মহাবাক্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

মহাবাক্য (সংস্কৃত: महावाक्य) বা মহাবাক্যসমূহ (সংস্কৃত: महावाक्यानि) হল অদ্বৈত বেদান্ত কর্তৃক নির্ধারিত উপনিষদের "মহান বানী"। মহাবাক্যের সংখ্যা অসংখ্য হলেও ৪টিকে প্রধান হিসাবে বিবেচনা করা হয়।[১][২] অদ্বৈত অনুসারে, সকল মহাবাক্য সংক্ষেপে একই বিশ্বজনীন বার্তা প্রেরণ করে।

মহাবাক্যসমূহ[সম্পাদনা]

মহাবাক্যের সংখ্যা অসংখ্য হলেও ৪টি বেদের ৪টি স্তবকে মহাবাক্য ধরা হয়।[৩]

প্রধান চার মহাবাক্য[সম্পাদনা]

নং মহাবাক্য সংস্কৃত অর্থ উৎস
প্রজ্ঞানং ব্রহ্ম प्रज्ञानम् ब्रह्म প্রজ্ঞা[টীকা ১] হল ব্রহ্ম,[টীকা ২] বা ব্রহ্ম হলেন প্রজ্ঞা[ওয়েব ২] ঋগ্বেদের ঐতরেয় উপনিষদ
৩.৩[৭]
অয়ং আত্মা ব্রহ্ম अयम् आत्मा ब्रह्म আমিই সেই আত্মা যা ব্রহ্ম অথর্ববেদের মুণ্ডক উপনিষদ, দ্বিতীয় মুণ্ডক[৮][৯]
তৎ ত্বং অসি तत् त्वम् असि তুমিই সেই সামবেদের ছান্দ্যোগ্য উপনিষদ
৬.৮.৭[১০]
অহং ব্রহ্মাস্মি अहम् ब्रह्मास्मि আমিই ব্রহ্ম, বা আমি দিব্য[৬] যজুর্বেদের বৃহদারণ্যক উপনিষদ
১.৪.১০[১১]

অন্যান্য কিছু মহাবাক্য[সম্পাদনা]

নং মহাবাক্য অর্থ উৎস
ব্রহ্ম সত্য জগন্মিথ্যা ব্রহ্ম সত্য, জগৎ মিথ্যা বিবেকচূড়ামণি
একমেবাদ্বিতীয়ং ব্রহ্ম ব্রহ্ম এক ও অদ্বিতীয় ছান্দোগ্য উপনিষদ ৬.২.১[১২]
সোহং তিনিই আমি ঈশোপনিষদ
সর্বং খল্বিদং ব্রহ্ম এই সবই ব্রহ্ম ব্রাহ্মণ, ছান্দোগ্য উপনিষদ ৩.১৪.১[১৩]
এতদ্বই তৎ এটা সত্যই, এটাই কঠোপনিষদ

তাৎপর্য[সম্পাদনা]

বাক্যগুলিতে অন্তর্দৃষ্টিকে সমর্থন করে ব্যাখ্যা করা হয় যে স্বতন্ত্র আত্মা (জীব) যা পৃথক অস্তিত্ব হিসাবে আবির্ভূত হয়, তা (আত্মা) মূলত অংশ এবং সমগ্র (ব্রহ্ম) এর প্রকাশ।

অদ্বৈত বেদান্ত অনুসারে মহাবাক্য আত্মাপরব্রহ্মের সর্বোচ্চ মিলনের দ্যোতক।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] অদ্বৈত অনুসারে সন্ন্যাস দীক্ষায় দীক্ষিত ব্যক্তিরা মহাবাক্য মন্ত্র হিসেবে শিক্ষা করেন "যাতে তাঁরা সেই সর্বোচ্চ অবস্থায় পৌঁছতে পারেন যে অবস্থায় ব্যক্তির আত্মা অবিচ্ছেদ্যভাবে ব্রহ্মে লীন হতে পারে"।[১৪]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. "Consciousness",[৪][ওয়েব ১]"intelligence",[৫][৬] "wisdom"[ওয়েব ২]
  2. "The Absolute",[৪][ওয়েব ১] "infinite",[ওয়েব ১] "the Highest truth"[ওয়েব ১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Meditation on Mahavakyas"www.sivanandaonline.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-০২ 
  2. "Mahavakyas: Great Contemplations of Advaita Vedanta"www.swamij.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-০২ 
  3. Saraswati 1995, পৃ. 4।
  4. Grimes 1996, পৃ. 234।
  5. Sivaraman 1973, পৃ. 146।
  6. Braue 1984, পৃ. 80।
  7. Sanskrit: ऐतरेयोपनिषद् Wikisource English Translation:Max Muller, Aitareya Upanishad 3.3.7, also known as Aitareya Aranyaka 2.6.1.7 Oxford University Press, page 246
  8. Robert Hume, Mundaka Upanishad, Thirteen Principal Upanishads, Oxford University Press, page 370-371
  9. Max Muller, The Upanishads, Part 2, Mundaka Upanishad, Oxford University Press, page 34-35
  10. MAHAVAKYAS, Tat Tvam Asi: That Thou Art, www.classicyoga.co.in (ইংরেজি ভাষায়)
  11. Sanskrit and English Translation: S Madhavananda, Brihadaranyaka Upanishad 1.4.10, Brihadaranyaka Upanishad - Shankara Bhashya, page 145
  12. Sanskrit: छान्दोग्योपनिषद् १.२ ॥षष्ठोऽध्यायः॥ Wikisource
  13. Sanskrit: छान्दोग्योपनिषद् १.१ ॥तृतीयॊऽध्यायः॥ Wikisource
  14. The Upanisads, Kamakoti.org (ইংরেজি ভাষায়)

উৎস[সম্পাদনা]

প্রকাশিত উৎস[সম্পাদনা]

  • Braue, Donald A. (১৯৮৪), Māyā in Radhakrishnanʾs Thought: Six Meanings Other Than Illusion, Motilall Banarsidass 
  • Grimes, John A. (১৯৯৬), A Concise Dictionary of Indian Philosophy: Sanskrit Terms Defined in English, SUNY Press 
  • Saraswati, Chandrasekharendra (১৯৯৫), Hindu Dharma: The Universal Way of Life, Bhavan's Book University, আইএসবিএন 81-7276-055-8 
  • Sivaraman, K. (১৯৭৩), Śaivism in Philosophical Perspective: A Study of the Formative Concepts, Problems, and Methods of Śaiva Siddhānta, Motilall Banarsidass 

ওয়েব উৎস[সম্পাদনা]

  1. Jiddu Krishnamurti, Saanen 2nd Conversation with Swami Venkatesananda 26th July 1969
  2. "Encyclopedy of Hinduism, Mahavakyas"। ২২ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]