বেরেনিস বেজো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বেরেনিস বেজো
Bérénice Bejo
Bérénice Bejo Cannes 2016.jpg
২০১৬ সালে কান চলচ্চিত্র উৎসব-এ বেজো
জন্ম (1976-07-07) ৭ জুলাই ১৯৭৬ (বয়স ৪৪)
জাতীয়তাফরাসি
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯৯৩-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীমিশেল আজানাভিস্যুস ()
সন্তান

বেরেনিস বেজো (ফরাসি: Bérénice Bejo; জন্ম: ৭ জুলাই ১৯৭৬) হলেন একজন আর্জেন্টিনীয় ফরাসি অভিনেত্রী। তিনি ২০০১ সালের আ নাইট্‌স টেল ছবিতে ক্রিস্টিনা এবং ২০১১ সালের দি আর্টিস্ট ছবিতে পেপি মিলার চরিত্রে অভিনয়ের জন্য পরিচিত।[১] দি আর্টিস্ট ছবিতে তার কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে সেজার পুরস্কার লাভ করেন। তিনি দ্য পাস্ট (২০১৩) ছবিতে তার অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে কান চলচ্চিত্র উৎসব পুরস্কার লাভ করেন।[২]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

বেজো আর্জেন্টিনার বুয়েনোস আয়রেসে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আর্জেন্টিনীয় চলচ্চিত্র নির্মাতা মিগেল বেজো এবং তার মাতা সিলভিয়া একজন আইনজীবী।[৩][৪] তার যখন তিন বছর বয়স, তখন আর্জেন্টিনার শেষ সামরিক একনায়কতন্ত্র (১৯৭৬-১৯৮৩) থেকে বাঁচতে তারা সপরিবারে ফ্রান্সে পাড়ি জমান।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

বেজোর মার্কিন চলচ্চিত্র অভিষেক ঘটে ২০০১ সালে হিথ লেজারের বিপরীতে আ নাইট্‌স টেল ছবিতে ক্রিস্টিনা চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। ২০০৩ সালে তিনি ২৪ ওর দ্য লা ভি দ্যুন ফাম চলচ্চিত্রে অলিভিয়া চরিত্রে অভিনয় করেন।

২০১১ সালে তিনি মিশেল আজানাভিস্যুসের দি আর্টিস্ট চলচ্চিত্রে ১৯২০-এর দশকের চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পেপি মিলার চরিত্রে অভিনয় করেন। এই ছবিতে তার কাজের জন্য তিনি সমাদৃত হন এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে সেজার পুরস্কার লাভ করেন।[৬] এছাড়া তিনি একাধিক পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন, তন্মধ্যে রয়েছে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কার,[৭] গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার,[৮] স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড পুরস্কার,[৯] এবং শ্রেষ্ঠ প্রধান চরিত্রে অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা পুরস্কার। তিনি দ্য পাস্ট (২০১৩) ছবিতে তার অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে কান চলচ্চিত্র উৎসব পুরস্কার লাভ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ল্যামন্ট, টম (২৫ মে ২০১৩)। "Bérénice Bejo: 'The Artist was a gift. But I thought I was really good'"দ্য গার্ডিয়ান (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০১৮ 
  2. আফতাব, কলিম (২১ মার্চ ২০১৪)। "Bérénice Bejo interview: The Artist actress finally opens her mouth"দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০১৮ 
  3. লেরার, দিয়েগো (১৩ মার্চ ২০০৩)। "Estaba peleado con el país"ক্ল্যারিন (স্পেনীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  4. দে লেরমা, গাব্রিয়েল (১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "Bérénice Bejo, en la cima de la popularidad"এল নোভো হেরাল্ড (স্পেনীয় ভাষায়)। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  5. অজঁস ফ্রঁস-প্রেস (২৫ জানুয়ারি ২০১২)। "Bérénice Bejo se sent 'aussi Argentine que Française'"লা দেপেশে দ্যু মিদি (ফরাসি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  6. "The Artist wins six César awards"দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ (ইংরেজি ভাষায়)। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  7. "Oscars 2012: Stars arrive"বিবিসি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  8. "Golden Globes list"গোল্ডেন গ্লোব। ২৯ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 
  9. "SAG awards list"স্যাগ। ১৯ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]