রাশিয়া জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রাশিয়া রাশিয়া
শার্ট ব্যাজ/অ্যাসোসিয়েশন কুলচিহ্ন
অ্যাসোসিয়েশনরুশ ফুটবল ইউনিয়ন (আরএফইউ)
Российский Футбольный Союз
কনফেডারেশনউয়েফা (ইউরোপ)
অধিনায়কসার্গেই ইগনাশেভিচ
সর্বাধিক ম্যাচ খেলা খেলোয়াড়ভিক্টর অনোপকো (১০৯)
শীর্ষ গোলদাতাভ্লাদিমির বেশাস্তনিখ (২৬)
স্বাগতিক স্টেডিয়ামলুঝনিকি
লোকোমোটিভ
পেত্রোভস্কি
ফিফা কোডRUS
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান১৫ বৃদ্ধি
সর্বোচ্চ(এপ্রিল ১৯৯৬)
সর্বনিম্ন৪০ (ডিসেম্বর ১৯৯৮)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান১৫
সর্বোচ্চ(আগস্ট ২০০৯)
সর্বনিম্ন৩৪ (জুন ২০০৫)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 রাশিয়া ২-০ মেক্সিকো 
(মস্কো, রাশিয়া; ১৬ আগস্ট ১৯৯২)
বৃহত্তম জয়
 সান মারিনো ০-৭ রাশিয়া 
(স্যান ম্যারিনো, স্যান ম্যারিনো; ৭ জুন ১৯৯৫)
সেরা সাফল্য১৮শ স্থান, ১৯৯৪
ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপ
উপস্থিতি৪ (প্রথম ১৯৯৬)
সেরা সাফল্য৩য় স্থান, ২০০৮

রাশিয়ার জাতীয় ফুটবল দল (রুশ: Национа́льная сбо́рная Росси́и по футбо́лу) রাশিয়ার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের ফুটবলে প্রতিনিধিত্বকারী দল। এ দলটি রাশিয়ার ফুটবলে সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা রুশ ফুটবল ইউনিয়ন কর্তৃক পরিচালিত হচ্ছে। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামলোকোমোটিভ স্টেডিয়াম এবং সেন্ট পিটার্সবার্গের পেট্রোভস্কি স্টেডিয়াম এ দলের নিজস্ব মাঠ। দলটি এ পর্যন্ত তিনবার (১৯৯৪, ২০০২ এবং ২০১৪) বিশ্বকাপ ফুটবলে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এছাড়াও, তারা ২০১৮ সালের বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজনে স্বাগতিক দলের মর্যাদা লাভ করেছে। ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপে এ পর্যন্ত চারবার (১৯৯৬, ২০০৪, ২০০৮ এবং ২০১২) খেলেছে রুশ দলটি। তন্মধ্যে, ২০০৮ সালে বড়ধরনের প্রতিযোগিতা হিসেবে গ্রুপ-পর্বের বাঁধা অতিক্রম করাই ছিল তাদের সর্ববৃহৎ সাফল্যগাঁথা। অবশ্য, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন জাতীয় ফুটবল দলের সাফল্যের সাথে এর কোন সম্পর্ক নেই।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে যাবার পর রাশিয়া দল প্রথমবারের মতো মেক্সিকোর বিপক্ষে আন্তর্জাতিক খেলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। ১৬ আগস্ট, ১৯৯২ তারিখে মস্কোতে অনুষ্ঠিত খেলায় দলটি ২-০ ব্যবধানে বিজয়ী হয়। এ খেলায় অন্যান্য প্রজাতন্ত্রে জন্মগ্রহণকারী সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের খেলোয়াড়গণ অংশগ্রহণ করেছিলেন।

ম্যানেজার পাভেল স্যাদ্রিনের অধীনে ১৯৯৪ সালের বিশ্বকাপ ফুটবল বাছাইপর্বের ৫নং গ্রুপে গ্রীস, আইসল্যান্ড, হাঙ্গেরী এবং লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে অংশগ্রহণ করে। যুগোস্লাভিয়া ফুটবল দলের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় এ গ্রুপে ৫টি দল ছিল। ৬ জয় ও ২ ড্র করে গ্রীসের সাথে রাশিয়াও বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। প্রতিযোগিতায় শক্তিশালী দল হিসেবে বিবেচিত না হলেও তারা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে দূর্দান্ত ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করে। স্তানিস্লাভ চেরচেসব, আলেকজান্ডার বোরোদিওকসহ ভিক্টর অনোকপকো, ওলেগ সালেঙ্কো, আলেকজান্ডার মোস্তোভোই, ভ্লাদিমির বেশাস্তনিখ এবং ভ্যালেরি কারপিনের ন্যায় খেলোয়াড়গণ ছিলেন। তন্মধ্যে, কিছু রুশ খেলোয়াড় ছিলেন ইউক্রেনীয় দলের। কিন্তু ইউক্রেন ফুটবল ফেডারেশনবিশ্বকাপে তাদেরকে ইউক্রেন ফুটবল দলে অংশগ্রহণ থেকে বিরত রেখেছিল।[১]

ওলেগ রোমান্তসেভের নির্দেশনায় ২০০২ সালের ফিফা বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে রুশ দল সাত জয়, দুই ড্র এবং একটিমাত্র পরাজয় নিয়ে প্রথম স্থান অধিকারের মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে যৌথভাবে অনুষ্ঠিত ২০০২ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। ১নং গ্রুপে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল স্লোভেনিয়া, সার্বিয়া, সুইজারল্যান্ড, ফারো দ্বীপপুঞ্জ এবং লুক্সেমবার্গ। বিশ্বকাপের মূল পর্বের এইচ গ্রুপে বেলজিয়াম, তিউনিসিয়া ও জাপানের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে তারা। গ্রুপটি প্রতিযোগিতার সর্বাপেক্ষা দূর্বলতম গ্রুপ হিসেবে বিবেচিত হয়েছিল। তিউনিসিয়ার বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জয়ী হলেও জাপানের বিপক্ষে তাদের ০-১ ব্যবধানে পরাজয়ের ফলে মস্কোর রাস্তায় দাঙ্গা বেঁধে যায়।[২] শেষ খেলায় ড্র হলেই পরবর্তী পর্বে উত্তোরণ ঘটবে। এ অবস্থায় বেলজিয়ামের বিপক্ষে খেলতে নেমে ৩-২ ব্যবধানে পরাজিত হওয়ায় বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হয় রাশিয়ার।

সাম্প্রতিক ফলাফল এবং আসন্ন আসরগুলি[সম্পাদনা]

২০১৭[সম্পাদনা]


তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ukraine’s forgotten World Cup pedigree, Business Ukraine (August 4, 2010)
  2. "Two die in Moscow World Cup rioting"The Guardian। London। ১০ জুন ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৯-০৬ 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Football in Russia

টেমপ্লেট:National sports teams of Russia