অলিভিয়ে জিরু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
অলিভিয়ে জিরু
Olivier Giroud.jpg
২০১৮ সালে অলিভিয়ে জিরু
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম অলিভিয়ে জিরু[১]
জন্ম (১৯৮৬-০৯-৩০) ৩০ সেপ্টেম্বর ১৯৮৬ (বয়স ৩২)
জন্ম স্থান শামবেরি, ফ্রান্স
উচ্চতা ১.৯২ মি (৬ ফু ৪ ইঞ্চি)[২]
মাঠে অবস্থান আক্রমণভাগের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব চেলসি
জার্সি নম্বর ১৮
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
১৯৯২–১৯৯৯ ফ্রগেস
১৯৯৯–২০০৫ গ্রেনোবল
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০০৫–২০০৮ গ্রেনোবল ২৩ (২)
২০০৭–২০০৮ইস্ত্রেস (ধার) ৩৩ (১৪)
২০০৮–২০১০ তুরস ৪৪ (২৪)
২০১০–২০১২ মন্তপিলিয়ার ৭৩ (৩৩)
২০১০তুরস (ধার) ১৭ (৬)
২০১২–২০১৮ আর্সেনাল ১৮০ (৭৩)
২০১৮– চেলসি ১৩ (৩)
জাতীয় দল
২০১১– ফ্রান্স ৭১ (৩০)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ১৪ মে ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ২৭ মার্চ ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

অলিভিয়ে জিরু (ফরাসি উচ্চারণ: ​[ɔlivje ʒiʁu]; জন্ম: ৩০ সেপ্টেম্বর ১৯৮৬) হলেন একজন ফরাসি পেশাদার ফুটবলার, যিনি প্রিমিয়ার লীগ ক্লাব চেলসি এবং ফ্রান্স জাতীয় দলের হয়ে একজন আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন।

২০০৮ সালে লীগ ২-এর ক্লাব গ্রেনোবলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি তার পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু করেন। ২০০৯–১০ মৌসুমে, তুরস এফসির হয়ে খেলার সময় তিনি উক্ত বিভাগের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরষ্কার জয়লাভ করেন; উক্ত মৌসুমে তিনি ২১টি গোল করেছিলেন। তার এই অসাধারণ খেলা দেখে মুগ্ধ হয়ে মন্তপিলিয়ার তাকে দলে নেয়। ২০১০–১০১ মৌসুমে, আবারো জিরুঁ সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরষ্কার জয়লাভ করেন, এবার তিনি এই পুরস্কার জয়লাভ করেন লীগ ১-এ। তার এই খেলা ক্লাবটিকে তাদের প্রথম লীগ ১ শিরোপা জয়লাভ করতে সাহায্য করে। অতঃপর ২০১২ সালে, তিনি প্রিমিয়ার লীগ ক্লাব আর্সেনালে যোগদান করেন। এই ক্লাবের হয়ে তিনি ২০১৪ এফএ কাপ, ২০১৫ এফএ কাপ এবং ২০১৭ এফএ কাপ জয়লাভ করতে সক্ষম হন। এই আর্সেনালের হয়ে ২৫৩টি ম্যাচ খেলেন, যার মধ্যে ১০৫টি গোল করেন। ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে, তিনি প্রিমিয়ার লীগের অন্য এক ক্লাব চেলসির সাথে ১৮ মাসের জন্য এক চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

২০১১ সালে, ফ্রান্স জাতীয় দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেন। এপর্যন্ত তিনি ৫০-এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন যার মধ্যে তিনি ৩০-এর অধিক গোল করেছেন। তিনি ২০১২ উয়েফা ইউরো, ২০১৪ ফিফা বিশ্বকাপ এবং ২০১৬ উয়েফা ইউরোর মতো প্রতিযোগিতায় ফ্রান্সের হয়ে খেলেছেন। তিনি ২০১৬ উয়েফা ইউরো যুগ্ম ২য় সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন এবং টুর্নামেন্টের ব্রোঞ্জ বুট জয়লাভ করতে সক্ষম হন।

ক্যারিয়ার পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

২৭ মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[৩]
জাতীয় দল এবং সাল অনুযায়ী উপস্থিতি এবং গোলসংখ্যা
জাতীয় দল সাল উপস্থিতি গোল
ফ্রান্স ২০১১
২০১২ ১২
২০১৩ ১২
২০১৪
২০১৫ ১০
২০১৬ ১৪
২০১৭ ১০
২০১৮
মোট ৭১ ৩০

সম্মাননা[সম্পাদনা]

মন্তপিলিয়ার

আর্সেনাল[৪]

চেলসি

  • এফএ কাপ: ২০১৭–১৮[৫]

ফ্রান্স

ব্যক্তিগত

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Squads for 2017/18 Premier League confirmed"। Premier League। ১ সেপ্টেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  2. "Player Profile: Olivier Giroud"। Premier League। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১২ 
  3. National-Football-Teams.com-এ "Giroud, Oliver" (ইংরেজি ভাষায়)। জাতীয় ফুটবল দল। সংগ্রহের তারিখ ১৪ নভেম্বর ২০১৫ 
  4. "Olivier Giroud"Eurosport.com (French ভাষায়)। 
  5. McNulty, Phil (১৯ মে ২০১৮)। "Chelsea 1–0 Manchester United"। BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৮ 
  6. "France – Topscorers"RSSSF.com 
  7. "UNFP: Trophées UNFP du football: Le palmarès complet..." (French ভাষায়)। National Union of Professional Footballers। ১৪ মে ২০১২। ৩ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  8. "Arsenal's Arsene Wenger and Olivier Giroud win awards"BBC.com 
  9. "OFFICIAL TOP SCORER CHART: 2009–10 Ligue 1"Ligue 1.com 
  10. "Trophées UNFP: Olivier Giroud: Palmarès & trophée"National Union of Professional Footballers (French ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 
  11. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; golden-boot-winner নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  12. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; PK নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]