জয়ন্তিয়া ভাষা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জয়ন্তিয়া
জয়ন্তিয়া ভাষা বা প্নার
দেশোদ্ভবভারত (মেঘালয়) ও বাংলাদেশ
জাতিতত্ত্বজয়ন্তিয়া জনগোষ্ঠী
মাতৃভাষী
ভারত - ৩১৯৩২৪, বাংলাদেশ - ৮০০০ [১] (২০১১ জনগণনা)[২]
অস্ট্রো-এশীয়
উপভাষাসমূহ
  • ভোঈ
লাতিন
ভাষা কোডসমূহ
আইএসও ৬৩৯-৩pbv
গ্লোটোলগpnar1238[৩]
এই নিবন্ধটিতে আইপিএ ফনেটিক চিহ্নসমূহ রয়েছে। সঠিক পরিবেশনার সমর্থন ছাড়া, আপনি প্রশ্ন বোধক চিহ্ন, বক্স, অথবা অন্যান্য চিহ্ন ইউনিকোড অক্ষরের পরিবর্তে দেখতে পারেন।

জয়ন্তিয়া (প্নার নামেও পরিচিত)[৪] একটি অস্ট্রো-এশীয় ভাষা যা ভারতবাংলাদেশে জয়ন্তিয়া জনগোষ্ঠীর লোকেদের কথ্য ভাষা৷ ভোঈ ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রী ভোঈ জেলার জয়ন্তিয়াভাষী লোকেদের কথ্য উপভাষা৷

ধ্বনিতত্ত্ব[সম্পাদনা]

জয়ন্তিয়া ভাষাতে ৩০ টি বর্ণমালা আছে যার মধ্যে ৭ টি স্বরবর্ণ ও ২৩ টি ব্যঞ্জনবর্ণ উপস্থিত৷

উপভাষা[সম্পাদনা]

ভোঈ এই ভাষার একটি বিচ্ছিন্ন উপভাষা হলেও আরো ১৪ টি উপভাষার অস্তিত্ব পাওয়া যায়৷ সেগুলি হলো - নারতিয়াং, নঞ্জঙ্গি, নংবা, মিনসো, শিলিয়াং, মিনতাং, শাংপুং, জোয়াই, রিম্বাই, সুতঙা, নংখ্লিয়ে, লাকাডং, নারপু, সাইপুং৷[৫]

পদাংশের বিন্যাস[সম্পাদনা]

জয়ন্তিয়া ভাষায় পদাংশের বিন্যাসের ক্ষেত্রে কমপক্ষে একটি একককেন্দ্র স্বরধ্বনি থাকে; সর্বাধিক দুটি ব্যাঞ্জনধ্বনির জটিল আরম্ভ, একটি সংযুক্ত স্বরকেন্দ্র ও একটি অন্ত ব্যাঞ্জন থাকে৷ দ্বিতীয় প্রকারে, আরম্ভের ব্যাঞ্জনধ্বনির ঠিক পরেই পদাংশের নাসিক্য বা কম্পনজাত বা পার্শ্বীয় পদাংশের প্রয়োগ করা হয় যা পদের অবশিষ্টাংশরূপে কাজ করে৷

জনবিন্যাস[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের সিলেট জেলার উত্তরাংশে জৈন্তাপুর উপজেলা ও তৎসংলগ্ন অঞ্চলে প্রায় ৮,০০০ জয়ন্তিয়াভাষী জনগোষ্ঠীর বাস৷

ভারতের মেঘালয় রাজ্য জয়ন্তিয়া জনজাতির মুলক্ষেত্র৷ রাজ্যটিতে ৩১৬৮৬৩ জন জয়ন্তিয়াভাষী বাস করেন৷[৬]

এছাড়া আসামে ২১৬৯ জন বাস করেন, যার মধ্যে পশ্চিম কার্বি আংলং জেলাতে ১৯৩৭(০.৬৬%) লোক বসবাস করেন৷

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://joshuaproject.net/people_groups/12654/BG
  2. "Statement 1: Abstract of speakers' strength of languages and mother tongues - 2011"www.censusindia.gov.in। Office of the Registrar General & Census Commissioner, India। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-০৭ 
  3. হ্যামারস্ট্রোম, হারাল্ড; ফোরকেল, রবার্ট; হাস্পেলম্যাথ, মার্টিন, সম্পাদকগণ (২০১৭)। "জয়ন্তিয়া"গ্লোটোলগ ৩.০ (ইংরেজি ভাষায়)। জেনা, জার্মানি: মানব ইতিহাস বিজ্ঞানের জন্য ম্যাক্স প্লাংক ইনস্টিটিউট। 
  4. Sidwell, Paul. (2005). The Katuic languages: classification, reconstruction and comparative lexicon. LINCOM studies in Asian linguistics, 58. Muenchen: Lincom Europa. আইএসবিএন ৩-৮৯৫৮৬-৮০২-৭
  5. https://www.academia.edu/2040472/A_phonetic_description_and_phonemic_analysis_of_Jowai-Pnar
  6. http://www.censusindia.gov.in/2011census/C-16.htmll