শেরপুর জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শেরপুর জেলা
প্রশাসনিক বিভাগ ঢাকা
আয়তন (বর্গ কিমি) ১,৩৬৩
আন্তর্জাতিক সীমানা ৩০ কিলোমিটার
জনসংখ্যা মোট: ১৪,০৭,৪৬৮
পুরুষ: ৫০.৮৭%
মহিলা: ৪৯.১৩%
জন্মহার (প্রতি হাজারে): ২৪.৫
মৃত্যু হার (প্রতি হাজারে): ৭.৬
জনসংখ্যার ঘনত্ব: ১০৩২
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা: বিশ্ববিদ্যালয়: ০
কলেজ : ১৪
মাধ্যমিক বিদ্যালয়: ৯৫
মাদ্রাসা : ১৯৪
শিক্ষার হার ৩২.৪%
বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব শের আলী গাজী, বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের নেতা আফসার আলী, কম্যুনিস্ট নেতা রবি নিয়োগী, প্রতিমন্ত্রী খন্দকার আব্দুল হামিদ,
প্রধান শস্য ধান, গম, পাট
রপ্তানী পণ্য ধান, পাট, রাবার

শেরপুর জেলা বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের ঢাকা বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল।

ভৌগোলিক সীমানা[সম্পাদনা]

উত্তরে মেঘালয়, দক্ষিণ ও পশ্চিমে জামালপুর জেলা, ও পূর্ব দিকে ময়মনসিংহ জেলা

প্রশাসনিক এলাকাসমূহ[সম্পাদনা]

শেরপুর জেলার উপজেলা গুলি হল -

ইতিহাস[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

শেরপুরের অর্থনীতি বহুলাংশে ধানের চাতালের উপর নির্ভরশীল। প্রচুর কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি কুঁড়া, তুষ সহ অনেক ছোট ছোট শিল্পের যোগান ও পরিবহন খাতের গ্রাহক হয়ে সাহায্য করছে এইসব চাতাল।

দর্শনীয় স্থানসমুহ[সম্পাদনা]

  • গজনী
  • মধুটিলা ইকোপার্ক
  • শের আলী গাজীর মাজার
  • জরিপ শাহ এর মাজার
  • শাহ কামাল এর মাজার
  • বার দুয়ারী মসজিদ
  • ঘাগড়া লস্কর খান মসজিদ
  • মাইসাহেবা জামে মসজিদ।
  • পানি হাটা দিঘই
  • নয়াআনী বাজার নাট মন্দির
  • রঘুনাথ মন্দির

আনুষঙ্গিক নিবন্ধ[সম্পাদনা]