রঞ্জন মাদুগালে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রঞ্জন মাদুগালে
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরঞ্জন সেনেরাথ মাদুগালে
জন্ম (1959-04-22) ২২ এপ্রিল ১৯৫৯ (বয়স ৬০)
ক্যান্ডি, শ্রীলঙ্কা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান, অধিনায়ক, আইসিসি ম্যাচ রেফারি
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ )
১৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৮২ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট৩০ আগস্ট ১৯৮৮ বনাম ইংল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৯)
১৬ জুন ১৯৭৯ বনাম ভারত
শেষ ওডিআই২৭ অক্টোবর ১৯৮৮ বনাম পাকিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৮৮-১৯৯০নন্দেস্ক্রিপ্টস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২১ ৬৩ ৮১ ৮২
রানের সংখ্যা ১,০২৯ ৯৫০ ৩,৩০১ ১,৩৩৪
ব্যাটিং গড় ২৯.৪০ ১৮.৬২ ৩২.০৪ ১৯.৯১
১০০/৫০ ১/৭ ০/৩ ২/২০ ০/৪
সর্বোচ্চ রান ১০৩ ৭৩ ১৪২* ৭৩
বল করেছে ৮৪ ৩৪২ ২২
উইকেট
বোলিং গড় ৭৯.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/১৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৯/– ১৮/– ৪২/– ২৭/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪

রঞ্জন সেনেরাথ মাদুগালে (সিংহলি: රන්ජන් මඩුගල්ල; জন্ম: ২২ এপ্রিল ১৯৫৯) শ্রীলঙ্কার ক্যান্ডিতে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ও সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ১৯৭৯ থেকে ১৯৮৮ সালের মধ্যবর্তী সময়কালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ছিলেন তিনি। ১৯৮২ সালে শ্রীলঙ্কার অভিষেক টেস্ট ক্রিকেট ম্যাচের অন্যতম সদস্য হবার গৌরব অর্জন করেন। পরবর্তীতে ১৯৯৩ সালে আইসিসি’র ম্যাচ রেফারির ভূমিকায় অবতীর্ণ হন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

মাদুগালে ১৯৭৯ সালে আইসিসি ট্রফি’র চূড়ান্ত খেলায় কানাডা ক্রিকেট দলের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক খেলায় অভিষিক্ত হন। ১৯৭৯ সালের প্রুডেন্সিয়াল বিশ্বকাপের ৯ম খেলায় ভারতের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে রঞ্জন গুণতিলকে’র সাথে তাঁরও একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে।[১] খেলায় তিনি ২০ বল খেলে মাত্র ৪ রান সংগ্রহ করে মহিন্দর অমরনাথের বলে উইকেট-রক্ষক সুরিন্দর খান্না’র হাতে ধরা পড়ে প্যাভিলিয়নে ফেরত যান। তা স্বত্ত্বেও তাঁর দল ৪৭ রানের ব্যবধানে জয়ী হয়ে বড় ধরনের অঘটন ঘটায়।

১৯৮২ সালে শ্রীলঙ্কা টেস্ট ক্রিকেট দলের সূচনা খেলায় প্রথম ইনিংসে ৬৫ রানসহ অর্জুনা রানাতুঙ্গা’র সাথে ৯৯ রানের জুটি গড়েন। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনি ২১ টেস্ট ও ৬৩ ওডিআইয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন। এছাড়াও, ২টি টেস্ট ও ১৩টি ওডিআইয়ে শ্রীলঙ্কা দলের নেতৃত্ব দেন তিনি।[২] ১৯৮৫ সালে ভারতের বিপক্ষে সিরিজের পর তিনি টেস্টে মাত্র দুইটি অর্ধ-শতক করেছিলেন। ১৯৮৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় থেকে অবসর গ্রহণ করেন মাদুগালে।

ম্যাচ রেফারি[সম্পাদনা]

খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি একটি বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানে বিপণন নির্বাহীর দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু ক্রিকেট মাঠের প্রতি তাঁর আসক্তি আরও বৃদ্ধি পেতে থাকে। এরফলে ১৯৯৩ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল কর্তৃক ম্যাচ রেফারি হিসেবে মনোনীত হন। আইসিসি’র সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধিতে তিনি কাজ করতে থাকেন। ২০০১ সাল থেকে তিনি আইসিসি’র প্রধান ম্যাচ রেফারি হিসেবে কার্যসম্পাদন করে যাচ্ছেন। এ পর্যন্ত তিনি ৭৭ টেস্ট ও ১৬৯ একদিনের আন্তর্জাতিকে রেফারির দায়িত্বে ছিলেন যা তাঁর অংশগ্রহণকৃত মোট খেলার চেয়েও বেশী। ১৯৯৯-২০০০ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ায় ভারত সফরকালে এশীয় দলের বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে বিতর্কে পরিণত হয়েছিলেন তিনি।[৩][৪][৫][৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]