ভ্যালেরি পেরিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভ্যালেরি রিচি পেরিন
Valerie Perrine (1975).jpg
১৯৭৫ সালে আমস্টারডামে পেরিন
স্থানীয় নাম
Valerie Perrine
জন্ম
ভ্যালেরি রিচি পেরিন

(1943-09-03) সেপ্টেম্বর ৩, ১৯৪৩ (বয়স ৭৬)
পেশাঅভিনেত্রী, মডেল
কার্যকাল১৯৭১–২০১৭
ওয়েবসাইটvalerieperrine.com

ভ্যালেরি রিচি পেরিন (ইংরেজি: Valerie Ritchie Perrine; জন্ম: ৩ সেপ্টেম্বর ১৯৪৩)[১] হলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী ও মডেল। তিনি ১৯৭০-এর দশকের অন্যতম যৌন আবেদনের প্রতীক ছিলেন এবং তার সৌন্দর্য ও অতি সুন্দর চেহারা তাকে হলিউডে স্থান করে দেয়।[২] তিনি লেনি (১৯৭৪) চলচ্চিত্রে হানি ব্রুস চরিত্রে অভিনয়ের জন্য সর্বাধিক পরিচিত। এই কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ সম্ভাবনাময় নবাগত অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা পুরস্কারকান চলচ্চিত্র উৎসব হতে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পুরস্কার অর্জন করেন এবং শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৩] তার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র ভূমিকা হল সুপারম্যান (১৯৭৮), দি ইলেকট্রিক হর্সম্যান (১৯৭৯) ও সুপারম্যান টু (১৯৮০)।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

পেরিন ১৯৪৩ সালের ৩রা সেপ্টেম্বর টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের গেল্‌ভস্টনে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা কেনেথ পেরিন ছিলেন একজন সেনা কর্মকর্তা এবং তার মাতা উইনিফ্রেড (প্রদত্ত নাম: ম্যাকজিনলি) ছিলেন একজন নৃত্যশিল্পী।[১] তার পিতা মার্কিন এবং মাতা ব্রিটিশ ছিলেন। তিনি শৈশব কাটান জাপানে এবং এবং কৌশর কাটান প্যারিস ও রোম শহরে। তিনি কলেজে মনোবিজ্ঞান বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করেন, কিন্তু এই ধরাবাঁধা জীবনে তিনি বিরক্ত হয়ে তিনি কলেজ ত্যাগ করেন। পেরিন লাস ভেগাস শোগার্ল হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। তার উচ্চাকাঙ্ক্ষা, চালচলন, চেহার ও স্তনের গঠন তাকে শোগার্ল হিসেবে কাজ করতে সাহায্য করে। তিনি স্টারডাস্টের "লিদো দ্য পারি রেভ্যু"-টে প্রথম সারির নৃত্যশিল্পী হিসেবে কাজ শুরু করেন।[৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তার অভিনীত শুরুর দিকের অন্যতম চলচ্চিত্র হল জর্জ রয় হিল পরিচালিত স্লটারহাউজ-ফাইভ (১৯৭২)।[৪] কার্ট ভনেগাট রচিত উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত এই ছবিতে তিনি সফ্‌ট-কোর পর্নো অভিনেত্রী মন্টানা উইল্ডহ্যাক চরিত্রে অভিনয় করেন। এই চরিত্রে অডিশনে তিনি প্রযোজকদের কোন ছবি নিয়ে যান নি, কিন্তু তাদের অনুরোধে তিনি তার শোগার্ল পোশাক, জি-স্ট্রিং ও স্কিম্পি ব্রা পরিধান করেন, যারা তারা তার শারীরিক গঠন দেখতে পারে। ফলে তিনি স্বাভাবিকভাবেই এই চরিত্রের জন্য নির্বাচিত হন।[৪] তিনি ১৯৭২ সালের মে সংখ্যায় প্রকাশের জন্য প্লেবয় সাময়িকীর জন্য ছবি তুলেন, ১৯৮১ সালে আগস্ট সংখ্যায় প্রচ্ছদে তাকে দেখা যায়। তিনি সে সময়ের প্রথম অভিনেত্রী যিনি কোন মার্কিন টেলিভিশনে ইচ্ছাকৃতভাবে নগ্ন হয়েছেন, কাজটি ছিল পিবিসিতে প্রচারিত ব্রুস জে ফ্রিডম্যানের স্টিমবাথ। এতে তাকে এক পাশ থেকে সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে গোসল করতে দেখা যায়। ১৯৭৩ সালে তিনি লাভ স্টোরি অন্থোলজি ধারাবাহিকের হোয়েন দ্য গার্লস কেম আউট টু প্লে পর্বে অভিনয় করেন।

১৯৭৪ সালে তাকে বব ফসে পরিচালিত লেনি (১৯৭৪) চলচ্চিত্রে স্ট্যান্ড-আপ কৌতুকাভিনেতা লেনি ব্রুসের স্ত্রী কৌতুকাভিনেত্রী হানি ব্রুস চরিত্রে দেখা যায়। এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ সম্ভাবনাময় নবাগত অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা পুরস্কারকান চলচ্চিত্র উৎসব হতে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পুরস্কার অর্জন করেন এবং শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারগোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৩][৪]

১৯৭৬ সালে তিনি জীবনীমূলক ডব্লিউ.সি. ফিল্ডস অ্যান্ড মি (১৯৭৬) ছবিতে কার্লোত্তা মন্টি চরিত্রে অভিনয় করেন। তিনি সুপারম্যান (১৯৭৮) অপরাধীদের সর্দার লেক্স লুথরের প্রেমিকে ইভ টেসমেকার চরিত্রে অভিনয় করেন।[২] এই কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে স্যাটার্ন পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। তিনি ১৯৮০ সালে এই চলচ্চিত্রের অনুবর্তী পর্ব সুপারম্যান টু-এ একই চরিত্রে অভিনয় করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Valerie Perrine Biography (1943-)"ফিল্ম রেফারেন্স। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  2. "'Superman' Star Valerie Perrine Gets Her Smile Back After Parkinson's Meds Cause Her to Lose Teeth"ইনসাইড এডিশন (ইংরেজি ভাষায়)। ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  3. বেল, ড্যানিয়েল (৩ আগস্ট ২০১৭)। "Dalton native launches Kickstarter campaign to help finish documentary about Valerie Perrine"দ্য ডেইলি সিটিজেন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  4. ডোনাটো, জিল জি (১৪ ডিসেম্বর ২০১৪)। "Remembering Valerie Perrine, the Thinking Man's Sex Symbol"ভাইস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]