সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ, কলকাতা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ, কলকাতা
SXC Calcutta.jpg
সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ, কলকাতা
নীতিবাক্য Nihil Ultra
স্থাপিত ১৬ জানুয়ারি, ১৮৬০
ধরন বেসরকারি, ক্যাথলিক
রেক্টর রেভারেন্ড জর্জ পনডাথ, এস. জে.[১]
প্রিন্সিপাল রেভারেন্ড ফেলিক্স রাজ, এস. জে.[১]
অবস্থান কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
ক্যাম্পাস শহরাঞ্চলীয়
অন্তর্ভুক্তি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
ওয়েবসাইট www.sxccal.edu

সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ কলকাতার একটি প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।[২] বর্তমানে এটি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত একটি স্বশাসিত কলেজ। কলেজটির নামকরণ করা হয়েছিল ভারতভ্রমণকারী ষোড়শ শতাব্দীর জেসুইট সন্ত সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ারের নামানুসারে। ২০০৬ সালের জুলাই মাসে কলেজটির স্বশাসন মঞ্জুর হয়। ফলে এটি পশ্চিমবঙ্গের প্রথম স্বশাসিত কলেজে পরিণত হয়।[৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৬০ সালের ১৬ জানুয়ারি ফাদার ডেপেলকিনের নেতৃত্বে জেসুইটরা (সোসাইটি অফ জেসাস) এই কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। জেসুইটরা ছিলেন একটি খ্রিষ্টীয় ধর্মীয় গোষ্ঠী। ১৫৪০ সালে সেন্ট ইগনেটিয়াস অফ লয়োলা এই গোষ্ঠীর প্রবর্তন করেন। গোড়া থেকেই এই গোষ্ঠী অন্যান্য আরও কয়েকটি বিষয়ের সঙ্গে শিক্ষাদানের ক্ষেত্রেও বিশেষ কৃতিত্ব অর্জন করেছিল। এক সময়ে তাঁদের "ইউরোপের স্কুল-মাস্টার" বলেও অভিহিত করা হত।[৪] ৩০ মাদার তেরেসা সরণির যে বর্তমান ঠিকানায় কলেজটি অবস্থিত অতীতে সেখানেই ছিল সান সৌসি থিয়েটার। একটি অগ্নিকাণ্ডে থিয়েটারটি ভস্মীভূত হলে কলকাতার তদনীন্তন বিশপ ওলিফ কলেজ নির্মাণের জন্য জেসুইটদের এই স্থানটি প্রদান করেন। প্রথমে তিনটি শ্রেণিতে মাত্র ৪০ জন ছাত্র নিয়ে কলেজের কাজ শুরু হয়েছিল। প্রতিষ্ঠার দুই বছর পরে ১৮৬২ সালে কলেজটি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন লাভ করে। অনেক ধনী অ্যাংলো-ইন্ডিয়ান কলেজের উন্নতিতে বহু অর্থ দান করেছিলেন। ১৯৩৪ থেকে ১৯৪০ সালের মধ্যে বর্তমান পাঁচ তলা কলেজ ভবনটি নির্মিত হয়। এই ভবন নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় ৯ লক্ষ টাকা জোগাড় করা হয়েছিল বেলজিয়ামের সহযোগিতায়, কলকাতাবাসীদের দানে এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় মার্কিন সেনাবাহিনীকে স্কুল চত্বর ব্যবহার করতে দেওয়ার ভাড়া স্বরূপ পাওয়া বিপুল অঙ্কের অর্থের মাধ্যমে।[৫][৬]

১৯৮৫ সালের ১২ এপ্রিল ভারতীয় ডাক কলেজ প্রাঙ্গনের চিত্রসম্বলিত একটি স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ করেন।[৫] ২০০৮ সালের ৮ জানুয়ারি কলেজের প্রাক্তনী তথা ভারতের উপরাষ্ট্রপতি মহম্মদ হামিদ আনসারির উপস্থিতিতে কলেজের প্রথম কনভোকেশন অনুষ্ঠিত হয়।[৭][৮]

বিশিষ্ট প্রাক্তনী[সম্পাদনা]

নাম পরিচিতি
লক্ষ্মীনারায়ণ মিত্তল[২] ব্যবসায়ী
জগদীশচন্দ্র বসু[২] বিজ্ঞানী
রামানন্দ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক
শম্ভু মিত্র নাট্যব্যক্তিত্ব [৯].
উৎপল দত্ত অভিনেতা, নাট্যব্যক্তিত্ব, লেখক
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়[২] ক্রিকেটার
বিজয় মাল্য[২] ব্যবসায়ী
নরম্যান প্রিট্রার্ক অ্যাথলেট
হামুদুর রহমান জুরিস্ট
বেঞ্জামিন ওয়াকার ধর্ম ও দর্শন লেখক
আনন্দ মোহন চক্রবর্তী জেনেটিসিস্ট
জ্যোতি বসু পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী
ড. অর্ণব বসু বন বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট রিসার্চের সিনিয়র ফেলো ও কলেজ অফ উইলিয়াম অ্যান্ড মেরির অধ্যাপক
কমল নাথ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী
মহম্মদ হামিদ আনসারি ভারতের উপরাষ্ট্রপতি
অমর সিংহ উত্তরপ্রদেশের রাজনীতিবিদ
লিয়েন্টার পেজ টেনিস খেলোয়াড় [১০]
সৈয়দ নবাব আলি চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (১৯২১) অন্যতম পৃষ্ঠপোষক[১১]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ "Aministration"। St. Xavier's College, Kolkata। সংগৃহীত 2009-10-31 
  2. ২.০ ২.১ ২.২ ২.৩ ২.৪ ২.৫ telegraphindia.com profile Retrieved on 06-02-2008
  3. Autonomous Notice Retrieved on 04-02-2008
  4. bbc.co.uk the jesuits Retrieved on 04-02-2008
  5. ৫.০ ৫.১ indianpost.com commemorative stamp Retrieved on 04-02-2008
  6. sxccal.edu history Retrieved on 06-02-2008
  7. indiaedunews.net first convocation Retrieved on 04-02-2008
  8. pib.nic.in Govt. of India, Press Release Retrieved on 06-02-2008
  9. Biography of Sombhu Mitra The 1976 Ramon Magsaysay Award website.
  10. http://www.iloveindia.com/sports/tennis/players/leander.html
  11. "BANGLAPEDIA: Chowdhury, (Nawab) Nawab Ali"। banglapedia.search.com.bd। সংগৃহীত 2009-07-18 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Calcutta University