শ্রীধরন জগন্নাথন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শ্রীধরন জগন্নাথন
ஸ்ரீதரன் ஜெகநாதன்
শ্রীধরন জগন্নাথন.jpg
১৯৭৯ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে শ্রীধরন জগন্নাথন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামশ্রীধরন জগন্নাথন
জন্ম(১৯৫১-০৭-১১)১১ জুলাই ১৯৫১
কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
মৃত্যু১৪ মে ১৯৯৬(1996-05-14) (বয়স ৪৪)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার, কোচ
সম্পর্কব্রিজেশ জগন্নাথন (পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৯)
৪ মার্চ ১৯৮৩ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট১১ মার্চ ১৯৮৩ বনাম নিউজিল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৩)
২০ মার্চ ১৯৮৩ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই১৪ জানুয়ারি ১৯৮৮ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৮০ - ১৯৯০নন্দেস্ক্রিপটস ক্রিকেট ক্লাব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২৯ ১৩
রানের সংখ্যা ১৯ ২৫ ৪৩৭ ১০৯
ব্যাটিং গড় ৪.৭৫ ৮.৩৩ ১৩.৬৫ ১৩.৬২
১০০/৫০ –/– –/– –/১ –/–
সর্বোচ্চ রান ২০* ৭৫ ৩৬
বল করেছে ৩০ ২৭৬ ৩৭৩৬ ৬৩০
উইকেট ৪৯
বোলিং গড় ৪১.৬০ ৩১.৬১ ৫১.৬৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ২/৪৫ ৫/৩৪ ২/৪৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং –/– ১/– ১৪/– ১/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৭ অক্টোবর ২০১৯

শ্রীধরন জগন্নাথন (তামিল: ஸ்ரீதரன் ஜெகநாதன்; জন্ম: ১১ জুলাই, ১৯৫১ - মৃত্যু: ১৪ মে, ১৯৯৬) কলম্বোয় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা শ্রীলঙ্কান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও কোচ ছিলেন।[১][২][৩] শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৮৩ থেকে ১৯৮৮ সময়কালে শ্রীলঙ্কার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটে নন্দেস্ক্রিপটস দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স বোলিং করতেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৭৩-৭৪ মৌসুম থেকে ১৯৮৭-৮৮ মৌসুম পর্যন্ত শ্রীধরন জগন্নাথনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

১৯৭৯ সালে আইসিসি ট্রফি প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী আসরে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে ইংল্যান্ড গমন করেন। এ প্রতিযোগিতায় তার দল শিরোপা লাভ করেছিল। নটিংহ্যামশায়ারের বিপক্ষে ৪/৯২ লাভ করেছিলেন তিনি। সবগুলো প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে ৩১.৬১ গড়ে ৪৯ উইকেট ও ১৩.৬৬ গড়ে ৪৩৭ রান তুলেছিলেন।

১৯৮২-৮৩ মৌসুমে ডেভনপোর্টে তাসমানিয়ার বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৭৪ রান তুলেন। দলীয় সংগ্রহ ৮৯/৭ থাকাবস্থায় রবি রত্নায়েকের সাথে অষ্টম উইকেট জুটিতে ১৪০ রান যুক্ত করেন। রবি রত্নায়েকে করেন অপরাজিত ৬৪ রান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্ট ও পাঁচটিমাত্র ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন শ্রীধরন জগন্নাথন। ৪ মার্চ, ১৯৮৩ তারিখে ক্রাইস্টচার্চে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ১১ মার্চ, ১৯৮৩ তারিখে ওয়েলিংটনে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

বামহাতি স্পিনার ও নিচেরসারির ডানহাতি ব্যাটসম্যান শ্রীধরন জগন্নাথন ১৯৮২-৮৩ মৌসুমে নিউজিল্যান্ড সফরে আঘাতে জর্জরিত শ্রীলঙ্কা দলের পক্ষে উক্ত দুই টেস্টে অংশ নেন। তবে, ব্যাট কিংবা বল হাতে কোনটি বিভাগেই সফলতার স্বাক্ষর রাখতে পারেননি। চার ইনিংসে অংশ নিয়ে ৪.৭৫ গড়ে মাত্র ১৯ রান তুলেন। কোন ইনিংসেই দুই অঙ্কের কোটা স্পর্শ করতে পারেননি। এমনকি কোন উইকেটেরও সন্ধান পাননি তিনি।

দলের বাইরে অবস্থান করলেও ১৯৮৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশ নেয়ার জন্যে আমন্ত্রণ বার্তা লাভ করেন। ভারত ও পাকিস্তানে যৌথভাবে অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের রিচি রিচার্ডসন এবং পুনেতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গ্রাহাম গুচটিম রবিনসনের উইকেট পেলেও আট উইকেটে পরাজয়বরণ করে তার দল।

অংশগ্রহণকৃত পাঁচটি ওডিআইয়ে ২/৪৫ বোলিং পরিসংখ্যানই তার সেরা। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ৪১.৬০ গড়ে পাঁচ উইকেট লাভ করেন। এছাড়াও, ৮.৩৩ গড়ে ২৫ রান তুলেন তিনি।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর কোচিং জগতের দিকে ধাবিত হন। মালয়েশিয়া জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত ছিলেন শ্রীধরন জগন্নাথন। তার সন্তান ব্রিজেশ জগন্নাথন তামিল ইউনিয়ন ও অ্যাথলেটিক ক্লাবের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন।

১৪ মার্চ, ১৯৯৬ তারিখে ৪৫ বছর বয়সে শ্রীধরন জগন্নাথনের দেহাবসান ঘটে। শ্রীলঙ্কার প্রথম টেস্ট খেলোয়াড় হিসেবে মৃত্যুমুখে পতিত হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of Sri Lanka Test Cricketers
  2. "Sri Lanka – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 
  3. "Sri Lanka – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]