জি এম মুশফিকুর রহমান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জি এম মুশফিকুর রহমান
জি এম মুশফিকুর রহমান.png
জন্ম৩০ নভেম্বর ১৯৬৬
পারুলীয়া গ্রাম, সাতক্ষীরা জেলা, বাংলাদেশ
মৃত্যু৮ সেপ্টেম্বর ১৯৮৯
লক্ষ্মীছড়ি আর্মি ক্যাম্প, পার্বত্য চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ
আনুগত্য বাংলাদেশ
সার্ভিস/শাখা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
কার্যকাল১৯৮৯ পর্যন্ত
পদমর্যাদালেফটেন্যান্ট
ইউনিট১ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি
পুরস্কারবীর উত্তম

জি এম মুশফিকুর রহমান বীর উত্তম (১৯৬৬-১৯৮৯) বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একজন লেফটেন্যান্ট ছিলেন।[১][২][৩]

জন্ম ও প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

৩০ নভেম্বর ১৯৬৬ সাতক্ষীরা জেলার পারুলীয়া গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মো. আব্বাস আলী গাজী। তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৫তম বিএমএ লংকোর্সে যোগদান করেন এবং প্রশিক্ষণ শেষে ১ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারিতে কমিশনপ্রাপ্ত হন। তিনি বাঘাইহাট জোনের লক্ষ্মীছড়ি ক্যাম্পের কমান্ডার হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন।[৪]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

জি এম মুশফিকুর রহমান ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারির অফিসার ছিলেন। ১৯৮৯ সালে ১, ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি তখন পার্বত্য চট্টগ্রামে অপারেশনের দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। প্রতিদিনই শান্তিবাহিনীর সদস্যদের সাথে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষ হতো। ৮ সেপ্টেম্বর ১৯৮৯ রাতে জি এম মুশফিকুর রহমান লক্ষ্মীছড়ি আর্মি ক্যাম্প থেকে ১৭ জন রেইডার্স নিয়ে চেলাছড়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেছিলেন। ক্যাম্পে যাবার পথে শান্তিবাহিনীর পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে হারান তিনি সহ ৩ জন।[৪][৫]

বীর উত্তম খেতাব লাভ[সম্পাদনা]

২৪ সেপ্টেম্বর তাকে 'বীর উত্তম' উপাধিতে ভূষিত করা হয়। মুক্তিযুদ্ধের পর প্রথম ব্যক্তি হিসেবে 'বীর উত্তম' উপাধি পান তিনি।[৪][৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "স্বাধীনতার পর একমাত্র বীর উত্তম লে. মুশফিকের আত্মত্যাগের কাহিনী"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৩ 
  2. বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শিক্ষা পরিদপ্তর কর্তৃক প্রকাশিত (মে ২০১৫)। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইতিহাস। ৩৬/৭ বাংলাবাজার, ঢাকা: এশিয়া পাবলিকেশনস। পৃষ্ঠা ১ম থেকে ৫ম খণ্ড। 
  3. History of Counter Insurgency Operations in Chittagong Hill Tracts (1976-1999)। Appendix 4E1-1। পৃষ্ঠা খণ্ড–২, অধ্যায় ৩, ৪, ৫। 
  4. মেজর জেনারেল (অবঃ) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম। "পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি প্রক্রিয়া ও পরিবেশ-পরিস্থিতির মূল্যায়ন"।
  5. জি এম মুশফিকুর রহমান, বীর উত্তম। চট্টগ্রাম সেনানিবাস, চট্টগ্রাম।: সদরদপ্তর, ২৪ পদাতিক ডিভিশন।