ম্যাগি চেউং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ম্যাগি চেউং
Maggie Cheung cropped.jpg
২০১৭ সালে ম্যাগি চেউং
প্রাথমিক তথ্য
চাইনিজ নাম張曼玉 (প্রথাগত)
পিনয়িনঝাং মান্যু (ম্যান্ডারিন)
জিউটপিঙ্গজেওং১ মান৬ জুক২ (ক্যান্টনীয়)
জন্ম (১৯৬৪-০৯-২০) ২০ সেপ্টেম্বর ১৯৬৪ (বয়স ৫৪)
ব্রিটিশ হংকং
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল১৯৮৪–২০০৪, ২০১০–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীঅলিভিয়ার আসায়াস (১৯৯৮–২০০১; তালাকপ্রাপ্ত)

ম্যাগি চেউং মান-ইয়ুক (চীনা: 張曼玉; জন্ম: ২০ সেপ্টেম্বর ১৯৬৪) হচ্ছেন হংকংয়ের একজন অভিনেত্রী। ১৯৮৩ সালে ব্রিটেন ও হংকংয়ের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত একটি চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার কর্মজীবন শুরু করার পর থেকে তিনি আজ পর্যন্ত প্রায় ৮০টির বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন। তার বেশিরভাগ চলচ্চিত্র বাণিজ্যিকভাবে সফল হয়েছে, যেখানে সকলে তার অভিনয়ের প্রশংসা করেছেন। কিন্তু ম্যাগি চেউং এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন যে, তিনি চলচ্চিত্রে যে সমস্ত কাজ করেছেন, সেই চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে যেগুলো তার মনে দাগ কেটেছে সেগুলো হলো: সং অফ এক্সিল, সেন্টার স্টেজ, কমরেডস: অলমস্ট এ লাভ স্টোরি এবং ইন দ্য মুড ফোর লাভ। তিনি ক্লিন চলচ্চিত্রে এমিলি ওয়াং চরিত্রে অভিনয় করেছেন, যেটি চলচ্চিত্রে অভিনীত তার শেষ চরিত্র, তিনি কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথম এশিয়ান অভিনেত্রী হিসেবে একটি পুরস্কার জয়লাভ করতে সমর্থ হন।

প্রারম্ভিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

ম্যাগি চেউং ১৯৬৪ সালে হংকংয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সেন্ট পল কনভেন্ট স্কুলে ভর্তি হন, যেখানে তিনি প্রাথমিক স্তরে পড়ালেখা শুরু করেন। যখন তিনি ৮ম শ্রেণিতে পড়ছিলেন তার পরিবার হংকং থেকে যুক্তরাজ্যে চলে যায়। তিনি ইংল্যান্ডের কেন্ট এবং ইংল্যান্ডের ব্রোমলিতে তার শৈশব ও কৈশোরের অধিকাংশ সময় ব্যয় করেছিলেন। তিনি ছুটির জন্য ১৯৮২ সালে মাত্র ১৮ বছর বয়সে হংকংয়ে ফিরে যান কিন্তু মডেলিং অ্যাসাইনমেন্ট এবং অন্যান্য কিছু প্রতিশ্রুতির মাধ্যমে সেখানেই স্থায়ীভাবে বসবাস করা শুরু করেন। লেন ক্রাউফোর্ড ডিপার্টমেন্ট স্টোরে শীঘ্রই একটি চাকরি করার সুযোগ পান তিনি।[১]

১৯৮৩ সালে, ম্যাগি চেউং মিস হংকং প্রতিযোগিতায় একজন প্রতিযোগী হিসেবে প্রবেশ করেন এবং সেখানে প্রথম রানার-আপ হন। উক্ত প্রতিযোগিতায় তিনি মিস ফটোজনিক পুরষ্কার লাভ করেন।[২] একই বছরে তিনি মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার সেমিফাইনাল পর্যন্ত পৌঁছানোর যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন।[৩] একজন টিভি উপস্থাপক হিসাবে দুই বছর কাজ করার পরে টিভিবির সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন।[১]

ম্যাগি চেউং একজন বহুভাষিক ব্যক্তি, যিনি হংকং এবং ইংল্যান্ডের তার উত্তরাধিকারী। তিনি প্যারিসে দশ বছর থাকার কারণে ফেঞ্চ ভাষায় কথা বলতে পারেন। এছাড়াও ম্যাগি চেউং ক্যান্টনিজ, ম্যান্ডারিন এবং সাংহাইয়েস ভাষায় স্পষ্টভাবে কথা বলতে পারেন। তিনি খুব সহজে এক ভাষা হতে অন্য ভাষা পরিবর্তন করে কথা বলতে পারেন। "ক্লিন" চলচ্চিত্রে তিনি স্পষ্টভাবে ইংরেজি, ফরাসি এবং ক্যান্টোনিজ ভাষায় অভিনয় করে তার ভাষাগত দক্ষতা প্রদর্শন করেছেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ম্যাগি চেউং ১৯৯৮ সালে ফরাসি পরিচালক অলিভিয়ার আসায়াসের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। কিন্তু বিবাহের মাত্র ৩ বছর পর, ২০০১ সালে তারা তালাকপ্রাপ্ত হয়ে যান।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Maggie Cheung: The Lady Is A Vamp"The Independent 
  2. "Miss Hong Kong 1983"misshkbeauties.com। সংগ্রহের তারিখ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১০ 
  3. "Miss World Previous Title Holders - 1983"missworld.tv 
  4. "Maggie Cheung talks about her divorce"China Daily 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]