দিমুথ করুনারত্নে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
দিমুথ করুনারত্নে
Dimma.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামফ্রাঙ্ক দিমুথ মধুসানকা করুনারত্নে
জন্ম (1988-04-21) ২১ এপ্রিল ১৯৮৮ (বয়স ৩১)
কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
ডাকনামদিম্মা
উচ্চতা৬ ফুট ০ ইঞ্চি (১.৮৩ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনবাহাতি ব্যাটসম্যান
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম ফাস্ট
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক১৭ নভেম্বর ২০১২ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট১৬ মার্চ ২০১৩ বনাম বাংলাদেশ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৪৬)
৯ জুলাই ২০১১ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই২৫ ডিসেম্বর ২০১৩ বনাম পাকিস্তান
ওডিআই শার্ট নং২১
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৮–বর্তমানসিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব
২০০৯বাসনাহিরা নর্থ
২০১০-বর্তমানওয়েম্বা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৬৩ ৬৮
রানের সংখ্যা ৪৩৩ ৬৪ ৪,২১২ ১,৯৭৯
ব্যাটিং গড় ৩০.৯২ ৩২.০০ ৪৬.২৮ ৩১.৯১
১০০/৫০ ০/৩ ০/১ ১৪/১৯ ২/১২
সর্বোচ্চ রান ৮৫ ৬০ ২১০* ১০৯*
বল করেছে ৭৯ ১২
উইকেট
বোলিং গড় - - ১০.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - - ২/১৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫/– ০/০ ৭৩/১ ২৮/–
উৎস: ইএসপিএন ক্রিকইনফো, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৩

দিমুথ করুনারত্নে (সিংহলি: දිමුත් කරුණාරත්න; জন্ম ২১ এপ্রিল ১৯৮৮; কলম্বো) হলেন একজন শ্রীলঙ্কান আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়। তিনি হলেন বাহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এবং প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাবের হয়ে খেলে থাকেন।[১]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

করুনারত্নে কলম্বো সেন্ট জোসেফস কলেজ যোগ দেন; যেখান থেকে অনেক শ্রীলঙ্কান টেস্ট খেলোয়াড় তৈরী হয়েছে। উদাহরনস্বরূপ বলা যায়; চামিন্দা ভাস, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস এবং থিসারা পেরেরা এর মত দুর্দান্ত সব খেলোয়াড়গণ। তিনি ছিলেন স্কুল ক্রিকেট দলের রেকর্ড ভেঙে রেকর্ড গড়া একজন খেলোয়াড়।[২] পরবর্তীতে শ্রীলঙ্কার অনূর্ধ্ব ১৯ দল এবং শ্রীলঙ্কা এ স্কোয়াডে তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ২০১১ সালের জুনে তাকে সিনিয়র খেলোয়াড় হিসেবে একদিনের আন্তর্জাতিকে ইংল্যান্ড এবং স্কটল্যান্ড সফরের জন্য মনোনীত করা হয়।[৩] উক্ত সফরে ২টি ম্যাচে তিনি ইংল্যান্ড এর বিরুদ্ধে প্রথমটিতে মাত্র ৪ রান এবং দ্বিতীয়টিতে স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৬০ রান করেন।[১] তাকে টেষ্ট দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয় দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ২০১১ সালের শেষ দিকে কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ৩টি টেষ্টের কোন ম্যাচে তাকে সুযোগ দেওয়া হয়নি।[৪]

২০১২ সালে নিউজিল্যান্ড এর বিরুদ্ধে ঘরের মাটিতে টেস্ট দলে তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তিনি তিলকরত্নে দিলশানের ইনজুরির সুযোগে দলে জায়গা পান। এই সিরিজে তার টেষ্ট অভিষেক হয় কিন্তু আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে কিন্তু প্রথম ইনিংসে শূন্য রান করেন। যাহোক তিনি তার সামর্থ্য দেখান দ্বিতীয় ইনিংসে অপরাজিত অর্ধশতক করেন এবং দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন। [৫] নিউজিল্যান্ড সিরিজে টেষ্ট স্কোয়াডে নাম থাকায় তাকে পুনরায় অস্ট্রেলিয়া সফরের তিনটি টেষ্ট ম্যাচেও রাখা হয়। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত পেস বোলিং এ্যাটাকে তিনি ভাল করতে পারেননি। সিডনিতে সিরিজের শেষ টেষ্টে তিনি তার সর্ব্বোচ্চ টেষ্ট রানের স্কোর গড়েন দ্বিতীয় ইনিংসে ৮৫ করেন ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Dimuth Karunaratne: Sri Lanka"www.cricinfo.comESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১১ 
  2. "Record breaker Dimuth helps Joes pile up 335/5"Daily News (Sri Lanka)। ৩ মার্চ ২০০৭। ১৫ এপ্রিল ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১১ 
  3. "Jayasuriya back in SL limited-overs squad"ESPNcricinfo। ৯ জুন ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১১ 
  4. "Mendis back for Sri Lanka tour to South Africa"Times of India। ২২ নভেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১১ 
  5. "1st Test: Sri Lanka v New Zealand at Galle, Nov 17-19, 2012"ESPNcricinfo। ১৯ নভেম্বর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১২ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]