বাউলবাদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

বাউলবাদ গৌড়িয় সহজিয়া বৈষ্ণববাদ, সহজিয়া বৌদ্ধবাদ ও সুফিবাদ-এর সংমিশ্রণে প্রসারিত বাংলার একটি দর্শন। বৈষ্ণব ও সুফিদের মত এ-দর্শনেরও মূল প্রেম। প্রেম দু’ধরণের- ‘ভবের পীরিত’ ও ‘খোদার পীরিত’। ‘ভবের পীরিত’ বলতে বাউলরা নারীর প্রতি নরের বা নরের প্রতি নারীর যৌন আকর্ষণ বোঝাতে চান না, বরং এর দ্বারা যৌন আকর্ষণ বহির্ভূত এক ধরনের অনুভূতি (তাদের ভাষায় ’নিষ্কাম প্রেম’) বুঝে থাকেন। এ-প্রেমকে ঐশ্বরিক প্রেমের সোপান বলা হয়ে থাকে। বাউলরা কোনো সামাজিক বন্ধনে আবদ্ধ হতে চান না; কোনো প্রাতিষ্ঠানিক ধর্মীয় নীতিমালাও এদের নেই। এরা ইহজাগতিক সুখও কামনা করেন না। তাঁদের একমাত্র কামনার বস্তু হলো, তাদের ভাষায় ‘মনের মানুষ’ তথা স্রষ্টার সান্নিধ্য লাভ। বাংলার মাটিতে অনেক বাউল জন্মেছেন। এদের মধ্যে পূর্ববাংলার লালন শাহ (১৭৭২-১৮৯০), পাণ্ডু শাহ (১৮২৮-১৯১০), দুদ্দু শাহ (১৮৪১-১৯১১), হাছন রাজা, গোঁসাই গোপাল (১৩৭৫-১৪১৯), চণ্ডদাস গোঁসাই, রশিদ শাহ, ফটিক শাহ এবং পশ্চিম বাংলার এরঢান শাহ, পদ্মলোচন, রাধা শ্যাম, রেজা পো প্রমুখ বিশেষভাবে অন্যতম।