ডোনা রিড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডোনা রিড
Donna Reed
Donna Reed.jpg
জন্ম
ডোনা বেল মুলেঞ্জার

(১৯২১-০১-২৭)২৭ জানুয়ারি ১৯২১
মৃত্যু১৪ জানুয়ারি ১৯৮৬(1986-01-14) (বয়স ৬৪)
বেভারলি হিলস, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
পেশাঅভিনেত্রী, প্রযোজক
কর্মজীবন১৯৪১-১৯৮৫
দাম্পত্য সঙ্গীউইলিয়াম জে. টাটল
(বি. ১৯৪৩; বিচ্ছেদ. ১৯৪৫)

টনি ওয়েন
(বি. ১৯৪৫; বিচ্ছেদ. ১৯৭১)

গ্রোভার অসমাস
(বি. ১৯৭৪; মৃ. ১৯৮৬)
সন্তান
পুরস্কারপূর্ণ তালিকা

ডোনা রিড (ইংরেজি: Donna Reed; জন্ম: ডোনা বেল মুলেঞ্জার,[১] ২৭ জানুয়ারি ১৯২১ - ১৪ জানুয়ারি ১৯৮৬)[২] ছিলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী ও প্রযোজক। ৪০ বছরের অধিক সময় কর্মজীবনে তিনি চল্লিশের অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি ফ্রাঙ্ক ক্যাপ্রার ইট্‌স আ ওয়ান্ডারফুল লাইফ (১৯৪৬) চলচ্চিত্রে ম্যারি হ্যাচ বেইলি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য সর্বাধিক পরিচিত। ১৯৫৩ সালে যুদ্ধভিত্তিক নাট্যধর্মী ফ্রম হিয়ার টু ইটার্নিটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।[৩]

তিনি টেলিভিশন সিটকম দ্য ডোনা রিড শো (১৯৫৮-১৯৬৬)-এ মধ্যবিত্ত মার্কিন গৃহিণী ডোনা স্টোন চরিত্রে অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন। এই কাজের জন্য তিনি একাধিক এমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং ১৯৬৩ সালে শ্রেষ্ঠ সঙ্গীতধর্মী বা হাস্যরসাত্মক টিভি ধারাবাহিক অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন। ১৯৮৪-৮৫ সালে তিনি ডালাস ধারাবাহিকের মিস এলি ইউয়িং ফার্লো চরিত্রে বারবারা বেল গেডেসের স্থলাভিষিক্ত হন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

রিড ১৯২১ সালের ২৭শে জানুয়ারি আইওয়া অঙ্গরাজ্যের ডেনিসনের নিকটবর্তী একটি ফার্মে জন্মগ্রহণ করেন। তার প্রকৃত নাম ডোনা বেল মুলেঞ্জার। তার মাতা হেজেল জেন (বিবাহপূর্ব শিভস) এবং পিতা উইলিয়াম রিচার্ড মুলেঞ্জার।[২] পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে ডোনা সর্বজ্যেষ্ঠ। তিনি মেথডিস্ট ধর্মাবলম্বী হিসেবে বেড়ে ওঠেন।[৪] ১৯৩৬ সালে তিনি ডেনিসন হাই স্কুলের সোফোমোর ছিলেন। তার রসায়নের শিক্ষক এডওয়ার্ড টম্পকিন্স তাকে হাউ টু উইন ফ্রেন্ডস অ্যান্ড ইনফ্লুয়েন্স পিপল বই প্রদান করেছিলেন। বইটি পড়ে তিনি বিদ্যালয়ের মঞ্চনাটকের প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান। তিনি ক্যাম্পাস কুইন ভোটে ১৯৩৮ সালে পাশ করা ব্যাচের শীর্ষ ১০-এ ছিলেন।[৫]

ডেনিসন হাই স্কুল থেকে পাশ করার পর রিড শিক্ষক হওয়ার মনঃস্থির করেন কিন্তু কলেজের ফি দিতে ব্যর্থ হন। তার এক আত্মীয়ের পরামর্শে তিনি লস অ্যাঞ্জেলেস সিটি কলেজে পড়তে ক্যালিফোর্নিয়া যান। কলেজে পড়াকালীন তিনি বিভিন্ন মঞ্চনাটকে অভিনয় করেন, যদিও তখনও তার অভিনেত্রী হওয়ার কোন পরিকল্পনা ছিল না। কয়েকটি স্টুডিওতে স্ক্রিন টেস্ট দেওয়ার প্রস্তাব পাওয়ার পর তিনি মেট্রো-গোল্ডউইন-মেয়ারের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেন। তবে তিনি তার পড়াশোনা শেষ করার দিকেও নজর দেন।[৬][৭] তিনি তার ডিগ্রি সম্পন্ন করে একজন প্রতিনিধির সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।[৮]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

এমজিএম[সম্পাদনা]

১৯৪১ সালে মেট্রো-গোল্ডউইন-মেয়ারের সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পর রবার্ট স্টার্লিংয়ের বিপরীতে দ্য গেট-অ্যাওয়ে দিয়ে রিডের চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। এই চলচ্চিত্রে তিনি ডোনা অ্যাডামস নামে অভিনয় করেন। এমজিএম অচিরেই তার নাম পরিবর্তন করে ডোনা রিড রাখে।[৯]

তিনি এমজিএম থেকে ধারে আরকেও পিকচার্সের অধীনে ফ্রাঙ্ক ক্যাপ্রার ইট্‌স আ ওয়ান্ডারফুল লাইফ (১৯৪৬) চলচ্চিত্রে ম্যারি হ্যাচ বেইলি চরিত্রে অভিনয় করেন। চলচ্চিত্রটি তখন থেকে আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট কর্তৃক এখন পর্যন্ত নির্মিত ১০০ সেরা মার্কিন চলচ্চিত্রের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়ে আসছে এবং নিয়মিত বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে ক্রিসমাস উপলক্ষ্যে প্রচারিত হচ্ছে।[১০] রিড পরবর্তীকালে বলেন, "এটি তার অভিনীত সবচেয়ে কঠিন চলচ্চিত্র। অন্য কোন পরিচালক তার কাছ থেকে এত বেশি কিছু চাননি।"[৯]

কলাম্বিয়া[সম্পাদনা]

১৯৫৩ সালে রিড যুদ্ধভিত্তিক নাট্যধর্মী ফ্রম হিয়ার টু ইটার্নিটি চলচ্চিত্রে মন্টগামারি ক্লিফটের চরিত্রের প্রেমিকা আলমা "লরেন" বার্ক চরিত্রে অভিনয় করেন। এই চরিত্রে অভিনয় করে তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।[৯][১১]

তিনি পাইন-টমাস প্রডাকশন্সের দ্য ফার হরাইজন্স (১৯৫৫) চলচ্চিত্রে স্থানীয় মার্কিনী সাকাগাওয়া চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৫৬ সালে তিনি ইউনিভার্সাল পিকচার্সের দ্য বেনি গুডমান স্টোরি চলচ্চিত্রে স্টিভ অ্যালেনের সাথে নাম ভূমিকার স্ত্রী চরিত্রে ও পশ্চিমা ঘরানার ব্যাকল্যাশ চলচ্চিত্রে রিচার্ড উইডমার্কের সাথে অভিনয় করেন। একই বছর তাকে এমজিএমের র‍্যানসম! (১৯৫৬) চলচ্চিত্রে গ্লেন ফোর্ডের স্ত্রী চরিত্রে দেখা যায়। ১৯৫৭ সালে তিনি বিয়ন্ড মোম্বাসা চলচ্চিত্রে কর্নেল ওয়াইল্ডের বিপরীতে অভিনয় করেন। চলচ্চিত্রটির শুটিং হয় কেনিয়ায়, দৃশ্যধারণ কালে তিনি আঘাতপ্রাপ্ত হন। ১৯৫৮ সালে তিনি রমুলাস পিকচার্সের দ্য হোল ট্রুথ চলচ্চিত্রে স্টুয়ার্ট গ্রেঞ্জারের বিপরীতে অভিনয় করেন।[১২]

পুরস্কার ও মনোনয়ন[সম্পাদনা]

বছর পুরস্কার বিভাগ মনোনীত কর্ম ফলাফল
১৯৫৩ একাডেমি পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী ফ্রম হিয়ার টু ইটার্নিটি বিজয়ী
১৯৫৯ এমি পুরস্কার হাস্যরসাত্মক ধারাবাহিকে সেরা প্রধান অভিনেত্রী দ্য ডোনা রিড শো মনোনীত
১৯৬০ এমি পুরস্কার ধারাবাহিকে সেরা প্রধান বা পার্শ্ব অভিনেত্রী দ্য ডোনা রিড শো মনোনীত
১৯৬১ এমি পুরস্কার ধারাবাহিকে সেরা প্রধান অভিনেত্রী দ্য ডোনা রিড শো মনোনীত
১৯৬২ এমি পুরস্কার ধারাবাহিকে সেরা প্রধান অভিনেত্রী দ্য ডোনা রিড শো মনোনীত
১৯৬৩ গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার সেরা নারী টিভি তারকা দ্য ডোনা রিড শো বিজয়ী
১৯৬৪ গোল্ডেন অ্যাপল পুরস্কার সেরা সহ-অভিনেত্রী
বিজয়ী

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Donna Reed"বায়োগ্রাফি (ইংরেজি ভাষায়)। এঅ্যান্ডই টেলিভিশন নেটওয়ার্কস। ২৩ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ 
  2. "Donna Reed Biography (1921-1986)"ফিল্ম রেফারেন্স। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ 
  3. "From the archives: Iowa values carried Donna Reed to Hollywood stardom and an Oscar"ডেস মোইনেস রেজিস্টার (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য ইউএসএ টুডে নেটওয়ার্ক। ৫ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. ফিল্ড, ইউনিস। "My Story is Not for Children—or Prudes"। ডোনা রিড শো। আগস্ট ২৭, ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০২০ 
  5. "75-year history of Broadway Elementary building celebrated"ডেনিসন বুলেটিন-রিভিউ। মার্চ ২০, ২০১২। ২০১৯-১২-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০২০ 
  6. রয়েস ১৯৯০, পৃ. ২।
  7. "Donna Reed Says Success and Beauty Depend on Happiness Lane, Lydia"। দ্য লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস। আগস্ট ২৩, ১৯৫৩। পৃষ্ঠা C9। 
  8. বাউডেন, জেমস; মিলার, রন (২০১৯)। Conversations with Legendary Television Stars। লেক্সিংটন, কেন্টাকি: দি ইউনিভার্সিটি প্রেস অব কেন্টাকি। পৃষ্ঠা ২৭৫। আইএসবিএন 978-0-8131-7765-6গুগল বুকস-এর মাধ্যমে। 
  9. ইনগ্রাসিয়া, মিশেল (জানু ১৫, ১৯৮৬)। "The All American Girl; Despite an Academy Award-winning performance as a prostitute in 'From Here to Eternity,' Donna Reed maintained an image of wholesomeness throughout her career"। নিউজডে। পৃষ্ঠা ৪। 
  10. রয়েস ১৯৯০, পৃ. ৫।
  11. ফিলিপস, জিন ডি. (১৯৯৯)। Major Film Directors of the American and British Cinema। লেহাই ইউনিভার্সিটি প্রেস। পৃষ্ঠা ১১৮। আইএসবিএন 0-934223-59-9 
  12. শ্যালার্ট, এডউইন (জানু ২৬, ১৯৫৬)। "Drama: Schary Selects 'Power and Prize' for Taylor; Gun Injures Donna Reed"। লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস। পৃষ্ঠা ৩১। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]