI"ফ্রান্স২৪ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]