নাওমি হ্যারিস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নাওমি হ্যারিস
ওবিই
স্থানীয় নামNaomie Melanie Harris
জন্মনাওমি মেলানি হ্যারিস
(১৯৭৬-০৯-০৬) ৬ সেপ্টেম্বর ১৯৭৬ (বয়স ৪২)
ইসলিংটন, লন্ডন, যুক্তরাজ্য
শিক্ষাস্নাতক (সমাজ ও রাষ্ট্র বিজ্ঞান)
যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র/ছাত্রীপেমব্রোক কলেজ, ক্যামব্রিজ
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল১৯৮৭-বর্তমান
উল্লেখযোগ্য কাজমুনলাইট
পিতা-মাতালিজেস কায়লা (মাতা)

নাওমি মেলানি হ্যারিস,[১] ওবিই (নাওমি হ্যারিস নামে পরিচিত, জন্ম: ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৬)[১] হলেন একজন ইংরেজ অভিনেত্রী। তিনি একজন শিশু শিল্পী হিসেবে ১৯৮৭ সালে টেলিভিশন ধারাবাহিক সিমন অ্যান্ড দ্য উইচ দিয়ে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। তিনি পাইরেটস্‌ অফ দ্য ক্যারিবিয়ান চলচ্চিত্র ধারাবাহিকের দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্বে ভুডু উইচ টিয়া দালমা চরিত্রে অভিনয় করেন, এবং পরে টুয়েন্টি এইট ডেজ লেটারম্যান্ডেলা: লং ওয়াক টু ফ্রিডম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনি জেমস বন্ড চলচ্চিত্র ধারাবাহিকে স্কাইফলস্পেক্টার চলচ্চিত্রে ইভ মানিপেনির ভূমিকায় অভিনয় করেন। ২০১৬ সালে তিনি সমালোচকদের প্রশংসিত মুনলাইট চলচ্চিত্র অভিনয় করেন এবং এই চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার, বাফটা পুরস্কারএকাডেমি পুরস্কার এর মনোনয়ন লাভ করেন। ২০১৭ সালে তিনি ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের ওবিই পদে নিয়োগ লাভ করেন।[২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

নাওমি হ্যারিস ১৯৭৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর লন্ডনের ইসলিংটনে জন্মগ্রহণ করেন। তার শৈশব কাটে এই শহরেই। তার মা লিজেল কায়লা ছোটবেলায় জ্যামাইকা থেকে তার মা-বাবার সাথে লন্ডনে আসেন, এবং তার বাবা ত্রিনিদাদ ও টোবাগো থেকে লন্ডনে আসেন।[৩] ফলে তার পূর্বপুরুষ জ্যামাইকা ও ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর উভয় দেশেরই। হ্যারিসে জন্মের পূর্বে তার বাবা মায়ের বিচ্ছেদ হয়ে যায় এবং তিনি তার মায়ের কাছে বড় হন। তার বাবার সাথে তার কোন যোগাযোগ নেই। তার মা পরে আবার বিয়ে করেন এবং তার দুইজন সৎ ভাই রয়েছে।[৪] তার মা ইস্টএন্ডার্স এ চিত্রনাট্যকার হিসেবে কাজ করতেন।[৫] হ্যারিস লন্ডনের সেন্ট মেরিলবোন স্কুল এ পড়াশুনা করেন। পরে তিনি উডহাউজ কলেজ এ পড়াশুনা করেন। তিনি ১৯৯৮ সালে পেমব্রোক কলেজ, ক্যামব্রিজ থেকে সমাজ ও রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। পাশাপাশি তিনি ব্রিস্টল ওল্ড ভিক থিয়েটার স্কুল এ অভিনয়ের উপর প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।[৬]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

নাওমি হ্যারিস নয় বছর বয়স থেকে টেলিভিশনে অভিনয় শুরু করেন। তার অভিনয়ের অভিষেক হয় ১৯৮৭ সালে সিমন অ্যান্ড দ্য উইচ টেলিভিশন ধারাবাহিক দিয়ে। পরে ১৯৯২-১৯৯৫ সালে তিনি বিজ্ঞান কল্পকাহিনী টেলিভিশন ধারাবাহিক দ্য টুমরো পিপল-এ অভিনয় করেন।[৭] ২০০০ সালে তিনি সাউথওয়ার্ক প্লেহাউজদ্য উইচ অফ এডমন্টন এ সুজান চরিত্রে অভিনয় করেন।[৮]

হ্যারিস অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ক্রাস্ট ২০০১ সালে মুক্তি পায়। ২০০২ সালের নভেম্বরে তিনি ড্যানি বয়েল পরিচালিত পোস্ট-অ্যাপোকালিপ্টিক চলচ্চিত্র টুয়েন্টি ডেজ লেটার-এ অভিনয় করেন। একই বছরে জেডি স্মিথ পরিচালিত হোয়াইট টিথ-এ অভিনয় করেন।[১] এরপর তিনি পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান: ডেড ম্যান’স চেস্টপাইরেট্‌স অব দ্য ক্যারিবিয়ান: অ্যাট ওয়ার্ল্ডস এন্ড এবং মাইকেল মান পরিচালিত মিয়ামি ভাইস চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। হ্যারিস মাইকেল উইন্টারবটম পরিচালিত অ্যা কক অ্যান্ড বুল স্টোরি চলচ্চিত্রে কমিক চরিত্রে অভিনয় করেন।[৯] ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে তিনি বিবিসির ঐতিহাসিক নাটক স্মল আইল্যান্ড-এ অভিনয় করেন।[১০][১১]

২০১২ সালে তিনি জেমস বন্ড চলচ্চিত্র ধারাবাহিকের ২৩তম চলচ্চিত্র স্কাইফল-এ মিস মানিপেনি চরিত্রে অভিনয় করেন।[৫] তিনি প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মানিপেনি এবং তার চরিত্রের জন্য মানিপেনির প্রথম নাম "ইভ" যুক্ত করা হয়।[১২] পরের বছর নেলসন ম্যান্ডেলার আত্মজীবনী লং ওয়াক টু ফ্রিডম অবলম্বনে নির্মিত ম্যান্ডেলা: লং ওয়াক টু ফ্রিডম চলচ্চিত্রে উইনি ম্যান্ডেলার ভূমিকায় অভিনয় করেন।[১৩] ২০১৫ সালে তিনি পুনরায় ইভ মানিপেনি চরিত্রে জেমস বন্ড চলচ্চিত্র ধারাবাহিকের ২৪তম চলচ্চিত্র স্পেক্টার-এ অভিনয় করেন।[১৪] ২০১৬ সালে তিনি আউয়ার কাইন্ড অফ ট্রেইটর, মুনলাইটকোলাটেরাল বিউটি চলচ্চিত্র অভিনয় করেন। মুনলাইট চলচ্চিত্রে পলা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার, বাফটা পুরস্কারএকাডেমি পুরস্কার এর মনোনয়ন লাভ করেন।[১৫]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

চাবি
double-dagger আসন্ন মুক্তি/নির্মাণাধীন
বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম চরিত্র পরিচালক টীকা
২০০১ ক্রাস্ট রিশেপশনিস্ট
২০০২ লিভিং ইন হোপ জিনি
আনানসি কার্লা
টুয়েন্টি এইট ডেজ লেটার সেলেনা ড্যানি বয়েল
২০০৪ ট্রমা এলিসা
আফটার দ্য সানসেট সোফি
২০০৬ পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান: ডেড ম্যান’স চেস্ট টিয়া দিলমা গোর ভারবিনস্কি
মিয়ামি ভাইস ট্রুডি জোপলিন মাইকেল মান
অ্যা কক অ্যান্ড বুল স্টোরি জেনি মাইকেল উইন্টারবটম
২০০৭ পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান: অ্যাট ওয়াল্ড’স এন্ড টিয়া দিলমা গোর ভারবিনস্কি
২০০৮ স্ট্রীট কিংস লিন্ডা ওয়াশিংটন
এক্সপ্লিসিট ইলস্‌ জিল
অগাস্ট সারা
২০০৯ মরিস: অ্যা লাইফ উইথ বেলস্‌ অন সঞ্জা
নিনজা অ্যাসাসিন মাইকা করেট্টি
সেক্স অ্যান্ড ড্রাগ অ্যান্ড রক অ্যান্ড রোল ডেনিজ
মাই লাস্ট ফাইভ গার্লফ্রেন্ডস্‌ জেমা
২০১০ দ্য ফার্স্ট গ্রেডার জেন অবিঞ্চু
২০১২ স্কাইফল ইভ মানিপেনি স্যাম মেন্ডেজ
২০১৩ ম্যান্ডেলা: লং ওয়াক টু ফ্রিডম উইনি ম্যান্ডেলা
২০১৫ সাউথপ অ্যাঞ্জেলা রিভেরা
স্পেক্টার ইভ মানিপেনি স্যাম মেন্ডেজ
২০১৬ আউয়ার কাইন্ড অফ ট্রেইটর গেইল পারকিন্স
মুনলাইট পলা কেনেথ লোনারম্যান মনোনীত: শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর জন্য একাডেমি পুরস্কার
মনোনীত: গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার (সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী - চলচ্চিত্র)
কোলাটেরাল বিউটি ম্যাডেলিন ডেভিড ফ্রাঙ্কেল
২০১৮ জাঙ্গল বুকdouble-dagger নিশা কণ্ঠ

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম চরিত্র টীকা
১৯৮৭-১৯৮৮ সিমন অ্যান্ড দ্য উইচ জয়েস ১২ পর্ব
১৯৮৯ এরাসমস মাইক্রোম্যান মিলি ১ পর্ব
১৯৯২-১৯৯৩ রানাওয়ে বে শুকু ১৭ পর্ব
১৯৯২-১৯৯৫ দ্য টুমরো পিপল অ্যামি জ্যাকসন ১৬ পর্ব
২০০০ ড্রিম টীম লুলা ওলোকয়ি ১ পর্ব
২০০২ ট্রায়াল অ্যান্ড রেট্রিবিউশন ফাইভ টারা গ্রে ১ পর্ব
হোয়াইট টিথ ক্লারা ৪ পর্ব
দ্য প্রজেক্ট ম্যাগি ডুন
২০০২-২০০৩ ডিনোটোপিয়া রোমানা ২ পর্ব
২০০৮ পপি শেকসপীয়র পপি শেকসপীয়র
২০০৯ স্মল আইল্যান্ড হর্টেনস রবার্টস মনোনীত: স্যাটেলাইট পুরস্কার মিনি ধারাবাহিকে সেরা অভিনেত্রী
ব্লাড অ্যান্ড ওয়েল অ্যালিস ওমুলকা
২০১০ অ্যাকিউস্‌ড অ্যালিসন ওয়েড ২ পর্ব

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Naomie Harris- Biography"Yahoo! Movies। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  2. "নং. 61803"দ্যা লন্ডন গেজেট (সম্পূরক) (ইংরেজি ভাষায়): N12। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬। 
  3. Charlotte Philby (২৪ এপ্রিল ২০১০)। "My Secret Life: Naomie Harris, actress, 33"। The Independent। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  4. "Naomie Harris interview"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  5. Lilia Diu, Nisha (২৫ অক্টোবর ২০১২)। "Naomie Harris interview for Skyfall: RIP the Bond girl"। The Daily Telegraph. London। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  6. "Naomie Harris Biography"। biography.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  7. "Naomie Harris Biography"Starpulse.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  8. "Witch of Edmonton"। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  9. "Tristram Shandy: A Cock and Bull Story"। slantmagazine.com। ৬ অক্টোবর ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  10. "Small Island: Naomie Harris plays Hortense"BBC। ১৪ অক্টোবর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  11. Gilbert, Matthew (১৭ এপ্রিল ২০১০)। "'Small Island' weaves tale of hope and despair"Boston Globe। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  12. Roy, Amit (৬ নভেম্বর ২০১১)। "Tittle tittle"The Daily Telegraph। কোলকাতা, ভারত। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  13. Browne, Niall। "Idris Elba & Naomie Harris Take A 'Long Walk To Freedom'"screenrant.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  14. "Spectre: James Bond 24 title is revealed"। The Daily Telegraph। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 
  15. "The 89th Academy Awards 2017"Academy of Motion Picture Arts and Sciences। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


পূর্বসূরী
সামান্থা বন্ড
১৯৯৫–২০০২
মিস মানিপেনি
(এয়ন-এর জেমস বন্ড চলচ্চিত্রে)
২০১২–
উত্তরসূরী
বর্তমান