ওলেগ সালেঙ্কো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ওলেগ সালেঙ্কো
Salenko O 2012.JPG
২০১২ সালে সালেঙ্কো
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম ওলেগ আনাতোলিয়েভিচ সালেঙ্কো
জন্ম (১৯৬৯-১০-২৫) ২৫ অক্টোবর ১৯৬৯ (বয়স ৪৯)
জন্ম স্থান লেনিনগ্রাদ, সোভিয়েত ইউনিয়ন
উচ্চতা ১.৮১ মিটার (৫ ফুট ১১  ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান স্ট্রাইকার
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
স্মেনা লেনিনগ্রাদ
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
১৯৮৬-১৯৮৮ জেনিত লেনিনগ্রাদ ৪৭ (১০)
১৯৮৯-১৯৯২ ডায়নামো কিয়েভ ৯১ (২৮)
১৯৯৩-১৯৯৪ লগ্রোনেজ ৪৭ (২৩)
১৯৯৪-১৯৯৫ ভ্যালেন্সিয়া ২৫ (৭)
১৯৯৫ র‌্যাঞ্জার্স ১৬ (৭)
১৯৯৬-১৯৯৮ ইস্তানবুলস্পোর ১৮ (১১)
১৯৯৯-২০০০ করদোবা (০)
২০০০-২০০১ পগন জেসিন (০)
মোট ২৪৮ (৮৬)
জাতীয় দল
১৯৮৪-১৯৯১ সোভিয়েত ইউনিয়ন অনূর্ধ্ব-২০ (৫)
১৯৯২ ইউক্রেন[১] (০)
১৯৯৩-১৯৯৪ রাশিয়া (৬)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে।
† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

ওলেগ আনাতোলিভিচ সালেঙ্কো (রুশ: Олег Анатольевич Саленко; ইউক্রেনীয়: Олег Анатолійович Саленко; জন্ম: ২৫ অক্টোবর, ১৯৬৯) সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের লেনিনগ্রাদে জন্মগ্রহণকারী অবসরপ্রাপ্ত রুশ ফুটবলার। ১৯৯২ মৌসুমে ইউক্রেন দলের হয়ে খেলেছেন। তিনি রাশিয়া দলের পক্ষে স্ট্রাইকারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতেন। ১৯৯৪ সালের ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবলে গ্রুপ-পর্বে ক্যামেরুনের বিপক্ষে পাঁচ গোল করেছিলেন। এছাড়াও তিনি বুলগেরিয়ার হ্রিস্টো স্টইচকভের সাথে যৌথভাবে প্রতিযোগিতার শীর্ষ গোলদাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে গোল্ডেন বুট পুরস্কার লাভ করেছিলেন।

ক্লাব ফুটবল[সম্পাদনা]

১৯৮৬ থেকে ২০০০ সালের মধ্যে তিনি জেনিত লেনিনগ্রাদ, ডায়নামো কিয়েভ, লগ্রোনেজ, কর্দোবা, ভ্যালেন্সিয়া, র‌্যাঞ্জার্স এবং ইস্তানবুলস্পোর ক্লাবের হয়ে খেলেছেন। আকস্মিকভাবেই আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনে ঝলক দেখান ও আঘাতজনিত কারণে স্বল্প সময়ের মধ্যেই তাঁর খেলোয়াড়ী জীবনের ইতি ঘটে। ২০০০-০১ মৌসুমে পেশাদার ফুটবল লীগে ফিরে আসেন ও পোগোন জেসিন দলের সাথে চুক্তিবদ্ধ হন। কিন্তু শারীরিক সমস্যায় একটিমাত্র খেলায় অংশ নিয়েই খেলা থেকে অবসর নিতে বাধ্য হন সালেঙ্কো।

২০০৩ সালে ইউক্রেন জাতীয় বীচ ফুটবল দলের ম্যানেজার হিসেবে মনোনীত হন। তাঁর দল তিন খেলায় অংশ নিয়ে কেবলমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ৬-৫ গোলে জয়লাভ করে। বাদ-বাকী দুই খেলায় ব্রাজিল ও স্পেনের কাছে পরাজিত হয় ইউক্রেন দল। এ প্রতিযোগিতাটি পর্তুগালে জুলাইয়ের শেষদিকে মুন্দিয়ালিতো নামে অনুষ্ঠিত হয়।[২] প্রতিযোগিতা শেষে তিনি বরখাস্ত হন। বর্তমানে তিনি এফএফইউ’র সহযোগী কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন।

আন্তর্জাতিক ফুটবল[সম্পাদনা]

২৮ জুন, ১৯৯৪ তারিখে গ্রুপ-পর্বের খেলায় রাশিয়া দল ক্যামেরুনের বিপক্ষে মাঠে নামে। ঐ খেলায় তিনি পাঁচ গোল করে ফিফা বিশ্বকাপ রেকর্ড গড়েন। এছাড়াও সুইডেন দলের বিপক্ষে পেনাল্টিতে আরও এক গোল করে হ্রিস্টো স্টইচকভের সাথে যৌথভাবে ১৯৯৪ ফিফা বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতা হন। তারা উভয়েই গোল্ডেন বুট পুরস্কার লাভ করেছিলেন। সালেঙ্কো’র এ অনন্য সাধারণ অর্জন থাকা স্বত্ত্বেও তাঁর দল প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয়। অন্যদিকে স্টইচকভের বুলগেরিয়া দল প্রতিযোগিতায় আরও চারটি খেলায় অংশ নিয়েছিল। ১৯৮৯ সালে সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত ফিফা বিশ্ব যুব চ্যাম্পিয়নশীপে ৬ গোল করে প্রতিযোগিতার সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন। তিনিই একমাত্র খেলোয়াড় যিনি ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপফিফা বিশ্বকাপ - উভয় পর্যায়েই গোল্ডেন বুট পুরস্কার পেয়েছিলেন।

সালেঙ্কো আন্তর্জাতিক ফুটবল অঙ্গনে সর্বমোট নয়টি খেলায় অংশগ্রহণ করেন। তন্মধ্যে ইউক্রেন দলের হয়ে একমাত্র খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। ১৯৯২ সালে হাঙ্গেরি’র বিপক্ষে তাঁর দল ১-৩ গোলে পরাজিত হয়। ১৯৯৪ সালের বিশ্বকাপের পূর্ব অথবা পরে তিনি আর কোন গোল করতে পারেননি। গোল্ডেন বুট পুরস্কার বিজয়ী একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে তাঁর দল গ্রুপ পর্বেই বিদায় নেয়।

খেলোয়াড়ী পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে[সম্পাদনা]

[৩]

ইউক্রেন জাতীয় দল
বছর অংশগ্রহণ গোল
১৯৯২
মোট
রাশিয়া জাতীয় দল
বছর অংশগ্রহণ গোল
১৯৯৩
১৯৯৪
মোট

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Players Appearing for Two or More Countries"। RSSSF। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৪ 
  2. List of matches of the national team in Ukrainian
  3. National-Football-Teams.com-এ ওলেগ সালেঙ্কো (ইংরেজি)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]