মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পুরুষ ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
দলের লোগো
ডাকনামইউএসএমএনটি
দ্য স্টার্স অ্যান্ড স্ট্রাইপস
(তারা এবং ডোরা)[১]
দ্য ইয়াঙ্কস (মার্কিন ব্যক্তি)[২]
অ্যাসোসিয়েশনমার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনকনকাকাফ (উত্তর আমেরিকা)
প্রধান কোচগ্রেগ বেরহাল্টার
সর্বাধিক ম্যাচকোবি জোন্স (১৬৪)
শীর্ষ গোলদাতাক্লিন্ট ডেম্পসি
লান্ডন ডনোভান (৫৭)
মাঠবিভিন্ন
ফিফা কোডUSA
ওয়েবসাইটwww.ussoccer.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ২২ অপরিবর্তিত (২৭ নভেম্বর ২০২০)[৩]
সর্বোচ্চ(এপ্রিল ২০০৬[৪])
সর্বনিম্ন৩৬ (জুলাই ২০১২[৫])
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৩৮ বৃদ্ধি(১৯ নভেম্বর ২০২০)[৬]
সর্বোচ্চ(২০০৯)
সর্বনিম্ন৮৫ (অক্টোবর ১৯৬৮)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 সুইডেন ২–৩ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র 
(স্টকহোম, সুইডেন; ২০ আগস্ট ১৯১৬)[৭]
বৃহত্তম জয়
 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৮–০ বার্বাডোস 
(ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র; ১৫ জুন ২০০৮)
বৃহত্তম পরাজয়
 নরওয়ে ১১–০ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র 
(অসলো, নরওয়ে; ৬ আগস্ট ১৯৪৮)[৮]
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ১০ (১৯৩০-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যতৃতীয় স্থান (১৯৩০)
কনকাকাফ গোল্ড কাপ
অংশগ্রহণ১৭ (১৯৮৫-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৯১, ২০০২, ২০০৫, ২০০৭, ২০১৩, ২০১৭)
কোপা আমেরিকা
অংশগ্রহণ৪ (১৯৯৩-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচতুর্থ স্থান (১৯৯৫, ২০১৬)
কনফেডারেশন্স কাপ
অংশগ্রহণ৪ (১৯৯২-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যরানার-আপ (২০০৯)

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পুরুষ ফুটবল দল (ইংরেজি: United States men's national soccer team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯১৪ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৬১ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা কনকাকাফের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯১৬ সালের ২০শে আগস্ট তারিখে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; সুইডেনের স্টকহোমে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সুইডেনকে ৩–২ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে।

ইয়াঙ্ক নামে পরিচিত এই দলটি বেশ কয়েকটি স্টেডিয়ামে তাদের হোম ম্যাচগুলো আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয়ে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন গ্রেগ বেরহাল্টার

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এপর্যন্ত ১০ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে ১৯৩০ ফিফা বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান অর্জন করা, যেখানে তারা আর্জেন্টিনার কাছে ৬–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে। অন্যদিকে, কনকাকাফ গোল্ড কাপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ৬টি (১৯৯১, ২০০২, ২০০৫, ২০০৭, ২০১৩ এবং ২০১৭) শিরোপা জয়লাভ করেছে। এছাড়াও, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২০০৯ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপে রানার-আপ হয়েছে।

কোবি জোন্স, লান্ডন ডনোভান, মাইকেল ব্র্যাডলি, ক্লিন্ট ডেম্পসি এবং জোজি অল্টিডোরের মতো খেলোয়াড়গণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০০৬ সালের এপ্রিল মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৪র্থ) অর্জন করে এবং ২০১২ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ৩৬তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৯ম (যা তারা ২০০৯ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ৮৫। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
২৭ নভেম্বর ২০২০ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[৩]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
২০ বৃদ্ধি  সেনেগাল ১৫৫৮
২০ হ্রাস  সুইডেন ১৫৫৮
২২ অপরিবর্তিত  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৫৪৫
২৩ বৃদ্ধি  অস্ট্রিয়া ১৫৩১
২৪ হ্রাস  ইউক্রেন ১৫২৮
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
১৯ নভেম্বর ২০২০ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৬]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৩৬ হ্রাস  জাপান ১৭৪৪
৩৭ হ্রাস ১৫  রাশিয়া ১৭৪৩
৩৮ বৃদ্ধি  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৭৪২
৩৯ বৃদ্ধি  অস্ট্রেলিয়া ১৭১২
৪০ বৃদ্ধি  ফিনল্যান্ড ১৭০৮

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ সেমি-ফাইনাল ৩য় আমন্ত্রণের মাধ্যমে উত্তীর্ণ
ইতালি ১৯৩৪ ১৬ দলের পর্ব ১৬তম
ফ্রান্স ১৯৩৮ প্রত্যাহার প্রত্যাহার
ব্রাজিল ১৯৫০ গ্রুপ পর্ব ১০ম ১৫
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪ উত্তীর্ণ হয়নি
সুইডেন ১৯৫৮ ২১
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০ ১১
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ ১০
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০ গ্রুপ পর্ব ২৩তম ১০ ১১
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ ১৬ দলের পর্ব ১৪তম আয়োজক হিসেবে উত্তীর্ণ
ফ্রান্স ১৯৯৮ গ্রুপ পর্ব ৩২তম ১৬ ২৭ ১৪
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ কোয়ার্টার-ফাইনাল ৮ম ১৬ ২৫ ১১
জার্মানি ২০০৬ গ্রুপ পর্ব ২৫তম ১৮ ১২ ৩৫ ১১
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ ১৬ দলের পর্ব ১২তম ১৮ ১৩ ৪২ ১৬
ব্রাজিল ২০১৪ ১৬ দলের পর্ব ১৫তম ১৬ ১১ ২৬ ১৪
রাশিয়া ২০১৮ উত্তীর্ণ হয়নি ১৬ ৩৭ ১৬
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট তৃতীয় স্থান ১০/২৩ ৩৩ ১৯ ৩৭ ৬২ ১৫৪ ৭৭ ৩৬ ৪১ ২৬৬ ১৮১

অর্জন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Wilson, Paul (জুন ২৬, ২০১০)। "USA 1–2 Ghana"The Guardian। London। 
  2. The Yanks Are Coming USA-HON Commercial. U.S. Soccer. Retrieved on August 12, 2013. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত মে ২২, ২০১৩ তারিখে
  3. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ২৭ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৭ নভেম্বর ২০২০ 
  4. "U.S. MEN MOVE TO BEST-EVER FOURTH PLACE IN FIFA WORLD RANKINGS"। US Soccer Federation। এপ্রিল ১৯, ২০০৬। 
  5. Baxter, Kevin (জুলাই ৬, ২০১৭)। "U.S. drops 12 spots to No. 35 in FIFA rankings"Los Angeles Times 
  6. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ১৯ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০২০ 
  7. "USA – Details of International Matches 1885–1969"। RSSSF.com। জানুয়ারি ১৭, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১১ 
  8. Blevins, Dave (২০১২)। The sports hall of fame encyclopedia : baseball, basketball, football, hockey soccer। Lanham, Md.: Scarecrow Press। পৃষ্ঠা 745। আইএসবিএন 978-0-8108-6130-5। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৪, ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]