ওসমানী নগর উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ওসমানী নগর
উপজেলা
বাংলাদেশে ওসমানী নগর উপজেলার অবস্থান
বাংলাদেশে ওসমানী নগর উপজেলার অবস্থান
ওসমানী নগর সিলেট বিভাগ-এ অবস্থিত
ওসমানী নগর
ওসমানী নগর
ওসমানী নগর বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
ওসমানী নগর
ওসমানী নগর
বাংলাদেশে ওসমানী নগর উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৪°৪৩′৫.৬৭৮″ উত্তর ৯১°৪৪′৪৭.৬৫২″ পূর্ব / ২৪.৭১৮২৪৩৮৯° উত্তর ৯১.৭৪৬৫৭০০০° পূর্ব / 24.71824389; 91.74657000স্থানাঙ্ক: ২৪°৪৩′৫.৬৭৮″ উত্তর ৯১°৪৪′৪৭.৬৫২″ পূর্ব / ২৪.৭১৮২৪৩৮৯° উত্তর ৯১.৭৪৬৫৭০০০° পূর্ব / 24.71824389; 91.74657000 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগসিলেট বিভাগ
জেলাসিলেট জেলা
আয়তন
 • মোট২২৪.৫৪ কিমি (৮৬.৭০ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১৪)[১]
 • মোট২,৩০,৪৬৭
 • জনঘনত্ব১০০০/কিমি (২৭০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

ওসমানী নগর উপজেলা, বাংলাদেশের সিলেট জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা। ২ জুন ২০১৪ তারিখে প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার) ১০৯তম সভায় এই উপজেলা গঠনের অনুমোদন দেয়া হয়।[২]

ভৌগোলিক অবস্থান[সম্পাদনা]

ওসমানীনগনর উপজেলা কুশিয়ারা নদীর তীরে সিলেট জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত। উত্তরে সিলেট সদর উপজেলা, দক্ষিনে মৌলভীবাজার জেলা সদর, পূর্বে বালাগঞ্জ ও দক্ষিন সুরমা উপজেলা, পশ্চিমে বিশ্বনাথ এবং জগন্নাথপুর উপজেলা অবস্থিত।

প্রশাসনিক কাঠমো[সম্পাদনা]

গত ১৩ জুন, ২০১৫ থেকে ওসমানী নগর উপজেলার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম চালু হয়েছে। এই উপজেলার আয়তন ২২৪ দশমিক ৫৪ বর্গকিলোমিটার। আটটি ইউনিয়ন নিয়ে এই উপজেলা গঠিত। ইউনিয়নগুলোঃ-

ওসমানীনগর উপজেলার প্রথম উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব মোহাম্মদ শওকত আলী। তিনি ১৩ জুলাই, ২০১৫ তারিখে উক্ত উপজেলায় প্রথম উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোগদান করেন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

০১/০৫/১৯৯৬ তারিখে বালাগঞ্জ থানার অধিনে প্রথম ওসমানীনগর থানা তথ্য কেন্দ্র চালু করা হয় এবং ২৩/০৩/২০০১ তারিখে ওসমানীনগর একটি সতন্ত্র থানা হিসেবে প্রতিষ্টা লাভ করে। ০২/০৬/২০১৪ তারিখে নিকারের ১০৯তম সভায় সিলেট জেলার ওসমানীনগর থানাকে ওসমানীনগর উপজেলায় উন্নীতকরণ করা হয়।

নামকরণ[সম্পাদনা]

মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি বঙ্গবীর জেনারেল মোঃ আতাউল গণি ওসমানী’র পৈতৃক নিবাস এই উপজেলার দয়ামীর ইউনিয়নে অবস্থিত। মহান ব্যক্তিত্বের অধিকারী জেনারেল এম এ জি ওসমানী বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও পরে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশেষ অবদান রাখেন। ইষ্ট পাকিসত্মান রাইফেলস এর প্রতিষ্ঠাতা ও মুক্তিযুদ্ধে সশস্ত্রবাহিনী, মুক্তিবাহিনীর সর্বাধিনায়ক হিসেবে দেশকে শত্রম্নমুক্ত করে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। এই মহান ব্যক্তির পৈত্রিক নিবাস এ উপজেলার ঐতিহ্য বহন করে এবং যা এই উপজেলার মানুষের গর্বের প্রতীক হিসেবে বাংলাদেশে প্রথম কোনো মুক্তিযোদ্ধার নামানুসারে ‘‘ওসমানীনগর’’ উপজেলার নামকরণ করা হয়।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

এই উপজেলার মোট জনসংখ্যা ২,৩০,৪৬৭ জন। যার মধ্যে পুরুষঃ ১,০৯,৭৯৮ জন এবং মহিলাঃ ১,২০,৬৬৯ জন।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

এই উপজেলার বেশীর ভাগ মানুষ প্রবাসী।এদের বেশীর ভাগ যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন।

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "ইউনিয়ন সমূহ"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "নতুন দুই উপজেলার অনুমোদন"যুগান্তর। ঢাকা। ২ জুন ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১৫