বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে নারী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাংলাদেশী নারী সৈনিক (২০১৮)

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে প্রথমবারের মত নারী সৈনিক নেওয়া হয় ২০১৩ সালে, এ বছর পত্রিকায় হঠাৎ বিজ্ঞাপন আসে যে 'সেনা চিকিৎসা শাখা' (আর্মি মেডিকেল কোর, এএমসি) তে নারীদের সৈনিক হিসেবে ভর্তি করা হবে। ২০১৫ সালের জানুয়ারীতে এই 'প্রথম নারী সৈনিক রিক্রুট ব্যাচ' তাদের মৌলিক সামরিক প্রশিক্ষণ শেষ করে। প্রথমবার শুধু চিকিৎসা শাখায় নারী নিয়োগ দেওয়া হলেও পরে নারীদের করণিক কোরে (আর্মি কোর অব ক্লার্কস/আর্মি ক্লারিক্যাল কোর, এসিসি), সিগনালস কোরে, ইএমই (ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার্স) কোরে, ইঞ্জিনিয়ার্স কোরে, অর্ডন্যান্স কোরে এবং এএসসি (আর্মি সার্ভিসেস কোরে) নেওয়া হয়।[১][২][৩]

২০০০ সালে সর্বপ্রথম সেনা ক্যাডেট হিসেবে নারীরা যোগদান করেন এবং নারীরা স্বাধীনতার পর থেকেই সেনা চিকিৎসা শাখায় চিকিৎসক হিসেবে যোগ দিতে পারেন, ২০১৮ সালে দেশের সর্বপ্রথম নারী জেনারেল হন সুসানে গীতি[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]