জ্যাকি উইভার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জ্যাকি উইভার

Jacki Weaver
Jacki Weaver - Flickr - Eva Rinaldi Celebrity and Live Music Photographer (1).jpg
২০১২ সালে উইভার
জন্ম
জ্যাকুলিন রুথ উইভার

(1947-05-25) ২৫ মে ১৯৪৭ (বয়স ৭৩)
শিক্ষাহর্নসবি গার্লস হাই স্কুল
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯৬২-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীডেভিড প্রাইস
(বি. ১৯৬৬; বিচ্ছেদ. ১৯৭০)

ম্যাক্স হেনসার
(বি. ১৯৭৫; বিচ্ছেদ. ১৯৭৭)

ডেরিন হিঞ্চ
(বি. ১৯৮৩; বিচ্ছেদ. ১৯৯৮)

শন টেইলর (বি. ২০০৩)
সঙ্গীজন ওয়াল্টার্স (১৯৬৯-১৯৭০)
রিচার্ড হুয়েরেট (১৯৭১-১৯৭৪)
ফিল ডেভিস (১৯৭৭-১৯৮১)
সন্তান

জ্যাকুলিন রুথ উইভার এও (ইংরেজি: Jacqueline Ruth Weaver; জন্ম: ২৫শে মে ১৯৪৭) হলেন একজন অস্ট্রেলীয় অভিনেত্রী। তিনি মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনি অ্যানিমেল কিংডম (২০১০) ও সিলভার লাইনিংস প্লেবুক (২০১২) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতি অর্জন করেন এবং এই দুই চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

উইভার ১৯৭০-এর দশকে স্ট্রর্ক (১৯৭১), আলভিন পার্পল (১৯৭৩) ও পিটারসেন (১৯৭৪) চলচ্চিত্র দিয়ে অস্ট্রেলীয় নব কল্লোলের প্রতীক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। তার অভিনীত অন্যান্য চলচ্চিত্র হল পিকনিক অ্যাট হ্যাঙ্গিং রক (১৯৭৫), ম্যাজিক ইন দ্য মুনলাইট (২০১৪), দ্য ডিজ্যাস্টার আর্টিস্ট (২০১৭), বার্ড বক্স (২০১৮) ও পমস (২০১৯)। ২০০৫ সালে তার আত্মজীবনী মাচ লাভ, জ্যাক প্রকাশিত হয়।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

উইভার ১৯৪৭ সালের ২৫শে মে নিউ সাউথ ওয়েলসের সিডনিতে জন্মগ্রহণ করেন। তার মাতা এডিথ (প্রদত্ত নাম: সিম্পসন) ইংল্যান্ড থেকে অস্ট্রেলিয়ায় যান এবং তার পিতা আর্থার উইভার ছিলেন সিডনির আম মোক্তার। জ্যাকি হর্নসবি গার্লস হাই স্কুলে পড়াশুনা করেন এবং তিনি তার স্কুলে ডাক্স ছিলেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে পড়াশুনার জন্য বৃত্তি পান, কিন্তু তিনি এর পরিবর্তে অভিনয়ে মনোনিবেশ করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

উইভারের চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় ১৯৭১ সালে স্টর্ক দিয়ে, যার জন্য তিনি তার প্রথম অস্ট্রেলিয়ান ফিল্ম ইনস্টিটিউট পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৭০-এর দশকে উইভার আলভিন পার্পল (১৯৭৩) চলচ্চিত্রে তার কাজের জন্য তিনি যৌন আবেদনের প্রতীক খ্যাতি লাভ করেন। তিনি দাবী করেন তিনি এই খ্যাতি পছন্দ করেননি, কিন্তু তার কাজের ধরন হিসেবে গ্রহণ করেন। এই দশকে তার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রগুলো হল পিটার উইয়ার পরিচালিত পিকনিক অ্যাট হ্যাংগিং রক (১৯৭৫) এবং ক্যাডি (১৯৭৬), যার জন্য তিনি তার দ্বিতীয় অস্ট্রেলিয়ান ফিল্ম ইনস্টিটিউট পুরস্কার অর্জন করেন।

২০১০ সালে উইভার অপরাধমূলক থ্রিলার অ্যানিমেল কিংডম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এতে তার অসামান্য অভিনয় দক্ষতার জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারে মনোনীত হন এবং অস্ট্রেলিয়ান ফিল্ম ইনস্টিটিউট পুরস্কার, ন্যাশনাল বোর্ড অব রিভিউ পুরস্কার, লস অ্যাঞ্জেলেস ফিল্ম ক্রিটিকস অ্যাসোসিয়েশন পুরস্কার ও স্যাটেলাইট পুরস্কার লাভ করেন।

২০১২ সালে তিনি রবার্ট ডি নিরোর বিপরীতে সিলভার লাইনিংস প্লেবুক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এই ছবিতে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে তার দ্বিতীয় একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ২০১৪ সালে তার অভিনীত সিক্স ড্যান্স লেসনস্‌ ইন সিক্স উয়িকস্‌ মুক্তি পায়। রিচার্ড আলফিয়েরির একই নামের নাটক অবলম্বনে ছবিটি নির্মাণ করেন আর্থার অ্যালান সেইডম্যান।[৩]

পুরস্কার ও মনোনয়ন[সম্পাদনা]

একাডেমি পুরস্কার

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. উইভার, জ্যাকি। "Much Love, Jac"গুডরিডস। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৮ 
  2. কার্টিন, জেনি (১১ এপ্রিল ১৯৮৬)। "Jacki Weaver actress"দি এজ। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৮ 
  3. "Jacki Weaver To Star In Indie '6 Dance Lessons In 6 Weeks'"ডেডলাইন। ৪ এপ্রিল ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]